Connect with us

অর্থনীতি

ইচ্ছাকৃত ঋণখেলাপির তথ্য সিআইবিতে দেওয়ার নির্দেশ

Published

on

লভ্যাংশ

সামর্থ্য থাকা সত্ত্বেও ঋণ পরিশোধ না করলে এবং জালিয়াতি, প্রতারণা বা মিথ্যা তথ্য প্রদানের মাধ্যমে কেউ ঋণ নিলে তা ইচ্ছাকৃত খেলাপি হিসেবে চিহ্নিত হবে। এছাড়া যে উদ্দেশ্য ঋণ নেওয়া হয়েছে, তার বাইরে অন্য কাজে ঋণের অর্থ ব্যবহার করলেও তা চিহ্নিত হবে ইচ্ছাকৃত খেলাপি হিসেবে। ক্রেডিট ইনফরমেশন ব্যুরোতে (সিআইবি) এই ধরনের খেলাপিদের তথ্য দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। একই সঙ্গে জুনের তথ্য জুলাইয়ের ১ তারিখে রিয়েল টাইমে রিপোর্ট করতে বাণিজ্যিক ব্যাংক ও নন-ব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠানকে (এনবিএফআই) নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার ( ২১ মে) বাংলাদেশ ব্যাংকের সিআইবি থেকে এমন নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।

এর আগে গত ১২ মার্চে এক সার্কুলারের মাধ্যমে ব্যাংক খাতে খেলাপি ঋণের লাগাম টানতে ইচ্ছাকৃত খেলাপি চিহ্নিত করার উদ্যোগ নেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। পাশাপাশি ইচ্ছাকৃত খেলাপিদের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেওয়া হবে, তাও নির্দিষ্ট করে দিয়েছিল কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

ওই সার্কুলারের বলা হয়, কোনো ঋণখেলাপি গ্রাহকের ঋণ বেনামিতে নেওয়া হলে ও সেই ঋণের অপব্যবহার করলে তা ইচ্ছাকৃত খেলাপি হিসেবে চিহ্নিত হবে। ইচ্ছাকৃত খেলাপি চিহ্নিত করতে গত ৯ এপ্রিলের মধ্যে ‘ইচ্ছাকৃত খেলাপি ঋণগ্রহীতা শনাক্তকরণ ইউনিট’ গঠন করারও নির্দেশনা দেওয়া হয়।

এতে আরও বলা হয়েছিল, কোনো ব্যাংক এই নির্দেশনার শর্ত লঙ্ঘন করলে তাকে কমপক্ষে ৫০ লাখ ও সর্বোচ্চ ১ কোটি টাকা জরিমানা করা হবে। আর শর্ত লঙ্ঘন অব্যাহত থাকলে প্রতিদিন এক লাখ টাকা জরিমানা করা হবে।

কারা হবেন ইচ্ছাকৃত খেলাপি
ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান বা কোম্পানি যে কেউ ইচ্ছাকৃত খেলাপি হতে পারে। বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রজ্ঞাপনে ব্যাংক কোম্পানি আইনের উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়েছে, সামর্থ্য থাকা সত্ত্বেও ঋণ পরিশোধ না করলে এবং জালিয়াতি, প্রতারণা বা মিথ্যা তথ্য প্রদানের মাধ্যমে কেউ ঋণ নিলে তা ইচ্ছাকৃত খেলাপি হিসেবে চিহ্নিত হবে। এছাড়া যে উদ্দেশ্য ঋণ নেওয়া হয়েছে, তার বাইরে অন্য কাজে ঋণের অর্থ ব্যবহার করলেও তা চিহ্নিত হবে ইচ্ছাকৃত খেলাপি হিসেবে।

ইচ্ছাকৃত খেলাপি চিহ্নিত করতে ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দুই ধাপ নিচের কর্মকর্তার অধীনে ৯ এপ্রিলের মধ্যে পৃথক ইউনিট গঠন করতে হবে। এ ইউনিট কোনো খেলাপি গ্রাহক ইচ্ছাকৃতভাবে খেলাপি কি না, তা খুঁজে বের করবে। নতুন করে কোনো গ্রাহক খেলাপি হিসেবে চিহ্নিত হলে, ওই গ্রাহক ইচ্ছাকৃত খেলাপি কি না, তা ৩০ দিনের মধ্যে যাচাই করবে।

কেউ ইচ্ছাকৃত খেলাপি হিসেবে চিহ্নিত হলে ১৪ দিন সময় দিয়ে তার বক্তব্য উপস্থাপনের জন্য চিঠি দিতে হবে। ঋণগ্রহীতার বক্তব্য গ্রহণযোগ্য না হলে বা বক্তব্য উপস্থাপন না করলে ব্যাংক এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারবে। এরপর ৭ কর্মদিবসের মধ্যে গ্রাহককে ইচ্ছাকৃত খেলাপি হওয়ার বিষয়টি অবহিত করে চিঠি দিতে হবে। ইচ্ছাকৃত খেলাপি করায় গ্রাহক ক্ষুব্ধ হলে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কাছে আপিল করতে পারবে। এ ক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হিসেবে গণ্য হবে।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

অর্থনীতি

আইএফসির অর্থায়নে বাংলাদেশে বিনিয়োগ বাড়াচ্ছে এপিক গ্রুপ

Published

on

লভ্যাংশ

বাংলাদেশ ও ভারতে আরও পরিবেশবান্ধব উপায়ে এবং দক্ষতার সঙ্গে বস্ত্র উৎপাদনে সহায়তা করতে এপিক গ্রুপকে ঋণ দিচ্ছে বিশ্বব্যাংকের বেসরকারি খাতবিষয়ক প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্স করপোরেশন (আইএফসি)।

এ লক্ষ্য অর্জনে এপ্রিক গ্রুপকে মোট ১০ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে আইএফসি। এর মধ্যে সাত কোটি ডলার দেওয়া হচ্ছে টেকসই উন্নয়নবিষয়ক লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে আর বাকি তিন কোটি ডলার দেওয়া হচ্ছে পরিবেশবান্ধব উৎপাদনে। এই ঋণ এপিক গ্রুপের বাংলাদেশে কার্যক্রম সম্প্রসারণ ও ভারতে নতুন কারখানা তৈরিতে ব্যবহার করা হবে।

আইএফসির বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, এ ছাড়া এপিক গ্রুপ বাংলাদেশে ওয়াশিং ও বর্জ্য পরিশোধন কার্যক্রম উন্নয়নে এ ঋণের অর্থ ব্যয় করবে। সেই সঙ্গে প্রযুক্তিগত উন্নয়নে বিনিয়োগ করে পানি ও জ্বালানির ব্যবহার হ্রাসে এ অর্থ কাজে লাগানো হবে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, আইএফসির এ ঋণসহায়তা বাংলাদেশ ও ভারতে যথাক্রমে ১০ হাজার ৫০০ প্রত্যক্ষ ও ১৭ হাজার পরোক্ষ কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে সহায়তা করবে। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার তিনটি লক্ষ্যের সঙ্গে সমন্বয় করে এ ঋণ দেওয়া হচ্ছে, যেমন গ্রিনহাউস গ্যাসের নিঃসরণ ও স্বাদুপানি ব্যবহার হ্রাস এবং প্রতিষ্ঠানের প্রাথমিক ও মধ্যম স্তরে নারীর অংশগ্রহণ বৃদ্ধি।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, আইএফসি ও এপিক গ্রুপের এই অংশীদারির মাধ্যমে পরিবেশদূষণ রোধে বড় পদক্ষেপ নেওয়ার কথা আছে। ২০১৯ সালের তুলনায় ২০৩০ সালের মধ্যে পোশাক কারখানাপ্রতি ৬৫ শতাংশ কার্বন নিঃসরণ হ্রাসের লক্ষ্যমাত্রা আছে এ উদ্যোগে। পৃথিবীতে যত কার্বন নিঃসরিত হয়, তার ৬ থেকে ৮ শতাংশ আসে টেক্সটাইল বা বস্ত্র খাত থেকে। এই দূষণের বড় একটি অংশের উৎস এশিয়া।

বাংলাদেশের অর্থনীতির বড় একটি অংশ এই টেক্সটাইল খাত। দেশের রপ্তানি আয়ের ৮৫ শতাংশই আসে পোশাক ও বস্ত্র খাত থেকে। ভারতের ক্ষেত্রেও এই খাতের বড় ভূমিকা আছে—দেশটিতে কর্মসংস্থানের দ্বিতীয় বৃহত্তম খাত এটি। দেশটির উৎপাদন খাতে যত মানুষের কর্মসংস্থান হয়, তার ১৮ শতাংশই আসে এই খাত থেকে।

এদিকে ঋণসহায়তা ছাড়াও এপিক গ্রুপকে পরিবেশ ও ব্যবস্থাপনাগত লক্ষ্য অর্জনে পরামর্শ দিচ্ছে আইএফসি।

এমআই

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

অর্থনীতি

১৪ দিনে রেমিট্যান্স এলো ১৬৪ কোটি ডলার

Published

on

লভ্যাংশ

দেশে চলতি মাসের প্রথম ১৪ দিনে ১৬৪ কোটি ৬৭ লাখ মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স এসেছে। এ হিসেবে প্রতিদিন গড়ে রেমিট্যান্স এসেছে ১১ কোটি ৭৬ লাখ ডলার।

বুধবার (১৯ জুন) বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, চলতি জুন মাসের প্রথম ১৪ দিনে দেশে এসেছে ১৬৪ কোটি ৬৭ লাখ ৪০ হাজার মার্কিন ডলার। এর আগের মাসগুলোর একই সময়ে দেশে রেমিট্যান্স এসেছিল যথাক্রমে ১১১ কোটি ৮৬ লাখ, ৯৪ কোটি ৩৬ লাখ, ৯৫ কোটি ৬ লাখ, ১০০ কোটি ৬৬ লাখ ও ১০০ কোটি ৫২ লাখ মার্কিন ডলার।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, কোরবানির ঈদের আগে স্বাভাবিকভাবেই রেমিট্যান্স প্রবাহ বেড়ে যায়। চলতি জুন মাসের প্রথম ১২ দিনেই ব্যাংকিং চ্যানেলে রেমিট্যান্স এসেছে ১৪৬ কোটি ডলার। গত মে মাসে এসেছিল ২২৫ কোটি ডলার যা গত ৪৬ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ। ধর্মীয় উৎসবগুলোকে সামনে রেখে দেশের অভিবাসী কর্মীরা সাধারণত বেশি অর্থ পাঠান।

এদিকে, চলতি অর্থবছরের জুলাই-মে মাস পর্যন্ত ১১ মাসে দেশে রেমিট্যান্স এসেছে ২ হাজার ১৩৭ কোটি ২৫ লাখ ৭০ হাজার মার্কিন ডলার। এক মাস বাকি থাকতেই আগের অর্থবছরের প্রায় সমান রেমিট্যান্স এসে পড়েছে। আর গত এপ্রিলের তুলনায় মে মাসে রেমিট্যান্সের পরিমাণ বেড়েছে ১৯৬ কোটি ডলার, যা ১০ শতাংশের বেশি। এপ্রিলে প্রবাসীরা ব্যাংকিং চ্যানেলে পাঠিয়েছিলেন ২০৪ কোটি ডলার। আগের বছরের একই মাসে এসেছিল ১৬৯ কোটি ডলার।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, আগের অর্থবছরের একই সময় অর্থাৎ ২০২২-২৩ অর্থবছরের জুলাই-মে মাস পর্যন্ত দেশে রেমিট্যান্স এসেছিল ১ হাজার ৯৪১ কোটি ১৬ লাখ ৫০ হাজার মার্কিন ডলার।

এর আগে ২০২১-২২ অর্থবছরের জুলাই-মে মাসে দেশে রেমিট্যান্স এসেছিল ১ হাজার ৯১৯ কোটি ৪৪ লাখ ১ হাজার মার্কিন ডলার। এর আগর বছর প্রায় তিনশত কোটি টাকা বেশি এসেছে। ২০২০-২১ অর্থবছরের একই সময় দেশে রেমিট্যান্স এসেছিল ২ হাজার ২৮৩ কোটি ৬৯ লাখ মার্কিন ডলার। ২০১৯-২০ অর্থবছরের জুলাই-মে মাসে দেশে রেমিট্যান্স এসেছিল ১ হাজার ৬৩৭ কোটি ২৩ লাখ ৮০ হাজার মার্কিন ডলার।

সদ্য বিদায়ী মে মাসে ২২৫ কোটি ডলার এসেছে দেশে, যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৩২ দশমিক ৩৫ শতাংশ বেশি। গত বছরের একই সময়ে রেমিট্যান্স এসেছিল ১৭০ কোটি ডলার। গত এপ্রিল, মার্চ, ফেব্রুয়ারি ও জানুয়ারিতে দেশে যথাক্রমে রেমিট্যান্স এসেছিল ২০৪ কোটি ৩০ লাখ ৬০ হাজার, ১৯৯ কোটি ৬৮ লাখ ৫০ হাজার, ২১৬ কোটি ৬০ লাখ ও ২১০ কোটি ৯ লাখ ৫০ হাজার ডলার রেমিট্যান্স।

বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র মো. মেজবাউল হক বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের নেওয়া বিভিন্ন উদ্যোগের ফলে আগের বছরের একই মাসের তুলনায় প্রবাসী আয় ৩২ দশমিক ৩৫ শতাংশ বেড়েছে এবার। আগের মাস এপ্রিলের তুলনায় মে মাসে রেমিট্যান্স বেড়েছে ১০ দশমিক ২৯ শতাংশ ।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

অর্থনীতি

পদ্মা সেতুতে ঈদযাত্রার ৯ দিনে ২৯ কোটি টাকা টোল আদায়

Published

on

লভ্যাংশ

ঈদযাত্রার যানবাহন থেকে ৯ দিনে পদ্মা সেতুতে ২৯ কোটি ৩১ লাখ ৭১ হাজার ৩৫০ টাকা টোল আদায় হয়েছে । ১০ থেকে ১৮ জুন পর্যন্ত এই টোল আদায় হয়েছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ (বিবিএ)।

বিবিএর অতিরিক্ত প্রকৌশলী আমিরুল হায়দার চৌধুরী জানান, ঈদযাত্রার এই ৯ দিনে দুই প্রান্ত দিয়ে ২ লাখ ৫২ হাজার ২৬৯ টি যানবাহন পারাপার হয়ে। তিনি জানান, ঈদযাত্রায় সবচেয়ে বেশি টোল আদায় হয়েছে গত ১৪ জুন। এদিন আদায় হয় ৪ কোটি ৮২ লাখ ১৮ হাজার ৬০০ টাকার টোল। ১৫ জুন টোল আদায় হয়েছে ৪ কোটি ৩০ লাখ ৮২ হাজার ৯০০ টাকা। ১৬ জুন আদায় হয় ৩ কোটি ৫৫ লাখ ৭১ হাজার ১৫০ টাকা। ১৭ জুন ঈদের দিন টোল আদায় হয়েছে ১ কোটি ৬৭ লাখ ১৬ হাজার ৫৫০ টাকা ও ১৮ জুন টোল আদায় হয়েছে ২ কোটি ৭১ লাখ ২২ হাজার টাকা।

এর আগে গত ১০ জুন টোল আদায় হয় ২ কোটি ৬০ লাখ ২৬ হাজার ৫০০ টাকা। ১১ জুন ২ কোটি ৮২ লাখ ৫১ হাজার ৫০০ টাকা। ১২ জুন ৩ কোটি ১৩ লাখ ৬০ হাজার ৪৫০ টাকা। ১৩ জুন টোল আদায় হয়েছে ৩ কোটি ৬৮ লাখ ২১ হাজার ৭০০ টাকা। এই সময়ে পদ্মা সেতুর মাওয়া প্রান্তে মোট টোল আদায় হয়েছে ১৫ কোটি ৫৫ লাখ ৮৯ হাজার ৭০০ টাকা। একই সময়ে জাজিরা প্রান্ত দিয়ে টোল আদায় হয়েছে ১৩ কোটি ৭৫ লাখ ৮১ হাজার ৬৫০ টাকা।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

অর্থনীতি

আরো স্বর্ণ কিনতে চায় ধনী দেশগুলো

Published

on

লভ্যাংশ

রিজার্ভে মার্কিন ডলারের অংশ কমিয়ে উদীয়মান অর্থনীতির কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলো ব্যাপক পরিমাণে স্বর্ণ কিনতে শুরু করেছিল আগেই – এবার যা অনুসরণ করছে উন্নত অর্থনীতির কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলো। এতে তাদের রিজার্ভে-ও স্বর্ণের অংশ বাড়বে বলে জানিয়েছে আর্থিকখাতের এসব নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

স্বর্ণশিল্পের প্রমোশনকারী একটি বৈশ্বিক জোট ওয়ার্ল্ড গোল্ড কাউন্সিলের (ডব্লিউজিসি) বার্ষিক জরিপে এই তথ্য উঠে এসেছে।

জরিপে অংশ নেওয়া বিশ্বের ধনী দেশগুলোর প্রায় ৬০ শতাংশ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ধারণা, বৈশ্বিকভাবে রিজার্ভ সম্পদের মধ্যে স্বর্ণের অংশ আগামী পাঁচ বছরে অনেকটা বাড়বে। গত বছরে এমন ধারণার কথা জানায় ধনী দেশগুলোর মাত্র ৩৮ শতাংশ কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

আগামী বছরেই নিজেদের স্বর্ণ মজুদ বাড়ানোর পরিকল্পনা করছে ধনী দেশগুলোর ১৩ শতাংশ সেন্ট্রাল ব্যাংক। গতবছরে এ পরিকল্পনা ছিল মাত্র ৮ শতাংশের। তবে গোল্ড কাউন্সিলের জরিপ শুরু হওয়ার পর থেকে তখন পর্যন্ত সেটিই ছিল সর্বোচ্চ।

স্বর্ণ কেনায় এগিয়ে রয়েছে উদীয়মান বাজার অর্থনীতির কেন্দ্রীয় ব্যাংকসমূহ। ২০০৮ সালের বৈশ্বিক আর্থিক সংকটের সময় থেকেই তারাই হলো স্বর্ণের মূল ক্রেতা।

তবে বৈশ্বিক রিজার্ভে সামষ্টিকভাবে মার্কিন ডলারের আধিপত্য যে কমবে, ৫৬ শতাংশ ধনী দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক তা অনুমান করছে। আগের বছর এমন ধারণার কথা জানিয়েছিল উন্নত অর্থনীতির ৪৬ শতাংশ সেন্ট্রাল ব্যাংক। অপরদিকে, এমন মতপ্রকাশ করে, উদীয়মান অর্থনীতিগুলোর ৬৪ শতাংশ কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম অনেকটাই চড়া হওয়া সত্ত্বেও চলতি বছরে স্বর্ণের চাহিদা বেড়েছে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলোর রিজার্ভ সম্পদে বহুমুখী করার উদ্যোগ এই চাহিদাকে ব্যাপকভাবে চাঙ্গা রেখেছে। একইসঙ্গে, রাশিয়ার বিরুদ্ধে দেওয়া অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞার আওতায় যুক্তরাষ্ট্র তাদের মুদ্রা ডলারকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে, এরপর থেকে কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলোও তাদের রিজার্ভে অন্যান্য মুদ্রা ও স্বর্ণের অংশ বাড়াচ্ছে। কমাচ্ছে ডলারের অংশ।

ডব্লিউজিসির কেন্দ্রীয় ব্যাংক বিষয়ক প্রধান শাওকাই ফান বলেন, “এবছর আমরা আরো শক্তিশালী অভিসরণ লক্ষ করছি। উন্নত অর্থনীতিগুলোর কেন্দ্রীয় ব্যাংকও বলছে, বৈশ্বিক রিজার্ভে আরও বড় জায়গা দখল করবে স্বর্ণ, আর ডলারের ভাগ কমবে।”

তিনি বলেন, “শুধু যে উদীয়মান অর্থনীতির দেশগুলো এই প্রবণতাকে চালিত করেছে তাই-ই নয়, বরং অপেক্ষাকৃত পিছিয়ে থাকা অর্থনীতিগুলোও এতে যোগ দিচ্ছে।”

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের রিজার্ভ ব্যবস্থাপকরা ওয়ার্ল্ড গোল্ড কাউন্সিলের এই সমীক্ষায় মতামত দেন। এই কর্মকর্তারা সচরাচর রিজার্ভের বিষয়ে ততোটা প্রকাশ্য আলোচনা করেন না। সেদিক থেকে দেখলে, ডব্লিউজিসির জরিপটি তাদের চিন্তাধারার প্রতিফলনকেই তুলে ধরার বিরল কাজটি করে থাকে।

ডব্লিউজিসি পাঁচ বছর আগে প্রথম এই জরিপ শুরু করে। এরপর থেকে প্রতিবছরই তা করে আসছে। এবারের জরিপে উঠে এসেছে যে, রেকর্ড সংখ্যক কেন্দ্রীয় ব্যাংক আগামী ১২ মাসে তাদের স্বর্ণ মজুত বাড়াতে চায়। জরিপে অংশ নেওয়া ২৯ শতাংশ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সম্পদ ব্যবস্থাপক এমন পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন এবারে। তবে উদীয়মান অর্থনীতির ৪০ শতাংশ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের স্বর্ণ মজুত বাড়ানোর চিন্তাভাবনা রয়েছে।

স্বর্ণ দীর্ঘমেয়াদে মূল্য ধরে রাখার মতো সম্পদ। বিশেষত সংকটকালে এটি কাজে লাগানো যায়। একইসঙ্গে রিজার্ভে বৈচিত্র্য আনার ক্ষেত্রেও নির্ভরযোগ্য উপায়। কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলো তাদের পরিকল্পনার ব্যাখ্যা হিসেবে এসব কারণের কথা জানিয়েছে।

ডব্লিউজিসি’র তথ্যমতে, ২০২২ ও ২০২৩ সালে রিজার্ভে এক হাজার টন করে স্বর্ণ যোগ করেছিল কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলো। তবে রাশিয়ার বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞার পর থেকেই এমন প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। মস্কোর সাথে বাণিজ্যে মার্কিন ডলারে লেনদেনে বিধিনিষেধ রয়েছে ওয়াশিংটনের। এবিষয়টি ভারত, চীনসহ যেসব দেশের রাশিয়ার সাথে বড় অংকের বাণিজ্যিক লেনদেন রয়েছে– তাদেরকে স্বর্ণ কেনায় উৎসাহিত করেছে। কারণ স্বর্ণের বাজারমূল্য কোনো দেশের সরকার বা কেন্দ্রীয় ব্যাংক বেধে দেয় না।

টানা দুই বছর ধরে রেকর্ড পরিমাণে স্বর্ণ ক্রয়ের ফলে– বহুমূল্য এই ধাতুর বৈশ্বিক বাজারমূল্য গত মাসেই প্রতি ট্রয় আউন্সে ২ হাজার ৪৫০ ডলারে পৌঁছায়। মধ্যপ্রাচ্যে অস্থিতিশীলতাও প্রভাবিত করছে স্বর্ণের বাজারদরকে। গত বছরের ৭ অক্টোবরে ইসরায়েল-হামাস যুদ্ধ শুরুর পর থেকে যা ৪২ শতাংশ বেড়েছিল গত মাস পর্যন্ত।

অন্যদিকে বিশ্বের কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলোর বৈদেশিক মুদ্রার মজুতে (ফরেক্স রিজার্ভে) স্বর্ণের অংশ গত বছর প্রায় ৫৫ শতাংশে নেমে আসে, যা ২০০০ সালে ছিল ৭০ শতাংশ। এটি ডলারের বিনিময় দর বাড়ার প্রভাবকে অনেকটাই লঘু করেছে বলে চলতি মাসে এক গবেষণার বরাত দিয়ে জানায় আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ)।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

অর্থনীতি

দেশে মোবাইল ব্যাংকিং হিসাব রয়েছে ২০.৮০ শতাংশ মানুষের

Published

on

লভ্যাংশ

দেশের ২০ দশমিক ৮০ শতাংশ মানুষের মোবাইল আর্থিক সেবা (এমএফএস) হিসাব আছে। গ্রামাঞ্চলে এই হার ২১ দশমিক ৮২ শতাংশ। শহরাঞ্চলে ১৮ দশমিক ৭৫ শতাংশ।

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএসের) আর্থসামাজিক ও জনমিতিক জরিপ ২০২৩ প্রতিবেদনে এই তথ্য উঠে এসেছে। চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে প্রতিবেদনটি আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করেছে সংস্থাটি।

তথ্য অনুযায়ী, দেশের আটটি বিভাগের মধ্যে রংপুরের মানুষে মোবাইল আর্থিক সেবা বা এমএফএস হিসাব বেশি। রংপুরের ২৮ দশমিক ১০ শতাংশ মানুষের এমএফএস হিসাব আছে। এরপরই হচ্ছে বরিশালের অবস্থান। এই বিভাগের ২৪ দশমিক ২৬ শতাংশ মানুষের এমএফএস হিসাব রয়েছে।

বিবিএসের প্রতিবেদনে ১০ বছর কিংবা তার বেশি বয়সের মানুষের আর্থিক হিসাবের তথ্য তুলে ধরা হয়। এতে বলা হয়, দেশের ৪৭ দশমিক ৪৩ শতাংশ মানুষের ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান, এমএফএস, বিমা, ক্ষুদ্রঋণ প্রতিষ্ঠান, ডাকঘর, পুঁজিবাজার ও জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তরে আর্থিক হিসাব রয়েছে। তবে ৫২ দশমিক ৫৭ শতাংশ মানুষের কোনো ধরনের আর্থিক হিসাব নেই।

এমএফএস হিসাবের দিক থেকে রংপুর সবার চেয়ে এগিয়ে থাকলেও সবচেয়ে পিছিয়ে চট্টগ্রাম। এই বিভাগের ১৮ দশমিক ১১ শতাংশ মানুষের এমএফএস হিসাব আছে। কাছাকাছি অবস্থানে আছে ঢাকা। এখানকার ১৮ দশমিক ১৩ শতাংশ মানুষের এমএফএস হিসাব রয়েছে। অন্যদিকে সিলেটের মানুষের এফএফএস হিসাবের হার ১৮ দশমিক ৯২ শতাংশ। এ ছাড়া খুলনার ২০ দশমিক ৫২ শতাংশ, রাজশাহীর ২২ দশমিক ৫৭ এবং ময়মনসিংহের ২৪ দশমিক ২০ শতাংশ মানুষের এফএফএস হিসাব আছে।

দেশে বিকাশ, নগদ, রকেট, উপায়সহ কয়েকটি এমএসএফ প্রতিষ্ঠান রয়েছে। নিজের মুঠোফোন ব্যবহার করে বা এজেন্ট পয়েন্ট থেকে মোবাইল ব্যাংকিংয়ে লেনদেন করা যায়। গত এক দশকে সেবাটি বেশ জনপ্রিয় হয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছরের এপ্রিল শেষে ব্যক্তি পর্যায়ে ২২ কোটি ৬০ লাখ এমএফএস হিসাব রয়েছে। তার মধ্যে পুরুষের সংখ্যা ১৩ কোটি ১৭ লাখ এবং নারী ৯ কোটি ৪৩ লাখ। গত এপ্রিলে সব ধরনের এমএফএস হিসাবে ১ লাখ ৪৪ হাজার কোটি টাকার লেনদেন হয়। তার আগের মাসে লেনদেনের পরিমাণ ১ লাখ ৫৩ হাজার কোটি টাকা।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

শেয়ারবাজারের সর্বশেষ

লভ্যাংশ লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার25 mins ago

শেয়ার প্রতি ১৫৪ টাকা লভ্যাংশ দেবে লিন্ডে বিডি

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বহুজাতিক কোম্পানি লিন্ডে বাংলাদেশ লিমিটেড দশ টাকার প্রতিটি সাধারন শেয়ারের বিপরীতে ১৫৪ টাকা অন্তর্বর্তীকালীন লভ্যাংশ দেবে। গতকাল অনুষ্ঠিত...

লভ্যাংশ লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার53 mins ago

পর্ষদ সভার তারিখ জানালো বে লিজিং

পর্ষদ সভার তারিখ জানিয়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বে লিজিং অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড। আগামী ২৭ জুন বিকাল সাড়ে ৩টায় কোম্পানিটির পর্ষদ সভা...

লভ্যাংশ লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার17 hours ago

ব্যাংকে লেনদেনের সময় বাড়লেও অপরিবর্তিত পুঁজিবাজারে

ব্যাংকে লেনদেনের সময় আধাঘণ্টা বাড়ানো হলেও পুঁজিবাজারের লেনদেন সূচিতে কোনো আপাতত কোনো পরিবর্তন আসছে না। তাই বর্তমান সূচিতেই বাজারে লেনদেন...

লভ্যাংশ লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার18 hours ago

ব্লকে ১৩ কোটি টাকার লেনদেন

ঈদের পরের প্রথম কার্যদিবস বুধবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্লকে মোট ৪৭টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিগুলোর মোট ২৫ লাখ...

লভ্যাংশ লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার18 hours ago

পপুলার লাইফের পর্ষদ সভার তারিখ ঘোষণা

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড পর্ষদ সভার তারিখ ঘোষণা করেছে। আগামী ২৬ জুন দুপুর ৩টায় কোম্পানিটির পর্ষদ সভা...

লভ্যাংশ লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার18 hours ago

গোল্ডেন জুবিলি ফান্ডের স্পন্সরের ইউনিট বিক্রি সম্পন্ন

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত মেয়াদি মিউচুয়াল ফান্ড আইসিবি এএমসিএল সিএমএসএফ গোল্ডেন জুবিলি মিউচুয়াল ফান্ডের অন্যতম স্পন্সর আইসিবি অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি লিমিটেড তার...

লভ্যাংশ লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার19 hours ago

ওয়ালটনের পরিচালকের শেয়ার বিক্রি সম্পন্ন

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত প্রকৌল খাতের কোম্পানি ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ পিএলসির পরিচালক এস. এম রেজাউল করিম তার ঘোষিত শেয়ার বিক্রি সম্পন্ন করেছেন।...

লভ্যাংশ লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার19 hours ago

সিকদার ইন্স্যুরেন্সের সর্বোচ্চ দরপতন

সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনে অংশ নেওয়া ৩৯২টি কোম্পানির মধ্যে ৯৬ কোম্পানির শেয়ারদর কমেছে।...

লভ্যাংশ লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার19 hours ago

দর বৃদ্ধির শীর্ষে স্টাইলক্রাফট

সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনে অংশ নেওয়া ৩৯২ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ২৩২টির শেয়ারদর বেড়েছে। এর...

লভ্যাংশ লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার19 hours ago

লেনদেনের শীর্ষে ক্রিস্টাল ইন্স্যুরেন্স

সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৩৯২টি কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিট হাতবদল হয়েছে। এর মধ্যে সর্বোচ্চ...

লভ্যাংশ লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার20 hours ago

ঈদের ছুটি শেষে শেয়ারবাজার ফিরলো ইতিবাচক ধারায়

ঈদের ছুটির পর প্রথম কার্যদিবসে শেয়ারবাজার ফিরল ইতিবাচক ধারায়। দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আজ...

লভ্যাংশ লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার20 hours ago

বাংলাদেশ জেনারেল ইন্স্যুরেন্সের পর্ষদ সভার তারিখ ঘোষণা

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বিমা খাতের কোম্পানি বাংলাদেশ জেনারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি পিএলসি পর্ষদ সভার তারিখ ঘোষণা করেছে। আগামী ২৬ জুন বেলা ২টা...

লভ্যাংশ লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার20 hours ago

যুক্তরাজ্যে রেনাটার নতুন ওষুধের রপ্তানি শুরু

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ওষুধ ও রসায়ন খাতের কোম্পানি রেনাটা পিএলসি যুক্তরাজ্যের বাজারে তাদের নতুন ওষুধ ডার্মালোজিক্যাল টারবিনাফিন রপ্তানি শুরু করেছে। ঢাকা...

লভ্যাংশ লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার21 hours ago

ডিএসইর অফিস সময়ে পরিবর্তন

সরকারি অফিসের সময় পুনঃনির্ধরণের সাথে মিল রেখে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) অফিসের সময়সূচিতেও পরিবর্তন আনা হয়েছে। তবে...

লভ্যাংশ লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার21 hours ago

ফার্স্ট ফাইন্যান্সের পর্ষদ সভার তারিখ ঘোষণা

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ফার্স্ট ফাইন্যান্স লিমিটেড পর্ষদ সভার তারিখ ঘোষণা করেছে। আগামী ২৪ জুন বিকাল ৫টায় কোম্পানিটির পর্ষদ সভা অনুষ্ঠিত হবে।...

লভ্যাংশ লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার21 hours ago

পর্ষদ সভার তারিখ জানালো ইউনিয়ন ক্যাপিটাল

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত আর্থিক খাতের কোম্পানি ইউনিয়ন ক্যাপিটাল লিমিটেড পর্ষদ সভার তারিখ ঘোষণা করেছে। আগামী ২৭ জুন বিকাল সাড়ে ৩টায় কোম্পানিটির...

লভ্যাংশ লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার22 hours ago

শেয়ারদর কমার কারণ জানেনা সামিট পাওয়ার

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত জ্বালানি-বিদ্যুৎ খাতের কোম্পানি সামিট পাওয়ারের শেয়ারের মূল্য হ্রাসের পেছনে কোনো অপ্রকাশিত মূল্য সংবেদনশীল তথ্য নেই। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের...

লভ্যাংশ লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার22 hours ago

ন্যাশনাল টি’র নতুন শেয়ারের আবেদন জমার সময়সূচি প্রকাশ

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ন্যাশনাল টি কোম্পানি লিমিটেড বিদ্যমান শেয়ারহোল্ডারদের মধ্যে নতুন শেয়ার ইস্যু করে কোম্পানির মূলধন বাড়াবে। কোম্পানিটি ১০ টাকা অভিহিত...

লভ্যাংশ লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার23 hours ago

দেড় ঘণ্টায় লেনদেন মাত্র ৯০ কোটি টাকা

ঈদের ছুটি শেষে আজ সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় লেনদেন চলছে। তবে...

লভ্যাংশ লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার23 hours ago

এবি ব্যাংকের ক্রেডট রেটিং সম্পন্ন

পুঁজিবাজারে ব্যাংক খাতে তালিকাভুক্ত কোম্পানি এবি ব্যাংক পিএলসির ক্রেডিট রেটিং সম্পন্ন করা হয়েছে। ব্যাংকটির ক্রেডিট রেটিং নির্ণয় করেছে আরগুস ক্রে‌ডিট...

Advertisement

ফেসবুকে অর্থসংবাদ

লভ্যাংশ
ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ার2 mins ago

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি কমার সম্ভবনা

লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার25 mins ago

শেয়ার প্রতি ১৫৪ টাকা লভ্যাংশ দেবে লিন্ডে বিডি

লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার53 mins ago

পর্ষদ সভার তারিখ জানালো বে লিজিং

লভ্যাংশ
ধর্ম ও জীবন1 hour ago

হজ ফিরতির প্রথম ফ্লাইটে ফিরছেন‌ ৮২৯ হাজি

লভ্যাংশ
অর্থনীতি1 hour ago

আইএফসির অর্থায়নে বাংলাদেশে বিনিয়োগ বাড়াচ্ছে এপিক গ্রুপ

লভ্যাংশ
জাতীয়2 hours ago

দেশজুড়ে নষ্ট হয়েছে ৫ লাখ কাঁচা চামড়া

লভ্যাংশ
অর্থনীতি11 hours ago

১৪ দিনে রেমিট্যান্স এলো ১৬৪ কোটি ডলার

লভ্যাংশ
জাতীয়12 hours ago

ঈদের পাঁচদিনে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৯২, আহত ১০৪

লভ্যাংশ
অর্থনীতি12 hours ago

পদ্মা সেতুতে ঈদযাত্রার ৯ দিনে ২৯ কোটি টাকা টোল আদায়

লভ্যাংশ
অর্থনীতি12 hours ago

আরো স্বর্ণ কিনতে চায় ধনী দেশগুলো

লভ্যাংশ
সারাদেশ13 hours ago

নেত্রকোনায় ৫০ গ্রাম প্লাবিত

লভ্যাংশ
জাতীয়13 hours ago

নরেন্দ্র মোদির আমন্ত্রণে ২১ জুন ভারত যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

লভ্যাংশ
শিল্প-বাণিজ্য13 hours ago

মালয়েশিয়া গিফ্টস ফেয়ারে বাংলাদেশের স্টলগুলোতে উপচে পড়া ভিড়

লভ্যাংশ
আবহাওয়া14 hours ago

সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত

লভ্যাংশ
জাতীয়14 hours ago

সৌদি যুবরাজের রাজকীয় সংবর্ধনায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী

লভ্যাংশ
জাতীয়14 hours ago

কবি সুফিয়া কামালের ১১৩তম জন্মবার্ষিকী বৃহস্পতিবার

লভ্যাংশ
জাতীয়14 hours ago

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সচিবালয় নির্দেশমালা প্রকাশ

লভ্যাংশ
জাতীয়15 hours ago

গণতান্ত্রিক ও নারী মুক্তি আন্দোলনের পথিকৃৎ সুফিয়া কামাল: প্রধানমন্ত্রী

লভ্যাংশ
জাতীয়16 hours ago

সুফিয়া কামালের সাহিত্যকর্ম নতুন প্রজন্মের জন্য প্রেরণার উৎস: রাষ্ট্রপতি

লভ্যাংশ
আন্তর্জাতিক16 hours ago

৩১৫ কোটি টাকা দান করে আলোচনায় অস্ট্রিয়ার নারী

লভ্যাংশ
আন্তর্জাতিক17 hours ago

মাইক্রোসফটকে হটিয়ে বিশ্বের সবচেয়ে দামি কোম্পানি এনভিডিয়া

লভ্যাংশ
আন্তর্জাতিক17 hours ago

জেলে বসেই বিশ্বের ২৪তম শীর্ষ ধনী বাইন্যান্স প্রতিষ্ঠাতা চ্যাংপেং ঝাও

লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার17 hours ago

ব্যাংকে লেনদেনের সময় বাড়লেও অপরিবর্তিত পুঁজিবাজারে

লভ্যাংশ
স্বাস্থ্য18 hours ago

বন্যাকবলিত এলাকার চিকিৎসকদের জন্য স্বাস্থ্যমন্ত্রীর জরুরি নির্দেশনা

লভ্যাংশ
পুঁজিবাজার18 hours ago

ব্লকে ১৩ কোটি টাকার লেনদেন

২০১৮ সাল থেকে ২০২৩

অর্থসংবাদ আর্কাইভ

তারিখ অনুযায়ী সংবাদ

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০