Connect with us

অন্যান্য

৩৩ জন শিক্ষক নিয়োগ দেবে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

Published

on

শিক্ষক

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৩টি বিভাগে ০২টি পদে ৩৩ জন শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আগামী ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়।

পদের বিবরণ

শিক্ষক

চাকরির ধরন: স্থায়ী/অস্থায়ী
প্রার্থীর ধরন: নারী-পুরুষ
কর্মস্থল: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

আবেদন ফরম: রেজিস্ট্রার দপ্তর অথবা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট www.juniv.edu থেকে আবেদন ফরম সংগ্রহ করতে পারবেন।

আবেদনের ঠিকানা: রেজিস্ট্রার, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, সাভার, ঢাকা।

আবেদন ফি: আবেদনপত্রের সঙ্গে রেজিস্ট্রারের অনুকূলে অগ্রণী ব্যাংকের যে কোনো শাখায় অফেরতযোগ্য হিসেবে ৬০০ টাকার ব্যাংক ড্রাফট/বিবিধ জমা রশিদ পাঠাতে হবে।

আবেদনের শেষ সময়: ১৮ জানুয়ারি ২০২৪

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

অন্যান্য

মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ বাংলাদেশের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ: বিশ্বব্যাংকের এমডি

Published

on

শিক্ষক

মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ বাংলাদেশের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকায় সফররত বিশ্বব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) অ্যানা বেজার্ড। মূল্যস্ফীতি কমানোয় সরকারের উদ্যোগে সহায়তা অব্যাহত রাখার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

রোববার (২৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সঙ্গে বৈঠকে এ আশ্বাস দেন তিনি। রাজধানীর শেরেবাংলা নগর অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগে মন্ত্রীর নিজ দপ্তরে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় বৈঠকে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার, ইআরডি সচিব মো. শাহরিয়ার কাদের ছিদ্দিকী, বিশ্বব্যাংকের দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের বিশ্বব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট মার্টিন রাইসারসগ সংস্থাটির ঢাকা অফিসের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, রাতারাতি মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ হবে না অপেক্ষা করতে হবে। বিদ্যুৎসহ জ্বালানির মূল্যও সমন্বয় করতে হবে বলে জানান তিনি।

বিশ্বব্যাংকের ঢাকা অফিস জানায়, অ্যানা বেজার্ড বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী এবং অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, সুশীলসমাজ এবং বেসরকারি খাতের নেতাদের সঙ্গে দেখা করার কথা রয়েছে। তার সঙ্গে রয়েছে দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের বিশ্বব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট মার্টিন রাইসার।

সংস্থাটি আরও জানায়, স্বাধীনতার পর বাংলাদেশকে সহায়তাকারী প্রথম উন্নয়ন সহযোগীদের মধ্যে বিশ্বব্যাংক ছিল অন্যতম। দেশ স্বাধীনের পর বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশে ৪১ বিলিয়নের বেশি প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। এ ঋণের বেশিরভাগই অনুদান বা রেয়াতি ঋণ। বাংলাদেশে বর্তমানে বিশ্বব্যাংক গ্রুপের ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট অ্যাসোসিয়েশন (আইডিএ) দ্বারা সমর্থিত বৃহত্তম চলমান কর্মসূচি রয়েছে।

একদিনের সফরে শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যার পর ঢাকায় এসেছেন অ্যানা বেজার্ড। বাংলাদেশে এটিই তার প্রথম সরকারি সফর।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

অন্যান্য

এলাকার উন্নয়নে ২০ কোটি টাকা করে পাচ্ছেন এমপিরা

Published

on

জমি

সংসদ সদস্যদের স্ব স্ব এলাকায় উন্নয়নের অঙ্গীকার পূরণের জন্য ২০ কোটি টাকা বরাদ্দের কথা জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী তাজুল ইসলাম।

রবিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) সংসদে জাতীয় পার্টির মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্ন বলেন, এমপিরা নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি দেন। তাছাড়া তার এলাকার উন্নয়নে এর আগেও একটা থোক বরাদ্দ থাকতো। এখন নতুন সরকার, এ সরকারের আমলে এমপিদের নিজ নিজ এলাকার উন্নয়নে বরাদ্দ সরকার দেবে কি না?

এর জবাবে মন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেন, সংসদ সদস্যরা স্ব স্ব এলাকায় উন্নয়নের জন্য মানুষের কাছে অনেক অঙ্গীকার করেন, এটাই স্বাভাবিক। স্বাভাবিকভাবে সেসব অঙ্গীকার পূরণ করার জন্য এমপিদের যেমন আগ্রহ, তেমনি প্রধানমন্ত্রী বিষয়টি অত্যন্ত আন্তরিকভাবে অনুধাবন করেছেন বলে একটি প্রকল্প করে প্রতিজন এমপির নির্বাচনী এলাকার জন্য এরই মধ্যে পাঁচ বছর মেয়াদের জন্য ২০ কোটি টাকা দেওয়ার একটি প্রকল্প প্রণয়ন করেছেন।

এটি চলমান। এ প্রকল্প শেষ হলে বা এমপিদের নির্বাচনী এলাকার উন্নয়ন ও অঙ্গীকার পূরণে আবারও নতুন করে প্রকল্প নেওয়ার কথা বিবেচনা করা হবে বলে জানান মন্ত্রী।

এসময় স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

অন্যান্য

ইবিতে বসন্ত বরণ উৎসব পালিত

Published

on

শিক্ষক

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) বাংলা বিভাগের নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে বসন্ত বরণ উৎসব পালন করা হয়েছে। শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের রবীন্দ্র নজরুল কলা ভবনের সামনে থেকে আনন্দ শোভাযাত্রা আরম্ভ হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে আমতলার বাংলা মঞ্চে এসে সমবেত হয়। এরপর নৃত্য, সঙ্গীত ও নাটক পরিবেশিত হয়।

আনন্দ শোভাযাত্রায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া, কলা বিভাগের ডিন অধ্যাপক ড. মো. এমতাজ হোসেন, ইসলামের ইতিহাস ও সাংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন, পশ্চিমবঙ্গ থেকে আগত সহযোগী অধ্যাপক ড. শামিম আহমেদ এবং সহযোগী অধ্যাপক ড. বর্ণালী মৈত্র সহ অন্যান্য অনেক শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থী রেজুয়ান বলেন, বসন্তের আগমন আমাদের মনে অন্যরকম আনন্দের দোলা দিয়ে যায়। বসন্তের মধ্যদিয়ে আমরা যেনো জীবনকে নতুনভাবে উপলব্ধি করি। আপনারা সবাই জানেন ফুল ফোঁটে বনে-বাগানে তার শিহরণ লাগে আমাদের মনে।

এসময় অধ্যাপক ড. মো. আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া বলেন, বাঙ্গালী, বাঙ্গালীত্ব ও বাংলা কৃষ্টি-কালচার সমুন্নত রাখা এবং নিজ দেশে এবং আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে এই সংস্কৃতিকে ছড়িয়ে দেওয়ার যত আচার, অনুষ্ঠান আছে তার মধ্যে অন্যতম এই বসন্ত উৎসব। এই সংস্কৃতি সবার মধ্যে ছড়িয়ে দিতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগ। আমার প্রত্যাশা থাকবে অনাগত দিন গুলোতে এই আয়োজন আরো প্রাণোচ্ছলভাবে, বৃহৎ আকারে আয়োজিত হবে এবং বাঙ্গালী সংস্কৃতি সবার মাঝে ছড়িয়ে পড়বে।

এসময় বাংলা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক গাজী মো. মাহবুব মুর্শিদ বলেন, নানা সীমাবদ্ধতার মধ্য দিয়ে সকলের সহযোগিতায় নাটক ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে বসন্ত উৎসবের আয়োজন করতে পেরে আমরা খুবই আনন্দিত। আপনারা যারা এই আয়োজন গুছানোর জন্য সহযোগিতা করেছেন তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই।

প্রসঙ্গত, ‘নীল দিগন্তে ওই ফুলের আগুন লাগলো, বসন্তে সৌরভের শোভা জাগলো’ স্লোগানকে ধারণ করে আমতলার বাংলা মঞ্চে শুরু হয়েছে বসন্ত উৎসব। গাছে গাছে নতুন পাতা ফুটতেছে বেশ, সব পাখির মন খারাপ তাই শীত হলো শেষ। নতুন রুপে নতুন সাজে নিভাবে মনের আগুন, তাই তো আজ প্রকৃতি জুড়ে বসন্তের ফাল্গুন। ফুল ফোটার মধ্য দিয়েই আগমন ঘটেছে ঋতুরাজ বসন্তের। আজ ঋতুরাজ বসন্তের চতুর্থ দিনে মেতেছে ইবি পরিবার।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

অন্যান্য

ডিসি সম্মেলন শুরু ৩ মার্চ

Avatar of মনির হোসেন, অর্থসংবাদ ডেস্ক

Published

on

শিক্ষক

চার দিনের জেলা প্রশাসক (ডিসি) সম্মেলন শুরু হচ্ছে আগামী ৩ মার্চ (রবিবার)। সম্মেলন শেষ হবে ৬ মার্চ (বুধবার)।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (জেলা ও মাঠ প্রশাসন অনুবিভাগ) মো. আমিন উল আহসান গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, আগামী ৩ মার্চ সকালে ডিসি সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন। বরাবরের মতো প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এটি হবে।

গত বছরের মতো এবারও জেলা প্রশাসক সম্মেলনের মূল ভেন্যু রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তন বলেও জানান অতিরিক্ত সচিব।

সরকারের নীতিনির্ধারক এবং জেলা প্রশাসক ও বিভাগীয় কমিশনারদের মধ্যে সামনা-সামনি মতবিনিময় এবং প্রয়োজনীয় দিক-নির্দেশনা দেওয়ার জন্য সাধারণত প্রতি বছর জুলাই মাসে ডিসি সম্মেলনের আয়োজন করা হতো।

করোনা মহামারির কারণে দু-বছর (২০২০ ও ২০২১ সাল) ডিসি সম্মেলন হয়নি। এরপর ২০২২ সাসের ১৮ থেকে ২০ জানুয়ারি এ সম্মেলন হয়। গত বছর ডিসি সম্মেলন হয় ২৪ থেকে ২৬ জানুয়ারি।

ডিসি সম্মেলনে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগের সঙ্গে ডিসিদের কার্য-অধিবেশন, এছাড়া একটি উদ্বোধন অনুষ্ঠান, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মুক্ত আলোচনা, রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ, স্পিকারের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ, প্রধান বিচারপতির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ ও একটি সমাপনী অনুষ্ঠান হয়ে থাকে।

আসন্ন জেলা প্রশাসক (ডিসি) সম্মেলনে প্রথমবারের মতো প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) ও চার কমিশনারের সঙ্গে বৈঠক করবেন ডিসিরা।

কার্য-অধিবেশনগুলোতে মন্ত্রণালয় ও বিভাগের প্রতিনিধি হিসেবে মন্ত্রী, উপদেষ্টা, প্রতিমন্ত্রী, উপমন্ত্রী, সিনিয়র সচিব ও সচিবরা উপস্থিত থাকেন। সম্মেলন উপলক্ষে জেলা প্রশাসক ও বিভাগীয় কমিশনাররা লিখিতভাবে মাঠ প্রশাসনের সমস্যাগুলো নিয়ে প্রস্তাব দিয়ে থাকেন। অধিবেশনের সময় এগুলো ছাড়াও ডিসিরা তাৎক্ষণিক বিভিন্ন প্রস্তাব তুলে ধরেন। কার্য অধিবেশনগুলোতে সভাপতিত্ব করেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

অন্যান্য

ডলার সংকট কাটাতে মার্চেই চালু ‘ক্রলিং পেগ’

Published

on

ঘরে বসে উপার্জন করার ৮ উপায়

দেশের মধ্যে ডলার সংকট শুরু বেশ পুরোনো। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ পরিস্থিতির পর তা আরও বেড়েছে। মার্কিন এ মুদ্রাটির সংকট নিয়ে মহাসমুদ্রে হাবুডুবু খাচ্ছে বাংলাদেশ ব্যাংক। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেওয়া কোনো উদ্যোগই কাজে আসছে না। অন্যদিকে, বাজার পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে বৈদেশিক মুদ্রার মজুত বা রিজার্ভ থেকে প্রতিনিয়ত ডলার বিক্রি করছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এতেও দূর হচ্ছে না সংকট।

বিপরীতে আড়াই বছরে রিজার্ভ অর্ধকে নেমে যায়। অর্থাৎ এ সময়ের মধ্যে রিজার্ভ ৪৮ বিলিয়নের ডলার থেকে কমে ২৪ বিলিয়ন ডলারের ঘরে নেমে যায়।

ডলার দর নিয়ন্ত্রিত ও বাজারভিত্তিক করতে দ্রুত ক্রলিং পেগ পদ্ধতি চালুর পরিকল্পনা করা হচ্ছে। আসছে মার্চের প্রথম সপ্তাহ থেকে ক্রলিং পেগ পদ্ধতিতে ডলারের বিনিময় হার নির্ধারণ করা হবে। বাংলাদেশ ব্যাংকের একাধিক সূত্র এ তথ্য জানিয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট বিভাগের এক কর্মকর্তা জানান, ডলার সংকট কাটাতে নেওয়া নানা উদ্যোগের কোনোটিই কাজে আসছে না। রিজার্ভও কমে অর্ধেকে নেমেছে। এবার ডলার সংকট কাটাতে এর দর নিয়ন্ত্রিত ও বাজারভিত্তিক করতে আগামী মার্চের প্রথম সপ্তাহ থেকে ক্রলিং পেগ পদ্ধতিতে ডলারের বিনিময় হার নির্ধারণ করা হতে পারে। বিশ্বের অনেক দেশেই এটি কার্যকর ভূমিকা পালন করেছে।

এ পদ্ধতি টাকার বিপরীতে ডলারের দামের ভিত্তি হবে রিয়াল ইফেকটিভ একচেঞ্জ রেট (রিয়ার) ও নমিনাল ইফেকটিভ একচেঞ্জ রেট (নিয়ার)। বৈশ্বিক মানদণ্ডের আলোকে ‘ক্রলিং পেগ’ রেটের সঙ্গে ৫০ পয়সা থেকে ১ টাকার করিডোর রাখা হবে। আর স্মার্ট সুদহারের আলোকে বাংলাদেশ ফরেন একচেঞ্জ ডিলার অ্যাসোসিয়েশন (বাফেদা) ডলারের দর নির্ধারণ করবে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এক কর্মকর্তা জানান, ডলার সংকট কাটছে না। সংকটের সুযোগে কারসাজিতে জড়িয়ে পড়েছে ব্যাংক-এক্সচেঞ্জ হাউজ। অন্যদিকে, রিজার্ভও তলানিতে। এ পরিস্থিতিতে ডলারের দর শতভাগ বাজারের ওপর ছেড়ে দেওয়ার পরিবেশ নেই। তাই গভর্নর ক্রলিং পেগ পদ্ধতি দ্রুত বাস্তবায়নের নির্দেশ দিয়েছেন।

আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল বা আইএমএফের কারিগরি কমিটি ফেব্রুয়ারির মধ্যে বাংলাদেশে আসার আমন্ত্রণে অসম্মতি জানিয়ে বিলম্ব করার প্রস্তাব দিয়েছে। এই বিলম্বকে কেন্দ্র করে ক্রলিং পেগ মার্চেই দ্রুত বাস্তবায়নের নির্দেশ দেন গভর্নর রউফ তালুকদার। পরবর্তীতে আইএমএফের সুপারিশ চলমান প্রক্রিয়ায় সমন্বয় হবে।

দেশে সাময়িকভাবে ডলারের ধকল সামলাতে ক্রলিং পেগ চালু হচ্ছে। বৈদেশিক মুদ্রার সংকট কাটাতে ল্যাটিন আমেরিকার উরুগুয়েতে প্রথম ক্রলিং পেগের প্রচলন ঘটে। বর্তমানে বতসোয়ানা, হন্ডুরাস ও নিকারাগুয়ায় ক্রলিং পেগ পদ্ধতি চালু রয়েছে।

এ পদ্ধতিতে বিনিময় হার সমন্বয়ের একটি নির্দিষ্ট বিনিময় হারসহ ধীরে ধীতে নির্ধারিত সীমার মধ্যে ওঠানামার সুযোগ রাখা হয়। কিছু দিন পর পর সমন্বয় করা যায়। এতে উচ্চ বিনিময় হারের অস্থিরতা, মুদ্রাস্ফীতি, অর্থনৈতিক অস্থিরতার সময় দেশীয় মুদ্রার অবমূল্যায়নের হুমকি এড়াতে নিয়ন্ত্রণমূলক ক্রলিং পেগ কার্যকর ভূমিকা রাখে। তবে মুদ্রাবাজার সংকট কেটে গেলে ক্রলিং পেগ কার্যকর থাকে না।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন
শিক্ষক
ধর্ম ও জীবন6 hours ago

এক বৈঠকে পুরো কোরআন মুখস্ত শোনালো রাহাতুল ইসলাম

শিক্ষক
সারাদেশ6 hours ago

সুন্দরবনে পথ হারানো ৩১ পর্যটককে উদ্ধার

বিআইসিএমে চাকরির সুযোগ, বেতন প্রায় দুই লাখ
ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ার6 hours ago

ইউনিয়ন পরিষদ সচিব পদে চাকরির সুযোগ

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার সূচিতে ফের পরিবর্তন
ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ার6 hours ago

আগামীকাল শেষ হচ্ছে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার আবেদন

শিক্ষক
ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ার7 hours ago

জনবল নিয়োগ দেবে মেঘনা গ্রুপ

শিক্ষক
ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ার7 hours ago

ভিকারুননিসার গণিত শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত

শিক্ষক
জাতীয়7 hours ago

বাংলাদেশকে সমৃদ্ধ ও নিরাপদে রাখতে পুলিশ সচেষ্ট থাকবে: রাষ্ট্রপতি

শিক্ষক
অর্থনীতি7 hours ago

হিলিতে পাঁচ বছরে ৮৫ লাখ টন পণ্য আমদানি

শিক্ষক
জাতীয়7 hours ago

সুগন্ধা সৈকতের নাম ‘বঙ্গবন্ধু বিচ’ করার প্রস্তাব বাতিল

শিক্ষক
খেলাধুলা7 hours ago

ফের সাকিব-তামিম মহারণ, ফাইনালে কুমিল্লা

Advertisement
Advertisement

ফেসবুকে অর্থসংবাদ

২০১৮ সাল থেকে ২০২৩

অর্থসংবাদ আর্কাইভ

তারিখ অনুযায়ী সংবাদ

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯