Connect with us

টেলিকম ও প্রযুক্তি

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন বাংলা ভাষার তিন সফটওয়্যার উন্মুক্ত

Published

on

মার্কেন্টাইল

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ভাষা শহিদের স্মরণে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন বাংলা ভাষাভিত্তিক তিনটি সফটওয়্যার বাংলা টেক্সট টু স্পিচ ‘উচ্চারণ’ বাংলা স্পিচ টু টেক্সট ‘কথা’ এবং বাংলা ওসিআর ‘বর্ণ’ -সহ নতুন একটি বাংলা ফন্ট ‘পূর্ণ’ উন্মুক্ত করেছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

এছাড়া তিনি অমর একুশের ভাষা শহীদদের স্মরণে বিটিসিএলের ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট ব্যান্ডউইডথ জিপনের বিশেষ সাশ্রয়ী প্যাকেজ ঘোষণা ও টেলিটকের ই-সিম উদ্বোধন করেন।

বুধবার (২১ ফেব্রুয়ারি) মহান একুশের দিনে প্রতিমন্ত্রী ঢাকায় বিসিসি মিলনায়তনে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও ভাষা শহিদ স্মরণে, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির হিসেবে উপস্থিত থেকে এসব অ্যাপস ও বাংলা ফন্ট অবমুক্ত এবং টেলিটকের ই-সিম উদ্বোধন করেন।

বাংলা টেক্সট টু স্পিচ ‘উচ্চারণ’ হলো একটি টিটিএস সফটওয়্যার। লেখাকে ম্যাশিনের মাধ্যমে উচ্চারিত কথায় রূপান্তর করার প্রযুক্তিকে টিটিএস বা টেক্সট টু স্পিচ অ্যাপ্লিকেশন বলা হয়ে থাকে। টিটিএস ডকুমেন্ট, ওয়েবসাইট, স্ক্রিনের উইন্ডোতে থাকা টেক্সট পড়ে শোনাতে পারে। একই সঙ্গে তা দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ব্যক্তির জন্য উপযোগী হয়ে পড়ে শোনাতে পারে। সফটওয়্যারটিতে নারী ও পুরুষ উভয় কণ্ঠই রয়েছে। বর্তমানে read.bangla.gov.bd ঠিকানা থেকে সফটওয়্যারটি ব্যবহার করা যাবে।

কথা হচ্ছে বাংলা ভয়েস টাইপিং সফটওয়্যার। মুখের কথার মাধ্যমে কম্পিউটারে লেখার প্রযুক্তি হলো ভয়েস টাইপিং বা ‘স্পিচ টু টেক্সট’। এটি প্রমিত স্পষ্ট ও নীরব পরিবেশে উচ্চারিত বাংলা কথাকে লেখায় রূপান্তর করতে পারে। সফটওয়্যারটির চূড়ান্ত ভার্সন বাংলা প্রধান বিরাম চিহ্নগুলোকে লিপিবদ্ধ করতে পারে। ব্রাউজার থেকে একটি ওয়েব অ্যাপ্লিকেশন হিসেবে voice.bangla.gov.bd ঠিকানা লিখে সফটওয়্যারটি ব্যবহার করা যাবে।

বাংলা ওসিআর এর নাম হলো ‘বর্ণ’। ওসিআরের সাহায্যে কম্পিউটারের অপরিবর্তনযোগ্য ডকুমেন্টের লেখাকে এডিটেবল টেক্সটে রূপান্তর করা যায়। ওসিআর হলো পিডিএফ ফাইলের লেখাকে পরিবর্তনযোগ্য লেখায় রূপান্তর করা। এই বর্ণ ওসিআরটি বাংলা লেখাকে কম্পোজকৃত লেখার অনুরূপ টেক্সটে রূপান্তর করে থাকে। অর্থাৎ কোনো ডকুমেন্টকে ছবি তুলে বা স্ক্যান করে ওসিআর করলে তা কম্পোজড হয়ে যায়। বর্ণ ওসিআরটি বেশ কিছু বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এটি কম্পিউটার কম্পোজ ডকুমেন্ট বিশেষ করে সরকারি পত্র, বিজ্ঞপ্তি ওসিআর করতে পারে। এর মাধ্যমে টেবিল, কমন ইংরেজি শব্দ ও প্রতিষ্ঠানের নাম, সরকারি প্রতিষ্ঠানের লোগো শনাক্ত করা যায়। এছাড়াও, পুরোনো টাইপরাইটার ডকুমেন্ট ও লেটার প্রেস বইও ওসিআর করতে পারে অ্যাপ্লিকেশনটি। ওয়েব অ্যাপ্লিকেশন হিসেবে যেকোনো ব্রাউজার থেকে ocr.bangla.gov.bd ঠিকানা লিখে সফটওয়্যারটি ব্যবহার করা যায়।

‘পূর্ণ’ ফন্ট একটি অনন্য সাধারণ বাংলা ইউনিকোড ফন্ট যা ফন্ট সংক্রান্ত সমস্যাগুলো চিহ্নিত করার পর ডিজাইন ও ডেভেলপ করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে বাংলা প্রকাশনায় প্রয়োজনীয় সকল টাইপোগ্রাফিক ফিচার। একই সঙ্গে বাংলা ভাষার বৈশিষ্ট্যকেও যথাযথভাবে প্রকাশ করছে এই ফন্ট। ফন্টটি httpsbangla.gov.bdfonts ঠিকানা থেকে ডাউনলোড করা যাবে।

জুনাইদ আহমেদ পলক প্রযুক্তিতে বাংলা ভাষার প্রচলনকে বাংলা ও বাঙালি বিশেষ করে বিশ্বে ৩৫ কোটি বাংলাভাষী মানুষের জন্য এক ঐতিহাসিক ঘটনা উল্লেখ করে বলেন, স্মার্ট প্রযুক্তিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রজ্ঞাবান নেতৃত্বে বাংলা ভাষার বিকাশে এক নতুন মাত্রা সংযুক্ত হলো।

তিনি বলেন, বাঙালির পরিচয়ের মূলভিত্তি তার ভাষিক পরিচয়। আর্থ-সামাজিক জীবনে বাংলা ভাষা যথাযথ গুরুত্ব না পেলে তার শক্তি ক্রমশ দুর্বল হয়ে যাবে।

জিপনের বিশেষ সাশ্রয়ী প্যাকেজ
পলক জানান, বিটিসিএলের ইন্টারনেট ব্যান্ডউইডথ জিপনের বিশেষ সাশ্রয়ী প্যাকেজের আওতায় ৫ এমবিপিএসের বিদ্যমান মূল্যে ৫০০ টাকা থেকে কমিয়ে, ৩৯৯ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। এখন সাশ্রয়ী এই প্যাকেজের আওতায় ১০ এমবিপিএস ইন্টারনেট ব্যান্ডউডথ পাওয়া যাবে ৫০০ টাকায়। ১০ এমবিপিএস ইন্টারনেটের বিদ্যমান মূল্য ৮০০ টাকা। এখান থেকে ১৫ এমবিপিএস পাওয়া যাবে ৮০০ টাকায়। ১৫ এমবিপিএস বিদ্যমান মূল্য ১০৫০ টাকা, এখন থেকে সমপরিমাণ টাকা অর্থাৎ ১০৫০ টাকায় পাওয়া যাবে ২০ এমবিপিএস। বিদ্যমান মূল্যে ২০ এমবিপিএস এর দাম ছিল ১২৫০ টাকা। বিদ্যমান মূল্যে ২৫ এমবিপিএসের দাম ১৪৫০ টাকা। ২৫ এমবিপিএস এর পরিবর্তিত প্যাকেজ মূল্য ১৩০০ টাকা। ৩০ এমবিপিএস এর বিদ্যমান মূল্য ১৬৫০ টাকা। পরিবর্তিত মূল্য নির্ধারিত করা হয়েছে ১৫০০ টাকা। ৪০ এমবিপিএস এর মূল্য ২০৫০ টাকা, পরিবর্তিত মূল্য ২০০০ টাকা। ৫০ এমবিপিএস এর বিদ্যমান মূল্য ২৪৫০ টাকা, পরিবর্তিত দাম রাখা হয়েছে ২৪০০ টাকা। এ সুযোগ সীমিত সময়ের জন্য প্রযোজ্য হবে।

টেলিটকের ই-সিম
প্রতিমন্ত্রী বলেন, ই-সিম হলো এমবেডেড সাবস্ক্রাইবার আইডেন্টিটি মডিউল। এটি ফিজিক্যাল সিম কার্ডের মতো নয়। এটি ফোনে ইনস্টল করা ভার্চ্যুয়াল সিম, যেটি কোনো মোবাইল অপারেটরের মাধ্যমে তৃতীয় পক্ষীয় সফটওয়্যারের সহায়তায় মোবাইল নম্বর বরাদ্দপূর্বক অনলাইনে সক্রিয় করা হয়। ই-সিমের সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো, বারবার খোলার ঝামেলাই যেহেতু নেই, তাই এ সিম নষ্ট হওয়ারও আশঙ্কা নেই। এ ছাড়া একই সঙ্গে একাধিক নম্বর ব্যবহার করা যায়। একসঙ্গে এক ফোনে পাঁচটি পর্যন্ত ই-সিম ব্যবহার করা যায়। প্রযুক্তিবিদরা বলছেন, ২০২৫ সালের মধ্যে বিশ্বজুড়ে ই-সিমের ব্যবহার বেড়ে হবে ৩.৪ বিলিয়ন।

বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক রণজিৎ কুমারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব আবু হেনা মোরশেদ জামান, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব মো. সামসুল আরেফিন, বিটিআরসির চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মো. মহিউদ্দিন আহমেদ এবং বাংলাদেশ স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেডের চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন।

এর আগে পুস্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে অমর ভাষা শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হয়।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

টেলিকম ও প্রযুক্তি

বাংলাদেশে প্রায় সাত লাখ আইটি ফ্রিল্যান্সার রয়েছে: পলক

Published

on

মার্কেন্টাইল

ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, ডিজিটাল ব্যবস্থা বাস্তবায়িত হওয়ার কারণে বাংলাদেশে ৫২ হাজারেরও বেশি ওয়েবসাইট চালু করার মাধ্যমে দুই হাজার ৫০০টি পরিষেবা ডিজিটালাইজ করা হয়েছে। বর্তমানে বাংলাদেশে প্রায় সাত লাখ আইটি ফ্রিল্যান্সার রয়েছে। আইটি এবং আইটিইএস খাতে ২০ লাখ তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থান সৃষ্টি হয়েছে এবং দুই বিলিয়ন ডলার রপ্তানি আয় হচ্ছে।

মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) সিঙ্গাপুরে ওরাকল ক্লাউড ওয়ার্ল্ড ট্যুর সিঙ্গাপুর অনুষ্ঠানে ওরাকলের গ্লোবাল চিফ ইনফরমেশন অফিসার অ্যান্ড এক্সিকিউটিভ ভাইস-প্রেসিডেন্ট জে ইভান্সের সঙ্গে ইউজিং এআই টু বিল্ড ইন্টেলিজেন্ট ক্লাউড শীর্ষক আলোচনায় অংশগ্রহণকালে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেছেন।

তিনি বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে সাফল্যের পথ ধরেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন। যার লক্ষ্য স্মার্ট সিটিজেন, স্মার্ট ইকোনমি, স্মার্ট গভর্নমেন্ট এবং স্মার্ট সোসাইটি- এ চারটি প্রধান পিলারের ওপর ভিত্তি করে ২০৪১ সাল নাগাদ অন্তর্ভুক্তিমূলক, উদ্ভাবনী, টেকসই, জ্ঞান-ভিত্তিক স্মার্ট জাতিতে রূপান্তর করা। আমাদের বিভিন্ন নীতি রয়েছে, বিভিন্ন স্টেকহোল্ডারের সঙ্গে অংশীদারত্ব রয়েছে। ইন্ডাস্ট্রি, সরকার এবং একাডেমিয়ার সমন্বয়ে আগামীর স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণ করা হবে।

তিনি বলেন, ডিজিটাল ব্যবস্থা বাস্তবায়িত হওয়ার কারণে বাংলাদেশে ৫২ হাজারেরও বেশি ওয়েবসাইট চালু করার মাধ্যমে দুই হাজার ৫০০টি পরিষেবা ডিজিটালাইজ করা হয়েছে। বর্তমানে বাংলাদেশে প্রায় সাতলাখ আইটি ফ্রিল্যান্সার রয়েছে। আইটি এবং আইটিইএস খাতে ২০ লাখ তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থান সৃষ্টি হয়েছে এবং দুই বিলিয়ন ডলার রপ্তানি আয় হচ্ছে। আগামীতে কৃষি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, পরিবহনসহ সব খাতকে উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে অধিকতর দক্ষতার সঙ্গে পরিচালনা করা হবে।

প্রতিমন্ত্রী পলক বলেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের এই যুগে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার মতো প্রযুক্তি আমাদের দৈনন্দিন জীবনের অংশ হয়ে পড়েছে। সবকিছু বিবেচনা করে এআই আইন প্রণয়ন করা হচ্ছে। এছাড়া সাইবার নিরাপত্তা আইন, ব্যক্তিগত ডেটা সুরক্ষা আইনের খসড়া তৈরি করেছি এবং একইসঙ্গে কিছু ফ্রন্টিয়ার টেকনোলজি ভিত্তিক সরকারি পরিষেবা চালু হচ্ছে। কীভাবে আমরা আমাদের কৌশলগুলো তৈরি করে এবং নতুন আইন প্রবর্তনের মাধ্যমে শিল্পের বেসরকারি খাতের প্রয়োজনীয়তাগুলো পূরণ করতে পারি সেই পথ অনুসরণ করছি।

প্রতিমন্ত্রী জানান, আমরা সংবিধান, শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও বিনিয়োগের ওপর চারটি জেনারেটেড প্রি-ট্রেইনড ট্রান্সফরমার জিপিটি পরিষেবা চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমাদের সমস্ত জিপিটি টুল ওরাকল দ্বারা সমর্থিত। আমাদের সরকারি ক্লাউডে হোস্ট করতে চলেছে, একইসঙ্গে আমরা ওরাকল একাডেমি এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে আমাদের শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে কম্পিউটিং প্রশিক্ষণ দেওয়ার জন্য অংশীদারত্ব করছি।

প্রতিমন্ত্রী পলক বলেন, তরুণ উদ্যোক্তা ও উদ্ভাবকদের কাছ থেকে ধারণাগুলো নিয়ে তাদের স্বপ্ন পূরণ করতে হ্যাকাথনের আয়োজন করেছি। ফলে বেসরকারি উদ্যোক্তাদের সরকারি ব্যবস্থার সঙ্গে সংযুক্ত করছে। তাই এইভাবে আমরা বেসরকারি খাত ও বহুজাতিক নেতাদের সঙ্গে অংশীদারত্বের মাধ্যমে স্বল্প সময়ের মধ্যে এই সব সাফল্য অর্জন করা সম্ভব হয়েছে।

প্রতিমন্ত্রী ডিজিটাল বাংলাদেশের সাফল্যের কথা তুলে ধরে বলেন, আমরা আমাদের শিক্ষা ও স্বাস্থ্য পরিষেবাগুলো বিকাশ করেছি। আমরা আমাদের সব সরকারি পরিষেবাগুলো ক্লাউড ফার্স্ট অ্যাপ্রোচের ভিত্তিতে তৈরি করেছি।

ডিজিটাল সরকারি পরিষেবা দিতে ওরাকলের অবদানের কথা তুলে ধরে প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, বাংলাদেশের প্রথম সরকারি ক্লাউড, যা ওরাকলের সঙ্গে অংশীদারত্বে আমরা চালু করেছি। আমাদের পরিষেবাগুলো নির্বিঘ্নে দেওয়া এবং নিরাপত্তাসহ ক্লাউড স্টোরেজ, প্রসেসিং সুবিধা এবং এই সব এআই ফিউশন সুবিধায় ওরাকলের গুরুত্বপূর্ণ অবদান রয়েছে।

কাফি

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

টেলিকম ও প্রযুক্তি

চমক নিয়ে একীভূত হচ্ছে হোয়াটসঅ্যাপ-ইনস্টাগ্রাম

Published

on

মার্কেন্টাইল

ফেসবুকের মূল প্রতিষ্ঠান মেটার মালিকানাধীন বিশ্বের জনপ্রিয় মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম হোয়াটসঅ্যাপে আসছে বিশেষ ফিচার। অ্যাপগুলো সংযুক্ত করার লক্ষে প্রতিষ্ঠানটি বেশকিছু পরিবর্তন এনেছে। এবার নতুন চমকের মধ্যে রয়েছে হোয়াটসঅ্যাপের সঙ্গে ইনস্টাগ্রাম যুক্ত করা।

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মের তালিকায় রয়েছে মেটার মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান ফেসবুক, মেসেঞ্জার এবং হোয়াটসঅ্যাপ। এই অ্যাপগুলো সংযুক্ত করার জন্য প্রতিষ্ঠানটি ইতিমধ্যেই কয়েকটি পরিবর্তন করেছে।

মেটা সূত্রে জানা যায়, হোয়াটসঅ্যাপে ব্যবহারকারীদের এসব নতুন ফিচার চালু হওয়ার আগে বিটা ভার্সনে টেস্ট করা হবে। এখন অ্যান্ড্রয়েড বিটা সংস্করণে একটি ফিচার খুঁজে পাওয়া গেছে, যেখানে ব্যবহারকারীরা ইনস্টাগ্রামে তাদের হোয়্যাটসঅ্যাপ স্ট্যাটাস শেয়ার করতে পারবেন।

এই ফিচারর ইতিমধ্যেই আইওএস ভার্সনে পাওয়া যাচ্ছে। এর আগে ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম এবং ফেসবুক ও হোয়্যাটসঅ্যাপে ক্রস পোস্ট করার অপশন চালু করা হয়েছিল।

নতুন এ ফিচারের মাধ্যেমে ব্যবহারকারীরা হোয়াটসঅ্যাপ এবং ইনস্টাগ্রাম উভয় জায়গায় স্ট্যাটাস শেয়ার করার সুবিধা পাবেন। যদিও এতদিন ব্যবহারকারী হোয়াটসঅ্যাপ এবং ইনস্টাগ্রাম দুই জায়গাতেই একই স্ট্যাটাস বা স্টোরি শেয়ার করতে আলাদা অ্যাপে গিয়ে দুবার শেয়ার করতে হতো।

এমআই

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

টেলিকম ও প্রযুক্তি

অ্যাপলকে টপকে শীর্ষ স্মার্টফোন নির্মাতা কোম্পানি স্যামসাং

Published

on

মার্কেন্টাইল

২০২৪ সালের প্রথম কোয়ার্টারে অ্যাপল স্মার্টফোনের শিপমেন্ট ১০ শতাংশ কমেছে। গবেষণা সংস্থা আইডিসির উপাত্ত থেকে এমনটি জানা গেছে। জানুয়ারি-মার্চে বিশ্বব্যাপী স্মার্টফোনের শিপমেন্ট ৭ দশমিক ৮ শতাংশ বেড়ে ২৮৯ দশমিক ৪ মিলিয়ন ইউনিট বেড়েছে। ২০ দশমিক ৮ শতাংশ মার্কেট শেয়ারে স্যামসাং অ্যাপলকে সরিয়ে শীর্ষ নির্মাতার স্থান দখল করেছে।

ডিসেম্বর কোয়ার্টারে শক্তিশালী পারফরম্যান্সে অ্যাপল স্যামসাংকে ছাড়িয়ে শীর্ষে ওঠে। আবার বিক্রিতে ভাটা পড়ায় স্থান হারাল আইফোন প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানটি।

১৭ দশমিক মার্কেট শেয়ার নিয়ে অ্যাপল আছে দ্বিতীয় স্থানে। হুয়াওয়ের মতো চীনা ব্র্যান্ডগুলোর মার্কেট শেয়ার বেড়েছে। চীনের অন্যতম স্মার্টফোন নির্মাতা শাওমি ১৪ দশমিক ১ শেয়ার নিয়ে প্রথম কোয়ার্টারে তিন নম্বরে অবস্থান করছে। দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিষ্ঠান স্যামসাং চলতি বছরের শুরুতে গ্যালাক্সি এস২৪ সিরিজের স্মার্টফোন বাজারে ছাড়ে। কোম্পানিটি প্রথম কোয়ার্টারে ৬০ মিলিয়ন ফোনের শিপমেন্ট করে।

গত বছরের গ্যালাক্সি এস২৩ স্মার্টফোনের তুলনায় প্রথম তিন সপ্তাহে এস২৪ স্মার্টফোনের বৈশ্বিক বিক্রি ৮ শতাংশ বাড়তি বলে এর আগে জানিয়েছিল উপাত্ত সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান কাউন্টারপয়েন্ট।

প্রথম কোয়ার্টারে অ্যাপল ৫০ দশমিক ১ মিলিয়ন আইফোনের শিপমেন্ট করে। গত বছরের একই সময়ে ৫৫ দশমিক ৪ মিলিয়ন ইউনিট শিপমেন্ট করে প্রতিষ্ঠানটি।

কাফি

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

টেলিকম ও প্রযুক্তি

টেক্সট লিখলেই তৈরি হবে ভিডিও

Published

on

মার্কেন্টাইল

জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন গুগলের বিভিন্ন ধরনের ফিচার রয়েছে। প্রতিনিয়ত ব্যবহারকারীদের জন্য নতুন নতুন ফিচার নিয়ে হাজির হচ্ছে গুগল। তবে টেক্সট টু ইমেজ জেনারেটর হিসেবে সেভাবে ছাপ ফেলতে পারেনি গুগল।

এবার টেক্সট টু ভিডিও জেনারেটর হিসেবে চমক দিতে নতুন প্রযুক্তির ঘোষণা করলো অ্যালফাবেট মালিকাধীন সার্চ ইঞ্জিন। যা নিয়ে হইচই ইন্টারনেট দুনিয়ায়। এই টুলের নাম গুগল ভিডস। যা এআইয়ের মাধ্যমে টেক্সটকে ভিডিওতে রূপান্তরিত করবে। অর্থাৎ আপনার যেমন ভিডিও দরকার তা লিখে দিলেই তেমন ভিডিও বানিয়ে দেবে গুগলের নতুন অ্যাপ।

কিছুদিন আগে এমনই এক প্রযুক্তি এনে সাড়া ফেলে দিয়েছিল ওপেনএআই। এতটাই নিখুঁত এবং চমকপ্রদ ভাবে ডিজাইন করা হয়েছে যে ভিডিওটি মানুষ না রোবট বানিয়েছে তা ধরা মুশকিল। সেই রকম কিছুটা কাজ করবে গুগল ভিডস। যেখানে ব্যবহারকারীরা শুধু বর্ণনা দিলেই ভিজ্যুয়াল ছবি ফুটে উঠবে।

এই অ্যাপে গুগলের দ্বারা তৈরি করা টেম্পলেট থাকবে। যা ব্যবহার করতে পারেন ব্যবহারকারী। অথবা ব্যবহারকারী নিজস্ব প্রম্প্টও দিতে পারবে সেখানে। তিনি যেমনটা বানাতে চান তা সঠিকভাবে লিখে দিলেই তৈরি হবে ভিডিও। এদিন ব্লগ পোস্টে গুগল ভিডস সম্পর্কিত একাধিক তথ্য প্রকাশ করেছে সার্চ ইঞ্জিন।

চাইলে ব্যবহারকারী তার নিজের ভয়েস ওভার যোগ করতে পারবেন ভিডিওতে। বিষয়টি শুনতে আহামরি না লাগলেও চোখের সামনে সেই ভিজ্যুয়াল উপস্থাপন সত্যি চমকে দেবে। আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সির দ্বারা ম্যাজিকের মতো তৈরি হবে যে কোনো ভিডিও।

কাফি

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

টেলিকম ও প্রযুক্তি

ফ্রিতে ব্যবহার করা যাবে গুগল এআই ফিচার

Published

on

মার্কেন্টাইল

বিশ্বের জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন গুগলের রয়েছে অসংখ্য ফিচার। প্রতিনিয়ত ব্যবহারকারীদের জন্য নতুন নতুন ফিচার নিয়ে হাজির হচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। সেই সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট এবার সুখবর নিয়ে এসেছে। গুগল সম্প্রতি তাদের আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স (এআই) ভিত্তিক ছবি এডিটিং টুলগুলো খুব শীঘ্রই গুগল ফটো ব্যবহারকারীদের জন্য বিনামূল্যে ব্যবহারের ঘোষণা দিয়েছে।

যদিও এই সিদ্ধান্তের ফলে ম্যাজিক এডিটর, ম্যাজিক ইরেজার, ফটো আনব্লার, পোর্ট্রেট লাইটের মতো এআই এডিটিং টুলগুলো এখন পর্যন্ত শুধুমাত্র পিক্সেল এবং গুগল ওয়ান হ্যান্ডসেটের জন্য সীমাবদ্ধ ছিল। তবে এখন সবাই ব্যবহারের সুবিধা পাবে। যদি কেউ এই ফটো স্টোরেজ এবং শেয়ারিং পরিষেবার গ্রাহক হয়ে থাকেন তবে এই টুলসহ একাধিক উল্লেখযোগ্য এআই এডিটিং বিষয়ের অ্যাক্সেস আগামী মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে পাবেন।

কবে থেকে বিনামূল্যে এই ফিচার ব্যবহার করা যাবে

সম্প্রতি টুইটারে (বর্তমানে এক্স) একটি পোস্ট শেয়ার করে গুগল। এতে নিশ্চিত করা হয়, গুগল ফটোস অ্যাপ ব্যবহারকারীরা আগামী ১৫ মে থেকে এআই ফটো এডিটিং ফিচারের সুবিধা বিনামূল্যে পাবে। যা ম্যাজিক ইরেজার (অবাঞ্ছিত বস্তু অপসারণ করার জন্য), ফটো আনব্লার (অস্পষ্টতা কমাতে সাহায্য করবে) এবং পোর্ট্রেট লাইট (বোকেহ এফেক্ট যোগ করবে) এডিটিং টুলগুলো ব্যবহার করতে সক্ষম হবেন।

এআই এডিটিং ফিচার ব্যবহারে ডিভাইসে যা লাগবে

এআই ফটো এডিটিং ফিচারের জন্য অ্যান্ড্রয়েড অথবা আইওএস ডিভাইসে কিছু হার্ডওয়্যার ও সফটওয়্যার প্রয়োজন হবে।

অ্যান্ড্রয়েড ফোন

৬৪ বিট প্রসেসর
৩ জিবি র‌্যাম
অ্যান্ড্রয়েড ওরিও বা উচ্চতর ওএস সংস্করণ

আইওএস

৬৪ বিট প্রসেসর
৩ জিবি র‌্যাম
আইওএস ১৫ বা উচ্চতর ওএস সংস্করণ

তবে স্মার্টফোনের পাশাপাশি পিক্সেল সিরিজের ট্যাবলেট, ক্রোমবুক এবং আইপ্যাডের জন্যও বিনামূল্যে এআই ফটো এডিটিং ফিচার রোলআউট করবে গুগল। এক্ষেত্রে আগামী ১৫ মে থেকে ফিচারটি উম্মুক্তের কাজ শুরু করা হবে এবং পর্যায়ক্রমে প্রত্যেকটি অঞ্চলের ডিভাইসের জন্য চালু করা হবে।

কাফি

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন
মার্কেন্টাইল
টেলিকম ও প্রযুক্তি6 hours ago

বাংলাদেশে প্রায় সাত লাখ আইটি ফ্রিল্যান্সার রয়েছে: পলক

মার্কেন্টাইল
লাইফস্টাইল6 hours ago

হার্ট ভালো রাখতে খাবেন যেসব মসলা

মার্কেন্টাইল
জাতীয়6 hours ago

বজ্রপাতে তিন জেলায় ৪ জনের মৃত্যু

মার্কেন্টাইল
ধর্ম ও জীবন7 hours ago

শাওয়ালের ছয় রোজা কি ধারাবাহিকভাবে রাখা জরুরি?

মার্কেন্টাইল
অর্থনীতি7 hours ago

সাত ধরনের মোটরযানের কর মওকুফ

মার্কেন্টাইল
আন্তর্জাতিক7 hours ago

পাকিস্তান-আফগানিস্তানে ঝড়ের আঘাতে শতাধিক প্রাণহানি

মার্কেন্টাইল
বিনোদন7 hours ago

বর্ষবরণ দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে সোলসের কনসার্ট শুরু

মার্কেন্টাইল
পুঁজিবাজার8 hours ago

নগদ লভ্যাংশ দেবে মার্কেন্টাইল ব্যাংক

মার্কেন্টাইল
জাতীয়8 hours ago

থাইল্যান্ড, সৌদি ও গাম্বিয়া সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

মার্কেন্টাইল
জাতীয়8 hours ago

কৃতি শিক্ষার্থীরাই স্মার্ট বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ: স্পিকার

ফেসবুকে অর্থসংবাদ

২০১৮ সাল থেকে ২০২৩

অর্থসংবাদ আর্কাইভ

তারিখ অনুযায়ী সংবাদ

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০