Connect with us

আন্তর্জাতিক

ব্রিকসে যোগ দিল নতুন ৫ দেশ

Published

on

ব্রিকসে

বিকাশমান অর্থনীতির জোট ব্রিকসে আনুষ্ঠানিকভাবে যোগ দিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরব। দেশটির রাষ্ট্রীয় টিভিতে সম্প্রতি এ ঘোষণা দেয়া হয়। সৌদি আরব ছাড়াও ব্লকটিতে সংযুক্ত আরব আমিরাত, মিসর, ইরান ও ইথিওপিয়াও নতুন সদস্য হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। খবর রয়টার্স।

গত বছরের আগস্টে সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রিন্স ফয়সাল বিন ফারহান বলেছিলেন, ‘‌অর্থনৈতিক সহযোগিতা জোরদার করার জন্য ব্রিকস গ্রুপ একটি উপকারী ও গুরুত্বপূর্ণ চ্যানেল। ব্লকটিতে যোগদানের প্রস্তাবিত তারিখ ১ জানুয়ারির আগে আমাদের দেশ এ ব্যাপারে ভেবে যথাযথ সিদ্ধান্ত নেবে।’

ব্রিকসের যাত্রা হয়েছিল ব্রাজিল, রাশিয়া, ভারত, চীন ও দক্ষিণ আফ্রিকাকে নিয়ে। তবে নতুন সদস্য হিসেবে সৌদি আরব ছাড়াও সংযুক্ত আরব আমিরাত, মিসর, ইরান ও ইথিওপিয়া যোগ দেয়ায় জোটটির সদস্যসংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ হলো।

যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে ভূরাজনৈতিক উত্তেজনার মধ্যেই ব্রিকসে যোগ দিল সৌদি আরব। এর মাধ্যমে দেশটিতে চীনা প্রভাব বাড়ার ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক বজায় থাকার পরও সম্প্রতি নিজস্ব পথ অনুসরণ করে চলছে সৌদি আরব। অতীতের মতো দেশটির নিরাপত্তার প্রতি যুক্তরাষ্ট্র আর প্রতিশ্রুতিবদ্ধ নয়, এমন উদ্বেগ থেকেই সৌদি সরকার এমন পদক্ষেপ নিচ্ছে বলে ধারণা বিশ্লেষকদের।

এদিকে সৌদি আরবের তেলের বৃহত্তম ক্রেতা চীন। তারাও পশ্চিমাদের প্রতি চ্যালেঞ্জ হিসেবে ব্রিকসকে গঠন করতে চায়। এর আগে গত নভেম্বরে আর্জেন্টিনা জানিয়েছিল, তারা এ গ্রুপের সদস্য হতে চায়। তবে যোগ দেয়ার আগেই আবার সিদ্ধান্তে পরিবর্তন আনে দক্ষিণ আমেরিকার দেশটি।

এদিকে বিশ্লেষকরা বলেছেন, সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতকে অন্তর্ভুক্ত করে ব্রিকস জোটের সম্প্রসারণ আরব বিশ্বের দুটি বৃহত্তম অর্থনীতিকে নতুন বিনিয়োগের সুযোগ দেবে এবং বিশ্বব্যাপী এ জোটের প্রভাবকে বাড়িয়ে দেবে বলে আশা করা হচ্ছে।

এমআই

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আন্তর্জাতিক

ওমরাহ পালনে শিশুদের জন্য নতুন নির্দেশনা দিল সৌদি

Published

on

পুঁজিবাজার

উন্নতসেবা দেওয়ার জন্য নানা পদক্ষেপ নিচ্ছে সৌদি আরব। দেশটি এবার ওমরা পালনে পিতামাতার প্রতি তাদের সন্তানদের নিয়ে নির্দেশনা দিয়েছে।

শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) গালফ নিউজের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

দেশটির হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, অন্য অনেক বিষয়ের সঙ্গে পিতামাতাদের প্রতি তাদের সন্তানদের পবিত্র কোরআন, ইসলামের পবিত্র গ্রন্থসহ যেগুলো ওমরার কার্যাবলি সম্পাদনের এলাকায় উন্মুক্ত থাকে সেগুলোর প্রতি শ্রদ্ধাবোধ শেখাতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

প্রাপ্তবয়স্কদের প্রতিও নির্দেশনা দিয়েছে মন্ত্রণালয়। তাদের প্রতি ছোট সঙ্গীদের এসব স্থানে নীরব থাকার শিক্ষা দিতে বলা হয়েছে।

এ ছাড়া শিশুদের এক্সেলেটরে চলাচলের সময় নিরাপত্তা এবং খোলা জায়গায় প্রয়োজনে নিরাপত্তা কর্মীদের সহায়তা নিতে শেখাতে বলা হয়েছে।

সৌদি আরবের পক্ষ থেকে রমজানকে সামনে রেখে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এ সময়টি সাধারণত ওমরা পালনের শীর্ষে থাকে।

এর আগে শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) গালফ নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়, পবিত্র রমজান উপলক্ষে সৌদি আরবের অনেক মসজিদে সেহরি এবং ইফতারির জন্য ইমামরা অর্থ সংগ্রহ করে থাকেন।

তবে এবার রমজানে সে বিষয়টিতে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে সৌদি সরকার।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দেশটির ইসলামবিষয়ক মন্ত্রণালয় শুধু রমজান মাসকেই কেন্দ্র করে এই নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।

মন্ত্রণালয় আরও জানিয়েছে, ইফতারের সময়সূচিতে মসজিদের অভ্যন্তরে ইফতার না করে খোলা স্থানে ইফতার করলে মসজিদের পরিচ্ছন্নতা বজায় থাকে।

এ ছাড়া পবিত্র রমজানে মসজিদের অভ্যন্তরে ছবি না তোলা এবং ক্যামেরা স্থাপন করে ইমামদের মনোযোগে বাধা সৃষ্টি না করার জন্যও নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

আন্তর্জাতিক

ভারতে কমেছে নগদ অর্থপ্রবাহ

Published

on

পুঁজিবাজার

দেশে অর্থপ্রবাহ কমাতে বাজার থেকে ২ হাজার টাকার নোট তুলে নিচ্ছে ভারত। দেশটির রিজার্ভ ব্যাংকের পরিসংখ্যান বলছে, গত ৯ ফেব্রুয়ারি শেষ হওয়া সপ্তাহে বাজারে থাকা নগদের অনুপাত দাঁড়িয়েছে ৩ দশমিক ৭ শতাংশে। যা গত বছরের এই সময়ে ছিল ৮ দশমিক ২ শতাংশ। খবর আনন্দবাজার।

মূলত ২০২৩ সালের ১৯ মে সকলকে কিছুটা অবাক করে আচমকা বাজার থেকে ২০০০ টাকার নোট তুলে নেওয়াই এর কারণ বলে মনে করা হচ্ছে। পাশাপাশি, জানুয়ারিতে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোতে আমানত দ্বিগুণ বৃদ্ধির পিছনেও এই সিদ্ধান্তই দায়ী বলে জানাচ্ছে আরবিআই।

শীর্ষ ব্যাঙ্কের তথ্য বলছে, দেশে রিজার্ভ মানি বা মজুত নগদের পরিমাণ ৯ ফেব্রুয়ারির সপ্তাহে গত বছরের ১১ দশমিক ২ শতাংশ থেকে নেমে দাঁড়িয়েছে ৫ দশমিক ৮ শতাংশে। এর মধ্যে অবশ্য নগদ জমার অনুপাত বদলের প্রভাবও রয়েছে। উল্লেখ্য, রিজার্ভ মানির মধ্যে থাকে বাজারে থাকা নগদ, আরবিআই-এর কাছে জমা থাকা ব্যাঙ্কের নগদ এবং শীর্ষ ব্যাঙ্কের অন্যান্য জমা। কারেন্সি ইন সার্কুলেশন ধরা হয় বাজারে থাকা সমস্ত নোট এবং কয়েনকে। তার মধ্যে আমজনতার কাছে যে নগদ থাকে, সেটা কারেন্সি উইথ দ্য পাবলিক।

২০১৬ সালের ৮ নভেম্বর পুরনো ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট বাতিলের কথা ঘোষণার পরে ২০০০-এর নোট এনেছিল কেন্দ্র। দাবি ছিল, এতে কালো টাকা রোখা সহজ হবে। যত নোট বাতিল হয়েছিল, তা বাজারে ফেরাতে সুবিধা হবে। ডিজিটাল লেনদেনে জোর দেওয়া যাবে। বিরোধী-সহ নানা মহলের দাবি কোনওটাই হয়নি। শেষ পর্যন্ত তা ছাপা বন্ধ করে শীর্ষ ব্যাঙ্ক ও গত বছর সেটি প্রত্যাহার করা হয়।

অর্থসংবাদ/এমআই

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

আন্তর্জাতিক

রমজানের চাঁদ দেখার প্রস্তুতি ১০ মার্চ

Published

on

পুঁজিবাজার

গত ১১ ফেব্রুয়ারি শাবান মাস শুরু হয়েছিল এমন বেশিরভাগ ইসলামি দেশে আগামী ১০ মার্চ পবিত্র রমজান মাসের চাঁদ দেখার প্রস্তুতি শুরু হয়েছে।

ইসলামি ক্যালেন্ডারের নবম মাস রমজান। হিজরি ক্যালেন্ডারের অন্যান্য সব মাসের মতো রমজান মাস শুরু হয় চাঁদ দেখার ওপর নির্ভর করে। ইসলামি ক্যালেন্ডারের প্রত্যেক মাসের শুরুর তারিখ চাঁদ দেখা সাপেক্ষে নির্ধারিত হয়।

জ্যোতির্বিজ্ঞান সংক্রান্ত সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল অ্যাস্ট্রোনমিক্যাল সেন্টারের (আইএসি) তথ্য অনুযায়ী, ইসলামি বিশ্বের প্রায় সব অঞ্চলজুড়ে আগামী ১০ মার্চ শাবান মাসের চাঁদ সূর্যাস্তের পর অস্ত যাবে বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে।

এর ফলে অনেক দেশে ১১ মার্চ (সোমবার) থেকে রমজান মাস শুরু হবে বলে আশা করা হচ্ছে। বৈজ্ঞানিক গবেষণায় বর্ণিত নতুন চাঁদের দৃশ্যমানতার বিভিন্ন মানদণ্ডের ওপর ভিত্তি করে জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা বলেছেন, ১০ মার্চ (রোববার) রমজান মাসের নতুন চাঁদ দেখা অসম্ভব বলে ধারণা করা হচ্ছে।

অনেক গবেষক ওই দিন আরব ও ইসলামি বিশ্বের কোথাও খালি চোখে কিংবা টেলিস্কোপ ব্যবহার করেও রমজান মাসের নতুন চাঁদ দেখা যাবে না বলে জানিয়েছেন। তবে টেলিস্কোপ ব্যবহার করে যুক্তরাষ্ট্রের কিছু অংশ থেকে বিশেষ করে-পশ্চিমাঞ্চলে নতুন চাঁদ দেখা যেতে পারে।

ইসলামি বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আগামী ১২ মার্চ (মঙ্গলবার) রমজান মাস শুরু হতে পারে বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে।

যদিও পবিত্র রমজান মাস কবে শুরু হবে, গত ডিসেম্বরেই সম্ভাব্য সেই তারিখ ঘোষণা করে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাত। দেশটির ইসলামিক অ্যাফেয়ার্স অ্যান্ড চ্যারিটেবল অ্যাক্টিভিটিস ডিপার্টমেন্টের (আইএসিএডি) ওয়েবসাইটে ১২ ডিসেম্বর বলা হয়, আগামী ১২ মার্চ সংযুক্ত আরব আমিরাতে রমজান মাস শুরু হতে পারে।

সংযুক্ত আরব আমিরাত কর্তৃপক্ষ রমজান মাস শুরুর বিষয়ে প্রত্যেক বছর আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করে থাকে। জ্যোতির্বিজ্ঞানের গণনায় কেবল ইসলামি ক্যালেন্ডারের প্রত্যেক মাসের শুরুর সম্ভাব্য তারিখের পূর্বাভাস দেওয়া হয়।

আইএসিএডির ওয়েবসাইটে দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ২০২৪ সালে রমজান মাস ২৯ দিন হতে পারে বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে। সেই অনুযায়ী, আমিরাতে রমজানের শেষ দিন হবে ৯ এপ্রিল।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

আন্তর্জাতিক

পাকিস্তানের ইতিহাস প্রথম নারী মুখ্যমন্ত্রী মরিয়ম

Published

on

পুঁজিবাজার

তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের কন্যা মরিয়ম নওয়াজ শরিফ সোমবার ইতিহাস তৈরি করেছেন। তিনি পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশ থেকে প্রথমবারের মতো নারী মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন।

পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজের প্রার্থী মরিয়ম ২২০ ভোট পান। পাঞ্জাব পরিষদের স্পিকার মালিক আহমেদ খান ফল ঘোষণা করেন।

পিএমএল-এনের প্রতিদ্বন্দ্বী ও ইমরান খানের দলের জোট সুন্নি ইত্তেহাদ কাউন্সিলের (এসআইসি) প্রার্থী আফতাব খান নির্বাচন বর্জন করেন। তাই তিনি কোনো ভোট পাননি।

অধিবেশনের শুরুতে স্পিকার খান তাকে কথা বলতে না দেওয়ায় তিনি ও অন্যান্য এসআইসি আইনপ্রণেতারা অধিবেশন বর্জন করেন।

এদিকে, নবনির্বাচিত মুখ্যমন্ত্রী মরিয়ম নওয়াজ পাঞ্জাব অ্যাসেম্বলিতে তার বিজয়ী বক্তৃতায় বলেন, রাজনীতিক হিসেবে যাত্রাপথে আমি গ্রেপ্তার হয়েছি। আমার বাবা গ্রেপ্তার হয়েছেন। আমি মাকে হারিয়েছি। তবুও আমার মধ্যে প্রতিশোধের কোনো মনোভাব নেই।

মরিয়ম দৃঢ়ভাবে আরও বলেছেন, পুলিশের উচ্চ হস্তক্ষেপের বিষয়ে জিরো টলারেন্স থাকবে। গত সপ্তাহে তক্ষশীলার ঘটনার তদন্ত করা হবে।

তক্ষশিলায় শনিবার এক পুলিশ একজন বয়স্ক নারীকে চড় মারে ও তাকে মাটিতে ঠেলে দেয়। ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর তাকে বরখাস্ত করা হয়েছিল।

মুখ্যমন্ত্রী মরিয়মের কাঁধে পড়বে পাঞ্জাবের ১২ কোটি ৭০ লাখ মানুষের দায়িত্ব। পাকিস্তানের মোট জনসংখ্যার অর্ধেকের বেশি মানুষই এ প্রদেশের বাসিন্দা।

৮ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদ ও চারটি প্রাদেশিক পরিষদের নির্বাচনে ভোট গ্রহণ হয়। পাঞ্জাবে সবচেয়ে বেশি ১৩৮ আসনে জয় পেয়েছে পিএমএল-এন। এরপর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১১৪ আসন পেয়েছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দল পিটিআই-সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা।

পিটিআই-সমর্থিতদের বাইরে যে ২৩ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন, তাদের মধ্যে ২০ জন পিএমএল-এনে যোগ দিয়েছেন। এতে পিএমএল-এনের আসনসংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৫৮।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

আন্তর্জাতিক

পদত্যাগ করলেন ফিলিস্তিনের প্রধানমন্ত্রী

Published

on

পুঁজিবাজার

ফিলিস্তিনের প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ শাতায়েহ তার সরকারের পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন। সোমবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের কাছে তিনি পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন।

ফিলিস্তিনের প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ শাতায়েহ সোমবার বলেছেন তিনি তার পদত্যাগপত্র পশ্চিম তীরে শাসন কার্যক্রম ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের কাছে জমা দিয়েছেন।

শতায়েহ আরও বলেছেন, তিনি গত মঙ্গলবার পদত্যাগ করেছেন তবে সোমবার লিখিত পদত্যাগপত্র হস্তান্তর করেছেন। গাজায় ইসরায়েলি আগ্রাসন এবং পশ্চিম তীর ও জেরুজালেমে সহিংসতা বাড়ার প্রতিবাদে প্রেসিডেন্টের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, ফিলিস্তিনে হামাসের বিরুদ্ধে ইসরায়েলের যুদ্ধের মধ্যে রাজনৈতিক ব্যবস্থা সম্পর্কে ফিলিস্তিনিদের মধ্যে একটি ঐকমত্য তৈরি করার জন্য তিনি পদত্যাগ করেছেন।

অধিকৃত পশ্চিম তীরের কিছু অংশ শাসনকারী ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষকে নাড়াতে আব্বাসকে চাপ দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। যুদ্ধ বন্ধ করার আন্তর্জাতিক প্রচেষ্টা এবং পরবর্তীতে গাজাকে শাসন করার জন্য একটি রাজনৈতিক কাঠামোর দিকে কাজ করার মধ্যে এটি আসে।

আব্বাস এখনো তার পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেননি এবং ফিলিস্তিনের প্রধানমন্ত্রীর বিকল্প একজন না পাওয়া পর্যন্ত তাকে ওই পদে থাকতে বলতে পারেন।

মন্ত্রিসভার কাছে এক বিবৃতিতে শতায়েহ বলেছেন, আমি পরবর্তী পর্যায় দেখতে পাচ্ছি, যেখানে উদ্ভূত চ্যালেঞ্জগুলোর জন্য নতুন সরকারি ও রাজনৈতিক ব্যবস্থার প্রয়োজন যা গাজায় উদ্ভূত নয়া বাস্তবতাকে আমলে নেবে ও ফিলিস্তিনি ঐক্যের ওপর ভিত্তি করে ফিলিস্তিনিদের মধ্যে ঐকমত্য গড়ে তুলবে এবং ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে ফিলিস্তিনিদের কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করবে।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন
পুঁজিবাজার
ধর্ম ও জীবন7 hours ago

এক বৈঠকে পুরো কোরআন মুখস্ত শোনালো রাহাতুল ইসলাম

পুঁজিবাজার
সারাদেশ8 hours ago

সুন্দরবনে পথ হারানো ৩১ পর্যটককে উদ্ধার

বিআইসিএমে চাকরির সুযোগ, বেতন প্রায় দুই লাখ
ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ার8 hours ago

ইউনিয়ন পরিষদ সচিব পদে চাকরির সুযোগ

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার সূচিতে ফের পরিবর্তন
ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ার8 hours ago

আগামীকাল শেষ হচ্ছে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার আবেদন

পুঁজিবাজার
ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ার8 hours ago

জনবল নিয়োগ দেবে মেঘনা গ্রুপ

পুঁজিবাজার
ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ার8 hours ago

ভিকারুননিসার গণিত শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত

পুঁজিবাজার
জাতীয়8 hours ago

বাংলাদেশকে সমৃদ্ধ ও নিরাপদে রাখতে পুলিশ সচেষ্ট থাকবে: রাষ্ট্রপতি

পুঁজিবাজার
অর্থনীতি8 hours ago

হিলিতে পাঁচ বছরে ৮৫ লাখ টন পণ্য আমদানি

পুঁজিবাজার
জাতীয়9 hours ago

সুগন্ধা সৈকতের নাম ‘বঙ্গবন্ধু বিচ’ করার প্রস্তাব বাতিল

পুঁজিবাজার
খেলাধুলা9 hours ago

ফের সাকিব-তামিম মহারণ, ফাইনালে কুমিল্লা

Advertisement
Advertisement

ফেসবুকে অর্থসংবাদ

২০১৮ সাল থেকে ২০২৩

অর্থসংবাদ আর্কাইভ

তারিখ অনুযায়ী সংবাদ

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯