Connect with us

লাইফস্টাইল

যেসব ফল ফ্রিজে রাখবেন না

Published

on

এক্সিম

খাবার তাজা রাখার জন্য আমরা সাধারণত ফ্রিজে সংরক্ষণ করি। ফ্রিজের ভেতরের নিম্ন তাপমাত্রা খাবার নষ্ট হওয়া রোধ করে এবং বেশিদিন ভালো রাখে। অনেক ফলও আমরা ফ্রিজে রেখে খাই। কিন্তু কিছু ফল ফ্রিজে রাখা উচিত নয় কারণ এর ফলে সেসব ফলের স্বাদ, গঠন এবং পুষ্টির মানে বিরূপ প্রভাব পড়তে পারে। যদিও হিমায়ন অনেক খাবারের জন্য উপকারী তবে এটি জানা গুরুত্বপূর্ণ যে কোন ফলগুলো ঘরের তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করা ভালো। চলুন জেনে নেওয়া যাক-

কলা

কলা কখনোই ফ্রিজে রাখা উচিত নয়। ফ্রিজে রাখা হলে কলার খোসা কালো হতে শুরু করে, যা অনেকে বিশেষ করে শিশুরা খেতে নাও চাই পারে। আবার ফ্রিজে রাখা কলা দ্রুত পাকে না। তাই সতেজতা এবং স্বাদের জন্য এই ফল ঘরের তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করার পরামর্শ দেওয়া হয়।

তরমুজ

তরমুজ তাড়াতাড়ি নষ্ট হওয়া ঠেকাতে অনেকেই ফ্রিজে রাখার ভুল করে থাকেন। এটি করলে এতে উপস্থিত অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট কমে যায় এবং এর পুষ্টিগুণও কমে যায়। এ কারণে বিশেষজ্ঞরা ফ্রিজে তরমুজ সংরক্ষণ না করার পরামর্শ দেন।

পেঁপে

রেফ্রিজারেটরে পেঁপে সংরক্ষণ করলে এর স্বাদ এবং গঠন পরিবর্তন হতে পারে। এটি ঘটে কারণ রেফ্রিজারেটরের নিম্ন তাপমাত্রা পেঁপে পাকার প্রক্রিয়াকে ধীর করে দেয়। তাই সম্পূর্ণ পাকা না হওয়া পর্যন্ত পেঁপে ফ্রিজে রাখা এড়িয়ে চলুন।

লিচু

লিচুর মৌসুমে প্রচুর পরিমাণে লিচু কিনে সেগুলো সতেজ রাখতে ফ্রিজে সংরক্ষণ করেন অনেকেই। এটি শুধুমাত্র খোসার সতেজতা বজায় রাখে, তবে লিচু ভেতর থেকে নষ্ট হতে পারে। তাই লিচু ফ্রিজে না রাখার পরামর্শ দেওয়া হয়। সর্বোত্তম পদ্ধতি হলো এগুলিকে দীর্ঘ সময়ের জন্য তাজা রাখতে পানিতে সংরক্ষণ করা।

আনারস

ফ্রিজে আনারস সংরক্ষণ করলে এর গঠন এবং স্বাদের অবনতি হতে পারে। তাই ফ্রিজে না রাখাই ভালো। রেফ্রিজারেশনের ফলে ফলটি খুব নরম হয়ে যায়, যার ফলে এর প্রাকৃতিক স্বাদ পরিবর্তন হয়। স্বাভাবিক তাপমাত্রায় আনারস সংরক্ষণ করলে তা সতেজতা বজায় রাখতে সাহায্য করে এবং এর বৈশিষ্ট্যে পরিবর্তন প্রতিরোধ করে। তবে আনারস পুরোপুরি পেকে গেলে তা যাতে বেশি নরম না হয় তার জন্য কয়েকদিন ফ্রিজে রেখে দিতে পারেন।

আম

ফ্রিজে আম সংরক্ষণ করার ভুল করবেন না, কারণ ঠান্ডা তাপমাত্রা এই ফল পাকানোর প্রক্রিয়াকে ধীর করে দিতে পারে এবং স্বাদ এবং গঠনকে প্রভাবিত করতে পারে। আমের সম্পূর্ণ স্বাদ এবং রস উপভোগ করার জন্য ঘরের তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করা ভালো।

কমলা

ফ্রিজে রাখলে কমলা শুষ্ক হয়ে যেতে পারে এবং রসালো ভাব হারাতে পারে। ঘরের তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করলে তা কমলার স্বাদ এবং সতেজতা বজায় রাখতে সহায়তা করে। এছাড়াও রেফ্রিজারেশন কমলার স্বাদ হ্রাস করতে পারে, যা খেতে খুব একটা স্বাদ লাগে না।

কাফি

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

লাইফস্টাইল

যেসব খাবার খাবেন স্মৃতিশক্তি বাড়াতে

Published

on

এক্সিম

মানুষের বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে স্মৃতিশক্তি কমতে থাকে। ফলে এসময় মানুষ অনেক কিছুই ভুলে যায়। যখন এটি গুরুতর আকার ধারণ করে এবং স্বাভাবিক জীবনযাপনে বাধা সৃষ্টি করে, তখন একে ডিমেনশিয়া বা স্মৃতিভ্রম বলে। নানা কারণে এই রোগ হতে পারে। যেমন- অ্যালঝেইমার ডিজিজ, থাইরয়েড ও অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস, ভিটামিন ও খনিজের ঘাটতি, মস্তিষ্কে রক্ত চলাচলে বাধা ইত্যাদি।

গবেষণা বলছে, আমাদের খাদ্যাভ্যাসও এর জন্য কিছুটা দায়ী। স্মৃতিভ্রম রোধে খাদ্যাভ্যাস বেশ ভালো সুফল আনে। তাই আপনি যদি স্মৃতিশক্তি ধরে রাখতে চান, তবে খেতে হবে পুষ্টিকর খাবার। বিশেষ করে এমন কিছু খাবার আছে যেগুলো খেলে স্মৃতিশক্তি বাড়ে। অল্পবয়সীরাও মনোযোগ ও স্মৃতিশক্তি বাড়াতে খেতে পারেন এসব খাবার। জেনে নিন স্মৃতিশক্তি বাড়ানোর ডায়েট-

পালং শাক মস্তিষ্কে বয়সের প্রভাব ও স্মৃতিভ্রমের সমস্যা কমাতে সাহায্য করে। এতে ভিটামিন-ই থাকে। বাদামেও ভিটামিন-ই থাকায় স্মৃতিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। যেমন- কাঠবাদাম ও আখরোট ভিটামিন-ই এর ভাল উৎস।

সামুদ্রিক মাছ বা যে কোনো তৈলাক্ত মাছে থাকা ফ্যাটি অ্যাসিড মস্তিষ্কের জন্য উপকারী। এতে স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি পায়।

ডিমের হলুদ অংশ কোলিন নামক অত্যাবশ্যকীয় উপাদানে ভরপুর। যা কোষে সংকেত পৌঁছাতে সাহায্য করে। আর ‘শর্ট-টার্ম’ মেমোরির সমস্যা সমাধানে সাহায্য করে।

টমেটোতে লাইকোপেন নামক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট পাওয়া যায়। যা মস্তিষ্কের কোষের রেডিকল ক্ষয়ের বিরুদ্ধে কাজ করে।

এক মুঠো কুমড়ার বীজ জিংক স্মৃতিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। এ ছাড়াও কুমড়ার বীজ থেকে ভিটামিন-বি ও ট্রিপ্টোফেন মেলে।

ব্রকোলি ভিটামিন-কে তে ভরপুর। এটি গ্লুকোসিনোলেটসের ভাল উৎস। যা কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্রে সঠিক কার্যকারিতা পরিচালনা করে এবং স্মৃতি ভাল রাখতে সাহায্য করে।

চকলেটে প্রায় ৮০ শতাংশ কোকো থাকায় এটা ধমনীর কার্যকারিতা উন্নত করে। মস্তিষ্ক ও স্মৃতিশক্তির কার্যকারিতা বাড়াতে সাহায্য করে।

কফিতে ক্যাফেইন এবং অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট থাকে। যা মস্তিষ্কের জন্য বেশ উপকারী। এছাড়া ক্যাফেইনের মনোযোগ বৃদ্ধি, কর্মক্ষমতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

গ্রিন-টি স্মৃতিশক্তি বাড়াতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। মস্তিষ্কে থাকা অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট দুশ্চিন্তা কমাতে সাহায্য করে। এ ছাড়া এই উপাদানটির উপস্থিতি উদ্বেগ, অতিরিক্ত চিন্তা, ভয় কমাতেও সাহায্য করে।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

লাইফস্টাইল

অ্যাপ বারবার ক্র্যাশ করছে? মেনে চলুন এসব টিপস

Published

on

এক্সিম

স্মার্টফোন ব্যবহারের ক্ষেত্রে অ্যাপ ক্র্যাশ হওয়া একটি সাধারণ সমস্যা। চলাফেরা করার সময় হঠাৎ কোনো অ্যাপ বন্ধ হয়ে যায় বা হ্যাং হয়ে যায়, যখন এমনটি বারবার হয়, তখন যে কেউ বিরক্ত হতে পারে।

আসলে অ্যান্ড্রয়েডে অ্যাপ ক্র্যাশ হওয়ার অনেক কারণ থাকতে পারে। অ্যাপ ক্র্যাশ হওয়ার প্রধান কারণগুলোর মধ্যে রয়েছে পুরোনো সেকেলে অ্যাপ, অ্যাপ ডেটা লিক এবং সফ্টওয়্যার সংক্রান্ত যে কোনও সমস্যা।

এছাড়া, এটি ফোনে স্টোরেজ সমস্যা বা অ্যাপের পারমিশনের কারণেও ঘটে। কিছু টিপস অনুসরণ করে অ্যাপ ক্র্যাশ হওয়ার সমস্যা সমাধান করা যেতে পারে।

স্মার্টফোনে অ্যাপ ক্র্যাশের জন্য এই টিপসগুলো অনুসরণ করা উচিত;

ফোন রিস্টার্ট করা : যদি স্মার্টফোনে অ্যাপ ক্র্যাশ হওয়ার সমস্যার হয়, তাহলে ফোনটি রিস্টার্ট করে সমস্যা সমাধান করা যেতে পারে। ফোন বন্ধ করার পরে, অ্যাপটি আবার চালু করে চেক করা যেতে পারে।

সফ্টওয়্যার আপডেট : যদি প্রায়ই ফোনে আসা সফ্টওয়্যার আপডেটগুলোকে অ্যাক্টিভ না করা হয়, তবে এটিও অ্যাপ ক্র্যাশ হওয়ার একটি কারণ হিসেবে বিবেচিত হতে পারে।

পুরোনো সফ্টওয়্যার : পুরনো সফ্টওয়্যারগুলো অ্যাপের হ্যাং হয়ে যাওয়ার অন্যতম বড় কারণ। এমন পরিস্থিতিতে ফোন আপডেট করার পরামর্শ দেওয়া হয়।

অ্যাপ চিহ্নিত করা : যদি ফোনে একটি মাত্র অ্যাপই এই সমস্যার সম্মুখীন হয়, তাহলে অ্যাপ আপডেট করলেই সমাধান হতে পারে। এর জন্য প্লে স্টোরে গিয়ে অ্যাপটি সার্চ করে আপডেটে ক্লিক করতে হবে।

আনইনস্টল করা ও পুনরায় ইনস্টল করা : যদি ফোনে অ্যাপটি ক্র্যাশ হয়ে যায়, তাহলে এই অ্যাপটিকে আনইনস্টল করার অপশনে যেতে হবে। তবে, এই অ্যাপটি প্রয়োজন তাই অ্যাপটি প্লে স্টোরে গিয়ে আবার ইনস্টল করলেই সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে।

ফোন স্টোরেজ রাখা : অনেক সময় অ্যাপে অনেক ডেটা জমে যাওয়ায় বা ডেটার পরিমাণ বেড়ে যাওয়ায় ফোন ক্রাশ হতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে, যদি আমাদের ফোনটিও পুরনো হয়ে যায় এবং এতে ফটো, ভিডিও, মুভি এবং আরও অনেক ভারি ফাইল থাকে, তাহলে ফোনের স্টোরেজ খালি করতে হবে।

কাফি

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

লাইফস্টাইল

রক্তদানের উপকারিতা জেনে নিন

Published

on

এক্সিম

পৃথিবীতে যত ভালো কাজ আছে তার মধ্যে অন্যতম হলো রক্তদান করা। যারা নিঃস্বার্থভাবে রক্তদান করেন তাদের সম্মান জানাতে প্রতি বছর জুন মাসের ১৪ তারিখ বিশ্ব রক্তদাতা দিবস পালন করা হয়। ইভেন্টটি নিরাপদ রক্ত ​​এবং এর প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে সচেতনতা ছড়িয়ে দেওয়ারও কাজ করে। বিশ্ব রক্তদাতা দিবস ২০২৪-এর থিম ছিল ‌‘দান উদযাপনের ২০ বছর: ধন্যবাদ, রক্তদাতারা!’

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) মতে, ইভেন্টের ২০ তম বার্ষিকী শুধুমাত্র রক্তদাতাদের ধন্যবাদ জানানোর একটি সময়োপযোগী সুযোগই নয়, এটি নিরন্তর চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করার এবং নিরাপদ রক্তের ভবিষ্যতের দিকে অগ্রগতি ত্বরান্বিত করার একটি গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্ত।

রক্তদানের নিঃস্বার্থ কাজ অনেকের জীবন বাঁচাতে পারে এবং অনেক গ্রহীতাকে উপকৃত করতে পারে, আপনি কি জানেন যে রক্তদান রক্তদাতাকেও বিভিন্ন সুবিধা প্রদান করে? বিশেষজ্ঞদের মতে রক্তদানের অনেকগুলো উপকারিতা রয়েছে। চলুন জেনে নেওয়া যাক-

মানসিক স্বাস্থ্য ভালো রাখে

রক্ত দেওয়ার ক্ষেত্রে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো এটি জীবন বাঁচায়। প্রত্যেক দাতার রক্ত ​​তিনজন পর্যন্ত ভিন্ন ব্যক্তি ব্যবহার করতে পারেন যাদের ট্রান্সফিউশন বা অন্যান্য রক্তের পণ্য প্রয়োজন। নিঃস্বার্থভাবে করা এই কাজ পরিপূর্ণতা এবং ইতিবাচকতার অনুভূতি তৈরি করে। যা মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতি করে। রক্ত দান করলে তা মানসিক চাপ কমাতে কাজ করে, আত্মীয়তার অনুভূতি দিতে পারে এবং একাকিত্বের অনুভূতি কমাতে কাজ করে।

মিনি স্বাস্থ্য স্ক্রীনিং

রক্ত দান করার আগে কিছু শারীরিক পরীক্ষা এবং স্ক্রীনিং করতে হয়। এর মধ্যে রয়েছে নাড়ি, রক্তচাপ, শরীরের তাপমাত্রা এবং হিমোগ্লোবিনের মাত্রা পরীক্ষা করা। একজন ডাক্তার আপনার ক্লিনিকাল ইতিহাস পর্যালোচনা করে এবং স্বাস্থ্য মূল্যায়ন পরিচালনা করে। এতে করে আপনার স্বাস্থ্যের ছোটখাটো পরীক্ষা হয়ে যায়। যা আপনার কোনো রোগের ঝুঁকি থাকলে তা বুঝতে সাহায্য করে।

বিনামূল্যে রক্ত ​​বিশ্লেষণ

রক্তদানের মাধ্যমে আপনি বিনামূল্যে রক্তের বিশ্লেষণও পান, যা এইচআইভি, হেপাটাইটিস বি এবং সি সংক্রমণের পাশাপাশি সিফিলিসের মতো রোগের জন্য পরীক্ষা করে। রক্তদাতার কোনো সমস্যা থাকলে তা জানানো হয়, যাতে সে অতিরিক্ত স্বাস্থ্য পরীক্ষা করতে পারে।

হৃদরোগ প্রতিরোধ

নিয়মিত রক্তদান রক্তে আয়রনের মাত্রা কমিয়ে হার্ট অ্যাটাক এবং স্ট্রোকের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে, যা অক্সিডেটিভ কমায়। এটি কার্ডিওভাসকুলার সিস্টেমের ক্ষতি রোধ করে। ২০২২ সালে ট্রান্সফিউশন মেডিসিন রিভিউ জার্নালে প্রকাশিত গবেষণায় দেখা গেছে যে, রক্তদান হৃদরোগের বিরুদ্ধে লড়াই করতে কাজ করে। তবে রক্তদান হৃদরোগের ঝুঁকিকে প্রভাবিত করে কিনা তা নিশ্চিতভাবে নির্ধারণ করার জন্য আরও উচ্চ-মানের গবেষণা প্রয়োজন।

ক্যান্সার ঝুঁকি হ্রাস

জাতীয় ক্যান্সার ইনস্টিটিউটের জার্নালে প্রকাশিত একটি গবেষণায় বলা হয়েছে যে, রক্তে আয়রনের মাত্রা হ্রাস হলে তা ক্যান্সারের ঝুঁকিকে প্রভাবিত করতে পারে। গবেষকরা দেখেছেন যে, যারা আয়রন রিডাকশন থেরাপি বা ফ্লেবোটমি করেছেন তাদের কন্ট্রোল গ্রুপের তুলনায় নতুন ভিসারাল ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি কম ছিল। রক্তদান শরীরের আয়রন সঞ্চয়কেও কমিয়ে দেয়, যা প্রমাণ করে যে আয়রনের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখলে ক্যান্সারের ঝুঁকি কম হতে পারে।

কাফি

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

লাইফস্টাইল

কোরবানির মাংস ফ্রিজে সংরক্ষণের আগে জেনে নিন বিষয়গুলো

Published

on

এক্সিম

দরজায় কড়া নাড়ছে পবিত্র ঈদুল আজহা বা কোরবানির ঈদ। আর কোরবানির ঈদে গরু কিংবা খাসির মাংসের বেশ বড় একটা অংশ ফ্রিজে সংরক্ষণ করা হয়।

আর এ কোরবানির মাংস হক অনুযায়ী সবাইকে পৌঁছে দেওয়ার পর নিজেদের ভাগের মাংস পরবর্তীতে খাওয়ার জন্য সংরক্ষণ করেন অনেকেই।

তবে সঠিক উপায় না জেনে টাটকা মাংস সংরক্ষণ করলে দীর্ঘদিন তা ভালো নাও থাকতে পারে এবং মাংসের পুষ্টিগুণ নষ্ট হয়ে যেতে পারে। তাই ফ্রিজে মাংস রাখার আগে কিছু বিষয় জেনে নেয়া জরুরি।

(১) কটি সাধারণ ভুল হলো মাংসের বড় অংশ একসঙ্গে ফ্রিজারে রাখা। এতে হিমায়িত হওয়ার পাশাপাশি ডিফ্রস্ট করাও বেশ ঝামেলাপূর্ণ হয়ে যায়। বারবার ভিজিয়ে রেখে ডিফ্রস্ট করার কারণে মাংসের স্বাদ নষ্ট হয়ে যায়। এমন পরিমাণে মাংস এক ব্যাগে রাখুন যেটা ডিফ্রস্ট করে রান্না করে ফেলবেন সঙ্গে সঙ্গে।

(২) ফ্রিজারের তাপমাত্রা শূন্য ডিগ্রি ফারেনহাইটে আছে কিনা তা নিশ্চিত করুন। এতে মাংসের পৃষ্ঠের সঙ্গে বড় বরফের স্ফটিক গঠিত হবে না। বড় আকৃতির বরফে মাংস আচ্ছাদিত হয়ে গেলে পরবর্তীতে মাংস শুকিয়ে যায় দ্রুত।

(৩) মাংসে চর্বির পরিমাণ যত কম হবে তত বেশিদিন সংরক্ষণ করা যাবে। তাই, মাংসের গায়ে লেগে থাকা চর্বিগুলো কেটে ফেলে দিন। এতে কোলেস্টেরলের পরিমাণও কমবে। মাংস কাটার দিকেও নজর দিতে হবে। মাংস বাসায় এনে চেষ্টা করুন ছোট ছোট স্লাইস করে রাখার। তা সম্ভব না হলে হাড় থেকে ছাড়িয়ে ছোট টুকরা করে ভালো করে ধুয়ে রাখুন।

(৪) মাংস রাখার আগে ফ্রিজের প্রতিটি চেম্বার বা ড্রয়ার ভালো করে ধুয়ে পরিষ্কার করে নিতে হবে। শুধু মাংস ফ্রিজে ফেলে রাখা যাবে না। এতে করে ফ্রিজের অন্যান্য খাবারের সঙ্গে ক্রস কনটামিনেশন ঘটতে পারে। এভাবে ফেলে রাখতে পরবর্তীতে মাংস বের করতেও সমস্যা হব
(৫) ধুয়ে সংরক্ষণ করতে না চাইলে শুকনো কাপড় দিয়ে মাংসের রক্ত পরিষ্কার করে ফ্রিজে রেখে সংরক্ষণ করতে পারেন।

(৬) ফ্রিজার বার্ন রোধে জিপলক ব্যাগের পাশাপাশি অতিরিক্ত এক লেয়ারের পাতলা প্লাস্টিক অথবা ফয়েল পেপার ব্যবহার করতে পারেন।

(৭) মাংস সংরক্ষণের সময় প্যাকেটের গায়ে সংরক্ষণের তারিখ এবং গরু না খাসি সেটা লিখে রাখতে পারেন। এতে পরবর্তীতে চিনতে সমস্যা না হয় না

(৮) মাংস রাখার পর ঘন ঘন ফ্রিজের দরজা খুলবেন না। পাশাপাশি সঠিকভাবে দরজা বন্ধ করাও জরুরি।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

লাইফস্টাইল

কোরবানির আগে গুছিয়ে রাখবেন যেসব কাজ

Published

on

এক্সিম

ঈদুল আজহা বা কোরবানি ঈদের বাকি আর মাত্র এক দিন। এই ঈদে গৃহিণীদের কাজ অনেক বেড়ে যায়। কারণ ঈদুল আজহায় পশু কোরবানির পর মাংস ভাগ করে ধুয়ে সংরক্ষণ করা থেকে শুরু করে রান্না করা পর্যন্ত অনেক কিছুই লাগে হাতের কাছে।

তখন এটা সেটা হাতের কাছে না পেলে যেমন ঈদের দিন বিরক্ত হবেন, একই সঙ্গে সময়ও নষ্ট হয়। তাই ঈদুল আজহার প্রস্তুতি নিন এখন থেকেই। জেনে নিন কী কী-

রান্নার মসলা প্রস্তুত রাখুন

কোরবানির মাংস রাঁধতে প্রয়োজন হয় অনেক মসলার। পেঁয়াজ-রসুন-আদা বাটা থেকে শুরু করে গুঁড়া মসলা যেমন- হলুদ, মরিচ, জিরা, ধনিয়া ও গরম মসলাসহ যাবতীয় নানা মসলা আগে থেকেই সংরক্ষণ করুন।

যন্ত্রপাতি গুছিয়ে নিন

পশু জবাই করার জন্য খুটিনাটি যন্ত্রপাতি হাতের নাগালে রাখতে হবে। অনেকের বাড়িতেই হয়তো পুরোনো ছুরি, বটি বা ইত্যাদি যন্ত্রপাতি থেকে থাকবে।

সেগুলো ঈদের আগেই ধারালো করে নিন ও গরম পানিতে ১-২ মিনিট ডুবিয়ে রেখে ভালোভাবে পরিষ্কার করে নিন। এতে জীবাণু আর না থাকবে না। আর যাদের যন্ত্রপাতি নেই, তারা ঈদের আগেই কিনে রাখুন।

আর যদি বিরিয়ানি রান্না করতে চান, সেক্ষেত্রে আরও কিছু মসলা আগের থেকেই গুছিয়ে রাখুন। চাইলে এখন থেকেই গুঁড়া মসলাগুলো প্রস্তুত করে কৌটায় ভরে রাখুন। আর বাটা ও কাটা মসলাগুলো জিপলক ব্যাগ বা কৌটায় ফ্রিজের ডিপে রেখে সংরক্ষণ করুন।

মাংস সংরক্ষণের ব্যবস্থা করে রাখুন

কোরবানির মাংস ঘরে আনার পর সব আলাদা করে ভাগ করে রাখুন। যেমন-সিনার মাংস, কলিজা, ভুড়ি, পায়ের মাংস, মগজ, ইত্যাদি ভাগ করে ফেলতে হবে।

ফ্রিজে রাখার আগে ভালো করে মাংস ধুয়ে রাখবেন। ফুড গ্রেডের প্লাস্টিকের ব্যাগেই মাংস রাখা উত্তম। এই প্যাকেটগুলো ঈদের আগেই গুছিয়ে করে রাখুন। যাতে প্রয়োজনের সময় খুঁজতে না হয়। মাংস ছোট ছোট করে প্যাকেট করে রাখুন।

প্রতিটি প্যাকেটের গায়ে কোন মাংস তা লিখে রাখলে খুঁজে বের কররাও সহজ হবে। অবশ্যই কোরবানির মাংস ৪-৬ মাসের বেশি সংরক্ষণ করবেন না। তাহলে মাংসের পুষ্টিগুণ নষ্ট হয়ে যায়।

ঈদের বাজার

যেহেতু ঈদের বাকি আর মাত্র কয়দিন, তাই সময় বাঁচাতে এখনই করে রাখুন ঈদের বাজার। সেমাই-চিনি থেকে শুরু করে ঈদের দিন মিষ্টান্ন রান্নার জন্য যাবতীয় পদ তৈরির প্রয়োজনী উপকরণ কিনুন মনে করে।

কাফি

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

শেয়ারবাজারের সর্বশেষ

এক্সিম এক্সিম
পুঁজিবাজার2 mins ago

এক্সিম ব্যাংকের এজিএমের তারিখ পরিবর্তন

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত এক্সিম ব্যাংক পিএলসির বার্ষিক সাধারণ সভার (এজিএম) তারিখ পরিবর্তন করা হয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য...

এক্সিম এক্সিম
পুঁজিবাজার8 mins ago

ক্রিস্টাল ইন্স্যুরেন্সের নতুন সিইও শহীদুল্লাহ

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বিমা খাতের কোম্পানি ক্রিস্টাল ইন্স্যুরেন্সের নতুন সিইও হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন এস এম শহীদুল্লাহ। ঢাকা স্টক একচেঞ্জ সূত্রে এ...

এক্সিম এক্সিম
পুঁজিবাজার44 mins ago

শেয়ার প্রতি ১৫৪ টাকা লভ্যাংশ দেবে লিন্ডে বিডি

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বহুজাতিক কোম্পানি লিন্ডে বাংলাদেশ লিমিটেড দশ টাকার প্রতিটি সাধারন শেয়ারের বিপরীতে ১৫৪ টাকা অন্তর্বর্তীকালীন লভ্যাংশ দেবে। গতকাল অনুষ্ঠিত...

এক্সিম এক্সিম
পুঁজিবাজার1 hour ago

পর্ষদ সভার তারিখ জানালো বে লিজিং

পর্ষদ সভার তারিখ জানিয়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বে লিজিং অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড। আগামী ২৭ জুন বিকাল সাড়ে ৩টায় কোম্পানিটির পর্ষদ সভা...

এক্সিম এক্সিম
পুঁজিবাজার18 hours ago

ব্যাংকে লেনদেনের সময় বাড়লেও অপরিবর্তিত পুঁজিবাজারে

ব্যাংকে লেনদেনের সময় আধাঘণ্টা বাড়ানো হলেও পুঁজিবাজারের লেনদেন সূচিতে কোনো আপাতত কোনো পরিবর্তন আসছে না। তাই বর্তমান সূচিতেই বাজারে লেনদেন...

এক্সিম এক্সিম
পুঁজিবাজার18 hours ago

ব্লকে ১৩ কোটি টাকার লেনদেন

ঈদের পরের প্রথম কার্যদিবস বুধবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্লকে মোট ৪৭টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিগুলোর মোট ২৫ লাখ...

এক্সিম এক্সিম
পুঁজিবাজার18 hours ago

পপুলার লাইফের পর্ষদ সভার তারিখ ঘোষণা

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড পর্ষদ সভার তারিখ ঘোষণা করেছে। আগামী ২৬ জুন দুপুর ৩টায় কোম্পানিটির পর্ষদ সভা...

এক্সিম এক্সিম
পুঁজিবাজার19 hours ago

গোল্ডেন জুবিলি ফান্ডের স্পন্সরের ইউনিট বিক্রি সম্পন্ন

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত মেয়াদি মিউচুয়াল ফান্ড আইসিবি এএমসিএল সিএমএসএফ গোল্ডেন জুবিলি মিউচুয়াল ফান্ডের অন্যতম স্পন্সর আইসিবি অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি লিমিটেড তার...

এক্সিম এক্সিম
পুঁজিবাজার19 hours ago

ওয়ালটনের পরিচালকের শেয়ার বিক্রি সম্পন্ন

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত প্রকৌল খাতের কোম্পানি ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ পিএলসির পরিচালক এস. এম রেজাউল করিম তার ঘোষিত শেয়ার বিক্রি সম্পন্ন করেছেন।...

এক্সিম এক্সিম
পুঁজিবাজার19 hours ago

সিকদার ইন্স্যুরেন্সের সর্বোচ্চ দরপতন

সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনে অংশ নেওয়া ৩৯২টি কোম্পানির মধ্যে ৯৬ কোম্পানির শেয়ারদর কমেছে।...

এক্সিম এক্সিম
পুঁজিবাজার19 hours ago

দর বৃদ্ধির শীর্ষে স্টাইলক্রাফট

সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনে অংশ নেওয়া ৩৯২ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ২৩২টির শেয়ারদর বেড়েছে। এর...

এক্সিম এক্সিম
পুঁজিবাজার20 hours ago

লেনদেনের শীর্ষে ক্রিস্টাল ইন্স্যুরেন্স

সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৩৯২টি কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিট হাতবদল হয়েছে। এর মধ্যে সর্বোচ্চ...

এক্সিম এক্সিম
পুঁজিবাজার20 hours ago

ঈদের ছুটি শেষে শেয়ারবাজার ফিরলো ইতিবাচক ধারায়

ঈদের ছুটির পর প্রথম কার্যদিবসে শেয়ারবাজার ফিরল ইতিবাচক ধারায়। দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আজ...

এক্সিম এক্সিম
পুঁজিবাজার20 hours ago

বাংলাদেশ জেনারেল ইন্স্যুরেন্সের পর্ষদ সভার তারিখ ঘোষণা

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বিমা খাতের কোম্পানি বাংলাদেশ জেনারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি পিএলসি পর্ষদ সভার তারিখ ঘোষণা করেছে। আগামী ২৬ জুন বেলা ২টা...

এক্সিম এক্সিম
পুঁজিবাজার21 hours ago

যুক্তরাজ্যে রেনাটার নতুন ওষুধের রপ্তানি শুরু

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ওষুধ ও রসায়ন খাতের কোম্পানি রেনাটা পিএলসি যুক্তরাজ্যের বাজারে তাদের নতুন ওষুধ ডার্মালোজিক্যাল টারবিনাফিন রপ্তানি শুরু করেছে। ঢাকা...

এক্সিম এক্সিম
পুঁজিবাজার21 hours ago

ডিএসইর অফিস সময়ে পরিবর্তন

সরকারি অফিসের সময় পুনঃনির্ধরণের সাথে মিল রেখে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) অফিসের সময়সূচিতেও পরিবর্তন আনা হয়েছে। তবে...

এক্সিম এক্সিম
পুঁজিবাজার21 hours ago

ফার্স্ট ফাইন্যান্সের পর্ষদ সভার তারিখ ঘোষণা

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ফার্স্ট ফাইন্যান্স লিমিটেড পর্ষদ সভার তারিখ ঘোষণা করেছে। আগামী ২৪ জুন বিকাল ৫টায় কোম্পানিটির পর্ষদ সভা অনুষ্ঠিত হবে।...

এক্সিম এক্সিম
পুঁজিবাজার21 hours ago

পর্ষদ সভার তারিখ জানালো ইউনিয়ন ক্যাপিটাল

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত আর্থিক খাতের কোম্পানি ইউনিয়ন ক্যাপিটাল লিমিটেড পর্ষদ সভার তারিখ ঘোষণা করেছে। আগামী ২৭ জুন বিকাল সাড়ে ৩টায় কোম্পানিটির...

এক্সিম এক্সিম
পুঁজিবাজার22 hours ago

শেয়ারদর কমার কারণ জানেনা সামিট পাওয়ার

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত জ্বালানি-বিদ্যুৎ খাতের কোম্পানি সামিট পাওয়ারের শেয়ারের মূল্য হ্রাসের পেছনে কোনো অপ্রকাশিত মূল্য সংবেদনশীল তথ্য নেই। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের...

এক্সিম এক্সিম
পুঁজিবাজার23 hours ago

ন্যাশনাল টি’র নতুন শেয়ারের আবেদন জমার সময়সূচি প্রকাশ

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ন্যাশনাল টি কোম্পানি লিমিটেড বিদ্যমান শেয়ারহোল্ডারদের মধ্যে নতুন শেয়ার ইস্যু করে কোম্পানির মূলধন বাড়াবে। কোম্পানিটি ১০ টাকা অভিহিত...

Advertisement

ফেসবুকে অর্থসংবাদ

এক্সিম
পুঁজিবাজার2 mins ago

এক্সিম ব্যাংকের এজিএমের তারিখ পরিবর্তন

এক্সিম
পুঁজিবাজার8 mins ago

ক্রিস্টাল ইন্স্যুরেন্সের নতুন সিইও শহীদুল্লাহ

এক্সিম
ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ার21 mins ago

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি কমার সম্ভবনা

এক্সিম
পুঁজিবাজার44 mins ago

শেয়ার প্রতি ১৫৪ টাকা লভ্যাংশ দেবে লিন্ডে বিডি

এক্সিম
পুঁজিবাজার1 hour ago

পর্ষদ সভার তারিখ জানালো বে লিজিং

এক্সিম
ধর্ম ও জীবন1 hour ago

হজ ফিরতির প্রথম ফ্লাইটে ফিরছেন‌ ৮২৯ হাজি

এক্সিম
অর্থনীতি2 hours ago

আইএফসির অর্থায়নে বাংলাদেশে বিনিয়োগ বাড়াচ্ছে এপিক গ্রুপ

এক্সিম
জাতীয়2 hours ago

দেশজুড়ে নষ্ট হয়েছে ৫ লাখ কাঁচা চামড়া

এক্সিম
অর্থনীতি12 hours ago

১৪ দিনে রেমিট্যান্স এলো ১৬৪ কোটি ডলার

এক্সিম
জাতীয়12 hours ago

ঈদের পাঁচদিনে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৯২, আহত ১০৪

এক্সিম
অর্থনীতি13 hours ago

পদ্মা সেতুতে ঈদযাত্রার ৯ দিনে ২৯ কোটি টাকা টোল আদায়

এক্সিম
অর্থনীতি13 hours ago

আরো স্বর্ণ কিনতে চায় ধনী দেশগুলো

এক্সিম
সারাদেশ13 hours ago

নেত্রকোনায় ৫০ গ্রাম প্লাবিত

এক্সিম
জাতীয়14 hours ago

নরেন্দ্র মোদির আমন্ত্রণে ২১ জুন ভারত যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

এক্সিম
শিল্প-বাণিজ্য14 hours ago

মালয়েশিয়া গিফ্টস ফেয়ারে বাংলাদেশের স্টলগুলোতে উপচে পড়া ভিড়

এক্সিম
আবহাওয়া14 hours ago

সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত

এক্সিম
জাতীয়14 hours ago

সৌদি যুবরাজের রাজকীয় সংবর্ধনায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী

এক্সিম
জাতীয়15 hours ago

কবি সুফিয়া কামালের ১১৩তম জন্মবার্ষিকী বৃহস্পতিবার

এক্সিম
জাতীয়15 hours ago

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সচিবালয় নির্দেশমালা প্রকাশ

এক্সিম
জাতীয়15 hours ago

গণতান্ত্রিক ও নারী মুক্তি আন্দোলনের পথিকৃৎ সুফিয়া কামাল: প্রধানমন্ত্রী

এক্সিম
জাতীয়16 hours ago

সুফিয়া কামালের সাহিত্যকর্ম নতুন প্রজন্মের জন্য প্রেরণার উৎস: রাষ্ট্রপতি

এক্সিম
আন্তর্জাতিক16 hours ago

৩১৫ কোটি টাকা দান করে আলোচনায় অস্ট্রিয়ার নারী

এক্সিম
আন্তর্জাতিক17 hours ago

মাইক্রোসফটকে হটিয়ে বিশ্বের সবচেয়ে দামি কোম্পানি এনভিডিয়া

এক্সিম
আন্তর্জাতিক17 hours ago

জেলে বসেই বিশ্বের ২৪তম শীর্ষ ধনী বাইন্যান্স প্রতিষ্ঠাতা চ্যাংপেং ঝাও

এক্সিম
পুঁজিবাজার18 hours ago

ব্যাংকে লেনদেনের সময় বাড়লেও অপরিবর্তিত পুঁজিবাজারে

২০১৮ সাল থেকে ২০২৩

অর্থসংবাদ আর্কাইভ

তারিখ অনুযায়ী সংবাদ

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০