Connect with us

আন্তর্জাতিক

রমজানে তিন কোটি মুসল্লির ওমরাহ পালন

Published

on

সভা

সদ্যই বিদায় নেওয়া পবিত্র রমজান মাসে তিন কোটি মুসল্লি ওমরাহ পালন করেছেন। সৌদি আরবের হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয় গতকাল মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) এ তথ্য নিশ্চিত করে। গতকাল সৌদিতে ছিল ১৪৪৫ হিজরি সনের রমজান মাসের শেষ দিন।

গত ১১ মার্চ ইসলামের সূতিকাগার সৌদি আরবে শুরু হয় সিয়াম-সাধনার মাস রমজান। দেশটির বাসিন্দারা এবার ৩০টি রমজান পূর্ণ করে আজ বুধবার ঈদ পালন করছেন।

রমজান মাস শুরু হওয়ার পরই সৌদির বিভিন্ন অঞ্চলসহ বিশ্বের নানান দেশ থেকে ওমরাহ পালনের জন্য মক্কায় ভিড় জমান মুসল্লিরা। প্রতি বছরের মতো এবারও মক্কায় মুসল্লিদের ঢল নামে।

পবিত্র রমজান মাসে মক্কায় এবার এত মানুষ জড়ো হয়েছিলেন যে, ভিড় সামলানোর জন্য এ বছর একজন মুসল্লিকে শুধুমাত্র একবারই ওমরাহ পালনের সুযোগ দেওয়া হয়েছিল।

ওমরাহ পালনের জন্য মূল কাবা চত্বরে প্রবেশ করতে হয়। এবার যারা ওমরাহর জন্য কাবা চত্বরে প্রবেশ করেছেন তাদের আগে সৌদির সরকারি অ্যাপ নুসুকের মাধ্যমে নিবন্ধন করতে হয়েছে। একই ব্যক্তি দ্বিতীয়বার যখন আবারও ওমরাহর জন্য নুসুক অ্যাপে আবেদন করেছেন তখন তাদেরকে অনুমতি দেওয়া হয়নি।

মক্কায় ওমরাহ পালন শেষে বেশিরভাগ মুসল্লি মদিনার মসজিদে নববীতেও গেছেন এবং সেখানে নামাজ আদায় করেছেন তারা। মসজিদে নববীতেও এবার মুসল্লির সংখ্যা দেড় কোটি ছাড়িয়েছিল।

রমজানে ইবাদত-বন্দেগিতে ব্যস্ত থাকার পর এখন ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা ঈদ উদযাপন করছেন। ঈদ শেষ হওয়ার পর রমজানের জন্য মুসল্লিদের আবারও অপেক্ষা শুরু হবে।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

অর্থনীতি

২০৫০ সালের মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী অর্থনীতি হবে যেসব দেশ

Published

on

সভা

২০৫০ সালের মধ্যে শীর্ষ অর্থনীতির তালিকায় থাকা দেশগুলো আগামী দিনের বৈশ্বিক অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। অর্গ্যানাইজেশন ফর ইকোনমিক কো-অপারেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের (ওইসিডি) একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০৫০ সালের মধ্যে বিশ্বব্যাপী জনসংখ্যা ৯০০ কোটি ছাড়িয়ে যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ফলে জ্বালানি ও খাদ্য উৎপাদনের জন্য প্রয়োজনীয় প্রাকৃতিক সম্পদের ওপরও চাপ বাড়াতে পারে।

বিশ্বের বৃহত্তম ২৫টি খাদ্য কোম্পানির আয়ের দিকে লক্ষ্য করলে দেখা যাবে যে, সাম্প্রতিক সময়ে মন্দা থাকা সত্ত্বেও ২০৫০ সালের মধ্যে বিশ্বে জিডিপি প্রায় চারগুণ হবে বলে পূর্বাভাস পাওয়া যাচ্ছে। তবে চীন এবং ভারতে জিডিপি বৃদ্ধির হার আগামী কয়েক দশক ধরে হ্রাস পাবে। অপরদিকে আফ্রিকা মহাদেশে ২০৩০ এবং ২০৫০ সালের মধ্যে বিশ্বব্যাপী সর্বোচ্চ অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির হার অর্জনের পূর্বাভাস পাওয়া গেছে।

বিশ্বব্যাপী জ্বালানির চাহিদাও ৮০ শতাংশ বৃদ্ধি পাবে। তবে বৈশ্বিক জ্বালানির মিশ্রণ অনেকাংশে অপরিবর্তিত থাকবে বলে আশা করা হচ্ছে। জীবাশ্ম জ্বালানী এখনও প্রায় ৮৫ শতাংশ, নবায়নযোগ্য জ্বালানি মাত্র ১০ শতাংশ এবং অবশিষ্টাংশ পারমাণবিক শক্তি হিসেবে রয়েছে।

ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার খাদ্য চাহিদা মেটাতে বিশ্বব্যাপী খাদ্য উৎপাদন বাড়াতে হবে। এতে করে আগামী দশকে কৃষি জমির চাহিদা বেড়ে যাবে। চীন এবং ভারতে বয়স্ক জনগোষ্ঠীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে। সে কারণে ২০৫০ সালের মধ্যে চীনের কর্মশক্তি হ্রাস পাবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। কিন্তু সবকিছুর পরেও চীনই হবে বিশ্বের শীর্ষ অর্থনীতির দেশ। বিশ্বের জনসংখ্যার প্রায় ৭০ শতাংশ মানুষই ততদিনে শহরে বসবাস করবে।

গবেষণা সংস্থা পিডব্লিউসি-এর সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদন অনুসারে, ২০৫০ সালের মধ্যে বিশ্বের বৃহত্তম অর্থনীতিতে পরিণত হবে চীন, যা বিশ্বব্যাপী জিডিপির প্রায় ২০ শতাংশে অবদান রাখবে। ক্রয় ক্ষমতার সমতার (পিপিপি) ক্ষেত্রে চীন ইতোমধ্যেই যুক্তরাষ্ট্রকে ছাড়িয়ে বিশ্বের বৃহত্তম অর্থনীতিতে পরিণত হয়েছে। ২০৩০ সালের আগেই দেশটি বিশ্বের বৃহত্তম অর্থনীতি হিসাবে আবির্ভূত হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে ২০৫০ সাল নাগাদ বিশ্বের জিডিপিতে ইইউর অবদান ১০ শতাংশের এর নিচে নেমে যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ওই প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে যে, চীনের পর ভারত ২০৫০ সালের মধ্যে তৃতীয় বৃহত্তম অর্থনীতিতে পরিণত হবে। চীন এবং ভারত উভয়ই বর্তমান বিশ্বের বৃহত্তম অর্থনীতি যুক্তরাষ্ট্রকে ছাড়িয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। চীনের অবিস্বরণীয় অর্থনৈতিক উন্নয়ন প্রকৃতপক্ষে মধ্যম আয়ের দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে সফল উন্নয়নের একটি।

২০১৬ সাল থেকে ২০৫০ সালের মধ্যে উদীয়মান সেভেন বা ই৭ অর্থনীতির দেশগুলো জি৭ অর্থনীতির দেশগুলোর তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ দ্রুত বৃদ্ধি পাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এছাড়া ভিয়েতনাম, ভারত এবং বাংলাদেশ দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনীতির দেশগুলোর তালিকায় থাকবে বলেও ধারণা করা হচ্ছে।

অর্গ্যানাইজেশন ফর ইকোনমিক কো-অপারেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের (ওইসিডি) একটি প্রতিবেদন পূর্বাভাস দিয়েছে যে, আফ্রিকা মহাদেশ ২০৩০ থেকে ২০৫০ সালের মধ্যে বিশ্বব্যাপী সর্বোচ্চ অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জন করতে যাচ্ছে। এছাড়া পোল্যান্ড ইউরোপীয় ইউনিয়নের দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনীতি হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

অপরদিকে ব্রাজিল, নাইজেরিয়া এবং তুরস্কের মতো দেশগুলোতে সাম্প্রতিক অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্জ থাকা সত্ত্বেও তারা দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগ করতে ইচ্ছুক দেশগুলোর জন্য যথেষ্ট সুযোগ-সুবিধা উপস্থাপন করছে। ফলে এই দেশগুলোতে উল্লেখযোগ্য উন্নয়নের সম্ভাবনা তৈরি হচ্ছে।

এই প্রবৃদ্ধি অর্জনের জন্য উদীয়মান বাজার তৈরিতে বিভিন্ন দেশের সরকারকে সামষ্টিক অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতা বৃদ্ধি, অর্থনীতির বৈচিত্র্যকরণ এবং রাজনৈতিক ও আইনি প্রতিষ্ঠানগুলোকে শক্তিশালী করতে কাঠামোগত সংস্কার বাস্তবায়ন করতে হবে।

২০৫০ সালের মধ্যে বিশ্বের শীর্ষ অর্থনীতির দেশ হতে যাওয়া চীনের জিডিপি ৪২ দশমিক ৯৬ ট্রিলিয়ন ডলারে পৌঁছাবে এবং ২০৩০ সালের আগে বিশ্বের বৃহত্তম অর্থনীতি হিসাবে আবির্ভূত হবে বলে আশা করা হচ্ছে। এই সময়ের মধ্যে দেশটির জনসংখ্যা ১৩১ কোটিতে পৌঁছাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এই তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে থাকবে ভারত। দেশটির জিডিপি ৩৮ দশমিক ৬৮ ট্রিলিয়ন ডলারে পৌঁছাবে। এছাড়া তৃতীয় অবস্থানে থাকবে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির জিডিপি হবে ২৬ দশমিক ৫৮ ট্রিলিয়ন ডলার।

এই তালিকার চতুর্থ অবস্থানে থাকবে ইন্দোনেশিয়া, ৫ম অবস্থানে রাশিয়া, ৬ষ্ঠ অবস্থানে জাপান, ৭ম জার্মানি, ৮ম তুরস্ক, ৯ম যুক্তরাজ্য এবং ১০ম স্থানে থাকবে ব্রাজিল। এরপরেই বিশ্বের বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ হিসেবে জায়গা করে নেবে মিশর, ইথিওপিয়া, ইতালি, অস্ট্রেলিয়া, স্পেন, সৌদি আরব, পাকিস্তান, পোল্যান্ড এবং মিয়ানমার।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

আন্তর্জাতিক

ভিআইপিদের জন্য সড়ক-ফুটপাত খালি, সাধারণদের জন্য নয় কেন: মুম্বাইয়ের হাইকোর্ট

Published

on

সভা

ভারতের মহারাষ্ট্র প্রদেশের মুম্বাইয়ের হাইকোর্ট বলেছেন, যখন প্রধানমন্ত্রী এবং অন্যান্য ভিভিআইপিদের জন্য একদিনেই রাস্তা ও ফুটপাত খালি করা হয়, তখন অন্য সবার জন্যও কেন তা প্রত্যেকদিন করা যাবে না। পরিষ্কার ফুটপাত এবং হাঁটার জন্য নিরাপদ জায়গা পাওয়া প্রত্যেকের মৌলিক অধিকার। রাজ্য কর্তৃপক্ষ এটা করতে বাধ্য।

সোমবার মুম্বাই হাইকোর্টের বিচারপতি এম এস সোনাক এবং কমল খাতার ডিভিশন বেঞ্চ ফুটপাত ও সড়ক থেকে হকার এবং অবৈধ বিক্রেতাদের উচ্ছেদের এক আবেদনের শুনানিতে এমন মন্তব্য করেছেন।

হাইকোর্টের বেঞ্চ বলেছেন, শহরের ফুটপাতে অবৈধ হকারদের দখল সমস্যা সমাধানের উপায় এবং এই বিষয়ে কঠোর পদক্ষেপের জন্য রাজ্য কেবল চিরকালই ভাবতে পারে না।

গত বছর মুম্বাইয়ের হাইকোর্ট নগরীতে অবৈধ ও অবৈধ হকার এবং বিক্রেতাদের উচ্ছেদের বিষয়টি স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে আমলে নিয়েছিলেন। সোমবার হাইকোর্টের বেঞ্চ বলেছেন, তারা জানেন এই সমস্যাটি অনেক বড় এবং রাজ্য, নাগরিক সংস্থাসহ অন্যান্য কর্তৃপক্ষ কেবল এটাকে ছেড়ে দিতে পারে না। এই বিষয়ে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন হাইকোর্ট।

হাইকোর্টের বেঞ্চ বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী বা কিছু ভিভিআইপি এলে রাস্তা এবং ফুটপাত তাৎক্ষণিকভাবে খালি করা হয়… এবং তারা সেখান দিয়ে না যাওয়া পর্যন্ত এই ব্যবস্থা কার্যকর থাকে। তখন এটা কীভাবে করা হয়? কেন এটা অন্য সবার জন্য করা যায় না? নাগরিকরা করদাতা… তাদের পরিষ্কার ফুটপাত ও হাঁটার জন্য নিরাপদ জায়গা পাওয়ার অধিকার রয়েছে।

ফুটপাত এবং হাঁটার জন্য নিরাপদ জায়গা নাগরিকের মৌলিক অধিকার। আমরা আমাদের বাচ্চাদের ফুটপাতে হাঁটতে বলি। কিন্তু যদি হাঁটার জন্য কোনও ফুটপাত আর না থাকে, তাহলে আমরা আমাদের বাচ্চাদের কী বলব? প্রশ্ন করেন হাইকোর্ট।

মুম্বাইয়ের বিচারপতি এম এস সোনাক এবং কমল খাতার ডিভিশন বেঞ্চ বলেছেন, কয়েক বছর ধরে কর্তৃপক্ষ বলে আসছে, তারা বিষয়টি নিয়ে কাজ করছে। রাষ্ট্রকে কঠোরভাবে কিছু করতে হবে। কী করা উচিত আর এটা নিয়ে কাজ করা হচ্ছে বলে কর্তৃপক্ষ চিরকাল ভাবতে পারে না। মনে হচ্ছে তাদের ইচ্ছার অভাব আছে। কারণ ইচ্ছা থাকলে উপায় হয়।

বৃহৎ মুম্বাই পৌর ​​কর্পোরেশনের (বিএমসি) জ্যেষ্ঠ পরামর্শক এস ইউ কামদার বলেছেন, সড়ক এবং ফুটপাতে বসা বিক্রেতা ও হকারদের বিরুদ্ধে পর্যায়ক্রমে ব্যবস্থা নেওয়া হয়। কিন্তু তারা আবার ফিরে আসে। বিএমসি ভূগর্ভস্থ বাজারের বিকল্পও বিবেচনা করছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

আগামী ২২ জুলাই এই বিষয়ে পরবর্তী শুনানির জন্য ধার্য করেছেন মুম্বাইয়ের আদালত।

কাফি

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

আন্তর্জাতিক

সরকার গঠনের পর ভারতে লোকসভার প্রথম অধিবেশন আজ

Published

on

সভা

ভারতে নতুন সরকার গঠনের পর লোকসভার প্রথম অধিবেশন শুরু হচ্ছে আজ সোমবার। এ দিনই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিসহ সংসদ সদস্যরা শপথ গ্রহণ করতে চলেছেন।

সোমবার (২৪ জুন) ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশিত হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, সোমবার থেকে ভারতে শুরু হচ্ছে নতুন সংসদের অধিবেশন। মূলত এটি সংসদের বিশেষ অধিবেশন হতে চলেছে যেখানে লোকসভা নির্বাচনে জয়ী সদস্যরা সংসদ সদস্য হিসেবে সংসদে শপথ নেবেন। এই অধিবেশনেই সংসদের দুই কক্ষের উদ্দেশে বক্তব্য রাখবেন প্রেসিডেন্ট দ্রৌপদী মুর্মু। তবে প্রথম দিনেই এনডিএর সঙ্গে ইন্ডিয়া জোটের সংঘাত হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। কারণ প্রোটেম স্পিকারের নির্বাচন নিয়ে ইতিমধ্যে মোদি সরকারের সমালোচনা শুরু করেছে বিরোধীরা।

ওই প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, প্রথমদিনে নির্বাচিত সংসদ সদস্যরা নীরবতা পালনের পর লোকসভার সেক্রেটারি জেনারেল উৎপল কুমার সিং সকল নির্বাচিত সংসদ সদস্যদের তালিকা পেশ করবেন। সোমবার সকাল ১১টা থেকে শপথ গ্রহণ শুরু হবে। প্রথম শপথ নেবেন প্রধানমন্ত্রী মোদি। তাকে লোকসভার দলনেতা বলে ঘোষণা করবেন প্রোটেম স্পিকার। তারপর বিভিন্ন রাজ্যের নামের আদ্যাক্ষর অনুযায়ী সংসদ সদস্যদের নাম ডাকা হবে।

উল্লেখ্য, প্রেসিডেন্ট প্রোটেম স্পিকারের সহকারী হিসেবে কংগ্রেসের সুরেশ, ডিএমকের টিআর বালু, বিজেপির রাধামোহন সিং, ফাগন সিং কুলাস্তে এবং তৃণমূল কংগ্রেসের সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম সুপারিশ করেছেন। তবে এক্ষেত্রে প্রোটেম স্পিকারের দায়িত্ব সাধারণত লোকসভার সবচেয়ে অভিজ্ঞ সাংসদকে দেওয়া হয়। চেয়ারপারসনদের শপথের পর প্রোটেম স্পিকার মন্ত্রীদের শপথ পাঠ করাবেন।

এরপর আগামী ২৬ জুন লোকসভায় অনুষ্ঠিত হবে স্পিকার নির্বাচন।এরপর প্রেসিডেন্ট আগামী ২৭ জুন সংসদের দুই কক্ষের যৌথ অধিবেশনে বক্তব্য রাখবেন। প্রেসিডেন্টের সেই বক্তব্যের ধন্যবাদ জ্ঞাপন নিয়ে ২৮ জুন থেকে আলোচনা শুরু হবে।

আগামী ২ বা ৩ জুলাই পার্লামেন্টে বক্তব্য রাখতে পারেন প্রধানমন্ত্রী মোদি। এরপরে অধিবেশন মুলতুবি হয়ে যাবে। আগামী ২২ জুলাই থেকে বাজেট পেশের জন্য ফের অধিবেশন শুরু হতে পারে।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

আন্তর্জাতিক

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশিসহ ১৭০০ অভিবাসী আটক

Published

on

সভা

অভিবাসী আইন লঙ্ঘনের দায়ে বাংলাদেশিসহ ১৭০০ অভিবাসকে আটক করেছে মালয়েশিয়ার ইমিগ্রেশন বিভাগ।

গতকাল রোববার (২৩ জুন) সেলাঙ্গর রাজ্যের পোর্টক্লাংএর বন্দর সুলতান সুলেমানের জালান সুলতান আব্দুল সামাদ ফ্ল্যাটের আবাসিক এলাকায় অভিযান চালিয়ে অভিবাসীদের কাগজপত্র পরীক্ষার জন্য আটক করা হয় তাদের। তবে এদের মধ্যে ঠিক কতজন বাংলাদেশি, তা জানায়নি দেশটির ইমিগ্রেশন।

জানা গেছে, একটি সমন্বিত অভিযানে জালান সুলতান আব্দুস সামাদ ৩৮ বন্দর সুলতান সুলায়মান আবাসিক এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

অভিযান পরিচালক খাইরুল আমিনুস কামরুদ্দিন বলেন, এই আবাসিক এলাকায় তিন মাস ধরে আমাদের গোয়েন্দা বাহিনী এটি পরিচালনা করছে। অভিযানের আটকদের মধ্যে বাংলাদেশ, পাকিস্তান, মিয়ানমার, ইন্দোনেশিয়ার নাগরিক রয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, আমরা সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে এই আবাসিক এলাকার বিদেশি নাগরিকদের ব্যাপারে বিভিন্ন অভিযোগ পাই। অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা এই অভিযান পরিচালনা করি। আমরা প্রাথমিক অভিযানে তাদের মধ্যে অনেকের নিকট প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস, ভিসা না থাকা, অতিরিক্ত অবস্থানের মতো অপরাধী পেয়েছি।

খায়রুল আমিনুস বলেন, জিআইএম, সেন্ট্রাল ব্রিগেড জেনারেল অপারেশন ফোর্স (জিওএফ), সেলাঙ্গর ন্যাশনাল রেজিস্ট্রেশন ডিপার্টমেন্ট (জেপিএন), রয়্যাল ক্ল্যাং সিটি কাউন্সিল (এমবিডিকে) এবং কেডিএনের ২৯৮ জন এই সমন্বিত অভিযানে অংশ নেন।

তিনি স্পষ্ট করে জানিয়েছেন, যেসব বিদেশি নাগরিকদের বৈধতার জন্য ডকুমেন্টেশন প্রক্রিয়া এখনও চলমান রয়েছে তাদেরও আটক করা হয়েছে। আর অভিবাসন আইন ১৯৫৯/৬৩ ধারার পাশাপাশি অন্যান্য অপরাধের সাথে জড়িত আছে তাদের সংখ্যা আমরা এখন দিতে সক্ষম নই।

মালয়েশিয়ার সরকারি গণমাধ্যম বারনামা জানায়, স্থানীয় সময় রোববার বিকাল ৫টার দিকে অভিযানের সময় বেশিরভাগ বিদেশি নাগরিক ওই আবাসন এলাকায় ফুটবল খেলছিলেন। অনেকে রাতের বাজারের জন্য নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কেনাকাটা করছিলেন। আবার কেউ কেউ সাপ্তাহিক ছুটি কাটাচ্ছিলেন।

এমন সময়ে ইমিগ্রেশনের উপস্থিতি টের পেয়ে তাদের মধ্যে কেউ কেউ গাড়ির নিচে লুকিয়ে পালানোর চেষ্টা করেন। তবে শেষ রক্ষা হয়নি তাদের। অভিযান চালানোর আগে অপারেশন টিম আশেপাশের এলাকা ঘিরে ফেলে।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

আন্তর্জাতিক

এবার হজে মৃত্যু ছাড়িয়েছে ১৩০০

Published

on

সভা

চলতি বছর হজ মৌসুমে সৌদি আরবে অন্তত ১৩০১ জন হজযাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে বেশিরভাগ অননুমোদিত হজযাত্রী। তীব্র গরমে দীর্ঘ পথ হেঁটে পাড়ি দেওয়ায় তারা মারা গেছেন।

এবার পুরো হজ মৌসুম জুড়েই দাবদাহ ছিল মক্কায়। প্রায় দিনই তাপমাত্রা ছিলে ৪৫ থেকে ৪৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এজন্য বেশিরভাগ হাজির মৃত্যু হয়েছে হিটস্ট্রোকসহ গরমজনিত অসুস্থতায়।

রোববার এসব তথ্য জানিয়েছে সৌদি কর্তৃপক্ষ। খবর বিবিসি, দ্য গার্ডিয়ান ও এপির।

দেশটির মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, মৃত হাজিদের ৮৩ শতাংশের হজে যাওয়ার সরকারি অনুমোদন ছিল না। ফলে অনুমোদন নিয়ে যাওয়া অন্যান্য হাজিদের মতো প্রখর রোদ থেকে বাঁচতে কুলিং সিস্টেম, ঠান্ডা পানি ও ছায়াযুক্ত স্থানে থাকার মতো সেবা গ্রহণ করতে পারেননি তারা। তীব্র তাপদাহে কোনোরকম আশ্রয় ছাড়াই তাদের হাঁটতে হয়েছে দীর্ঘপথ। এতে পথের মাঝেই প্রাণ হারান অনেকেই।

মৃতদের মধ্যে কেবলমাত্র মিশরীয় নাগরিকই রয়েছেন ৬৬০ জন। তাদের মধ্যে মাত্র ৩১ জনের হজ করার সরকারি অনুমোদন ছিল। এ ঘটনায় মিশরের সরকার দেশটির ১৬টি ট্রাভেল এজেন্সির লাইসেন্স বাতিল করেছে- যারা সরকারি অনুমোদন ব্যতীত হজযাত্রীদের সৌদি ভ্রমণে সহায়তা করেছে। এছাড়া নিহতদের মধ্যে ১৬৫ ইন্দোনেশিয়ান, ৯৮ ভারতীয়, ৩৫ বাংলাদেশি, ২ মার্কিন নাগরিকসহ জর্ডান, তুরস্ক, মালয়েশিয়া, আলজেরিয়া, তিউনিসিয়ার নাগরিকও রয়েছে।

দেশটির সরকারি প্রেস এজেন্সি (এসপিএ) তাদের অফিশিয়াল বার্তায় বলেছে, দুঃখজনকভাবে মৃতের সংখ্যা ১৩০১ এ পৌঁছেছে, যার ৮৩ শতাংশরই হজ করার জন্য অনুমোদন ছিল না। অবশ্য দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী ফাহাদ বিন আব্দুর রহমান আল-জালাজেল এ বছরের হজ ব্যবস্থাপনাকে ‘সফল’ বলে বর্ণনা করেছেন।

শুক্রবার রাতে বাংলাদেশের হজ সম্পর্কিত সবশেষ বুলেটিনে জানানো হয়, এবার হজে গিয়ে সৌদি আরব ৩৫ জন বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে ২৮ জন পুরুষ ও সাতজন নারী।

গত ১৪ জুন পবিত্র হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। আরবি বর্ষপঞ্জিকার শেষ মাস জিলহজের ৮ তারিখ থেকে শুরু হয় হজ। ১৫ জুন সারাদিন আরাফাতের ময়দানে অবস্থান করেন হজযাত্রীরা। পরের দিন ১০ জিলহজে পশু কুরবানি দেন হাজিরা। এরপর আরও দুদিন থেকে শেষ হয় হজ।

সৌদি পরিসংখ্যান কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এই বছর ১৮ লাখ ৩৩ হাজার মানুষ হজ করেছেন। তাদের মধ্যে ১৬ লাখ ১১ হাজার ৩১০ জন বিদেশি এবং ২ লাখ ২১ হাজার ৮৫৪ জন সৌদি ও প্রবাসী নাগরিক।

তবে এই বছর সারা বিশ্বের প্রায় ২০ লাখ মুসল্লি হজে অংশ নেবেন বলেই আশা করেছিল সৌদি সরকার। শুরুর দিকে এমন তথ্যই দিয়েছিল সৌদি গণমাধ্যমগুলো। তবে শেষ পর্যন্ত হাজিদের সংখ্যা ১৮ লাখ ছাড়াল।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

শেয়ারবাজারের সর্বশেষ

সভা সভা
পুঁজিবাজার1 min ago

পর্ষদ সভা করবে চার্টার্ড লাইফ ইন্স্যুরেন্স

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি চার্টার্ড লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড পর্ষদ সভার তারিখ ঘোষণা করেছে। আগামী ২৭ জুন বিকাল ৪টায় কোম্পানিটির পর্ষদ...

সভা সভা
পুঁজিবাজার9 mins ago

মশিহর সিকিউরিটিজের সিসিএ ঘাটতি পূরণে সময় বাড়লো

পুঁজিবাজারে মধ্যস্থতাকারী ব্রোকরেজ হাউজ মশিহর সিকিউরিটিজের কনসোলিডেটেড কাস্টমারস একাউন্টের (সিসিএ) ঘাটতি পূরণে সময় বাড়িয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ...

সভা সভা
পুঁজিবাজার46 mins ago

লভ্যাংশ সংক্রান্ত তথ্য জানালো ফার্স্ট ফাইন্যান্স

গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০২৩ তারিখে সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য লভ্যাংশ সংক্রান্ত তথ্য জানিয়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ফার্স্ট ফাইন্যান্স লিমিটেড। আলোচ্য বছরের জন্য...

সভা সভা
পুঁজিবাজার13 hours ago

ভারতের পুঁজিবাজারে ফিরছেন বিদেশি বিনিয়োগকারীরা

ভারতে লোকসভা নির্বাচনের অনিশ্চয়তার করণে দেশটির পুঁজিবাজার ছেড়ে গিয়েছিলেন অনেক বিদেশি বিনিয়োগকারী। তবে সেই অনিশ্চয়তা কেটে যাওয়ার পর আবারও পুঁজিবাজারে...

সভা সভা
পুঁজিবাজার16 hours ago

সিটি ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান পুনর্নির্বাচিত

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত সিটি ব্যাংক পিএলসির পরিচালক আজিজ আল কায়সার চেয়ারম্যান এবং হোসেন খালেদ ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন। সোমবার...

সভা সভা
পুঁজিবাজার17 hours ago

কর কমানোসহ পুঁজিবাজারের উন্নয়নে বিএমবিএর ৮ প্রস্তাব

২০২৪-২৫ অর্থবছরের প্রস্তাবিত জাতীয় বাজেটে মার্চেন্ট ব্যাংকসমূহকে তাদের পরিচালন আয়ের ওপর ধার্যকৃত কর কমানোসহ পুঁজিবাজারের উন্নয়নে ৮ প্রস্তাব দিয়েছে বাংলাদেশ...

সভা সভা
পুঁজিবাজার18 hours ago

মনোস্পুল পেপারের পর্ষদ সভার তারিখ

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বাংলাদেশ মনোস্পুল পেপার ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানি লিমিটেড পর্ষদ সভার তারিখ ঘোষণা করেছে। আগামী ৩০ জুন বিকাল ৩টায় কোম্পানিটির পর্ষদ...

সভা সভা
পুঁজিবাজার18 hours ago

পর্ষদ সভার তারিখ জানালো পেপার প্রসেসিং

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত পেপার প্রসেসিং অ্যান্ড প্যাকেজিং লিমিটেড পর্ষদ সভার তারিখ ঘোষণা করেছে। আগামী ৩০ জুন বিকাল ৪টায় কোম্পানিটির পর্ষদ সভা...

সভা সভা
পুঁজিবাজার18 hours ago

চার্টার্ড লাইফের পর্ষদ সভার তারিখ ঘোষণা

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত চার্টার্ড লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড পর্ষদ সভার তারিখ ঘোষণা করেছে। আগামী ২৭ জুন বিকাল ৪টায় কোম্পানিটির পর্ষদ সভা...

সভা সভা
পুঁজিবাজার18 hours ago

আইএফআইসি ব্যাংকের ক্রেডিট রেটিং সম্পন্ন

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি আইএফআইসি ব্যাংক পিএলসির ক্রেডিট রেটিং সম্পন্ন করা হয়েছে। কোম্পানিটির ক্রেডিট রেটিং নির্ণয় করেছে ইর্মাজিং ক্রেডিট রেটিং লিমিটেড।...

সভা সভা
পুঁজিবাজার19 hours ago

ব্লকে ১৩৮ কোটি টাকার লেনদেন

সপ্তাহের দ্বিতীয় কর্মদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্লক মার্কেটে ৪৮টি কোম্পানি লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এসব কোম্পানির মোট ১৩৮ কোটি ৮৬...

সভা সভা
পুঁজিবাজার19 hours ago

পাঁচ কোম্পানির সর্বোচ্চ দরপতন

সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনে অংশ নেওয়া ৩৯৫টি কোম্পানির মধ্যে ২৫৫ কোম্পানির শেয়ারদর কমেছে।...

সভা সভা
পুঁজিবাজার20 hours ago

দরবৃদ্ধির শীর্ষে সমতা লেদার

সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনে অংশ নেওয়া ৩৯৫ কোম্পানির মধ্যে ৯২টির শেয়ারদর বৃদ্ধি পেয়েছে।...

সভা সভা
পুঁজিবাজার20 hours ago

লেনদেনের শীর্ষে লিন্ডে বিডি

সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৩৯৫টি কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিট হাতবদল হয়েছে। এদিন লেনদেনের শীর্ষে...

সভা সভা
পুঁজিবাজার20 hours ago

২৫৫ কোম্পানির দরপতনে শেয়ারবাজারে কমেছে লেনদেন

সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) মূল্য সূচকের নিম্নগতিতে লেনদেন শেষ হয়েছে। একইসাথে আগের কার্যদিবসের তুলনায়...

সভা সভা
পুঁজিবাজার21 hours ago

লাফার্জহোলসিমের লভ্যাংশ বিতরণ

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ লিমিটেড গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০২৩ সমাপ্ত হিসাববছরে জন্য ঘোষিত লভ্যাংশ বিনিয়োগকারীদের কাছে পাঠিয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ...

সভা সভা
পুঁজিবাজার22 hours ago

গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্সের নাম সংশোধন

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের নাম সংশোধনে সম্মতি দিয়েছে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) পিএলসি। ডিএসই সূত্রে...

সভা সভা
পুঁজিবাজার22 hours ago

দুই কোম্পানির লেনদেন বন্ধ কাল

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত দুই কোম্পানির শেয়ার লেনদেন আগামীকাল মঙ্গলবার (২৫ জুন) রেকর্ড ডেটের কারণে বন্ধ থাকবে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে...

সভা সভা
পুঁজিবাজার22 hours ago

উৎপাদনে ফিরলো প্যাসিফিক ডেনিমস

পুঁজিবাজারে বস্ত্র খাতে তালিকাভুক্ত কোম্পানি প্যাসিফিক ডেনিমস লিমিটেডের উৎপাদন কার্যক্রম ফের চালু হয়েছে। সোমবার (২৪ জুন) ঢাকা স্টক একচেঞ্জ সূত্রে...

সভা সভা
পুঁজিবাজার23 hours ago

দুই ঘন্টায় লেনদেন ১৮১ কোটি টাকা

সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) মূল্য সূচকের নিম্নমুখী প্রবণতায় লেনদেন চলছে। এদিন প্রথম দুই ঘন্টায়...

Advertisement

ফেসবুকে অর্থসংবাদ

সভা
পুঁজিবাজার1 min ago

পর্ষদ সভা করবে চার্টার্ড লাইফ ইন্স্যুরেন্স

সভা
পুঁজিবাজার9 mins ago

মশিহর সিকিউরিটিজের সিসিএ ঘাটতি পূরণে সময় বাড়লো

সভা
জাতীয়14 mins ago

হাকিমপুরী জর্দার মালিক কাউছ মিয়া আর নেই

সভা
পুঁজিবাজার46 mins ago

লভ্যাংশ সংক্রান্ত তথ্য জানালো ফার্স্ট ফাইন্যান্স

সভা
ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ার49 mins ago

মেঘনা গ্রুপে চাকরির সুযোগ

সভা
খেলাধুলা1 hour ago

সেমিতে খেলতে বাংলাদেশের সামনে যে সমীকরণ

সভা
জাতীয়1 hour ago

অবসরে যাচ্ছেন বেবিচক চেয়ারম্যান মফিদুর

সভা
জাতীয়1 hour ago

ভারত সফর নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন আজ

সভা
আবহাওয়া1 hour ago

যেসব অঞ্চলে ৬০ কিমি বেগে ঝড়ের আভাস

সভা
রাজধানী2 hours ago

রাজধানীতে যেসব মার্কেট বন্ধ মঙ্গলবার

সভা
টেলিকম ও প্রযুক্তি11 hours ago

মোবাইল হ্যাক হয়েছে কি না বোঝা যাবে এই লক্ষণ দেখলেই

সভা
জাতীয়11 hours ago

যুক্তরাষ্ট্রের টিআইপি হিরো স্বীকৃতি পেলেন বাংলাদেশের আল-আমিন

সভা
অর্থনীতি11 hours ago

আইএমএফের ঋণের তৃতীয় কিস্তি অনুমোদন

সভা
জাতীয়11 hours ago

অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতি পেলেন একজন যুগ্মসচিব

সভা
রাজধানী12 hours ago

খাল দখলদারদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান মেয়র আতিকের

সভা
অর্থনীতি12 hours ago

একদিনেই রেমিট্যান্স এসেছে ১৪ কোটি ডলার

সভা
লাইফস্টাইল12 hours ago

ক্ষতিকর কোলেস্টেরল দূর করার পানীয়

সভা
জাতীয়12 hours ago

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে সেনাপ্রধানের শ্রদ্ধা

সভা
জাতীয়13 hours ago

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে চীনকে সহযোগিতার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

সভা
খেলাধুলা13 hours ago

বিশ্বকাপের মাঝেই নতুন অধিনায়কের নাম ঘোষণা ভারতের

সভা
জাতীয়13 hours ago

দেশের ২৪ জেলায় বয়ে যাচ্ছে বিস্তৃত তাপপ্রবাহ

সভা
শিল্প-বাণিজ্য13 hours ago

জার্মান দূতের আমান বাংলাদেশের গাজীপুর প্লান্ট পরিদর্শন

সভা
পুঁজিবাজার13 hours ago

ভারতের পুঁজিবাজারে ফিরছেন বিদেশি বিনিয়োগকারীরা

সভা
জাতীয়14 hours ago

জামিন পেলেন পাপিয়া, মুক্তিতে বাধা নেই

সভা
অর্থনীতি14 hours ago

রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠানের কাছে ব্যাংকের পাওনা ৫১ হাজার কোটি টাকা

২০১৮ সাল থেকে ২০২৩

অর্থসংবাদ আর্কাইভ

তারিখ অনুযায়ী সংবাদ

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০