Connect with us

আন্তর্জাতিক

বিটকয়েনের দাম সর্বকালের সর্বোচ্চ

Published

on

বিটকয়েন

বিশ্ববাজারে ক্রিপ্টোকারেন্সি বিটকয়েন সর্বকালের সর্বোচ্চ দাম স্পর্শ করেছে। মঙ্গলবার (৫ মার্চ) ভার্চুয়াল এ মুদ্রাটির দর উঠে যায় ৬৯ হাজার ২০২ ডলারে, যা এযাবৎকালের সর্বোচ্চ। অবশ্য এরপর তা ৭ শতাংশের মতো কমে ৬৩ হাজার ৪০০ ডলারে নেমে আসে। এর আগে ২০২১ সালের নভেম্বর মাসে বিটকয়েনের দাম ছিল সর্বোচ্চ ৬৮ হাজার ৯৯৯ ডলার।

রয়টার্স জানিয়েছে, গত অক্টোবর মাসের পর থেকে এখন পর্যন্ত বিটকয়েনের দাম বেড়েছে ৬০ শতাংশ, এর মধ্যে ৪৪ শতাংশ বেড়েছে ফেব্রুয়ারি মাসে।

বিটকয়েনের এই মূল্যবৃদ্ধি অবশ্য অপ্রত্যাশিত ছিল না। যুক্তরাষ্ট্রের সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (এসইসি) চলতি বছরের শুরুতে ইটিএফের মাধ্যমে বিটকয়েনে বিনিয়োগের অনুমোদন দেওয়ার পর থেকেই ধারণা করা হচ্ছিল, বিটকয়েনের দাম বাড়বে। সেই সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভ নীতি সুদহার হ্রাস করবে—বাজারে এমন খবর ছড়িয়ে পড়ার পর বিনিয়োগকারীরা বিটকয়েনের দিকে ঝুঁকেছেন। সে জন্য বিটকয়েনের এই মূল্যবৃদ্ধি অস্বাভাবিক নয় বলেই মনে করছেন বিশ্লেষকেরা।

১ মার্চ শেষ হওয়া সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের ১০টি বড় বিটকয়েন তহবিলে বিনিয়োগ হয়েছে ২২০ কোটি ডলার; এর মধ্যে ব্ল্যাকরকের বিটকয়েন ট্রাস্টেই বিনিয়োগ হয়েছে ২০০ কোটি ডলারের বেশি।

অর্থসংবাদ/এমআই

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আন্তর্জাতিক

জাপানে শক্তিশালী ভূমিকম্পের আঘাত

Published

on

ব্যাংকে

জাপানের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে ৬ দশমিক ৪ মাত্রার শক্তিশালী এক ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। স্থানীয় সময় বুধবার রাতে এই ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে বলে জাপানের আবহাওয়া সংস্থা (জেএমএ) জানিয়েছে।

অন্যদিকে, মার্কিন ভূ-তাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা ইউএসজিএস বলছে, রিখটার স্কেলে ৬ দশমিক ৪ মাত্রার ভূমিকম্পে কেঁপে উঠেছে জাপানের দক্ষিণাঞ্চল। তবে এই ভূমিকম্পে তাৎক্ষণিকভাবে সুনামির সতর্কতা জারি করা হয়নি। এছাড়া ভূমিকম্পে কোনও ক্ষয়ক্ষতি কিংবা হতাহতের তথ্যও পাওয়া যায়নি।

জাপানের আবহাওয়া সংস্থা বলেছে, ভূমিকম্পটির কেন্দ্রস্থল ছিল জাপানের কিউশু এবং শিকোকু দ্বীপপুঞ্জকে পৃথক করা বুঙ্গো চ্যানেল প্রণালীতে।

জেএমএ বলেছে, জাপানের ১ থেকে ৭ স্কেলের পরিমাপকে এহিম ও কোচি অঞ্চলে ৬ তীব্রতায় ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। স্থানীয় গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত বড় ধরনের কোনও ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি।

দেশটির রাষ্ট্রায়ত্ত সম্প্রচারমাধ্যম এনএইচকে বলেছে, এহিম অঞ্চলের ইকাতা পারমাণবিক প্ল্যান্টে কোনও ধরনের অস্বাভাবিকতার তথ্য পাওয়া যায়নি।

জাপানের ভূমিকম্পের ঘটনা একেবারে সাধারণ। বিশ্বের অন্যতম ভূমিকম্প সক্রিয় এলাকাও জাপান। বিশ্বে ৬ বা তার চেয়ে বেশি মাত্রার ভূমিকম্পের প্রায় এক-পঞ্চমাংশই জাপানে ঘটে থাকে।

এর আগে, ২০১১ সালের ১১ মার্চ দেশটির উত্তর-পূর্ব উপকূলে ৯ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হানে। জাপানের ইতিহাসে সবচেয়ে শক্তিশালী ভূমিকম্প ছিল সেটি। ওই সময় ভূমিকম্পের পর দেশটির বিশাল সুনামি আঘাত হানে।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

আন্তর্জাতিক

বিশ্ববাজারে বেড়েছে জ্বালানি তেলের দাম

Published

on

ব্যাংকে

অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের শীর্ষ ব্যবহারকারী দেশ চীনে জ্বালানিটির চাহিদা লক্ষণীয় মাত্রায় বাড়ছে। তার ওপর মধ্যপ্রাচ্য ক্রমবর্ধমান রাজনৈতিক উত্তাপ জ্বালানিটির সরবরাহকে আরো বেশি সংকোচনের মুখে ঠেলে দিচ্ছে। এর প্রভাবে গতকালও বিশ্ববাজারে বেড়েছে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দাম।

আইসিই ফিউচারস ইউরোপে জুনে সরবরাহ চুক্তিতে গতকাল অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের আন্তর্জাতিক বাজার আদর্শ ব্রেন্ট দিনের শুরুতে প্রতি ব্যারেল লেনদেন হয়েছে ৯০ ডলার ৩০ সেন্টে, যা আগের দিনের তুলনায় ২০ সেন্ট বা দশমিক ২ শতাংশ বেশি। অন্যদিকে নিউইয়র্ক মার্কেন্টাইল এক্সচেঞ্জে (নিমেক্স) মার্কিন বাজার আদর্শ ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েটের (ডব্লিউটিআই) দাম দিনের শুরুতে ব্যারেলপ্রতি ৮৫ ডলার ৬২ সেন্টে ছিল, যা আগের দিনের তুলনায় ২১ সেন্ট বা দশমিক ৩ শতাংশ বেশি।

তথ্য বলছে, সম্প্রতি প্রত্যাশার চেয়ে দ্রুতগতিতে প্রসার ঘটছে চীনের অর্থনীতিতে। এ বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ) দেশটির জিডিপি প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৫ দশমিক ৩ শতাংশ। এ খবর প্রকাশ হওয়ার পর পরই বিশ্ববাজারে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দাম এক দফা বাড়ে। কারণ চীনে ইতিবাচক অর্থনীতির মানে হলো সেখানে জ্বালানি পণ্যটির চাহিদা ও আমদানি বাড়বে। তবে রিয়েল এস্টেট খাতে বিনিয়োগ, খুচরা বিক্রি ও শিল্প খাতের উৎপাদনসহ বেশকিছু বিষয় চাহিদা বৃদ্ধিতে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে বলেও মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দাম গত সপ্তাহে বেড়ে প্রায় ছয় মাসের সর্বোচ্চে উঠে গিয়েছিল। তবে গত সোমবার তা কমে যায়। কারণ ইসরায়েলে ইরানের হামলায় যতটুকু ক্ষয়ক্ষতি হওয়ার কথা ছিল তা হয়নি। ফলে সংঘাতের তীব্রতা নিয়েও উদ্বেগ কিছুটা কম ছিল। তবে ইসরায়েল এ হামলার জবাব দেয়ার ঘোষণা দেয়ায় সেকেন্ডের মধ্যে পাল্টা হামলার হুঁশিয়ারি দিয়েছে ইরান। এমন পরিস্থিতিতে মধ্যপ্রাচ্যে সংঘাতে ফের তীব্রতার আশঙ্কা করছেন বিশ্লেষকরা।

প্রসঙ্গত, জ্বালানি তেল রফতানিকারক দেশগুলোর জোট ওপেকের অন্যতম বৃহৎ সদস্যদেশ ইরান। দেশটি প্রতিদিন ৩০ লাখ ব্যারেলেরও বেশি অপরিশোধিত জ্বালানি তেল উত্তোলন করে। ইসরায়েলের সঙ্গে সংঘাতে জড়ানোয় দেশটির উত্তোলন ও রফতানি, দুটোই ব্যাহত হতে পারে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

বিশ্ববাজারে দাম বাড়াতে গত বছর কয়েক দফায় অপরিশোধিত জ্বালানি তেল উত্তোলন ও রফতানি কমিয়েছে ওপেক ও সহযোগী দেশগুলোর জোট ওপেক প্লাস। ফলে জ্বালানিটির বাজারে সরবরাহ ঘাটতি দেখা দিয়েছে। বিষয়টিও দাম বাড়ার ক্ষেত্রে প্রভাব রাখছে।

ওপেকের সর্বশেষ সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, সদস্যদেশগুলো সম্মিলিতভাবে দৈনিক ২২ লাখ ব্যারেল করে উত্তোলন কমাচ্ছে। এ বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকেও (এপ্রিল-জুন) উত্তোলন কমানোর এ ধারা অব্যাহত রাখা হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

আন্তর্জাতিক

পাকিস্তান-আফগানিস্তানে ঝড়ের আঘাতে শতাধিক প্রাণহানি

Published

on

ব্যাংকে

পাকিস্তান ও আফগানিস্তানজুড়ে বজ্রপাত, ভারী বর্ষণে সৃষ্ট বন্যা এবং ভূমিধসে শতাধিক মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে। মঙ্গলবার উভয় দেশের কর্মকর্তারা প্রাকৃতিক এই দুর্যোগে শতাধিক মানুষের মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পাকিস্তানের সরকারি কর্মকর্তারা বলেছেন, দেশটিতে ঝড়ের আঘাতে অন্তত ৫০ জন মারা গেছেন। দেশের জরুরি পরিষেবা সংস্থাকে উচ্চ সতর্কাবস্থায় থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আফগানিস্তানের কর্তৃপক্ষও একই দিনে ৫০ জনের মৃত্যুর খবর জানিয়েছে।

পাকিস্তানে বেশিরভাগ মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ খাইবার পাখতুনখোয়ায়। ওই প্রদেশে প্রবল বর্ষণ ও আকস্মিক বন্যার কারণে সৃষ্ট ভূমিধসে ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত এবং গাছপালা উপড়ে গেছে।

বৃষ্টিতে দেশটির উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল ও পূর্বাঞ্চলের পাঞ্জাব প্রদেশে কয়েক ডজন বাড়িঘর ধসে পড়েছে। প্রাদেশিক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের একজন মুখপাত্র বলেছেন, সেখানে অন্তত ২১ জন মারা গেছেন। চলতি সপ্তাহে আরও বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির আবহাওয়া বিভাগ।

আফগানিস্তানের সীমান্ত লাগোয়া খাইবার পাখতুনখোয়ার দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের মুখপাত্র বলেছেন, সেখানে ২১ জন মারা গেছেন।

রাজধানী ইসলামাবাদেও ব্যাপক বৃষ্টিপাত হয়েছে। দক্ষিণ-পশ্চিম বেলুচিস্তান প্রদেশে অন্তত সাতজন নিহত হয়েছেন। দেশটির উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর পেশোয়ার ও বেলুচিস্তানের রাজধানী কোয়েটায় রাস্তাঘাট ডুবে গেছে।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ শরিফ টেলিভিশনে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেছেন, দুর্যোগ-কবলিত এলাকায় ত্রাণ সহায়তা সরবরাহের জন্য কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। বর্তমানে দেশটির দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে।

দেশটির জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ (এনডিএমএ) আবহাওয়ার তীব্র পরিস্থিতির পূর্বাভাসের মাঝে জরুরি পরিষেবা সংস্থাগুলোকে উচ্চ সতর্কাবস্থায় থাকার নির্দেশ দিয়েছে।

এদিকে, মঙ্গলবার আফগানিস্তানের জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ (এএনডিএমএ) জানিয়েছে, মৌসুমী বৃষ্টির কারণে সৃষ্ট প্রবল বন্যায় আফগানিস্তানে গত কয়েক দিনে অন্তত ৫০ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। এছাড়া আহত হয়েছেন আরও ৩৬ জন।

দেশটির তালেবান নিয়ন্ত্রিত কর্তৃপক্ষ বলেছে, বৃষ্টি-বন্যা-ভূমিধসে ছয় শতাধিক বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত বা ধ্বংস হয়েছে। এছাড়া প্রায় ২০০ গবাদি পশু মারা গেছে। তালেবানের এক কর্মকর্তা বলেছেন, বন্যায় কৃষি জমির বিশাল এলাকা এবং ৮৫ কিলোমিটার (৫৩ মাইল) রাস্তা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

দুর্যোগে দেশটির অন্তত ২৩ হাজার পরিবারকে সহায়তা দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে প্রশাসন। আফগানিস্তানের ৩৪টি প্রদেশের মধ্যে অন্তত ২০টিতে আকস্মিক বন্যা দেখা দিয়েছে বলে জানা গেছে।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

আন্তর্জাতিক

ডেনমার্কের স্টক এক্সচেঞ্জ ভবনে আগুন

Published

on

ব্যাংকে

ডেনমার্কের কোপেনহেগেনে পুরনো স্টক এক্সচেঞ্জ ভবনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ভবনটি বোরসেন হল নামে পরিচিত। এটি শহরের প্রাচীনতম ভবনগুলোর একটি, যা সপ্তদশ শতাব্দীতে তৈরি।

ভবনটির আইকনিক চূড়া আগুনে ধসে পড়েছে। তবে ভবনের ভেতরের সবাই নিরাপদে বেরিয়ে যেতে পেরেছে। এছাড়া ভেতরে থাকা কিছু ঐতিহাসিক পেইন্টিং উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে।

ডেনমার্কের সংস্কৃতিমন্ত্রী জ্যাকব এঙ্গেল-শ্মিড জানান, ৪০০ বছরের ডেনমার্কের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য আগুনে পুড়ে গেছে। ১৬২৫ সালে তৈরি এ ভবনটি ডেনমার্কের পার্লামেন্ট এবং রাজকীয় প্রাসাদ হিসেবে ব্যবহার হত।

স্থানীয় কারিগর হেনরিক গ্রেজ বলেন, ‘‌এটি একটি দুঃখজনক দিন। ২০১৯ সালে প্যারিসে ক্যাথেড্রালের ছাদ এবং চূড়াকে গ্রাসকারী আগুনের সঙ্গে এর তুলনা করা যায়। এটি আমাদের নটরডেম।’

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে চেম্বার অব কমার্স জানিয়েছে, ‘আমরা একটি ভয়ানক দৃশ্যের সাক্ষী হয়েছি। এক্সচেঞ্জ ভবনে আগুন লেগেছে।’

কোপেনহেগেনে অগ্নিকাণ্ডের কারণ এ মুহূর্তে অজানা। কিন্তু জরুরি পরিষেবা সংস্থাগুলো জানিয়েছে, ভবনটির বেশিরভাগ অংশ আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আগুন টাওয়ারের চারপাশে সবচেয়ে তীব্র ছিল।

এমআই

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

আন্তর্জাতিক

গাড়ি রপ্তানিতে দক্ষিণ কোরিয়ার রেকর্ড আয়

Published

on

ব্যাংকে

বৈশ্বিক অটোমোবাইল খাতে নতুন নতুন গাড়ির উদ্ভাবন দিয়ে প্রতিনিয়ত ভোক্তাকে চমকে দিচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়া। এবার উদ্ভাবনের পাশাপাশি আয়েও রেকর্ড গড়েছে দেশটি। ২০২৪ সালের প্রথম তিন মাসে এশিয়ার দেশটি অটোমোবাইল রপ্তানি বাবদ রেকর্ড ১ হাজার ৭৫০ কোটি ডলার আয় করেছে।

সম্প্রতি এ তথ্য জানিয়েছে দেশটির বাণিজ্য, শিল্প ও জ্বালানি মন্ত্রণালয়।

দক্ষিণ কোরিয়ার গাড়ি রপ্তানির এ পরিমাণ গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ২ দশমিক ৭ শতাংশ বেশি বলে উল্লেখ করা হয়েছে প্রতিবেদনে। এর মধ্যে শুধু প্রান্তিকের শেষ মাস মার্চেই রপ্তানির পরিমাণ ৬২৯ কোটি ডলারে উন্নীত হয়েছে। এর আগের মাস ফেব্রুয়ারিতে রপ্তানির পরিমাণ ছিল ৫২০ কোটি ডলার।

দক্ষিণ কোরিয়ার কোম্পানিগুলো হাইব্রিড গাড়ির সক্ষমতা আগের চেয়ে অনেক বাড়িয়েছে। প্রযুক্তির এ পরিমার্জনের সঙ্গে সঙ্গে দেশটির অটোমোবাইল খাতে রপ্তানির পরিমাণও বেড়েছে। তবে এর মধ্যে প্লাগ-ইন হাইব্রিড গাড়িকে ধরা হয়নি।

মন্ত্রণালয় জানায়, হাইব্রিড গাড়ির রপ্তানির পরিমাণ মার্চে ৮৫ কোটি ডলারে উন্নীত হয়েছে, যা গত বছরের একই সময় থেকে ৩৭ শতাংশ বেশি।

হাইব্রিড গাড়ির চাহিদা বৃদ্ধির বিষয়ে আশাবাদী বলে জানান দক্ষিণ কোরিয়ার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা। তার মতে, এ ধরনের যানবাহনের চাহিদা অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক বাজার উভয় ক্ষেত্রেই অব্যাহত থাকবে বলে আশা করা হচ্ছে, যা একই সঙ্গে গাড়ির যন্ত্রাংশ নির্মাণ খাতে ব্যাপক প্রভাব ফেলবে।

তবে দক্ষিণ কোরিয়ায় ২০২৩ সালের একই সময়ের তুলনায় অটোমোবাইল রপ্তানি বাড়লেও সামগ্রিকভাবে দেশটিতে এ খাতে উৎপাদন কমেছে। চলতি বছর ১০ দশমিক ৮ শতাংশ কমে ৩ লাখ ৭৫ হাজার ইউনিটে দাঁড়িয়েছে।

রপ্তানি থেকে রেকর্ড আয় করলেও অভ্যন্তরীণভাবে দক্ষিণ কোরিয়ার অটোমোবাইল বাজার চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হয়েছে। অভ্যন্তরীণভাবে গত প্রান্তিকে দেশটিতে অটোমোবাইলের মোট বিক্রি ২০২৩ সালের একই সময়ের তুলনায় ১২ শতাংশ কমে ১ লাখ ৪৬ হাজার ইউনিটে দাঁড়িয়েছে।

এমআই

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন
ব্যাংকে
অর্থনীতি3 hours ago

রমজানে কমলেও ঈদের পর বাড়ল ডিমের দাম

ব্যাংকে
জাতীয়4 hours ago

প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ শুরু বৃহস্পতিবার

ব্যাংকে
খেলাধুলা4 hours ago

বঙ্গবন্ধু-বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল শনিবার

ব্যাংকে
পুঁজিবাজার4 hours ago

বিনিয়োগকারীদের আস্থা বাড়াতে ৫০ লাখ শেয়ার ছাড়বে ক্রাফটসম্যান ফুটওয়্যার

মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের শেয়ার ক্রয়-বিক্রয় সম্পন্ন
পুঁজিবাজার5 hours ago

মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের লভ্যাংশ ঘোষণা

ব্যাংকে
জাতীয়5 hours ago

চিকিৎসায় অবহেলা মেনে নেয়া হবে না: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ব্যাংকে
জাতীয়5 hours ago

জিম্মিদশার ৩১ দিনের লোমহর্ষক বর্ণনা দিলেন জাহাজের ক্যাপ্টেন

ব্যাংকে
আন্তর্জাতিক5 hours ago

জাপানে শক্তিশালী ভূমিকম্পের আঘাত

ব্যাংকে
জাতীয়6 hours ago

টেকসই সমুদ্র ব্যবস্থাপনায় সম্মিলিত প্রয়াসের আহ্বান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

ব্যাংকে
পুঁজিবাজার6 hours ago

অগ্নি সিস্টেমসের তৃতীয় প্রান্তিক প্রকাশ

ফেসবুকে অর্থসংবাদ

২০১৮ সাল থেকে ২০২৩

অর্থসংবাদ আর্কাইভ

তারিখ অনুযায়ী সংবাদ

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০