Connect with us

বীমা

সোনালী লাইফের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তাকে নিরাপত্তা দিতে অনুরোধ

Published

on

লাফার্জ

সোনালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা মীর রাশেদ বিন আমানকে তার দপ্তরে প্রবেশ ও দাপ্তরিক কার্যক্রম পরিচালনার জন্য কোম্পানির অফিসে নিরাপত্তা দিতে পুলিশকে অনুরোধ করেছে বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ)।

ঢাকা মেট্টোপলিটনের রমনা বিভাগের পুলিশ কমিশনারকে দেওয়া এক চিঠিতে রোববার (১৪ জানুয়ারি) এই অনুরোধ জানায় আইডিআরএ।

আইডিআরএ পরিচালক (আইন) মোহা. আবদুল মজিদ স্বাক্ষরিত চিঠিতে বলা হয়েছে, সোনালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যানসহ কিছু পরিচালকের মাধ্যমে সংঘটিত আর্থিক অনিয়মের বিষয়ে তদন্ত করার লক্ষ্যে বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ কর্তৃক-আইডিআরএ একটি নিরীক্ষা প্রতিষ্ঠানকে দায়িত্ব দিয়েছে। তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনাকালে নিরীক্ষা প্রতিষ্ঠানের চাহিদা মাফিক বিভিন্ন প্রকার দলিলাদি কোম্পানির মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তার সরবরাহ করার জন্য বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের এক চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

তদন্তাধীন আর্থিক অনিয়মের সাথে কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদের কতিপয় সদস্য জড়িত থাকায় তারা মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তাকে দপ্তরে প্রবেশ করতে দিচ্ছে না এবং এর ফলে তিনি দায়িত্ব পালন করতে পারছেন না। এ প্রেক্ষিতে বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ গত ১০ জানুয়ারি মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তাকে দায়িত্ব পালনের জন্য দপ্তরে প্রবেশ ও প্রয়োজনীয় সফটওয়্যারে প্রবেশাধিকার প্রদানের জন্য কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যানসহ অন্যান্যদের নির্দেশনা প্রদান করে।

কোম্পানির মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা মীর রাশেদ বিন আমান লিখিতভাবে আইডিআরকে জানিয়েছেন, তিনি গত ১১ জানুয়ারি সকালে আইডিআরএর নির্দেশনা অনুযায়ী- সোনালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের প্রধান কার্যালয় রাজধানীর রাজউক এভিনিউয়ে প্রবেশ করতে গেলে তাকে কোম্পানিতে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি। শুধু তাই নয়, স্থানীয় থানায় অভিযোগ করা হয় যে, তিনি অবৈধভাবে কোম্পানিতে জোর করে প্রবেশ করেছেন। এই অভিযোগের প্রেক্ষিতে স্থানীয় থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তাকে অফিসে প্রবেশ ও তদন্তকাজে সহায়তা প্রদানে বাধা সৃষ্টি করে। যা বীমা কোম্পানির শেয়ারহোল্ডার ও বীমা গ্রহীতার স্বার্থের বিঘ্ন হওয়ার আশঙ্কা সৃষ্টি করেছে।

এমতাবস্থায়, বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ এর নির্দেশনা অনুযায়ী- সোনালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের দায়িত্ব পালনরত মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা মীর রাশেদ বিন আমান যাতে সশরীরে তার দপ্তরে প্রবেশপূর্বক প্রয়োজনীয় সফটওয়্যারে প্রবেশাধিকার পান এবং তার দায়িত্ব পালন চলমানে সহায়তায় কেউ কোনরূপ বাধার সৃষ্টি না করতে পারে এ বিষয়ে পুলিশি সহযোগিতা প্রদান করার জন্য অনুরোধ জানিয়েছে আইডিআরএ।

এ চিঠির অনুলিপি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিবকেও দিয়েছে আইডিআরএ।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

বীমা

ব্যাংকাস্যুরেন্স সেবা উদ্বোধন আজ

Published

on

লাফার্জ

জাতীয় বিমা দিবস উপলক্ষে আজ উদ্বোধন হতে যাচ্ছে ব্যাংকে বিমাপণ্য বেচাকেনার সেবা ‘ব্যাংকাস্যুরেন্স’। শুক্রবার এই সেবা উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তবে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হলেও গ্রাহক লেভেলে এটি চালু হবে আগামী সপ্তাহ থেকে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী।

ব্যাংক গ্রাহকদের কাছে বিমা পরিষেবা বিক্রির ব্যবস্থা ‘ব্যাংকস্যুরেন্স’ নামে পরিচিত। এখানে ব্যাংকগুলো কেবল করপোরেট প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করবে। তারা নিজেদের গ্রাহকদের বিমা পলিসি সম্পর্কে জানাবে এবং আগ্রহী গ্রাহকদের কাছে সেগুলো বিক্রি করবে।

জানা গেছে, প্রাথমিকভাবে দেশের কয়েকটি বেসরকারি ব্যাংকের কিছু শাখায় সেবাটি মিলবে। ধীরে ধীরে তাদের সব শাখায় এবং অন্যান্য ব্যাংকও ব্যাংকাস্যুরেন্স সেবা দেবে। ব্যাংকাস্যুরেন্স সেবা চালুর জন্য ইতোমধ্যে একটি নীতিমালা প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এতে বলা হয়েছে, ব্যাংকগুলো করপোরেট এজেন্ট হিসেবে বিভিন্ন বিমাপণ্য ও সেবা বিক্রি করতে পারবে। এ জন্য ব্যাংকগুলোকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে অনুমোদন নিতে হবে।

একটি ব্যাংক একই সঙ্গে সর্বোচ্চ তিনটি জীবনবিমা ও তিনটি সাধারণ বিমার পণ্যসেবা বিক্রি করতে পারবে। যেসব ব্যাংকের প্রকৃত খেলাপি ঋণ ৫ শতাংশের কম, তারাই শুধু এই সেবায় যুক্ত হতে পারবে। ব্যাংকগুলোকে বিমাপণ্য বিক্রির পর গ্রাহকের বিমা দাবি পাওয়ার ক্ষেত্রেও সহযোগিতা করতে হবে।

জানা গেছে, কয়েকটি দেশি—বিদেশি ব্যাংক ইতোমধ্যে নীতিমালা মেনে ব্যাংকাস্যুরেন্স সেবা দিতে কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে অনুমোদন নিয়েছে।

এদিকে বিমাখাতে ‘ব্যাংকাস্যুরেন্স’ নামক নতুন এই সেবা চালু হওয়ায় এই খাতে সৃষ্ট আস্থার সংকট দূর হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। তাদের মতে, ব্যাংকিং খাত সরাসরি বিমাসেবায় যুক্ত হওয়ায় বিমা খাতের প্রচারণার নতুন ক্ষেত্র তৈরি হবে।

অর্থসংবাদ/এমআই

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

বীমা

বিমা গ্রাহকের অভিযোগ ৩০ দিনের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ

Published

on

বিমায় সংযোজিত হচ্ছে নতুন নিয়ম

বিমা গ্রাহকদের যেকোনো অভিযোগ সর্বোচ্চ ৩০ দিনের মধ্যে নিষ্পত্তি করার নির্দেশ দিয়েছে বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ)। একইসাথে সংশ্লিষ্ট বিমা কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদের তিন সদস্যবিশিষ্ট কমিটিকে এসব অভিযোগ নিষ্পত্তি করতে হবে।

গতকাল সোমবার বিমা গ্রাহক সুরক্ষা গাইডলাইন বা নীতিমালায় এমন নির্দেশনা জারি করে নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইডিআরএ। এতে গ্রাহকদের সুরক্ষা নিশ্চিতে গ্রাহক ও বিমা কোম্পানির দায়িত্ব ও কর্তব্য নির্দিষ্ট করে দিয়েছে।

নীতিমালায় বলা হয়েছে, বিমা পরিকল্প বা পলিসি আইডিআরএ অনুমোদিত হতে হবে। গ্রাহকের কাছে বিক্রয়ের ক্ষেত্রে অনুমোদিত পলিসিতে কোনো ব্যত্যয় করা যাবে না। বিমা পলিসির দলিলে বিমাকারীর নাম, রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট নম্বর, যোগাযোগের প্রকৃত ঠিকানা, পলিসির নাম, শ্রেণি ও প্রকার ইত্যাদির বর্ণনা এবং কর্তৃপক্ষের নাম ও ঠিকানা থাকতে হবে। একই সঙ্গে বিমা কোম্পানি তাদের অভিযোগ নিষ্পত্তির প্রক্রিয়া এবং এ সংক্রান্ত গৃহীত কার্যক্রম গ্রাহকসহ জনসাধারণের অবগতির জন্য বুকলেট বা গ্রহণযোগ্য মাধ্যমে প্রচার করবে।

গ্রাহককে এমন কোনো ধারণা বা আশ্বাস দেওয়া যাবে না যা বিমা পলিসিতে নেই। গ্রাহকের লিখিত সম্মতি ছাড়া বিমা চুক্তিতে কোনো প্রকার পরিবর্তন করা যাবে না। পলিসি মেয়াদপূর্তি বা প্রত্যাহারের ক্ষেত্রে কোনো বিধিনিষেধ বা জরিমানা অথবা কোনো বিনিয়োগের সঙ্গে সম্পর্কিত ঝুঁকি থাকলে তা বিমা গ্রাহককে পলিসি বিক্রির আগেই অবহিত করতে হবে।

নতুন নীতিমালায় আরও বলা হয়েছে, ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে বিমা পলিসি বিক্রির রসিদ ১৫ দিনের মধ্যে ইলেকট্রনিক বা ডিজিটাল পদ্ধতিতে বিমাকারীকে ইস্যু ও সংরক্ষণ করতে হবে এবং সেই রসিদ গ্রাহককে ইলেকট্রনিক বা ডিজিটাল মাধ্যমে পাঠাতে হবে। বিমাকারী বা এজেন্ট গ্রাহকদের সব তথ্য সংরক্ষণে উপযুক্ত সুরক্ষা ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে। আদালতের আদেশ বা উপযুক্ত কর্তৃপক্ষের আইনানুগ চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে প্রয়োজনীয় তথ্য সরবরাহ করা যাবে।

অর্থসংবাদ/এমআই

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

বীমা

পিপলস্ ইন্স্যুরেন্সের স্বতন্ত্র পরিচালক হলেন দিলশাদ আহমেদ

Published

on

লাফার্জ

দেশের শীর্ষ বীমা প্রতিষ্ঠান পিপলস্ ইন্স্যরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের স্বতন্ত্র পরিচালক নিযুক্ত হয়েছেন দিলশাদ আহমেদ।

শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) পিপলস্ ইন্স্যরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের ৪৩১তম পরিচালনা পরিষদের বোর্ড সভায় স্বতন্ত্র পরিচালক হিসেবে যোগদান করেন তিনি।

প্রতিষ্ঠানটির ৬ষ্ঠ এনআরসি কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে বাংলাদেশ সরকারের বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (ইদরা) আগামী তিন বছরের জন্য এই নিয়োগ প্রদান করেছে।

আহমেদ এন্টারপ্রাইজের প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও দিলশাদ আহমেদ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গণিত বিষয়ে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন।

প্রোডাক্ট ব্র্যান্ডিংয়ে অভিজ্ঞ দিলশাদ আহমেদের বিজ্ঞাপনী প্রতিষ্ঠান ২০০৬ সালে দেশের সেরা দশ এজেন্সী অ্যাওয়ার্ড অর্জন করে। বিজনেস নেটওয়ার্কিং নিয়ে বিশ্বসেরা ভারতীয় প্রতিষ্ঠান স্টিলমিন্টের পার্টনার হিসেবে দিলশাদ আহমেদ এ পর্যন্ত চারটি আন্তর্জাতিক স্টিল কনফারেন্স আয়োজন করেছেন। যেখানে প্রতিটি কনফারেন্সে ২৫ টির অধিক দেশের ৫০০ ডেলিগেটস অংশগ্রহণ করেন।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

বীমা

আইডিআরএর নতুন সদস্য বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্যকে বিআইএফ’র শুভেচ্ছা

Published

on

লাফার্জ

বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের সদস্য (প্রশাসন) পদে নিয়োগ প্রাপ্ত নতুন সদস্য বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য খোকন এনডিসিকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়েছে মুখ্য নির্বাহীদের সংগঠন বিআইএফ। ফোরামের প্রেসিডেন্ট ও পপুলার লাইফের মুখ্য নির্বাহী বিএম ইউসুফ আলীর নেতৃত্বে বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) কর্তৃপক্ষের কার্যালয়ে এই শুভেচ্ছা জানানো হয়।

বিআইএফ’র ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল ও জেনিথ ইসলামী লাইফের মুখ্য নির্বাহী এস এম নুরুজ্জামান, মেটলাইফ বাংলাদেশের মুখ্য নির্বাহী আলা আহমদ, ন্যাশনাল লাইফের মুখ্য নির্বাহী কাজীম উদ্দীন, চার্টার্ড লাইফের মুখ্য নির্বাহী এস এম জিয়াউল হক, প্রাইম ইসলামী লাইফের মুখ্য নির্বাহী সামছুল আলম, সন্ধানী লাইফের মুখ্য নির্বাহী নিমাই কুমার সাহা ও এনআরবি ইসলামিক লাইফের মুখ্য নির্বাহী শাহ জামাল হাওলাদার এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

গত ২৩ জানুয়ারি সরকারের অতিরিক্ত সচিব (অবসরোত্তর ছুটি ভোগরত) বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য খোকন এনডিসি’কে কর্তৃপক্ষের সদস্য (প্রশাসন) পদে নিয়োগ দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ। যোগদানের তারিখ থেকে পরবর্তী ৩ বছরের জন্য এই নিয়োগ দেয়া হয়।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

পুঁজিবাজার

নানা আর্থিক অনিয়ম, সোনালী লাইফের পর্ষদকে শোকজ

Published

on

লাফার্জ

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি সোনালী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের পরিচালনা পর্ষদকে কেন সাসপেন্ড করা হবে না তার ব্যাখ্যা চেয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রক সংস্থা (আইডিআরএ)। বিমাকারী ও বিমা গ্রহীতাদের স্বার্থ রক্ষার্থে এই ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে।

আগামী ৩ কার্যদিবসের মধ্যে ব্যাখ্যা দিতে বলে বুধবার (২৪ জানুয়ারি) এই চিঠি পাঠানো হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, বিমা আইনের বিধি-প্রবিধান লঙ্ঘন, নানাবিধ আর্থিক অনিয়মের জন্য বিমাকারী ও বিমা গ্রাহকের স্বার্থ রক্ষার্থে বিমা আইন ২০১০ এর ৯৫(১) ধারা অনুসারে পরিচালনা পর্ষদকে কেন সাসপেন্ড করা হবে না। আগামী ২৯ জানুয়ারির মধ্যে এর সঠিক ব্যাখ্যা দিতে না পারলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

যেসব অনিয়মের কথা তুলে ধরা হয় তা হলো
কোম্পানির এফডিআর’র বিপরীতে সাউথ বাংলা ব্যাংকে এসওডি হিসাব নং- ০০০২৬২২০০০০৭৩ খোলা এবং উক্ত ঋণ হিসাব হতে ৮ কোটি ৯৫ লাখ টাকা ও একই ব্যাংকের সঞ্চয়ী হিসাব নং- ০০০২১৩০০০০৩৩৪ হতে ১ কোটি ৫৫ লাখ টাকা উত্তোলন করে মোট ১০ কোটি ৫০ লাখ টাকা ৪ জন পরিচালকের শেয়ার ক্রয়ের মূল্য পরিশোধ।

২০২২ সালে কোম্পানির বোর্ডে পারিবারিক কর্তৃত্ব বজায় রাখার লক্ষ্যে একই পরিবারের ৪ জন সদস্যের নামে বিপুল সংখ্যক শেয়ার বিনামূল্যে হস্তান্তর করে পরিবারের সর্বাধিক সদস্যকে পরিচালক রাখা।

২০২৩ সালে কোম্পানির বর্তমান চেয়ারম্যানের ব্যক্তিগত ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের (ড্রাগন সোয়েটার) প্রতি মাসে ঋণের কিস্তি বাবদ ৩ কোটি টাকা কোম্পানির হিসাব থেকে জনতা ব্যাংকে পরিশোধ করা।

বর্তমান চেয়ারম্যানের মালিকানাধীন ভবন কোম্পানির জন্য ক্রয়ের নামে কোম্পানির এফডিআর’র বিপরীতে সোশ্যাল ইসলামি ব্যাংক, সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার ব্যাংক ও ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামি ব্যাংক হতে ১৫২ কোটি টাকা ঋণ গ্রহণ এবং এ জন্য ৩ বছরে প্রায় ১৫ কোটি টাকার বেশি সুদ প্রদান।

বর্তমান চেয়ারম্যানের মালিকানাধীন ইম্পেরিয়াল ভবন কোম্পানি কর্তৃক ৩৫০ কোটি টাকায় ক্রয়ের জন্য করা সমঝোতা চুক্তি।

আইডিআরএ’র অনুমতি ছাড়াই অক্টোবর, ২০২১ হতে নভেম্বর, ২০২৩ সময়ে ইম্পেরিয়াল ভবনের মূল্য বাবদ বর্তমান চেয়ারম্যানের ৫৩ কোটি ৪৭ লাখ টাকা গ্রহণ। একই সময়ে কোম্পানির তহবিল থেকে মোট ৬১ কোটি ৬২ লাখ ৯০ হাজার ৫শ’ টাকা উত্তোলনপূর্বক বর্তমান চেয়ারম্যানের মালিকানাধীন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে প্রেরণ।

কোম্পানির পরিচালকগণ কর্তৃক অবৈধভাবে মাসিক বেতনভাতা হিসেবে ২০২১ সালের ১ সেপ্টেম্বর হতে ২০২৩ সালের ৩ সেপ্টেম্বর সময়কালে ৩ কোটি ১৮ লাখ ৭৫ হাজার টাকা এবং পরবর্তীতে এরূপে আরো অর্থ গ্রহণ।

আইডিআরএ’র সার্কুলার অমান্য করে কোম্পানির চেয়ারম্যানের জন্য ১ কোটি ৭০ লাখ টাকায় বিলাসবহুল অডি গাড়ি (ঢাকা মেট্রো-ঘ-১৭-৩৬৯৫) ক্রয় ও ২০২১-২৩ মেয়াদে এর রক্ষণাবেক্ষণ বাবদ করা বিপুল ব্যয়।

চেয়ারম্যান ও তার পরিবারের সদস্য পরিচালকগণ কর্তৃক কোম্পানির ঘোষিত লভ্যাংশের অতিরিক্ত লভ্যাংশ গ্রহণ।

কোম্পানির চেয়ারম্যানের বিদেশে চিকিৎসার যাবতীয় খরচ, নিজের ও পরিবারের সদস্যদের ভ্রমণ ও শপিং খরচ, বিদেশে পড়ালেখার খরচ অবৈধভাবে কোম্পানির তহবিল হতে নির্বাহ।

কোম্পানির একজন পরিচালক (শেখ মোহাম্মদ ড্যানিয়েল) এর ব্যক্তিগত অফিস কোম্পানির ভেতরে থাকা, গ্রুপ বীমা পলিসি থেকে বড় অঙ্কের কমিশন গ্রহণ এবং ঋণ খেলাপি হওয়ার কারণে ১২ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখ হতে পরিচালক না হয়েও বোর্ড সভায় অংশগ্রহণ, সম্মানী-বোনাসসহ বিভিন্ন সুবিধা গ্রহণ এবং ব্যাংক হিসাবের সিগনেটরী থাকা।

কোম্পানির বর্তমান চেয়ারম্যান ২০১৪ সাল থেকে ব্যক্তিগত ঋণ সমন্বয়, বিজিএমইকে অনুদান, এসি ক্রয়, বিনোদন (পারিবারিক অনুষ্ঠান, বিবাহের উপহার), দুপুরের খাবার ও সন্ধ্যার নাস্তার বিল, কোরবানির গরু ক্রয়সহ (২০২২ সালে) ব্যক্তিগত খরচ, ২০২২ ও ২০২৩ সালে নিজের ও পরিবারের সদস্যদের বিদেশ ভ্রমণ ব্যয় (১ কোটি ৯২ লাখ ৪৮ হাজার টাকা) আইপিও খরচের নামে অতিরিক্ত টাকা (১ কোটি) এবং পলিসি নবায়ন উপহার বাবদ নিজ প্রতিষ্ঠানের জন্য ১ কোটি ২৩ লাখ ৪৪ হাজার টাকা ইত্যাদি অর্থ কোম্পানি হতে আত্মসাত।

বর্তমান চেয়ারম্যানের ১৫ তলা ভবনে বিভিন্ন অফিস/প্রতিষ্ঠান ভাড়া থাকা সত্ত্বেও সকল ইউটিলিটি বিল কোম্পানি হতে পরিশোধ এবং ২০২১ সাল হতে ইম্পেরিয়াল ভবন কোম্পানি কর্তৃক পুরোপুরি ব্যবহার না করা সত্ত্বেও চেয়ারম্যান অবৈধ প্রভাবের মাধ্যমে পুরো ১৫ তলা ভবনের ভাড়া সোনালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড হতে পরিশোধ।

কোম্পানির বর্তমান চেয়ারম্যানের নিজস্ব প্রতিষ্ঠান ড্রাগন সোয়েটার ও স্পিনিং লিমিটেডের ২০২১ সালের ট্যাক্স বাবদ (১৩ লাখ ৭৫ হাজার টাকা) সোনালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড হতে পরিশোধ।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন
লাফার্জ
রাজধানী31 mins ago

রাজধানীর যেসব এলাকায় গ্যাস থাকবে না শনিবার

লাফার্জ
জাতীয়59 mins ago

শপথ নিলেন নতুন সাত প্রতিমন্ত্রী 

লাফার্জ
জাতীয়1 hour ago

জলবায়ু অর্থায়নে বেসরকারি খাতের সম্পৃক্ততা জরুরি: সাবের হোসেন

ঘরে বসে উপার্জন করার ৮ উপায়
অর্থনীতি2 hours ago

সপ্তাহের ব্যবধানে রিজার্ভ বাড়লো ৩৭ কোটি ডলার

লাফার্জ
শিল্প-বাণিজ্য2 hours ago

শুক্রবার রাতেই মেগা ক্যাম্পেইন নিয়ে আসছে ইভ্যালি

লাফার্জ
খেলাধুলা2 hours ago

ফাইনালে টস জিতে ফিল্ডিংয়ে তামিমের বরিশাল

লাফার্জ
আন্তর্জাতিক3 hours ago

ভারতে ফের বাড়লো বাণিজ্যিক গ্যাসের দাম

লাফার্জ
জাতীয়3 hours ago

ক্রীড়া খাতের উন্নয়নে বাংলাদেশের সঙ্গে কাজ করবে চীন

লাফার্জ
প্রবাস3 hours ago

ইতালিতে স্পন্সর ভিসার অনলাইন আবেদন শুরু

লাফার্জ
জাতীয়3 hours ago

ভাসানচরে আরও ১২৫০ রোহিঙ্গাকে স্থানান্তর

Advertisement
Advertisement

ফেসবুকে অর্থসংবাদ

২০১৮ সাল থেকে ২০২৩

অর্থসংবাদ আর্কাইভ

তারিখ অনুযায়ী সংবাদ

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১