Connect with us

ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ার

বাংলার মহানায়ক বঙ্গবন্ধু, শিক্ষার্থীদের চিন্তা ও মননে বহমান

Published

on

জেড ক্যাটাগরি

বঙ্গবন্ধু ছিলেন এক জ্বলন্ত সূর্য্য, দেশ ও মানুষের নেতা যিনি বলেছিলেন আমি ক্ষমতা চাই না, আমি এ দেশের মানুষের অধিকার চাই। পরাধীনতার শিকল ভাঙার জন্যে তিনি সকলকে যার কাছে যা কিছু আছে তাই নিয়ে প্রস্তুত থাকতে বলেছেন। কোটি জনতা যাদের ভালোবাসা ও আবেগের মধ্যে রয়েছে একটি নাম তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। শিক্ষার্থীদের মননে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে গভীর চিন্তা ও ভাবনা তুলে ধরছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়ার অর্থসংবাদ প্রতিনিধি মো. সাকিব আসলাম।

প্রত্যয় হোক জন্মদিনে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার
সাল ১৯২০,১৭ মার্চ।
মহাকালের অতি প্রাচীন নিয়মের মত প্রভাতের পূর্ব আকাশের রাঙা হয়ে সূর্য উঠেছিল। সেদিন হয়তোবা সকলে নিজের কাজে ব্যস্ত ছিল। কিন্তু একজন মানুষ চিন্তার বোধ হয় একেবারে হাপিয়ে উঠেছিল। ঠিক কিছুক্ষণ পর যেন তিনি শুনতে পেলেন তার ঘরে আলোকিত এক ফুটফুটে শিশু এসেছে।

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া গ্রামের সেই শেখ পরিবারের কথায় এতোক্ষণ যে কার আসার কথা বলছিলাম সকলে তা বোধহয় বুঝে নিয়েছেন। সাধারণত ভাবে মানুষ হয়তো ভেবেছিল এ শিশুটিও হবে এক ক্ষন জন্মা। নশ্বর এ পৃথিবীতে সেই কিছুদিন বিচরণ করার পর আবারও কালের গর্ভে হারিয়ে যাবে।

কিন্তু তা হয়নি, বাবা শেখ লুৎফর রহমানের রাখা নাম খোকা, হয়েছিল এক মহাপুরুষ। যিনি এক জাতিকে পথ দেখিয়েছেন। কখনো বন্ধু কখনো নেতা আবার জাতির আলোর দিশারী হয়ে পথ দেখিয়েছেন পথভোলা সামরিক শাসন ও হানাদার বাহিনীর যাতায় পিষ্ট বাঙালী জাতিকে।

‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’ লক্ষকোটি বাঙ্গালীর এক আশা ভরসা ও আস্থার নাম। যে নামের মানুষটিকে চিনতে ভুল হয়না কারো। তার করে যাওয়া কাজের কথা মনে করে অজান্তে চোখের কোণা বেয়ে জল গড়িয়ে পড়ে। কারণ যে মানুষটি না থাকলে আজকে বাংলাদেশ থাকত না। ঘাতকের যাতা কল থেকে দেশকে বের করে আনতে, শোষণের হাত থেকে দেশকে ছাড়িয়ে নিতে, অন্যের পরাধীনতা থেকে নিজেদের স্বাধীন করতে, নিজের জীবনকে বাজি রেখেছেন বারংবার। সদ্যজাত সন্তানের মুখ দেখা হয়নি অনেকদিন, যার কারণে নিজ ছেলে বাবাকে চিনতে ভুল করছে অনেকদিন।

পাওলো কোহেলোর মতে When you want something the whole world start conspired to achieve it. ঠিক যেন তিনি এই অর্জনের ফিসফিসে শব্দটাকে স্পষ্ট শোনার জন্যে ছুটে বেরিয়েছেন হাজারো দিন। পরিবার স্বজন সকল কে ছেড়ে পালিয়ে বেড়িয়েছেন,জেল খেটেছেন বহুদিন। তবুও তার যেন কোন ক্লান্তি নেয়। আর্নেস্ট হেমিংওয়ের সান্টিয়াগো যেমন মার্লিন মাছ কে ধরে রেখেছেন প্রাণপণ চেষ্টায় ঠিক তেমনি তিনিও একইভাবে নিজের দৃঢ় আত্মবিশ্বাস দিয়ে দেশের হাল ধরে রেখেছেন যেমন করে হোক দেশকে স্বাধীন করতে হবে।

১৯৪৭ এর দেশভাগের পরে পূর্বপাকিস্তান সৃষ্টি থেকে দেশকে স্বাধীন করা পর্যন্ত তিনি প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ভাবে আন্দোলনের সাথে যুক্ত ছিলেন। দেশ ও মাটিকে আকড়ে রেখেছেন নিজের বুকে। দেশের মানুষকে যুদ্ধে অনুপ্রেরণা দিতে ৭ই মার্চ যে তিনি ভাষণ দিয়েছিলেন সেইটার বর্ণনা দিতে গেলে বুঝি পাতা শেষ হয়ে যাবে।

শুধুমাত্র দেশকে স্বাধীন করে নয়। একটা দেশকে কিভাবে বিশ্বের কাছে মাথা উঁচু করে দাড়াতে হবে সেইটাও তিনি দেখিয়েছেন। যুদ্ধপরবর্তী একটা ভাঙা মেরুদন্ড দেশকে কিভাবে দাড় করাতে হয় সেইটাও নিজ হাতে করে গেছেন বঙ্গবন্ধু। আজ তিনি স্বশরীরে নেই। কিন্তু তার আত্মত্যাগ, তার দেখানো পথ, তার বুকে ধরণ করা স্বপ্নের বাংলাদেশ রয়েছে।

বাঙালির জাতির পিতা,হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, সর্বকালের সেরা নেতা,বাঙালি জাতির আলোর দিশারী,বাংলাদেশের স্বাধীনতার স্থপতি, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর আজকের জন্মদিনে জানাই হাজার কোটি শুভেচ্ছা। তাঁর দেখানো পথে এগিয়ে যাচ্ছে তাঁর স্বপ্নে বোনা সোনার বাংলাদেশ। শুভ জন্মদিন হে সোনার বাংলার কারিগর।

আফ্রিদি হাসান, সমাজকল্যাণ বিভাগ, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়া।

বঙ্গবন্ধুর অস্তিত্ব ও অবদান বাঙালির বন্ধু ও পিতা হয়ে আজীবন রবে
মধুমতি নদীর তীরবর্তী অঞ্চল গোপালগঞ্জের এক প্রত্যন্ত গ্রাম টুঙ্গিপাড়া ১৯২০ সালের ১৭ই মার্চ জন্মগ্রহণ করেন এক শিশু। পরিবারের স্নেনের দানের নাম খোকা। মাতামহ নাম রেখেছিল মুজিব। সেদিনের সে খোকাটি আজ দেশ ও দশের কাছে পরিচিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হিসেবে। মধুমতির জল আজ গড়িয়েছে, কতশত হাজার বছরের ইতিহাসের সাক্ষী সে, সেই সাথে মধুমতির স্মৃতির মনসপটের ১৯২৪ সালের ১৭ই মার্চ থেকে ১৯২৪ সালের ১৭ই মার্চ পর্যন্ত আমাদের বন্ধু, বঙ্গের বন্ধুর সকল ইতিহাস কথার ধারক হয়ে এখনো বহমান।

কথায় বলে ‘গবরেও পদ্মফুল ফোটে’ তেমনি আজ আমাদের স্বাধীন বাঙ্গালিদের ইতিহাসে এক সাধারণ খোকা শেখ মুজিবুর রহমানের পদ্মফুল হয়ে ওঠার গল্পটা ভীষণ সংগ্রামের ও তেজদীপ্তময়। প্রত্যন্ত গ্রামের এক অতি সাধারণ পরিবার, যে পরিবারের ছিল না কোন রাজনৈতিক যোগসূত্র, এমন একটি পরিবারে সাধারণ খোকা থেকে এক বিশাল রাজনৈতিক নেতা ও তার নেতৃত্বগুণে গোটা বাঙালি জাতির পিতা হয়ে ওঠা, একটি দেশকে পরাধীনতার শিকল থেকে মুক্ত করা। বাঙালী জাতির কেড়ে নেওয়া মুখের ভাষা ছিনিয়ে আনা, ভীষণ দেশপ্রেমী, মানবদরদী হৃদয়ের অধিকারী ব্যক্তিত্ব আমাদের পদ্মফুল এবং আজ ১৭ মার্চ ২০২৪ তার ১০৪ তম জন্মবার্ষিকী।

বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোরদের ভীষণ পছন্দ করতেন, তিনি তৎকালীন সমাজ গঠনের ক্ষেত্রে সবার আগে শিশুদের গড়ে তোলার প্রয়াশ করেছিলেন। এবং তিনি নিজেও সরল ও শিশুসুলভ স্বভাবের ছিলেন। তাই তো ১৭ই মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে শিশুদিবস পালন করা হয়।

আজ মানুষটি আমাদের মাঝে শারীরিক ভাবে নেই, কিন্তু তার অস্তিত্ব কখনোই মুছে যাবে না। ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লেখা যে নাম, বাংলাদেশের সৃষ্টিলগ্নের সাথে জুড়ে আছে যে নাম তা কি আর কখনো ক্ষয়ে যেতে পারে। বঙ্গবন্ধু থাকবেন, বাঙালী থাকবে, বাংলাদেশ থাকবে। তিনি মৃত্যুর পরও তার অস্তিত্ব ও অবদান সমুহ বাঙালির বন্ধু ও পিতা হয়ে আজীবন আমাদের ছায়া দিয়ে যাবে।

উমাইয়া ঊর্মি, ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগ, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়া।

১৮ মিনিট থেকে ১৮ বছরে প্রবাহমান যিনি
সেদিন ছিল ১৭ই মার্চ, টুঙ্গীপাড়ার এক বাড়িতে, আনন্দের ধ্বনির সাথে ভেসে এলো শিশুর কান্নার আওয়াজ। দিনটি ছিল এক সম্ভাবনাময় তরুণের আগমনের। বাবা মা পরম মমতায় ডেকেছিলেন খোকা বলে। দরদি মনোভাবকে অবলম্বন করে ধীরে ধীরে খোকা হয়ে উঠেছিল অসহায় মানুষের জন্য নিবেদিত প্রাণ। মানুষের জন্য ইতিবাচক ভাবনায় তার প্রথম উৎসাহ ছিল ‘মা’। মানুষের প্রতি দরদি মনোভাব তার দেশপ্রেমকে জাগ্রত করে। খোকা নিজেকে জড়িয়ে নেয় রাজনীতির দাবানলে। যে আগুনে নিজেকে পুড়িয়ে খাটি সোনায় পরিণত হন তিনি। সকলের স্নেহের ছোট্ট খোকা হয়ে ওঠে শ্রদ্ধার পাত্র হয়ে ওঠেন ‘জাতির জনক’। কতশত শত্রুদের মোকাবিলা করেছেন। জীবন তাঁর সংশয়াপন্ন জেনেও শত্রুদের মুখোমুখি হয়েছেন। শত্রুদের কোনো প্রলোভনেই তিনি মাথা নুয়াতে পারিনি। মিথ্যা দোষে সাজা পেয়ে জীবনের অর্ধেক সময় কেটেছে তার অন্ধকার কারাগারের নির্জনতায়। নানান বৈষম্যের স্বীকার হওয়া বাঙালি জাতির অধিকার বুঝে দিতে ১৯৭১ সালের ৭ই মার্চ এক ঐতিহাসিক ভাষণ দিয়েছিলেন তিনি। শত্রুর ধারণার সময়কে ব্যতিরেকে; ১৮ মিনিটের ভাষণটি পৌছে গেল ১৮ বছরের তরুণ প্রজন্মের রন্ধ্রে। জেগে উঠলো বাঙালি সত্তার। শত্রুরা পরাজয় মেনে নিতে বাধ্য হলো।

খোকা থেকে ‘জাতির জনক’ এভাবে ছিলেন তিনি আমাদের অনুপ্রেরণা। আমাদের আদর্শের ধারক। তিনি এমন এক জাতির রূপকার, যাদের কথা আজ বিশ্ব স্মরণ করে। পরাশক্তির মনে যাদের কথার উদিত হলে, ভয়ে শিহরণ সৃষ্টি হয়। আমাদের মতো তরুণ প্রজন্মকে তিনি জাগিয়েছেন। আজও তার আদর্শকে লালন করে, তাজা প্রাণ হয়ে ওঠে বিদ্রোহী, পূণরায় হয়ে ওঠে মানব দরদি।

১৮ মিনিট থেকে ১৮ বছর এভাবেই তিনি প্রবাহমান। তরুণ প্রজন্মের হৃদয় স্পন্দন। কিংবদলির মত্য হয়নি। তিনি বেঁচে আছেন। ১৮ বছরের তরুণ প্রজন্মের রন্ধ্রে। জেগে উঠলো বাঙালি সত্তার। শত্রুরা পরাজয় মেনে নিতে বাধ্য হলো। ১৮ মিনিট থেকে ১৮ বছর এভাবেই তিনি প্রবাহমান। তরুণ প্রজন্মের হৃদয় স্পন্দন। কিংবদন্তির মৃত্যু হয়নি। তিনি বেঁচে আছেন এবং থাকবেন ১৮ এর হৃদয়ে।

সুরাইয়া, অর্থনীতি বিভাগ, ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়া।

অর্থসংবাদ/সাকিব/এসএম

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ার

বিসিএস প্রিলিমিনারির ফল ১৫ দিনেই প্রকাশের আশা পিএসসির

Published

on

জেড ক্যাটাগরি

৪৬তম বিসিএসে প্রিলিমিনারির ফল প্রকাশে চমক দেখিয়েছে বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন বা পিএসসি। এবার মাত্র ৯ কর্মদিবসেই ফলাফল প্রকাশ করে সংস্থাটি। তবে এই কার্যক্রমকে মডেল ধরে আগামীতে ফল প্রকাশের প্রত্যয় জানিয়েছে সাংবিধানিক এই প্রতিষ্ঠান।

জানতে চাইলে পিএসসি চেয়ারম্যান মো. সোহরাব হোসাইন গণমাধ্যমকে বলেন, এখন থেকে ১৫ দিনের মধ্যেই প্রিলির ফল প্রকাশ করবে পিএসসি। কেননা, আমরা দেখেছি আন্তরিকতা নিয়ে কাজ করলে এটি করা সম্ভব। এর বেশি সময় লাগার কোনো কারণ নেই।

তিনি বলেন, যদি কোনো দুর্যোগ ঘটে বা সিস্টেম ফল করে, তাহলে কিছু করার থাকে না। অন্যথায় ফল দিতে বেশি সময় নেওয়ার কারণ নেই। প্রিলির ফল দ্রুত দিয়েই আমরা ১৫ দিনের গ্যাপ দিয়ে আবার লিখিত পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করব। এভাবে দ্রুত বিসিএসের সময় কমিয়ে আনার আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছি।

৪৬তম বিসিএসের প্রিলিমিনারিতে ২ লাখ ৫৪ হাজার ৫৬১ প্রার্থী অংশ নিয়েছেন। পরীক্ষা হয়েছে ২৬ ডিসেম্বর আর ফল প্রকাশ হয়েছে ৯ মে। প্রিলিমিনারির ফল প্রকাশে এটাই সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) রেকর্ড। এর আগে কোনো বিসিএসে এত দ্রুত ফল প্রকাশ করতে পারেনি পিএসসি।

এমআই

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ার

আকিজ ফুডে চাকরির সুযোগ

Published

on

জেড ক্যাটাগরি

শীর্ষস্থানীয় শিল্পপ্রতিষ্ঠান আকিজ ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লিমিটেডে ‘রিজিওনাল সেলস ম্যানেজার (আরএসএম)’ পদে ১০ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আগামী ৩০ মে পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: আকিজ ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লিমিটেড।
পদের নাম: রিজিওনাল সেলস ম্যানেজার (আরএসএম)
পদসংখ্যা: ১০ জন

শিক্ষাগত যোগ্যতা: এমবিএ/বিবিএ (মার্কেটিং)
অভিজ্ঞতা: ১০ বছর
বেতন: আলোচনা সাপেক্ষে

চাকরির ধরন: ফুল টাইম
প্রার্থীর ধরন: পুরুষ
বয়স: ৩৬-৪৫ বছর
কর্মস্থল: যে কোনো স্থান

আবেদনের নিয়ম: আগ্রহীরা Akij Food & Beverage Ltd এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন।
আবেদনের শেষ সময়: ৩০ মে ২০২৪

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ার

তাপপ্রবাহে মাধ্যমিক বিদ্যালয় খোলা রাখার নতুন নির্দেশনা মাউশির

Published

on

জেড ক্যাটাগরি

মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে তীব্র তাপদাহকালীন শ্রেণি কার্যক্রম চালু রাখা সংক্রান্ত নতুন কিছু নির্দেশনা দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি)।

রবিবার দেশের সব সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও স্কুল এন্ড কলেজ এবং বেসরকারি নিম্ন মাধ্যমিক, মাধ্যমিক ও স্কুল এন্ড কলেজের প্রধানদের কাছে এই নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের আওতাধীন মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে তীব্র তাপ প্রবাহকালীন শ্রেণি কার্যক্রম চালু অবস্থায় নিম্নে বর্ণিত সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো:

১. পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত প্রাত্যহিক সমাবেশ বন্ধ রাখা।

২. শ্রেণি কার্যক্রম চলাকালীন শ্রেণি কক্ষের সব দরজা-জানালা খোলা রাখা।

৩. শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বৈদ্যুতিক পাখা, শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা (যদি থাকে) সচল রাখা।

৪. পর্যাপ্ত বিশুদ্ধ পানির সুব্যবস্থা রাখা।

৫. শিক্ষক-কর্মচারী-শিক্ষার্থীদের প্রচুর পরিমাণে বিশুদ্ধ পানি পানের ব্যবস্থা করা।

৬. নিকটবর্তী স্বাস্থ্য কেন্দ্রের সাথে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রক্ষা করা, যেন কোন শিক্ষক-কর্মচারী-শিক্ষার্থী হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে তাৎক্ষণিক জরুরি চিকিৎসা সেবা প্রদানের ব্যবস্থা করা যায়।

৭. প্রয়োজনীয় খাবার স্যালাইনের ব্যবস্থা রাখা।

৮. শিক্ষার্থীদের সার্বক্ষণিক শ্রেণিকক্ষে অবস্থান নিশ্চিত করা।

৯. বেলা ১১টা থেকে দুপুর ৩টা পর্যন্ত শিক্ষক-কর্মচারী-শিক্ষার্থীরা যেন যথাসম্ভব সূর্যের আলো থেকে নিজেদেরকে দূরে রাখে সে বিষয়টি নিশ্চিত করা।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ার

তাপদাহের মধ্যে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের জন্য নতুন নির্দেশনা

Published

on

জেড ক্যাটাগরি

তাপদাহের মধ্যে মাধ্যমিক পর্যায়ের স্কুল পরিচালনার ক্ষেত্রে জরুরি কিছু নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এরমধ্যে বেলা ১১টা থেকে দুপুর ৩টা পর্যন্ত শিক্ষক-কর্মচারী-শিক্ষার্থীরা যেন যথাসম্ভব সূর্যের আলো থেকে নিজেদের দূরে রাখেন, সে বিষয়টি নিশ্চিতের কথা বলা হয়েছে।

রবিবার (১৯ মে) মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা (মাউশি) অধিদফতরের পক্ষ থেকে এমন নির্দেশনা দেয়া হয়।

নির্দেশনায় পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত স্কুলের প্রাত্যহিক সমাবেশ বন্ধ রাখতে বলা হয়। এছাড়া শ্রেণি কার্যক্রম চলাকালে শ্রেণিকক্ষের সব দরজা-জানালা খোলা রাখা ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বৈদ্যুতিক পাখা, শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা (যদি থাকে) সচল রাখার কথা বলা হয়েছে।

পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানগুলোতে পর্যাপ্ত বিশুদ্ধ পানির সুব্যবস্থা রাখা ও শিক্ষক-কর্মচারী-শিক্ষার্থীদের প্রচুর পরিমাণে বিশুদ্ধ পানি পানের ব্যবস্থা নিতে নির্দেশনা দিয়েছে মাউশি।

শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় নিকটবর্তী স্বাস্থ্যকেন্দ্রের সঙ্গে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রক্ষা করার কথাও বলেছে মাউশি।

এছাড়া প্রয়োজনীয় খাবার স্যালাইনের ব্যবস্থা রাখা ও শিক্ষার্থীদের সার্বক্ষণিক শ্রেণিকক্ষে অবস্থান নিশ্চিতেও নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

মাউশির দেয়া নির্দেশনায় বেলা ১১টা থেকে দুপুর ৩টা পর্যন্ত শিক্ষক-কর্মচারী-শিক্ষার্থীরা যেন যথাসম্ভব সূর্যের আলো থেকে নিজেদের দূরে রাখেন সে বিষয়টি নিশ্চিতেও প্রতিষ্ঠানগুলোকে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ার

ইবিতে সিইউও হলেন ক্যাডেট সার্জেন্ট মরিয়ম খাতুন

Published

on

জেড ক্যাটাগরি

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) বিএনসিসি প্লাটুনের সেনা শাখার সর্বোচ্চ পদ সিইউও (ক্যাডেট আন্ডার অফিসার) পদে পদোন্নতি পেলেন ক্যাডেট সার্জেন্ট মরিয়ম খাতুন। তিনি ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়ার ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী।

রবিবার (১৯ মে) সকাল সাড়ে ১০টায় খুলনায় সুন্দরবন রেজিমেন্টে ‘ক্যাডেট আন্ডার অফিসার র‍্যাংকিং অ্যান্ড ইনসেন্টিভ অ্যাওয়ার্ড’ প্রোগ্রামে এ পদোন্নতি প্রদান করা হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন রেজিমেন্ট কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কর্নেল কামারুল ইসলাম (বিজিবিএম, পিএসসি), রেজিমেন্ট এডজুটেন্ট মেজর পলাশ কুমার বিশ্বাস (ইএমই), ব্যাটালিয়ন কমান্ডার ক্যাপ্টেন অধ্যাপক ড. এম শাহিনুর রহমান, (বিএনসিসিও)।

এছাড়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) সাবেক ক্যাডেট আন্ডার অফিসার শুভ মিত্র, বর্তমান ক্যাডেট আন্ডার অফিসার আলী আহসান জুবায়ের, সার্জেন্ট- সুলতান মাহমুদ উপস্থিত ছিলেন।

ইবি বিএনসিসির নতুন সিইউও মরিয়ম খাতুন বলেন, ২০২১ সাল থেকে বিএনসিসির সাথে আমার যাত্রা শুরু হয়। ক্যাডেট র‍্যাংক থেকে এখন ক্যাডেটদের সর্বোচ্চ পদ পাওয়ার মাধ্যমে দায়িত্বের ভার আগের চেয়ে কয়েকগুণ বেড়ে গেল। আমি আমার বিশ্ববিদ্যালয় এবং আমার প্রিয় এই বিএনসিসির মুখ আরো উজ্জ্বল করতে সর্বোচ্চ দিয়ে চেষ্টা করবো। ভবিষ্যতে আমার ক্যাম্পাস বা প্রতিষ্ঠান নয় আমি আমার দেশের সকল মানুষের কাছে এর সেবা, শ্রম এবং সুবিধাসমূহ পৌঁছে দিব।

অনুষ্ঠানে ক্যাডেট আন্ডার অফিসার মরিয়ম খাতুন এবং ক্যাডেট সার্জেন্ট সুলতান মাহমুদ সঞ্চালনা করেন।

অর্থসংবাদ/সাকিব/এসএম/

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন
জেড ক্যাটাগরি
শিল্প-বাণিজ্য52 mins ago

পর্যটন খাতে অবদানে পুরস্কার দেবে টোয়াব

জেড ক্যাটাগরি
শিল্প-বাণিজ্য1 hour ago

বিএসটিআইকে আন্তর্জাতিক মানের প্রতিষ্ঠানে উন্নীত করা হচ্ছে: শিল্পমন্ত্রী

জেড ক্যাটাগরি
পুঁজিবাজার1 hour ago

জেড ক্যাটাগরিতে শেয়ার স্থানান্তরে বিএসইসির নতুন নির্দেশনা

জেড ক্যাটাগরি
পুঁজিবাজার1 hour ago

আইসিবির ফ্রি লিমিট ৫০ কোটি টাকা করলো বিএসইসি

জেড ক্যাটাগরি
জাতীয়2 hours ago

আগামীকাল ২৪ উপজেলায় ভোট হবে ইভিএমে

জেড ক্যাটাগরি
জাতীয়2 hours ago

অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকায় আসছেন মঙ্গলবার

জেড ক্যাটাগরি
কর্পোরেট সংবাদ2 hours ago

রুপালী ব্যাংকের উদ্যোগে নোয়াখালীতে স্কুল ব্যাংকিং কনফারেন্স

জেড ক্যাটাগরি
জাতীয়2 hours ago

সংকটে রাইসির পদক্ষেপ অনুপ্রেরণার মডেল হয়ে থাকবে: রাষ্ট্রপতি

জেড ক্যাটাগরি
জাতীয়3 hours ago

ইউরোপ-আমেরিকা যেতে সনদ ভেরিফিকেশনের জটিলতা কাটছে

জেড ক্যাটাগরি
আন্তর্জাতিক3 hours ago

ইরানে ৫ দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা

জেড ক্যাটাগরি
পুঁজিবাজার3 hours ago

পুঁজিবাজার নিয়ে গুজব, দ্রুত কঠোর ব্যবস্থা নেবে বিএসইসি

জেড ক্যাটাগরি
আবহাওয়া3 hours ago

রাতের মধ্যে ৮০ কিমি বেগে ঝড়ের আভাস

জেড ক্যাটাগরি
জাতীয়4 hours ago

কঠোরভাবে বাজার মনিটরিংয়ের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

জেড ক্যাটাগরি
জাতীয়4 hours ago

ভারত থেকে রেলের ২০০ বগি কিনছে রেলওয়ে

জেড ক্যাটাগরি
জাতীয়4 hours ago

অটোরিকশা কোথায় কীভাবে চলবে নির্দেশনার পর ব্যবস্থা: ডিএমপি

জেড ক্যাটাগরি
অর্থনীতি4 hours ago

দশ মাসে রাজস্ব ঘাটতি ২৬ হাজার কোটি টাকা

জেড ক্যাটাগরি
পুঁজিবাজার4 hours ago

এনআরবিসি ব্যাংক উদ্যোক্তার শেয়ার হস্তান্তর সম্পন্ন

জেড ক্যাটাগরি
খেলাধুলা4 hours ago

ক্রিকেট বিশ্বকাপের চেয়ে অলিম্পিক পদক বড়: মাশরাফি

জেড ক্যাটাগরি
লাইফস্টাইল4 hours ago

খালি পেটে কিশমিশ খাওয়ার উপকারিতা

জেড ক্যাটাগরি
পুঁজিবাজার4 hours ago

বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবলসের নাম সংশোধনে সম্মতি

জেড ক্যাটাগরি
আন্তর্জাতিক4 hours ago

ইরানের প্রেসিডেন্টের মৃত্যুর খবরে অস্থির জ্বালানি তেলের বাজার

জেড ক্যাটাগরি
পুঁজিবাজার4 hours ago

আইএফআইসি ব্যাংকের বোনাস লভ্যাংশ অনুমোদন

জেড ক্যাটাগরি
পুঁজিবাজার5 hours ago

ক্যাপিটাল গেইনের ওপর করারোপ না করার অনুরোধ ডিএসই চেয়ারম্যানের

জেড ক্যাটাগরি
পুঁজিবাজার5 hours ago

নগদ লভ্যাংশ পাঠিয়েছে দুই কোম্পানি

জেড ক্যাটাগরি
জাতীয়5 hours ago

বঙ্গবন্ধু শান্তি পদক দেবে সরকার

Advertisement

ফেসবুকে অর্থসংবাদ

২০১৮ সাল থেকে ২০২৩

অর্থসংবাদ আর্কাইভ

তারিখ অনুযায়ী সংবাদ

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১