Connect with us

আন্তর্জাতিক

বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম নিম্নমুখী

Published

on

মূলধন

আন্তর্জাতিক বাজারে গতকাল অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দাম কমেছে। চীনের বাজারে জ্বালানিটির চাহিদা প্রবৃদ্ধি ধীর হয়ে আসার বিষয়টি এ দাম কমার পেছনে প্রভাবক হিসেবে কাজ করেছে।

আইসিই ফিউচারস ইউরোপে গতকাল অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের আন্তর্জাতিক বাজার আদর্শ ব্রেন্টের দাম আগের দিনের তুলনায় দশমিক ২ শতাংশ বা ১২ সেন্ট কমেছে। প্রতি ব্যারেল গতকাল তা কেনাবেচা হচ্ছিল ৮১ ডলার ৯৬ সেন্টে। অন্যদিকে মার্কিন বাজার আদর্শ ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েটের (ডব্লিউটিআই) দাম ২১ সেন্ট বা দশমিক ২ শতাংশ কমেছে। প্রতি ব্যারেল কেনাবেচা হয়েছে ৭৭ ডলার ৮০ সেন্টে।

উভয় বাজার আদর্শ জ্বালানি তেলের দর গত সপ্তাহে কমেছে। ব্রেন্ট ১ দশমিক ৮ ও ডব্লিউটিআই ২ দশমিক ৫ শতাংশ কমেছে।

আগামী বছরগুলোয় চীনে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের চাহিদা প্রবৃদ্ধি ধীর হয়ে আসবে বলে আগেই জানিয়েছে দেশটির রাষ্ট্র মালিকানাধীন জ্বালানি তেল ও গ্যাস করপোরেশন সিএনপিসি। বিশ্বের শীর্ষ ব্যবহারকারী হওয়ায় চীনের চাহিদা কমার বিষয়টি অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের আন্তর্জাতিক বাজারকে নিম্নমুখী চাপের মুখে ফেলতে পারে বলে সতর্ক করেছেন বিশ্লেষকরা।

চায়না ন্যাশনাল পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের গবেষণা ইউনিটের পর্যবেক্ষণ অনুযায়ী, আগামী বছরগুলোয় গাড়ি শিল্পে পেট্রল-ডিজেলচালিত গাড়ির বাজার অনেকটাই দখলে নেবে বিদ্যুচ্চালিত বাহন। ফলে এ খাতে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের চাহিদা ব্যাপক মাত্রায় কমতে পারে। পাশাপাশি পরিবহন খাতে জ্বালানি তেলের বদলে তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাসের (এলএনজি) ব্যবহার বৃদ্ধিও চাহিদায় নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে।

সিএনপিসির ইকোনমিক অ্যান্ড টেকনোলজি রিসার্চের প্রেসিডেন্ট লু রুকওয়ান বলেন, ‘বিদ্যুচ্চালিত গাড়ি বিক্রি এবং এলএনজি-চালিত ট্রাকের ব্যবহার চীনে ডিজেল ও গ্যাসোলিনের চাহিদা ১০-১২ শতাংশ কমাতে পারে। মোট জ্বালানি তেলের চাহিদা বাড়বে। তবে এ প্রবৃদ্ধির গতি থাকবে মন্থর।’

নিশান সিকিউরিটিজের একটি ইউনিট এনএস ট্রেডিংয়ের প্রেসিডেন্ট হিরোইউকি কিকুকাওয়া বলেন, ‘‌চীনে চাহিদা দুর্বল হয়ে ওঠার বিষয়টি এখন বাজারে ওপেক প্লাসের সরবরাহ হ্রাসের চেয়েও বড় খবর হয়ে উঠেছে। আবার যুক্তরাষ্ট্রের কর্মসংস্থানের গতিপ্রকৃতি নিয়ে মিশ্র প্রবণতার খবরেও অনেক ব্যবসায়ী বাজার সংশোধনে মনোযোগী হয়ে উঠেছেন। তবে পণ্যটির বাজারদরের এ নিম্নমুখিতায় লাগাম টেনে ধরতে পারে ভূরাজনীতির বর্ধিত ঝুঁকি। এরই মধ্যে হামাস-ইসরায়েল যুদ্ধবিরতিতে না পৌঁছা এবং সঙ্গে রাশিয়ার সংঘাত আরো বড় হয়ে ওঠার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।’

গত সপ্তাহের তথ্যে দেখা গেছে, ফেব্রুয়ারিতে যুক্তরাষ্ট্রে চাকরির বাজার প্রসারিত হয়েছে। তবে বেকারত্বের হার বৃদ্ধি ও মজুরি বাড়ায় ফেডারেল রিজার্ভ সুদহার অপরিবর্তিত রেখেছে।

এদিকে গত সপ্তাহে চীন ২০২৪ সালে প্রায় ৫ শতাংশ অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জনের লক্ষ্য নির্ধারণ করার ঘোষণা দিয়েছে। যদিও অনেক বিশ্লেষক মনে করছেন, এটি একটি উচ্চাভিলাষী লক্ষ্য, যা অর্জন করা সহজ হবে না।

সাম্প্রতিক তথ্য বলছে, চলতি বছরের প্রথম দুই মাসে (জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারি) ২০২৩ সালের একই সময়ের তুলনায় জ্বালানি তেলের আমদানি বেড়েছে। তবে আগের মাসের তুলনায় আমদানির পরিমাণ কম ছিল। এতে বিশ্বের বৃহত্তম অপরিশোধিত জ্বালানি তেল আমদানিকারক দেশটির স্বল্প ক্রয়প্রবণতা অব্যাহত।

বিশ্লেষকরা জানান, চীনে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের চাহিদা প্রবৃদ্ধি ধীর হয়ে পড়লে বৈশ্বিক চাহিদাও কমতে পারে। ফলে জ্বালানিটির দাম নিম্নমুখী চাপে পড়বে। এ পরিস্থিতি দেখা দিলে ওপেক প্লাস উত্তোলন আরো কমানোর সিদ্ধান্ত নিতে পারে। এরই আগে আগামী দ্বিতীয় প্রান্তিক থেকে দৈনিক ২২ লাখ ব্যারেল জ্বালানি তেল উত্তোলন কমানোর সিদ্ধান্তে একমত হয়েছে জোটটির সদস্যরা। চলতি মাসের শুরুর দিকেই এমন সিদ্ধান্ত জানায় ওপেক প্লাস।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আন্তর্জাতিক

ইরানে ভূমিকম্পের আঘাতে নিহত ৪, আহত ১২০

Published

on

মূলধন

ইরানের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় শহর কাশমারে রিখটার স্কেলে ৪ দশমিক ৯ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। মঙ্গলবার আঘাত হানা এই ভূমিকম্পে কাশমারে অন্তত চারজন নিহত ও আরও ১২০ জন আহত হয়েছেন। দেশটির রাষ্ট্রায়ত্ত সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, ৪ দশমিক ৯ মাত্রার ভূমিকম্পে কেঁপে উঠেছে ইরানের কাশমার শহর। এই ভূমিকম্পে তাৎক্ষণিকভাবে চারজন নিহত ও ১২০ জন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

কাশমারের গভর্নর বলেছেন, মঙ্গলবার ইরানের স্থানীয় সময় দুপুর ১টা ২৪ মিনিটের দিকে ওই ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। মার্কিন ভূ-তাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা ইউএসজিএস বলেছে, ভূপৃষ্ঠ থেকে ১০ কিলোমিটার ভূগর্ভে ভূমিকম্পের উৎপত্তি হয়েছে। তবে ভূমিকম্পে ঘরবাড়ি ও অন্যান্য স্থাপনার ক্ষয়ক্ষতি কেমন হয়েছে তাৎক্ষণিকভাবে তা জানা যায়নি।

ভূমিকম্পের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ কয়েকটি বড় টেকটোনিক প্লেটের সীমানায় ইরানের অবস্থান। যে কারণে দেশটিতে প্রায়ই হালকা থেকে মাঝারি মাত্রার, এমনকি শক্তিশালী ভূমিকম্পও আঘাত হেনে থাকে।

ইরানে ৭ দশমিক ৪ মাত্রার সবচেয়ে প্রাণঘাতী এক ভূমিকম্প আঘাত হেনেছিল ১৯৯০ সালে। ওই ভূমিকম্পে দেশটিতে ৪০ হাজারের বেশি মানুষ নিহত ও আরও ৩ লাখের বেশি আহত হন। এছাড়া এই ভূমিকম্পে গৃহহীন হয়ে পড়েছিলেন দেশটির আরও পাঁচ লাখ মানুষ।

এরপর ২০০৩ সালে ৬ দশমিক ৬ মাত্রার এক ভূমিকম্পে ইরানের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের প্রাচীন নগরী বাম প্রায় মাটির সাথে মিশে যায়। এতে এই শহরে কমপক্ষে ৩১ হাজার মানুষের প্রাণহানি ঘটে।

এছাড়া ২০১৭ সালে দেশটির পশ্চিমাঞ্চলে শক্তিশালী ৭ মাত্রার ভূমিকম্পে ৬০০ জনের বেশি মানুষ নিহত হন। ওই ঘটনায় আহত হন আরও ৯ হাজারের বেশি মানুষ।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

আন্তর্জাতিক

প্রবাসীদের জন্য ব্যয়বহুল শহরের শীর্ষ দুটি এশিয়ায়

Published

on

মূলধন

গত কয়েক বছর ধরে পুরো বিশ্বই মূল্যস্ফীতির সঙ্গে লড়ছে। এমন প্রবণতায় বিশেষ করে প্রবাসীরা বেশি বেকায়দায় পড়েছেন। বিদেশের মাটিতে খরচের বৃদ্ধি সাধারণ প্রবাসীদের জীবন কষ্টসাধ্য করে তুলেছে। চলতি বছরে এমন খরুচে শহরের তালিকায় এগিয়ে আছে এশিয়ার দুটি অঞ্চল। খবর সিএনএন।

গতকাল প্রকাশিত ২০২৪ সালের ‘কস্ট অব লিভিং’ জরিপে হংকং ফের বিদেশী কর্মীদের জন্য সবচেয়ে ব্যয়বহুল শহরের স্থান অক্ষুণ্ন রেখেছে। ২০২২ ও ২০২৩ সালের তালিকায়ও শীর্ষে ছিল এ শহরে। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে সিঙ্গাপুর।

তালিকাটি তৈরি করে মারসার নামের একটি সংস্থা। ব্যয়বহুল শহরের মধ্যে উল্লেখযোগ্য স্থান দখল করে রয়েছে সুইজারল্যান্ড। যেমন জুরিখ, জেনেভা, বাসেল ও বার্ন রয়েছে যথাক্রমে তৃতীয়, চতুর্থ, পঞ্চম ও ষষ্ঠ স্থানে।

এ জরিপে পরিবহণ, খাদ্য, পোশাক, গৃহস্থালী সামগ্রী ও বিনোদনসহ দুই শতাধিক বিষয়কে সামনে রাখা হয়েছে। এসব আইটেমের তুলনামূলক খরচের ভিত্তিতে ২২৬টি শহরকে বিশ্লেষণের আওতায় আনা হয়েছে।

জরিপের প্রবাসীদের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের ব্যয়বহুল শহরের সর্বোচ্চ স্থানে রয়েছে নিউইয়র্ক, তালিকায় এর অবস্থান সপ্তম। অন্যদিকে যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডন গত বছর ১৭তম স্থানে থাকলেও এবার অষ্টম স্থানে উঠে এসেছে। বাহামার নাসাউ রয়েছ নবম স্থানে। এরপর রয়েছে লস অ্যাঞ্জেলস।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ব্যয়বহুল আবাসন ও পরিবহন, পণ্য ও পরিষেবার জন্য বর্ধিত খরচ শীর্ষস্থানীয় শহরগুলোয় বিদেশীদের জন্য সমস্যা হয়ে দেখা দিয়েছে।

‘মূল্যস্ফীতি ও বিনিময় হারের ওঠানামা’ আন্তর্জাতিক কর্মীদের ‘বেতন ও সঞ্চয়’কে সরাসরি প্রভাবিত করেছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

এছাড়া জরিপের শীর্ষ ২০ শহরের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের সাতটি অঞ্চলকে রাখা হয়েছে।

জীবনযাত্রার খরচের র‌্যাংকিংয়ে একদম নিচের দিকে রয়েছে পাকিস্তানের ইসলামাবাদ এবং নাইজেরিয়ার লাগোস ও আবুজা। এর পেছনে আংশিকভাবে ‘মুদ্রার অবমূল্যায়ন’ ভূমিকা রেখেছে বলে জানানো হচ্ছে।

এক নজরে ২০২৪ সালে বিদেশীদের জন্য খরুচে শহর- হংকং, সিঙ্গাপুর, সুইজারল্যান্ডের জুরিখ, জেনেভা, বাসেল, বার্ন, যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক, যুক্তরাজ্যের লন্ডন, বাহামার নাসাউ ও যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলস।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

আন্তর্জাতিক

পারমাণবিক অস্ত্রের পেছনে বৈশ্বিক ব্যয় রেকর্ড ১৩ শতাংশ বেড়েছে

Published

on

মূলধন

২০২৩ সালে বিশ্বজুড়ে পারমাণবিক অস্ত্রের ওপর ব্যয় ১৩ শতাংশ বেড়ে রেকর্ড ৯১.৪ বিলিয়ন ডলারে উন্নীত হয়েছে বলে প্রাক্কলনে উঠে এসেছে। চাপ সৃষ্টিকারী গোষ্ঠী ইন্টারন্যাশনাল ক্যাম্পেইন টু অ্যাবোলিশ নিউক্লিয়ার ওয়েপন্স-এর (আইসিএএন) হিসাবে এ প্রাক্কলন উঠে এসেছে।

আগের বছরের তুলনায় গত বছর ১০.৭ বিলিয়ন ডলার বেশি খরচ করা হয়েছে পারমাণবিক অস্ত্রের পেছনে। ব্যয়বৃদ্ধির পেছনে বড় প্রভাবক হিসেবে কাজ করেছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা বাজেট বৃদ্ধি।

রাশিয়া-ইউক্রেন এবং ইসরায়েল-হামাস যুদ্ধের ফলে উদ্ভূত ব্যাপক ভূরাজনৈতিক অনিশ্চয়তার ফলে শক্তিধর দেশগুলো প্রতিরক্ষা খাতে বাজেট বাড়িয়েছে। এর দরুন খরচ বেড়েছে পারমাণবিক অস্ত্রের পেছনেও।

বিশ্বের নয়টি পারমাণবিক শক্তিধর দেশই এ অস্ত্রের পেছনে খরচ বাড়িয়েছে বলে জানিয়েছে আইসিএএন।

২০২৩ সালে পারমাণবিক অস্ত্রের ওপর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ব্যয় করেছে চীন, ১১.৯ বিলিয়ন ডলার। যদিও এ খাতে বেইজিংয়ের মোট ব্যয় ওয়াশিংটনের চেয়ে অনেক কম। যুক্তরাষ্ট্র এ সময় পারমাণবিক অস্ত্রের পেছনে ব্যয় করেছে ৫১.৫ বিলিয়ন ডলার।

গত বছর পারমাণবিক অস্ত্রের ওপর ব্যয়ের দিক থেকে তৃতীয় অবস্থানে আছে রাশিয়া, ৮.৩ বিলিয়ন ডলার। এর পরই যুক্তরাজ্য (৮.১ বিলিয়ন ডলার) ও ফ্রান্সের (৬.১ বিলিয়ন ডলার) অবস্থান।

তবে তথ্যপ্রদানে স্বচ্ছতা না থাকায় কর্তৃত্ববাদী রাষ্ট্র বা আনুষ্ঠানিকভাবে পারমাণবিক কর্মসূচি ঘোষণা না করা তিন দেশের (ভারত, পাকিস্তান ও ইসরায়েল) ব্যয়ের হিসাব নিয়ে জটিলতা আছে।

গবেষণার অন্যতম লেখক সুসি স্নাইডার হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, পারমাণবিক শক্তিধর রাষ্ট্রগুলো নিশ্চিতভাবে ‘পারমাণবিক অস্ত্রের ওপর বছরে ১০০ বিলিয়ন ডলার ব্যয় করছে’। এই অর্থ অস্ত্রের পেছনে খরচ না করে পরিবেশ ও সামাজিক কর্মসূচিতে ব্যবহার করা যেত বলে মনে করেন তিনি।

সুসি স্নাইডার বলেন, এই শত শত কোটি ডলার জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য এবং পৃথিবীর জীবনকে বিলুপ্তির হাত থেকে বাঁচিয়ে রাখা প্রাণী ও গাছপালাকে বাঁচানোর জন্য ব্যবহার করা যেত। সেইসঙ্গে এই অর্থ দিয়ে বিশ্বজুড়ে স্বাস্থ্য ও শিক্ষা পরিষেবার উন্নতি করা যেত।

আইসিএএন তাদের গবেষণা শুরু করার পর গত পাঁচ বছরে পারমাণবিক অস্ত্রের পেছনে ব্যয় ৩৪ শতাংশ বা ২৩.২ বিলিয়ন ডলার বেড়েছে। এ সময়ে যুক্তরাষ্ট্রের এই ব্যয় ৪৫ শতাংশ এবং যুক্তরাজ্যের ব্যয় ৪৩ শতাংশ বেড়েছে। আর বর্তমান ধারা অব্যাহত থাকলে ২০২৪ সালে এ ব্যয় ১০০ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যাবে।

২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেনে সর্বাত্মক চালানোর পর থেকে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন উপর্যুপরি পশ্চিমা দেশগুলোকে তার দেশের দেশের পারমাণবিক অস্ত্রভান্ডারের কথা উল্লেখ করে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। মে মাসে ইউক্রেনের সীমান্তের কাছে কৌশলগত পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের সিরিজ মহড়াও দেওয়া শুরু করেছে রাশিয়া।

স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউট (সিপ্রি) সংগৃহীত অন্যান্য তথ্য বলছে, সক্রিয় পারমাণবিক ওয়ারহেডের সংখ্যাও কিছুটা বেড়েছে। বর্তমানে সক্রিয় পারমাণবিক ওয়ারহেড ৯ হাজার ৫৮৫টি। সক্রিয় ওয়ারহেড বাড়ার পেছনে মূল অবদান চীনের। বেইজিংয়ের ওয়ারহেড ৪১০ থেকে বেড়ে ৫০০-তে উন্নীত হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া সবচেয়ে বড় পারমাণবিক রাষ্ট্র রয়ে গেছে। ১৯৫০-এর থেকেই তারা বৃহত্তম পারমাণবিক শক্তিধর দেশ। এই দুটি দেশের কাছেই মোট ওয়ারহেডের প্রায় ৯০ শতাংশ।

গবেষকরা আরও জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্রের ৩ হাজার ৭০৪টি পারমাণবিক ওয়ারহেডের বিপরীতে রাশিয়ার ৪ হাজার ৩৮০টি পারমাণবিক ওয়ারহেড মোতায়েন বা মজুত রয়েছে।

সিপ্রির গবেষকরা বলেছেন, রাশিয়া ২০২৩ সালের জানুয়ারির তুলনায় অপারেশনাল বাহিনীর সঙ্গে প্রায় ৩৬টি বেশি ওয়ারহেড মোতায়েন করেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। যদিও মস্কো তার কোনো পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র বেলারুশে মোতায়েন করেছে বলে প্রমাণ নেই বলে জানিয়েছেন তারা। যদিও পুতিন ও বেলারুশের প্রেসিডেন্ট আলেকজান্ডার লুকাশেঙ্কো প্রকাশ্যে বেলারুশে পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েনের বিবৃতি দিয়েছেন।

প্রাক্কলনে বলা হয়েছে, ব্রিটেনের পারমাণবিক অস্ত্রের মজুত অপরিবর্তিত, অর্থাৎ ২২৫টিই আছে (ফ্রান্সেরও ২৯০টিই আছে আগের মতো)। তবে তিন বছর আগে যুক্তরাজ্য বলেছিল, রাশিয়া ও চীনের ‘হুমকি’ ঠেকাতে তারা ট্রাইডেন্ট ওয়ারহেডের সংখ্যার সীমা বাড়িয়ে ২৬০টি করতে ইচ্ছুক।

সিপ্রির গণবিধ্বংসী অস্ত্র (ডব্লিউএমডি) কর্মসূচির পরিচালক উইলফ্রেড ওয়ান বলেন, ‘স্নায়ুযুদ্ধের পর থেকে আন্তর্জাতিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে পারমাণবিক অস্ত্রকে (আর কখনও) এত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে দেখিনি।’

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

আন্তর্জাতিক

পশ্চিমবঙ্গে রেল দুর্ঘটনায় নিহত বেড়ে ৮

Published

on

মূলধন

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে রেল দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮ জনে। ভারতীয় রেলের তরফে বলা হয়েছে, আটজনের মৃত্যু হয়েছে; এরমধ্যে তিনজন রেলকর্মী এবং ৫ জন রেলযাত্রী।

তবে বেসরকারি সূত্র জানাচ্ছে, এ দুর্ঘটনায় ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।
ইতোমধ্যে পশিমবঙ্গ ও কেন্দ্রীয় সরকারের দুর্যোগ মোকাবিলা বাহিনী উদ্ধারকাজে গ্যাস কাটার ব্যবহার করছে। অর্থাৎ ট্রেনের বগি কেটে যাত্রীদের বের করার চেষ্টা চালাচ্ছে।

সোমবার (১৭ জুন) শিয়ালদহের দিকে যাওয়ার পথে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস ট্রেন। একটি মালবাহী ট্রেনের ধাক্কায় কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেসের পেছন দিকের কয়েকটি বগি লাইনচ্যুত হয়ে হতাহতের এ ঘটনা ঘটে।

এ দিন সকালে নিউ জলপাইগুড়ি স্টেশন (এনজেপি) থেকে শিয়ালদহের উদ্দেশে রওনা করে কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস। ট্রেনটি স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ৮টা নাগাদ রাঙাপানি স্টেশনের কাছে এলে পেছন থেকে সজোরে ধাক্কা দেয় মালবাহী ট্রেনটি। এ সময় ট্রেনের তিনটি বগি লাইনচ্যুত হয়, দুমড়ে মুচড়ে উল্টে যায় একটি। আরেকটি বগি উঠে যায় মালবাহী ইঞ্জিনের ওপরে।

ভারতে বর্তমানে ঈদের ছুটি চলছে। এই মুহূর্তে বহু বাংলাদেশি কলকাতায় অবস্থান করছেন। এ সময় কলকাতা হয়ে বহু বাংলাদেশি দার্জিলিং বেড়াতে যান। মূলত, দার্জিলিং ভ্রমণের জন্য অনেক পর্যটক কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস ট্রেন ব্যবহার করেন। ফলে ভারতীয়দের সঙ্গে কোনো বাংলাদেশি দুর্ঘটনার কবলে পড়েছেন কি না, সেদিকে নজর রয়েছে কলকাতাস্থ বাংলাদেশ উপহাইকমিশনের।

কলকাতা উপহাইকমিশন জানিয়েছে, প্রতি মুহূর্তেই ভারতীয় রেলের সঙ্গে বাংলাদেশ মিশন যোগাযোগ রেখে চলেছে।

ভয়াবহ এ দুর্ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নারেন্দ্র মোদী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যাচ্ছেন ভারতের রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব। বিকেলের দিকে রওনা দেবেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্য সরকারের তরফে মালদা স্টেশনে হেল্পলাইন চালু করা হয়েছে।

দিল্লি থেকে রেল বোর্ডের সিইও জয়া ভার্মা সিনহা জানিয়েছেন, সিগন্যালিং ব্যবস্থা ঠিক ছিল। পণ্যবাহী ট্রেন চালকের ভুলেই এত বড় দুর্ঘটনা, প্রাথমিকভাবে এমনটাই অনুমান করা হচ্ছে। তবে পুরোটাই তদন্তসাপেক্ষ বলেও জানান তিনি।

এ রেল দুর্ঘটনা নিয়ে সোমবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করে জয়া ভার্মা জানান, আপাতত দ্রুত উদ্ধারকাজ চালানো এবং ওই লাইনে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক করাই রেলের প্রাথমিক লক্ষ্য। এরপরেই ঘটনার পুঙ্খানুপুঙ্খ তদন্ত করা হবে।

তবে ঘটনাটি ‘হিউম্যান এরর’ বলেই আখ্যায়িত করেছেন ভারতের রেলমন্ত্রী। তিনি বলেন, প্রাথমিকভাবে যা জানা যাচ্ছে, লাইনে সিগন্যাল ঠিক ছিল। কিন্তু চালক সম্ভবত সিগন্যাল মানেননি। এর ফলেই এই দুর্ঘটনা ঘটে। তবে এখনই নিশ্চিত করে দুর্ঘটনার কারণ বলা সম্ভব নয়। ইতোমধ্যে দুর্ঘটনায় মালবাহী গাড়ির চালক ও একজন কর্মী প্রাণ হারিয়েছেন। একই ভাবে কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেসের পেছন যে গার্ড ছিলেন তারও মুত্যু হয়েছে।

জানা যায়, একই লাইনের প্রথমদিকে ছিল কলকাতাগামী কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস। ঠিক তার পেছন নির্দিষ্ট দূরত্বে ছিল মালবাহী ট্রেনটি। দূরত্ব বজায় রাখার জন্যই মালবাহী ট্রেনটিকে রেড সিগন্যাল দেখানো হয়েছিল। কোনোভাবে সেই সিগন্যাল চালকের নজর এড়িয়ে যায় এবং সজোরে কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেসের পেছনে ধাক্কা মারে মালবাহী ট্রেনটি। রেল সূত্রে জানা গেছে, কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস ১৫০০ যাত্রী নিয়ে কলকাতার উদ্দেশে রওনা দিয়েছিল।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

আন্তর্জাতিক

ভূমধ্যসাগরে নৌকাডুবি, ১০ অভিবাসীর মৃত্যু

Published

on

মূলধন

ভূমধ্যসাগরে নৌকাডুবির ঘটনায় ১০ অভিবাসীর মৃত্যু হয়েছে। এসময় নৌকাটি থেকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে ৫১ জনকে। সোমবার (১৭ জুন) এই তথ্য জানিয়েছে একটি জার্মান দাতব্য সংস্থা। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এই খবর জানিয়েছে।

নাদির নামে একটি অভিবাসী উদ্ধারকারী জাহাজ পরিচালনা করে রেসকিউশিপ নামক একটি দাতব্য সংস্থা। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে সংস্থাটি জানিয়েছে, তারা একটি ডুবে যাওয়া কাঠের নৌকা থেকে মোট ৬১ জনকে উদ্ধার করেছে। তাদের মধ্যে ১০ জন মৃত ছিল।

দাতব্য এই সংস্থাটি আরও জানিয়েছে, জীবিতদের মধ্যে দুজনকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। তাদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। উদ্ধারকৃতদের জরুরি নিরাপদ আশ্রয়ে স্থানান্তর করা প্রয়োজন।

ঠিক কোন অঞ্চল থেকে বা কখন এই উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করা হয়েছিল সে সম্পর্কে বিস্তারিত কোনও তথ্য জানায়নি রেসকিউশিপ। তবে মেরিনেটট্রাফিক ডটকমের ট্র্যাকিং অনুসারে, সোমবার (১৭ জুন) পূর্ব তিউনিসিয়ার স্ফ্যাক্স বন্দর থেকে দূরে অবস্থান করছিলেন নাদির।

২০১৫ সাল থেকে মধ্য ভূমধ্যসাগরে ২০ হাজারটিরও বেশি মৃত্যু ও নিখোঁজ হওয়ার ঘটনা নিবন্ধন করেছে জাতিসংঘ।

চলতি মাসের শুরুর দিকে লিবিয়ার উপকূলে সমুদ্র থেকে ১১ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

শেয়ারবাজারের সর্বশেষ

মূলধন মূলধন
পুঁজিবাজার3 days ago

মূলধন বাড়ানোর অনুমতি পেল আল-আমিন কেমিক্যাল

পুঁজিবাজারে ওভার দ্য কাউন্টার (ওটিসি) মার্কেটে তালিকাভুক্ত কোম্পানি আল-আমিন কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডকে পরিশোধিত মূলধন বাড়ানোর বিষয়ে সম্মতি দিয়েছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ...

মূলধন মূলধন
পুঁজিবাজার4 days ago

ডিএসইর পিই রেশিও কমেছে

বিদায়ী সপ্তাহে (৯ জুন -১৩ জুন) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) পিই রেশিও (সার্বিক মূল্য আয় অনুপাত) কমেছে। আগের সপ্তাহের তুলনায়...

মূলধন মূলধন
পুঁজিবাজার4 days ago

বাংলাদেশ ফাইন্যান্সের সর্বোচ্চ দরপতন

বিদায়ী সপ্তাহে (৯ জুন-১৩ জুন) দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন হওয়া ৩৯৪ কোম্পানির মধ্যে ৩২৩টির শেয়ারদর কমেছে।...

মূলধন মূলধন
পুঁজিবাজার4 days ago

সাপ্তাহিক দরবৃদ্ধির শীর্ষে সমতা লেদার

বিদায়ী সপ্তাহে (৯ জুন-১৩ জুন) দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন হওয়া ৩৯৪ কোম্পানির মধ্যে ৫৪টির শেয়ার ও...

মূলধন মূলধন
পুঁজিবাজার4 days ago

সাপ্তাহিক লেনদেনের শীর্ষে বিকন ফার্মা

বিদায়ী সপ্তাহে (৯ জুন-১৩ জুন) দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৩৯৪ কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে লেনদেনের...

মূলধন মূলধন
পুঁজিবাজার4 days ago

ঈদের আগে নেতিবাচক শেয়ারবাজার

দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) বিদায়ী সপ্তাহে (৯ জুন থেকে ১৩ জুন) গড় লেনদেন ১৬ শতাংশের বেশি কমেছে।...

মূলধন মূলধন
পুঁজিবাজার4 days ago

কাস্টমস লাইসেন্স পেয়েছে সামিট পোর্টের সহযোগী কোম্পানি

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি সামিট অ্যালায়েন্স পোর্ট লিমিটেডের সাবসিডিয়ারি কনটেইনার ট্রান্সপোর্টেশন সার্ভিসেস লিমিটেড (সিটিএসএল) ফ্রেইট ফরোয়ার্ডিং ও শিপিং এজেন্সি ব্যবসার জন্য...

মূলধন মূলধন
পুঁজিবাজার4 days ago

বন্ড ছেড়ে ৫০০ কোটি টাকা তুলবে ট্রাস্ট ব্যাংক

সাব-অর্ডিনেটেড বন্ড ইস্যু করে পুঁজিবাজার থেকে ৫০০ কোটি টাকা সংগ্রহ করবে তালিকাভুক্ত ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠান ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড। বৃহস্পতিবার (১৩ জুন)...

মূলধন মূলধন
পুঁজিবাজার5 days ago

ভিআইপিবি ফিক্সড ইনকাম ফান্ডের প্রসপেক্টাস অনুমোদন

সম্পদ ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠান ভিআইপিবি অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোাম্পানি লিমিটেডের ফিক্সড ইনকাম ফান্ডের খসড়া প্রসপেক্টাস অনুমোদন করেছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন...

মূলধন মূলধন
পুঁজিবাজার5 days ago

ইউনাইটেড ফাইন্যান্সের লভ্যাংশ অনুমোদন

সমাপ্ত ২০২৩ অর্থবছরের জন্য ঘোষিত ৬ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ অনুমোদন করেছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ইউনাইটেড ফাইন্যান্স লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদ। বৃহস্পতিবার (...

মূলধন মূলধন
পুঁজিবাজার5 days ago

সিকদার ইন্স্যুরেন্সের লভ্যাংশ ঘোষণা

গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০২৩ তারিখে সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত সিকদার ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। আলোচ্য বছরের জন্য...

মূলধন মূলধন
পুঁজিবাজার5 days ago

এনআরবিসি ব্যাংকের নগদ লভ্যাংশ অনুমোদন

সমাপ্ত ২০২৩ হিসাববছরের জন্য ঘোষিত ১১ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ অনুমোদন করেছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত এনআরবিসি ব্যাংক পিএলসি। বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) অনুষ্ঠিত...

মূলধন মূলধন
পুঁজিবাজার5 days ago

টেকনো ড্রাগসের আইপিওতে বিনিয়োগকারীদের ব্যাপক সাড়া

টেকনো ড্রাগস পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের নিকট থেকে ১০০ কোটি টাকার প্রাথমিক গণ প্রস্তাব (আইপিও) আহ্বান করে। আজ বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) কোম্পানিটির...

মূলধন মূলধন
পুঁজিবাজার5 days ago

ব্লকে ৯৫ কোটি টাকার লেনদেন

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্লকে ৩৪টি কোম্পানির মোট ৯৫ কোটি ৪৬ লাখ ৫৯ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন...

মূলধন মূলধন
পুঁজিবাজার5 days ago

এনসিসি ব্যাংক পরিচালকের দুই কোটি শেয়ার হস্তান্তরের ঘোষণা

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংক খাতের প্রতিষ্ঠান ন্যাশনাল ক্রেডিট অ্যান্ড কমার্স ব্যাংকের (এনসিসি) এক পরিচালক দুই কোটি ১৪ লাখ শেয়ার হস্তান্তরের ঘোষণা...

মূলধন মূলধন
পুঁজিবাজার5 days ago

নগদ লভ্যাংশ পাঠিয়েছে ইউনিলিভার

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ইউনিলিভার কনজিউমার কেয়ার লিমিটেড গত ৩১ ডিসেম্বর,২০২৩ সমাপ্ত হিসাববছরে জন্য ঘোষিত নগদ লভ্যাংশ বিনিয়োগকারীদের কাছে পাঠিয়েছে। ঢাকা স্টক...

মূলধন মূলধন
পুঁজিবাজার5 days ago

বিমা খাতের তিন কোম্পানির ক্রেডিট রেটিং সম্পন্ন

পুঁজিবাজারে বিমা খাতে তালিকাভুক্ত তিন কোম্পানির ক্রেডিট রেটিং সম্পন্ন করা হয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।...

মূলধন মূলধন
পুঁজিবাজার5 days ago

রেসের সকল ফান্ডের ব্যাংক হিসাবের লেনদেন স্থগিতাদেশ বিএফআইইউয়ের

বাংলাদেশ রেস অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট পিসিএল এবং তার অধীনে পরিচালিত ফান্ডসমূহের সকল ব্যাংক হিসাবের লেনদেন স্থগিত করার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংকের...

মূলধন মূলধন
পুঁজিবাজার5 days ago

বাংলাদেশ ফাইন্যান্সের সর্বোচ্চ দরপতন

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনে অংশ নেওয়া ৩৯৬টি কোম্পানির মধ্যে ১১৩টির দর কমেছে। সবচেয়ে বেশি দর কমেছে...

মূলধন মূলধন
পুঁজিবাজার5 days ago

দর বৃদ্ধির শীর্ষে লিগ্যাসি ফুটওয়্যার

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনে অংশ নেওয়া ৩৯৬ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ২২৪টির শেয়ারদর বেড়েছে। এর...

Advertisement

ফেসবুকে অর্থসংবাদ

মূলধন
সারাদেশ2 hours ago

টাঙ্গুয়ার হাওরে পর্যটক ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা

মূলধন
জাতীয়2 hours ago

কে এম সফিউল্লাহ আইসিইউতে

মূলধন
জাতীয়2 hours ago

সিলেটে বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র সচল রাখার চেষ্টা সেনাবাহিনীর

মূলধন
আন্তর্জাতিক3 hours ago

ইরানে ভূমিকম্পের আঘাতে নিহত ৪, আহত ১২০

মূলধন
জাতীয়4 hours ago

কবি অসীম সাহার মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক

মূলধন
আন্তর্জাতিক4 hours ago

প্রবাসীদের জন্য ব্যয়বহুল শহরের শীর্ষ দুটি এশিয়ায়

মূলধন
জাতীয়4 hours ago

সিলেটের সব পর্যটনকেন্দ্র বন্ধ ঘোষণা

মূলধন
জাতীয়5 hours ago

বুধবার থেকে নতুন সময়ে চলবে মেট্রোরেল

মূলধন
জাতীয়5 hours ago

দ্বিতীয় দিনে আরও কমে বিক্রি হচ্ছে কোরবানির পশুর চামড়া

মূলধন
স্বাস্থ্য5 hours ago

মানসম্পন্নহীন ক্লিনিক বন্ধ করে দেওয়া হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মূলধন
জাতীয়6 hours ago

বিসিক চামড়া শিল্প নগরীর সিইটিপি পুরোপুরি প্রস্তুত: শিল্প-সচিব

মূলধন
রাজধানী6 hours ago

ঢাকায় সাত চামড়া ব্যবসায়ীকে জরিমানা

মূলধন
অর্থনীতি7 hours ago

দুই দিনে সাভারের ট্যানারিতে আসবে ৬ লাখ চামড়া

মূলধন
জাতীয়7 hours ago

কবি অসীম সাহা আর নেই

মূলধন
জাতীয়7 hours ago

ঈদের ছুটি শেষে নতুন সূচিতে অফিস খুলছে বুধবার

মূলধন
লাইফস্টাইল8 hours ago

যেসব খাবার খাবেন স্মৃতিশক্তি বাড়াতে

মূলধন
জাতীয়8 hours ago

ঈদের দ্বিতীয় দিনে খুললো মেট্রোরেল

মূলধন
সারাদেশ9 hours ago

সিলেটে ৩ নদীর পানি বিপৎসীমার ওপরে

মূলধন
জাতীয়9 hours ago

ঈদুল আজহায় কোরবানি হয়েছে ১ কোটি ৪ লাখেরও বেশি গবাদিপশু

মূলধন
অর্থনীতি10 hours ago

বুধবার থেকে নতুন সময়সূচিতে চলবে ব্যাংক

মূলধন
জাতীয়11 hours ago

বঙ্গবন্ধু সেতুতে টোল আদায়ে নতুন রেকর্ড

মূলধন
পর্যটন11 hours ago

ঈদে ঘুরে আসতে পারেন সোনারগাঁও যাদুঘর-পানাম তাজমহল

মূলধন
ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ার11 hours ago

চাকরির সুযোগ দিচ্ছে বাংলালিংক

মূলধন
খেলাধুলা12 hours ago

সুপার এইটের ভেন্যুতে পৌঁছে গেছে বাংলাদেশ

মূলধন
সারাদেশ12 hours ago

ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স অর্জন করেছে আইএসএজিও সার্টিফিকেট

২০১৮ সাল থেকে ২০২৩

অর্থসংবাদ আর্কাইভ

তারিখ অনুযায়ী সংবাদ

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০