Connect with us

লাইফস্টাইল

শীতকালে গরম পানিতে গোসল, উপকার নাকি ক্ষতি?

Published

on

বিনিয়োগকারী

সারাদিনের কাজের জন্য নিজেকে প্রস্তুত করতে সকালের গোসল আমাদের সতেজ করে তোলে। কিন্তু শীতকাল এলেই অনেকে ঠান্ডার ভয়ে গোসল করতে চান না। অনেকেই আবার শীতে নিয়মিত গরম পানিতে গোসল করেন। কোন পানিতে গোসল করা বেশি উপকার?

বিশেষজ্ঞদের মতে, খুব ঠান্ডা বা অলসতা লাগলেও শীতকালে প্রতিদিন গোসল করা উচিত। এবিপি আনন্দের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পরিচ্ছন্নতা ছাড়াও গোসলের অনেক স্বাস্থ্যের উপকারিতা রয়েছে। গবেষণায় দেখা গেছে, প্রতিদিন গরম পানিতে গোসল করলে স্বাস্থ্য ভালো থাকে এবং চাপমুক্ত থাকার সম্ভাবনা বেশি থাকে, বেশি বিশ্রাম হয়, ভালো ঘুমও হয়।

ডায়াবেটিসে আক্রান্তদের জন্য শীতকালে গরম পানিতে গোসল করা খুবই উপকারী বলে জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। তাদের মতে, নিয়মিত গরম পানিতে গোসল করলে রক্তে শর্করার মাত্রা সঠির থাকে। এর পাশাপাশি ক্যালোরি কমাতেও সাহায্য করে। সমীক্ষায় দেখা গেছে, ৩০ মিনিট হাঁটার পর যে পরিমাণ ক্যালোরি আমাদের শরীর থেকে ধ্বংস হতে পারে, সেই একই পরিমাণ ক্যালোরি ধ্বংস হচ্ছে দিনে একবার গরম পানিতে গোসল করার ফলে। এছাড়াও রক্তে শর্করার মাত্রাও সঠিক থাকছে।

শরীর সুস্থ রাখতে পর্যাপ্ত ঘুম খুবই জরুরি। কিন্তু সারাদিনের পরিশ্রম, ক্লান্তি, চোখের পাতা বুজেও আসছে, তবুও ঘুমের পাত্তা নেই! এর সমাধান হতে পারে গরম পানিতে গোসল। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ভালো ঘুমের জন্য দারুণ উপকারী গরম পানিতে গোসল। গরম পানিতে গোসল করলে শরীর সতেজ হয়ে যায়। শরীরের পেশিগুলোও আরাম পায়। আর এর ফলেই দ্রুত ঘুম চলে আসে। তাই যাদের অনিদ্রার সমস্যা রয়েছে, তাদের জন্য খুব উপকারী।

চিকিৎসকরা বলছেন, শরীরে রক্ত সঞ্চালন সঠিক রাখতে সাহায্য করে গরেম পানিতে গোসল। রক্ত সঞ্চালন সঠিক থাকলে শরীরে এনার্জিও পরিপূর্ণ থাকে। এছাড়া, উচ্চ রক্তচাপের সমস্যাকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে নিয়মিত গরম পানিতে গোসল। এর ফলে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রেখে হৃদপিন্ডকে সচল রাখতে সাহায্য করে।

মস্তিষ্কে রক্ত সঞ্চালন সঠিক না হলেই মাথা যন্ত্রণার সমস্যা দেখা দেয়। মাথা যন্ত্রণার সমস্যাকে দূর করতে সাহায্য করে গরম পানিতে গোসল। এছাড়াও স্ট্রেস, উদ্বেগের মতো সমস্যাকেও প্রতিরোধ করে গরম পানি।

বিভিন্ন সময়ে অনেকের পেশিতে টান পড়ে। বিশেষজ্ঞদের মতে, পেশিগুলোকে সচল রাখতে সাহায্য করে গরম পানিতে গোসল। কাঁধ, পিঠ, ঘাড়ে ম্যাসেজের মতো কাজ করে গরম পানিতে গোসল।

ত্বক বিশেষজ্ঞদের মতে, ত্বকের জন্য দারুণ উপকারী গরম পানিতে গোসল। নিয়মিত গরম পানি দিয়ে গোসল করলে ত্বক সুস্থ থাকে। ত্বক থেকে যাতবীয় দূষিত পদার্থ বের করে দিতে সাহায্য করে গরম পানি। এছাড়াও, ত্বকের আদ্রতা বজায় রেখে বয়সের ছাপও পড়তে দেয় না।

শীত আসলেই অনেকের ঠান্ডা লাগা এবং জ্বরের সমস্যা দেখা দেয়। ঠান্ডা লাগা এবং জ্বরের সমস্যাকে দূর করতে সাহায্য করে গরম পানিতে গোসল। বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, শীতকালের মতো বছরের যে কোনো সময়েই গরম পানিতে গোসল করলে ঠান্ডা লাগার সমস্যা অনেক কম থাকবে।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

লাইফস্টাইল

যেভাবে পেঁয়াজ কাটলে চোখে পানি আসবে না

Published

on

বিনিয়োগকারী

আমাদের প্রতিদিনের রান্নায় পেঁয়াজের প্রয়োজন হয়ই। ঝাঁঝালো স্বাদের এই ভেষজ না থাকলে অনেক খাবারই পানসে লাগে। তবে একটা মুশকিল, পেঁয়াজ কাটতে গেলে চোখে পানি আসার সমস্যা হয় অনেকেরই। অনেক সময় বেশি পেঁয়াজও কাটার প্রয়োজন হয়। তখন পড়তে হয় অসুবিধায়। কারণ চোখের পানির কারণে পেঁয়াজ কাটাই সম্ভব হয় না বলতে গেলে। তবে ঘাবড়ানোর কিছু নেই, এমন অবস্থারও রয়েছে সমাধান।

পেঁয়াজ কাটার সময় চোখে পানি আসে কেন?

পেঁয়াজে থাকে সালফেনিক অ্যাসিড। যখন আমরা পেঁয়াজ কাটি তখন সেই অ্যাসিড অন্য এনজাইমের সঙ্গে মিশে যায়। এর ফলে তৈরি হয় সালফার গ্যাস। তখন এই গ্যাস চোখে গেলেই চোখ জ্বলতে থাকে এবং পানি পড়া শুরু হয়। তবে রান্নার সময় আর এই এনজাইম কাজ করে না। যে কারণে কাটার সময় সমস্যা হলেও রান্নার সময় সমস্যা হয় না। এখন চলুন জেনে নেওয়া যাক পেঁয়াজ কাটার সময় কী করলে চোখে পানি আসবে না-

চুইংগাম চিবানো

অবাক হলেন নিশ্চয়ই? ভাবছেন, পেঁয়াজ কাটার সঙ্গে চুইংগাম চিবানোর সম্পর্ক কোথায়? একটা সম্পর্ক তো রয়েছেই। আপনি যদি পেঁয়াজ কাটার সময় চুইংগাম চিবুতে থাকেন তাহলে আর চোখ দিয়ে পানি পড়ার মতো সমস্যা হবে না। কারণ আপনার মুখে যদি চুইংগাম থাকে তাহলে পেঁয়াজের ঝাঁঝ আর চোখ পর্যন্ত যাবে না। ফলে চোখে পানি আসার সমস্যাও বন্ধ হবে।

ফ্রিজে রাখুন

পেঁয়াজ কাটার কিছুক্ষণ অর্থাৎ অন্তত ১৫ মিনিট আগে ফ্রিজে রেখে দিন। এরপর বের করে কেটে নিন। তাহলে আর চোখে পানি আসবে না। কারণ পেঁয়াজ ঠান্ডা হয়ে গেলে এনজাইম ভালোভাবে কাজ করতে পারবে না। এর ফলে আর চোখ জ্বলবে না এবং চোখ থেকে পানিও পড়বে না।

ধারালো ছুরি বা বটি ব্যবহার

আপনি যখন ভোঁতা ছরি বা বটি ব্যবহার করেন তাহলে কিন্তু পেঁয়াজ কাটতে গেলে চোখ থেকে পানি পড়বেই। এর বদলে ধারালো ছুরি বা বটি ব্যবহার করলে আর সমস্যা হবে না। তাই এক্ষেত্রে সব সময় ধারালো বটি বা ছুরি বেছে নিন। এতে সমস্যা থেকে অনেকটাই রেহাই পাবেন।

কাফি

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

লাইফস্টাইল

ডায়াবেটিসের ‘যম’ দারুহরিদ্রার যত গুণ

Published

on

বিনিয়োগকারী

শুধু দামি ওষুধ ও পণ্য কিনেই যে আমাদের স্বাস্থ্যের যত্ন নিতে হবে, এমনটি কিন্তু নয়। কিছু কিছু প্রাকৃতিক উপাদানও স্বাস্থ্যের জন্য আশীর্বাদের মতো। দারুহরিদ্রা এমনই একটি চমৎকার আয়ুর্বেদিক ওষুধ।

এটি ব্যবহারে শরীরে আশ্চর্যজনক উপকারিতা দেখা যায়। এটি পেট সংক্রান্ত যে কোনও রোগ নিরাময় করতে খুবই উপকারী। এই ফলটি চোখের জন্যও খুব উপকারী বলে মনে করা হয়। এই ওষুধটি চর্মরোগ এবং ডায়াবেটিস রোগীদের জন্যও ভালো।

দারুহরিদ্রা প্রসঙ্গে তথ্য দিতে গিয়ে আয়ুর্বেদিক চিকিৎসকরা জানান, আয়ুর্বেদে শত শত বছর ধরে দারুহরিদ্রা ব্যবহার হয়ে আসছে। এর ব্যবহার শরীরে আশ্চর্যজনক উপকার এনে দেয়। এই ফলটি আমাদের পেটের রোগ নিরাময়েও ব্যবহৃত হয়।

এটি পেটের সমস্ত রোগ নিরাময় করে এবং শরীর ভেতর থেকে শক্তিশালী করে তোলে। দারুহরিদ্রা চোখ ও কানের রোগও নিরাময় করতে সাহায্য করে। এটি শরীরের অভ্যন্তরীণ এবং বাহ্যিকভাবে ঘটতে থাকা প্রদাহকে দ্রুত নিরাময় করে।

এ ছাড়া, এই ফলটি ক্ষত নিরাময়ের পাশাপাশি ত্বক সংক্রান্ত সমস্যাকেও দ্রুত নিরাময়ে সাহায্য করে। এই ওষুধে সুগারও নিয়ন্ত্রণে থাকে।

এটি ব্যবহার করা খুব সহজ। এটি সহজেই যে কোনও জায়গায় কিনতে পাওয়া যায়। এই ফলটি জলে সেদ্ধ করে ক্বাথ তৈরি করে পান করা যেতে পারে। এ ছাড়া, এর পাউডারও তৈরি করা যায়। দারুহরিদ্রা পাউডার দুধ এবং জলে এক সঙ্গে মিশিয়ে খাওয়া যেতে পারে।

আয়ুর্বেদিক চিকিৎসকরা জানান, কম খরচে চিকিৎসার জন্য দারুহরিদ্রা একটি ভালো বিকল্প। এটি পিসিওডি রোগে নারীদের প্রাকৃতিকভাবে চিকিৎসা করতে ব্যবহার করা হয়। এই ফলটিতে প্রোটিন, আয়রন এবং জিংক ও ম্যাঙ্গানিজের মতো নানা প্রয়োজনীয় খনিজ উপাদান পাওয়া যায়। তাই এটি সবার জন্যই উপকারী।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

লাইফস্টাইল

বর্ষায় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াবে তুলসি পাতা

Published

on

বিনিয়োগকারী

বর্ষাকালে প্রকৃতির সৌন্দর্য বৃদ্ধি পায়, সেইসঙ্গে বৃদ্ধি পায় সংক্রমণের ঝুঁকিও। এসময় হঠাৎ পরিবর্তন আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে দুর্বল করে দিতে পারে, যার ফলে আমরা প্রায়ই অসুস্থ হয়ে পড়ি। বছরের এই সময়ে সর্দি, কাশি, গলা ব্যথা এবং জ্বরের মতো রোগ দেখা দিতে পারি। এই কারণে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা আমাদের খাবারের তালিকায় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিকারী খাবার এবং পানীয় যোগ করার পরামর্শ দেন। এই কাজে আপনাকে সাহায্য করতে পারে তুলসি পাতা।

বর্ষায় তুলসি পাতা কেন খাবেন?
এই ভেষজটি উল্লেখযোগ্য স্বাস্থ্য উপকারিতা দিতে পারে। বর্ষাকালে যখন রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায় তখন তাকে শক্তিশালী করে আমাদের ফিট ও সুস্থ রাখতে সাহায্য করে তুলসি পাতা। তুলসী পাতায় নির্দিষ্ট তেল রয়েছে যা ক্ষতিকারক সংক্রমণ এবং অ্যালার্জির বিরুদ্ধে লড়াই করতে সাহায্য করে। এই কারণেই বর্ষাকালের খাবারের তালিকায় তুলসি পাতা যোগ করার পরামর্শ দেওয়া হয়।

১. তুলসী এবং হলুদ
হলুদ আমাদের রান্নাঘরের একটি প্রধান উপাদান, যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য পরিচিত। এই বর্ষায় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী করতে দ্রুত এবং সহজে তুলসি এবং হলুদের পানীয় তৈরি করে খেতে পারেন। এই দুই উপাদানেরই প্রদাহ-বিরোধী বৈশিষ্ট্য রয়েছে এবং সংক্রমণকে দূরে রাখতে সাহায্য করে। এক্ষেত্রে মিষ্টি স্বাদ যোগ করতে চাইলে সামান্য মধু মিশিয়ে নিতে পারেন।

২. তুলসি এবং আদা চাটনি
আপনি কি জানেন তুলসি চাটনি তৈরিতেও ব্যবহার করা যায়? আপনার খাবারের স্বাদ বাড়ানোর পাশাপাশি এটি সুস্থও রাখবে। চাটনিতে আদা এবং তেঁতুলও থাকে, যা এর পুষ্টিগুণকে আরও বাড়িয়ে দেয়। আপনি যদি এই চাটনিটি দীর্ঘ সময় ভালো রাখতে চান তবে এটি একটি এয়ারটাইট পাত্রে সংরক্ষণ করতে ভুলবেন না।

৩. তুলসি পনির স্যান্ডউইচ
তুলসি এবং পনির দিয়ে তৈরি এই স্যান্ডউইচ সকালে খেলে তা আপনার দিনটিকে স্বাস্থ্যকর উপায়ে শুরু করার অভিজ্ঞতা দেবে। এটি বেশ স্বাস্থ্যকর এবং মাত্র ১৫ মিনিটের মধ্যে প্রস্তুত হয়ে যাবে। এটি ছোট-বড় সবার জন্যই আকর্ষণীয় খাবার। এর সঙ্গে স্যান্ডউইচে আপনার পছন্দের অন্য সবজি যোগ করুন।

আপনি যদি চা প্রেমী হন তবে সাধারণ চায়ের বদলে এ ধরনের হার্বাল চা বেছে নিতে পারেন। তুলসি, আদা এবং অন্যান্য বিভিন্ন মসলা দিয়ে তৈরি এই চা বর্ষাকালে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে একটি চমৎকার পানীয় হিসেবে কাজ করে। তুলসি এবং আদার এই চায়ে মিষ্টি স্বাদ যোগ করতে চাইলে মধু মিশিয়ে খেতে পারেন। তবে চিনি মেশাবেন না।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

লাইফস্টাইল

যেসব উপকার পাবেন বিটরুট খেলে

Published

on

বিনিয়োগকারী

বিটরুট মাটির নিচের সবজি। অনেকটা শালগমের মতো দেখতে এই সবজি গাঢ় লাল রঙের হয়। বিটরুটে পাওয়া যায় প্রোটিন, চর্বি, আয়রন, কপার, ম্যাঙ্গানিজ, পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ভিটামিন সি, ভিটামিন বি৬, ফাইবার, কার্বোহাইড্রেটের মতো পুষ্টি উপাদান। যে কারণে নিয়মিত বিটরুট খেলে শরীর নানাভাবে উপকৃত হয়।

চলুন জেনে নেওয়া যাক বিটরুট খাওয়ার কিছু উপকারিতা সম্পর্কে-

১. বাতের ব্যথা কমায়
অনেকেই আছেন যারা দীর্ঘ দিন বাতের ব্যথায় ভুগছেন। এক্ষেত্রে তাদের জন্য সহায়ক একটি খাবার হতে পারে বিটরুট। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বাতের ব্যথায় আক্রান্ত রোগীদের জন্য বিট খুবই উপকারী। গবেষণায় দেখা গেছে, নিয়মিত বিটরুট খাওয়ার ফলে প্রায় ৩৩ শতাংশ বাতের সমস্যা দূর হয়েছে। তাই একে হেলাফেলা করার সুযোগ নেই।

২. রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে
বিটরুটে থাকে প্রচুর পরিমাণে নাইট্রেট। এই উপাদান শরীরে নাইট্রিক অক্সাইড তৈরি করে। যে কারণে রক্তনালী প্রসারিত হয়, কমে আসে উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা। তাই যারা উচ্চ রক্তচাপের সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্য একটি উপকারী খাবার হতে পারে বিটরুট। এটি নিয়মিত খেলে আপনার জন্য রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করা সহজ হয়ে যাবে।

৩. ওজন কমায়
যারা ওজন কমাতে চাচ্ছেন তাদের জন্য একটি উপকারী খাবার হতে পারে বিটরুট। কারণ এতে ক্যালোরি থাকে খুবই কম। আর ফ্যাট নেই বলতে গেলে। প্রতিদিন সকালে আপনি যদি এক কাপ বিটের রসের সঙ্গে ২ মিলি অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার মিশিয়ে খান তবে দ্রুতই সুফল টের পাবেন। মাত্র এক মাসেই ওজন নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে।

৪. রক্ত পরিষ্কার করে
আমাদের শরীরের রক্ত পরিষ্কার করতে সাহায্য করে বিটরুট। তাই আপনিও সুস্থ থাকতে চাইলে নিয়মিত বিটরুট খাওয়ার অভ্যাস করুন। এটি খেলে তা শরীর থেকে দূষিত পদার্থ বের করে দিতে সাহায্য করে, রক্তে বৃদ্ধি করে আরবিসি-র সংখ্যা, সেইসঙ্গে দূরে রাখে রক্তস্বল্পতাও।

৫. ত্বক ভালো রাখে
ত্বক ভালো রাখতে আপনার নানা প্রাচেষ্টা রয়েছে নিশ্চয়ই? এই কাজে আপনাকে সাহায্য করতে পারে বিটরুট। কারণ আপনি যদি নিয়মিত বিটরুট খান তবে তা আপনার ত্বকের উজ্জ্বলতা ধরে রাখতে সাহায্য করবে। এছাড়াও বিটরুট দিয়ে করতে পারেন রূপচর্চা। সেজন্য বিটরুসের রস বের করে তা পুরো মুখে লাগিয়ে অপেক্ষা করুন মিনিট দশেক। এরপর শুকিয়ে এলে ভালো করে পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। এতে ত্বকে বলিরেখা থাকলে তাও দূর হবে। সেইসঙ্গে বিটের অ্যান্টিসেপটিক উপাদান ব্রণ দূর করতেও সাহায্য করবে। চোখের নিচে কালো দাগ থাকলে তাও দূর করবে বিটরুট।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

লাইফস্টাইল

অ্যালোভেরা খাওয়ার অপকারিতা

Published

on

বিনিয়োগকারী

অ্যালোভেরার রয়েছে অনেক উপকারিতা। ত্বক ও চুলের যত্নে এর ব্যবহার ও কার্যকারিতার কথা জানা আছে নিশ্চয়ই? শুধু তাই নয়, সৌন্দর্যের সঙ্গে সঙ্গে সুস্বাস্থ্য বজায় রাখতেও এটি সমান কার্যকরী। অ্যালোভেরা ক্যাকটাস জাতীয় উদ্ভিদ। যে কারণে এটি যেকোনো স্থানেই হতে পারে, প্রয়োজন পড়ে না বিশেষ কোনো যত্নেরও। তাই আপনার বাড়ির ছাদ কিংবা বেলকোনিতেও লাগাতে পারেন উপকারী এই গাছ।

অ্যালোভেরায় পাওয়া যায় ক্যালসিয়াম, সোডিয়াম, আয়রন, পটাশিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ, জিঙ্ক, ফলিক অ্যাসিড, অ্যামাইনো অ্যাসিডের মতো অনেক উপকারী উপাদান। সেইসঙ্গে এই উদ্ভিদ থেকে আরও মিলবে ভিটামিন-এ, বি৬ ও বি২ ইত্যাদি। এগুলোর সবই স্বাস্থ্যের জন্য দারুণ কার্যকরী।

অ্যালোভেরা জুসে থাকে অ্যান্টি-ইনফ্লামেটরি উপাদান। এই উপাদান শরীরে জমে থাকা মেদ ঝরাতে কাজ করে থাকে। এছাড়া এটি শরীরে কোনো ধরনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করে না। তাই নিশ্চিন্তে খাওয়া যায়। যারা মেদ ঝরাতে চান তারা নিয়মিত অ্যালোভেরার জুস পান করলে উপকার পাবেন।

অ্যালোভেরার অ্যান্টি-ইনফ্লামেটরি উপাদান আমাদের পেট ঠান্ডা রাখতে কাজ করে। যে কারণে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থেকে বাঁচা অনেকটাই সহজ হয় যায়। হজম শক্তি বৃদ্ধি করতে কার্যকরী ভূমিকা রাখতে পারে অ্যালোভেরা। অ্যালোভেরার জুস ডায়াবেটিস কিংবা হার্টের রোগীদের ক্ষেত্রেও উপকারী। কারণ এটি কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে কাজ করে।

অ্যালোভেরা খেলে তা মুখের ভেতরের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে কাজ করে। কারণ এই উদ্ভিদে আছে ভিটামিন সি-সহ অনেক সক্রিয় প্রাকৃতিক উপাদান। এসব উপাদান মুখের ভেতরে প্লাক তৈরিতে বাধা দিয়ে থাকে। যে কারণে অ্যালোভেরার জুস খেলে তা মুখে দুর্গন্ধ সৃষ্টি হতে দেয় না। সেইসঙ্গে এটি দাঁত ও মাড়ি ভালো রাখে।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

শেয়ারবাজারের সর্বশেষ

বিনিয়োগকারী বিনিয়োগকারী
পুঁজিবাজার8 hours ago

লোকসানে ১৪ খাতের বিনিয়োগকারীরা

বিদায়ী সপ্তাহে (০৭ জুলাই থেকে ১১ জুলাই) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সাপ্তাহিক রিটার্নে দর কমেছে ১৪ খাতে। ফলে সাপ্তাহিক রিটার্নে...

বিনিয়োগকারী বিনিয়োগকারী
পুঁজিবাজার8 hours ago

সাপ্তাহিক রিটার্নে মুনাফায় ৬ খাতের বিনিয়োগকারীরা

বিদায়ী সপ্তাহে (০৭ জুলাই থেকে ১১ জুলাই) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সাপ্তাহিক রিটার্নে দর বেড়েছে ৬ খাতে। ফলে এই ৬...

বিনিয়োগকারী বিনিয়োগকারী
পুঁজিবাজার8 hours ago

খাতভিত্তিক লেনদেনের শীর্ষে ফার্মা খাত

বিদায়ী সপ্তাহে (০৭ জুলাই-১১ জুলাই) দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) খাতভিত্তিক লেনদেনের শীর্ষে রয়েছে ফার্মা ও রসায়ন খাত।...

বিনিয়োগকারী বিনিয়োগকারী
পুঁজিবাজার12 hours ago

ব্লকে ন্যাশনাল ব্যাংকের ৪৮ কোটি টাকার লেনদেন

বিদায়ী সপ্তাহে (০৭ জুলাই-১১ জুলাই) দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্লক মার্কেটে লেনদেন হওয়া শীর্ষ দশ কোম্পানির তালিকা...

বিনিয়োগকারী বিনিয়োগকারী
পুঁজিবাজার12 hours ago

ডিএসইতে কমেছে পিই রেশিও

বিদায়ী সপ্তাহে (০৭ জুলাই-১১ জুলাই) দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সার্বিক মূল্য আয় অনুপাত (পিই রেশিও) কমেছে। আলোচ্য...

বিনিয়োগকারী বিনিয়োগকারী
পুঁজিবাজার13 hours ago

আইবিবিএল পারপেচুয়াল বন্ডের সর্বোচ্চ দরপতন

বিদায়ী সপ্তাহে (০৭ জুলাই- ১১ জুলাই) দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন হওয়া ৩৯৬ কোম্পানির মধ্যে ১৫৪টির শেয়ারদর...

বিনিয়োগকারী বিনিয়োগকারী
পুঁজিবাজার13 hours ago

দেশবন্ধু পলিমারের শেয়ারদর বেড়েছে প্রায় ৩০ শতাংশ

বিদায়ী সপ্তাহে (০৭ জুলাই-১১ জুলাই) দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন হওয়া ৩৯৬ কোম্পানির মধ্যে ২২০টির শেয়ার ও...

বিনিয়োগকারী বিনিয়োগকারী
পুঁজিবাজার14 hours ago

সাপ্তাহিক লেনদেনের শীর্ষে সি পার্ল বিচ

বিদায়ী সপ্তাহে (০৭ জুলাই-১১ জুলাই) দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৩৯৬ কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে লেনদেনের...

বিনিয়োগকারী বিনিয়োগকারী
পুঁজিবাজার1 day ago

শেয়ারবাজারে লেনদেন বেড়েছে ৪৪ শতাংশ

দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) বিদায়ী সপ্তাহে (৭ জুলাই থেকে ১১ জুলাই) গড় লেনদেন ৪৪ শতাংশের বেশি বেড়েছে।...

বিনিয়োগকারী বিনিয়োগকারী
পুঁজিবাজার1 day ago

লংকাবাংলা সিকিউরিটিজ কর্মীদের প্রশিক্ষণ দিল বিআইসিএম

বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ক্যাপিটাল মার্কেট (বিআইসিএম) কর্তৃক ৪ দিন ব্যাপী পুঁজিবাজার বিষয়ক কর্মশালার আয়োজন করা হয়েছে। কর্মশালায় বিআইসিএম কর্তৃক লংকাবাংলা...

বিনিয়োগকারী বিনিয়োগকারী
পুঁজিবাজার1 day ago

উত্তরা ফাইন্যান্সের এমডির পদত্যাগ

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত আর্থিক প্রতিষ্ঠান উত্তরা ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সৈয়দ মিনহাজ আহমেদ পদত্যাগ করেছেন। কোম্পানি সূত্রে জানা গেছে,...

বিনিয়োগকারী বিনিয়োগকারী
পুঁজিবাজার2 days ago

ব্লকে ৩৫ কোটি টাকার লেনদেন

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্লকে মোট ৪৮টি কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিট হাতবদল হয়েছে। তাতে কোম্পানিগুলোর মোট লেনদেন...

বিনিয়োগকারী বিনিয়োগকারী
পুঁজিবাজার2 days ago

টেকনো ড্রাগসের লেনদেন শুরু ১৪ জুলাই

পুঁজিবাজারে মূল প্ল্যাটফর্মে তালিকাভুক্ত হতে যাওয়া নতুন কোম্পানি টেকনো ড্রাগস লিমিটেডের শেয়ারের লেনদেন আগামী রোববার (১৪ জুলাই) থেকে শুরু হবে।...

বিনিয়োগকারী বিনিয়োগকারী
পুঁজিবাজার2 days ago

প্রিমিয়ার ব্যাংকের নগদ লভ্যাংশ বিতরণ

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত প্রিমিয়ার ব্যাংক পিএলসি গত ৩১ ডিসেম্বর,২০২৩ সমাপ্ত হিসাববছরে জন্য ঘোষিত লভ্যাংশ বিনিয়োগকারীদের কাছে পাঠিয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)...

বিনিয়োগকারী বিনিয়োগকারী
পুঁজিবাজার2 days ago

সিটি ইন্স্যুরেন্সের নাম সংশোধনে ডিএসইর সম্মতি

পুঁজিবাজারে বিমা খাতে তালিকাভুক্ত সিটি জেনারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের নাম সংশোধনে সম্মতি দিয়েছে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)...

বিনিয়োগকারী বিনিয়োগকারী
পুঁজিবাজার2 days ago

বিবিএস ক্যাবলসের সর্বোচ্চ দরপতন

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনে অংশ নেওয়া ৩৯৭টি কোম্পানির মধ্যে ৩৪৩ কোম্পানির শেয়ারদর কমেছে।...

বিনিয়োগকারী বিনিয়োগকারী
পুঁজিবাজার2 days ago

দরবৃদ্ধির শীর্ষে গ্লোবাল হেভি কেমিক্যাল

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনে অংশ নেওয়া ৩৯৭ কোম্পানির মধ্যে ৩৬টির শেয়ারদর বৃদ্ধি পেয়েছে।...

বিনিয়োগকারী বিনিয়োগকারী
পুঁজিবাজার2 days ago

লেনদেনের শীর্ষে সি পার্ল

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৩৯৭টি কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিট হাতবদল হয়েছে। এদিন লেনদেনের শীর্ষে...

বিনিয়োগকারী বিনিয়োগকারী
পুঁজিবাজার2 days ago

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ৬১ পয়েন্ট হারালো ডিএসই

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) মূল্যসূচকের নিম্নগতিতে লেনদেন শেষ হয়েছে। একইসাথে আগের কার্যদিবসের তুলনায় এদিন...

বিনিয়োগকারী বিনিয়োগকারী
পুঁজিবাজার3 days ago

দুই ঘন্টায় লেনদেন ৩২৬ কোটি টাকা

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) মূল্য সূচকের নিম্নমুখী প্রবণতায় লেনদেন চলছে। এদিন প্রথম দুই ঘন্টায়...

Advertisement

ফেসবুকে অর্থসংবাদ

বিনিয়োগকারী
জাতীয়2 hours ago

প্রতিনিধিদল নিয়ে ঢাকায় থাই প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা

বিনিয়োগকারী
ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ার2 hours ago

বিশ্ববিদ্যালয় সচল করতে প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ চান উপাচার্যরা

বিনিয়োগকারী
খেলাধুলা2 hours ago

কোপার ফাইনালে যেমন হতে পারে আর্জেন্টিনার একাদশ

বিনিয়োগকারী
কর্পোরেট সংবাদ3 hours ago

শেখ হাসিনা আন্তঃব্যাংক ফুটবল টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন ইসলামী ব্যাংক

বিনিয়োগকারী
জাতীয়3 hours ago

মাদক নিরাময়ে প্রথম পুরস্কার পাচ্ছে ওয়েসিস

বিনিয়োগকারী
টেলিকম ও প্রযুক্তি4 hours ago

আইটি সেক্টরে পাঁচ বছরে ১০ লাখ কর্মসংস্থান হবে: পলক

বিনিয়োগকারী
বিনোদন4 hours ago

পাঁচ নায়িকাকে নিয়ে ‘আপনজন’র ঘোষণা শাকিব খানের

বিনিয়োগকারী
ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ার4 hours ago

১৮তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় পাঁচজন বহিষ্কার

বিনিয়োগকারী
ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ার4 hours ago

এক লাখ ৩৭ হাজার টাকা বেতনে চাকরি দেবে টিআইবি

বিনিয়োগকারী
টেলিকম ও প্রযুক্তি5 hours ago

আইসিটি খাতে বছরে রপ্তানি আয় ২ বিলিয়ন ডলার

বিনিয়োগকারী
জাতীয়5 hours ago

দেশে অতিদারিদ্র্যের হার ৫.৬ ভাগে নামিয়ে এনেছি: প্রধানমন্ত্রী

বিনিয়োগকারী
জাতীয়5 hours ago

ইইউ আইনের জন্য আগাম প্রস্তুতির আহ্বান রাষ্ট্রদূতের

বিনিয়োগকারী
টেলিকম ও প্রযুক্তি6 hours ago

সাবমেরিন ক্যাবলের কাজ শেষ, ব্যান্ডউইথ সরবরাহ শুরু

বিনিয়োগকারী
জাতীয়6 hours ago

কোটা আন্দোলনকারীদের নতুন কর্মসূচি ঘোষণা

বিনিয়োগকারী
অর্থনীতি6 hours ago

জাতীয় রপ্তানি পদক পাচ্ছে ৭৭ প্রতিষ্ঠান

বিনিয়োগকারী
রাজধানী7 hours ago

গবাদি পশুর অবৈধ খামার অপসারণ করতে ডিএনসিসির চিঠি

বিনিয়োগকারী
জাতীয়7 hours ago

শিশুশ্রম নিরসনে সদিচ্ছার কোনো ঘাটতি নেই: প্রতিমন্ত্রী

বিনিয়োগকারী
জাতীয়7 hours ago

সপ্তাহজুড়ে প্রচণ্ড চাপ থাকবে রাজধানীর সড়কে

বিনিয়োগকারী
অর্থনীতি8 hours ago

সোনার আউন্স দুই হাজার ৪০০ ডলার ছাড়ালো

বিনিয়োগকারী
পুঁজিবাজার8 hours ago

লোকসানে ১৪ খাতের বিনিয়োগকারীরা

বিনিয়োগকারী
পুঁজিবাজার8 hours ago

সাপ্তাহিক রিটার্নে মুনাফায় ৬ খাতের বিনিয়োগকারীরা

বিনিয়োগকারী
লাইফস্টাইল8 hours ago

যেভাবে পেঁয়াজ কাটলে চোখে পানি আসবে না

বিনিয়োগকারী
পুঁজিবাজার8 hours ago

খাতভিত্তিক লেনদেনের শীর্ষে ফার্মা খাত

বিনিয়োগকারী
ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ার9 hours ago

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০৯৭ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা

বিনিয়োগকারী
কর্পোরেট সংবাদ9 hours ago

সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের অর্ধবার্ষিক ব্যবসায়িক সম্মেলন

২০১৮ সাল থেকে ২০২৩

অর্থসংবাদ আর্কাইভ

তারিখ অনুযায়ী সংবাদ

রবি সোম মঙ্গল বু বৃহ শুক্র শনি
 
১০১১১৩
১৫১৬১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
৩০৩১