Connect with us

বিনোদন

অস্কারপ্রাপ্ত ‘কোকো’ সিনেমার ভয়েস আর্টিস্ট মারা গেছেন

Published

on

ডিএসই

অস্কারজয়ী অ্যানিমেটেড ‘কোকো’ সিনেমার ভয়েস আর্টিস্ট ও মেক্সিকান অভিনেত্রী অ্যানা ওফেলিয়া মারগুইয়া মারা গেছেন। জানা গেছে, তিনি ৩১ ডিসেম্বর পরলোক গমন করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯০ বছর।

দ্য গার্ডিয়ানের খবরে জানা গেছে, অভিনেত্রী অ্যানা ওফেলিয়া মারগুইয়া মৃত্যুর বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছে মেক্সিকোর ন্যাশনাল ফাইন আর্টস ইনস্টিটিউট। কিন্তু তার মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যায়নি।

মেক্সিকোর সংস্কৃতি সচিব আলেজান্দ্রা ফ্রাস্টো গুয়েরেরো এক বিবৃতিতে বলেছেন, মহান এই অভিনেত্রী আমাদের বর্তমান বাস্তবতায় এক বিশাল শূন্যতা সৃষ্টি করে গেছেন।

লি আঙ্করিচ পরিচালিত ‘কোকো’ সিনেমা ২০১৭ সালে মুক্তি পায়। সিনেমাটিতে দেখা যায়, ১২ বছরের বালক মিগেল গান ভীষণ ভালোবাসে। গান শেখার কারণে মৃতদের দেশে চলে যায় বালকটি। ছেলেটির দাদির চরিত্রে কণ্ঠ দিয়েছিলেন অ্যানা ওফেলিয়া।

‘কোকো’ সিনেমাটিতে মেক্সিকোর সংস্কৃতি ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। সিনেমাটি ৯০তম অস্কারে বেস্ট অ্যানিমেশন ফিল্ম ও বেস্ট অরিজিনাল সং বিভাগে সেরা পুরস্কার লাভ করে।

অ্যানা ওফেলিয়ার ১৯৩৩ সালে মেক্সিকো শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তার দীর্ঘ ক্যারিয়ারে চলচ্চিত্র, টেলিভিশন ও মঞ্চসহ ৭০টি নাটক ও ৯০টি সিনেমায় অভিনয় করেছেন। সিনেমায় অভিনয়ের স্বীকৃতিস্বরূপ তিনি মেক্সিকোর গোল্ডেন অ্যারিয়েল অ্যাওয়ার্ডে আজীবন সম্মাননা লাভ করেন।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

বিনোদন

গুরুতর অসুস্থ সাবিনা ইয়াসমিন, চিকিৎসা চলছে সিঙ্গাপুরে

Published

on

ডিএসই

গুরুতর অসুস্থ কিংবদন্তি সংগীতশিল্পী সাবিনা ইয়াসমিন। ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছেন। সিঙ্গাপুরের জেনারেল হাসপাতালের ন্যাশনাল ক্যান্সার সেন্টারে চলছে তার চিকিৎসা।

একটি সূত্রে জানা গেছে, এবার তিনি ওরাল ক্যান্সারের শিকার হয়েছেন। এরই মধ্যে একটি সার্জারি করা হয়েছে তার। দ্রুত দেওয়া হবে রেডিওথেরাপি। তারপর চিকিৎসকরা ভালো-মন্দ বলতে পারবেন। তবে কবে থেকে সিঙ্গাপুরের হাসপাতালে ভর্তি তা জানাতে চাননি শিল্পীর পরিবার।

এবারই প্রথম নয়, এর আগেও ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছিলেন সাবিনা ইয়াসমিন৷ ২০০৭ সালে ক্যান্সার জয় করে ফিরেছিলেন তিনি।

এদিকে, সাবিনা ইয়াসমিন শেষ প্লেব্যাক করেছেন প্রয়াত চিত্রনায়িকা ও নির্মাতা কবরী পরিচালিত ‘এই তুমি সেই তুমি’ ছবির ‘দুটি চোখে ছিল কিছু নীরব কথা’ শিরোনামের একটি গানে। ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে গানটিতে কণ্ঠ দেন তিনি। এ ছাড়া কবরীর ‘এই তুমি সেই তুমি’ ছবির চারটি গানে সুরও দেন সাবিনা ইয়াসমিন। এর মাধ্যমে ক্যারিয়ারে প্রথমবার তিনি সুরকার হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন।

জেনে রাখা ভালো, মাত্র সাত বছর বয়সে স্টেজে গান শুরু করেন সাবিনা ইয়াসমিন। এরপর প্রায় পাঁচ দশকের বেশি সময় ধরে বাংলা গানের ভাণ্ডার সমৃদ্ধ করে যাচ্ছেন তিনি। দেশের গানেই তার যে অবদান, তা দিয়েই বাংলার বুকে বেঁচে থাকবেন শত শত বছর।

১৯৬২ সালে এহতেশাম পরিচালিত ‘নতুন সুর’ সিনেমাতে শিশুশিল্পী হিসেবে প্রথম গান গাওয়ার সুযোগ পান সাবিনা ইয়াসমিন। আর ১৯৬৭ সালে প্রথম প্লেব্যাক করেন আমজাদ হোসেন ও নুরুল হক বাচ্চু পরিচালিত ‘আগুন নিয়ে খেলা’ চলচ্চিত্রে। এরপর অসংখ্য সিনেমায় প্লেব্যাক করেছেন তিনি।

১৯৭১ সালে নঈম গহরের লেখা ও আজাদ রহমানের সুরে সাবিনা ইয়াসমিনের ‘জন্ম আমার ধন্য হলো মাগো’ গানটি গেয়েছিলেন। এই গানটি মুক্তিযোদ্ধাদের অসীম প্রেরণা জুগিয়েছিল।

সাবিনা ইয়াসমিনের গাওয়া গানের সংখ্যা প্রায় ১০ হাজার। তার জনপ্রিয় গানের তালিকায় রয়েছে- ‘একবার যেতে দে না’, ‘সব কটা জানালা খুলে দাও না’, ‘কতো সাধনায় এমন ভাগ্য মেলে’, ‘ও মাঝি নাও ছাইড়া দে’, ‘সুন্দর সুবর্ণ’, ‘এই মন তোমাকে দিলাম’, ‘মনেরই রঙে রাঙাবো’, ‘তুমি বড় ভাগ্যবতী’, ‘ও আমার রসিয়া বন্ধু রে’, ‘এই পৃথিবীর পরে’, ‘সেই রেললাইনের ধারে’, ‘আমার হৃদয়ের আয়না’, ‘তুমি যে আমার কবিতা’, ‘আমি রজনীগন্ধা ফুলের মতো’, ‘বাবা বলে গেলো’, ‘একি সোনার আলোয়’ ইত্যাদি।

সাবিনা ইয়াসমিন ১৯৭৫ সালে ‘সুজন সখী’ সিনেমাতে গান গাওয়ার জন্য প্রথম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে সর্বমোট ১৪ বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে শ্রেষ্ঠ কণ্ঠশিল্পীর পুরস্কার অর্জন করেছেন তিনি। যা জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের ইতিহাসে অনন্য এক রেকর্ড।

এছাড়া কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ বরেণ্য এই সঙ্গীতশিল্পী একুশে পদক, স্বাধীনতা পুরস্কার, ১৯৮৫ সালে গানের জন্য ভারত থেকে ‘ডক্টরেট’, উত্তম কুমার পুরস্কার, ৬ বার বাচসাস পুরস্কারসহ অসংখ্য সম্মাননা পেয়েছেন।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

বিনোদন

আলিঙ্গনের বিস্ময়কর ৮ উপকারিতা

Published

on

ডিএসই

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে পরস্পরকে আলিঙ্গন করার বেশ কিছু স্বাস্থ্যকর দিক রয়েছে। আলিঙ্গনের সময় ‘অক্সিটোসিন’ নামক একটি হরমোনের নিঃসরণ হয়, যা বিষণ্নতা, রাগ ও একাকীত্ব ইত্যাদি দূর করে মনে প্রশান্তি আনে। শুধু তাই নয়, উদ্বেগ কমানো থেকে শুরু করে আত্মিক সংযোগ তৈরি করতে পারে একটি আলিঙ্গন। অনেক আবেগ কিংবা না বলার কথার বিকল্পও হতে পারে এটি।

বৈজ্ঞানিক গবেষণাগুলো আলিঙ্গনের অনেক সুবিধার প্রমাণ পেয়েছে। এটি কেবল স্বাচ্ছন্দ্য, কর্টিসল, স্ট্রেস হরমোনের মাত্রা কমায় না বরং ব্যথা উপশম করে এবং পেশী শিথিল করে। চলুন আলিঙ্গনের ৮টি স্বাস্থ্য উপকারিতা সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

১. রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় : কাউকে যখন আলিঙ্গন করা হয়, তখন ব্রেস্টবোনের উপর চাপ সৃষ্টি হয়, যা মনকে আবেগপূর্ণ করে তোলে। এটি প্লেক্সাস চক্রকেও সক্রিয় করে, যা থাইমাস গ্রন্থির কার্যকারিতাকে উদ্দীপিত করে। এই গ্রন্থি শরীরে শ্বেত রক্ত কণিকার উৎপাদনকে নিয়ন্ত্রণ করে এবং শরীরকে সুস্থ থাকতে সহায়তা করে। ফলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে।

২. স্ট্রেস কমায়: আলিঙ্গন করটিসলের মাত্রা হ্রাস করে, এটি হলো স্ট্রেস হরমোন। করটিসলের মাত্রা কমে যাওয়ার কারণে চাপযুক্ত পরিস্থিতিতে রক্তচাপ এবং হৃদস্পন্দন হ্রাস করে। আলিঙ্গন করলে তা রাতে ভালো ঘুম হতেও সাহায্য করে। তাই প্রিয়জনকে আলিঙ্গন করুন। এটি দুজনের জন্যই ইতিবাচক।

৩. একাকিত্ব দূর করে: কাছের মানুষদের থেকে যত দূরে সরে যাবেন, নিজেকে তত বেশি একা ও নিঃসঙ্গ লাগবে। আলিঙ্গন মনে করিয়ে দেয় যে আমরা নিরাপদ, অন্যের কাছে প্রিয় এবং একা নই। তাই একাকিত্ব দূর করতে আলিঙ্গনের অভ্যাস করুন।

৪. ব্যথা দূর করে: শুধু মনের ব্যথা নয়, শরীরের ব্যথাও দূর করে আলিঙ্গন। এটি আপনার শরীরের ব্যথার বিরুদ্ধে লড়াই করে এবং রক্ত সঞ্চালনের উন্নতি করে। যে কারণ শরীরের উত্তেজনা হ্রাস হয়, যা উত্তেজনাপূর্ণ পেশীগুলোকে শিথিল করে।

৫. পেশীটান শিথিল করে: আলিঙ্গন ব্যথার বিরুদ্ধে লড়াই করার পাশাপাশি, রক্ত সঞ্চালনকেও উন্নত করতে সহায়তা করে। এমনকি এটি নরম টিস্যুগুলোতে রক্ত প্রবাহ বাড়ায়, যা পেশী টানকে শিথিল করতে সহায়তা করে।

৬. রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে: প্রিয়জনদের আলিঙ্গন করলে শরীরে অক্সিটোসিন হরমোনের মাত্রা বৃদ্ধি পায়। এটি শরীর থেকে কর্টিসল নামক স্ট্রেস হরমোন হ্রাস করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। যার ফলে রক্তচাপও নিয়ন্ত্রণে থাকে।

৭. ভয় দূর করতে সহায়তা করে: আলিঙ্গন উদ্বেগ কমাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। আলিঙ্গন মানুষের মন থেকে অস্তিত্বের ভয় দূর করতেও সহায়তা করে। তাই একাকিত্বের সময় কাউকে আলিঙ্গন করলে নিরাপত্তার অনুভূতি হয়।

৮. মন ভালো রাখে: ভালোবাসার মানুষকে জড়িয়ে ধরলে সেরোটোনিন হরমোন নিঃসৃত হয়। এই হরমোন মেজাজ ভালো রাখতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। সেরোটোনিনের বর্ধিত মাত্রা আপনার মেজাজকে উন্নত করে এবং মন খুশি রাখে।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

বিনোদন

ইরানের জাতীয় পুরস্কার পেলো জয়ার ‘ফেরেশতে’

Published

on

ডিএসই

দুই বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান অভিনীত বাংলাদেশ-ইরানের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত ‘ফেরেশতে’ চলচ্চিত্রটি মানবিক দৃষ্টিভঙ্গির জন্য ইরানের জাতীয় পুরস্কার জিতেছে।

মঙ্গলবার জয়া আহসান তার অফিশিয়াল ফেসবুক পেজে খবরটি নিশ্চিত করেছেন।

জয়ার পোস্ট থেকে জানা যায়, প্রতি বছর ফজর চলচ্চিত্র উৎসবের পর, মানবাধিকার, শিক্ষা, পরিবেশ, দাতব্য কাজ ইত্যাদি বিভাগে ‘জাতীয় ইচ্ছার প্রতিফলন/বহিঃপ্রকাশ’ নামে সমাজের জন্য অনুকরণীয় চলচ্চিত্রগুলোকে জাতীয় পুরস্কার দেওয়া হয়।

‘খয়র-ই-মান্দেগার’ নামক একটি প্রতিষ্ঠান এই পুরস্কার দেয়, যা ইরানের সব দাতব্য প্রতিষ্ঠান, দাতা, এনজিও-এর প্রতিনিধিত্ব করে। প্রতিষ্ঠানটি ইরানে ইউনিসেফের মতো সক্রিয়।

এই পুরস্কারের পাশাপাশি, ‘ফেরেশতে’ চলচ্চিত্রের প্রধান দুই অভিনেতা জয়া আহসান ও সুমন ফারুককে ‘খয়র-ই-মান্দেগার’ স্মারক দিয়ে সম্মানিত করা হয়।

সিনেমাটির পরিচালক মুর্তজা অতাশ জমজম। চিত্রনাট্য লিখেছেন বাংলাদেশের মুমিত আল-রশিদ। ফারসি ও বাংলা অনুবাদ করেছেন মুমিত আল-রশিদ ও ফয়সাল ইফরান।

ইরান-বাংলাদেশ যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত ‘ফেরেশতে’ সিনেমাতে সহপ্রযোজক হিসেবে আছে ইমেজ সিনেমা, সি তে সিনেমা এবং ম্যাক্সিমাম এন্টারপ্রাইজ বাংলাদেশ।

উল্লেখ্য, ইরানি বিখ্যাত চলচ্চিত্র নির্মাতাদের চলচ্চিত্রগুলোর পাশাপাশি ‘ফেরেশতে’ চলচ্চিত্রটি ফজর আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের প্রধান বিভাগের উদ্‌বোধনী চলচ্চিত্র হিসেবে জনগণ, সংবাদপত্র ও সমালোচকদের কাছে সমাদৃত হয়েছিল।

এ চলচ্চিত্রে জয়া আহসান ও সুমন ফারুক ছাড়াও বাংলাদেশের আরও বেশ কজন শিল্পী রিকিতা নন্দিনী শিমু, শহীদুজ্জামান সেলিম, শাহেদ আলী, শাহীন মৃধা, শিশুশিল্পী সাথী অভিনয় করেছেন।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

বিনোদন

যে কারণে এবার শিল্পী সমিতির নির্বাচন করবেন না জায়েদ খান

Published

on

ডিএসই

টানা দুইবার চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ‘সাধারণ সম্পাদক’ পদে দায়িত্ব পালনের পর এবারের নির্বাচনে আর অংশগ্রহণ করবেন না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন চিত্রনায়ক জায়েদ খান।

মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় রাজধানীর শ্যামলীতে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের স্কুল ড্রেস ও শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে নিজের এই সিদ্ধান্তের কথা জানান তিনি।

জায়েদ খান বলেন, ‘শিল্পী হিসেবে মানুষ কাজ মনে রাখে। কে সভাপতি-সেক্রেটারি এগুলো না। এছাড়া আমার বড় ভাই-বোন চান না আমি এবারের নির্বাচনে অংশ নেই। তারা বলেছেন, বিদেশে ট্যুর দিচ্ছো দাও, কিন্তু এবার নির্বাচন করো না।’

জায়েদ আরও বলেন, ‘আমার বোন কঠিন রোগে আক্রান্ত। আমি তাদের কাছে থেকে বড় হয়েছি। তাই তাদের কথা ফেলে দেওয়া আমার পক্ষে সম্ভব না। এ কারণে এবার নির্বাচনে অংশ নেব না।’

নির্বাচনে অংশ না নিলেও শিল্পীদের সেবা করা যায় উল্লেখ করে এই নায়ক বলেন, একাধিকবার দায়িত্বে থেকে শিল্পীদের সেবা করেছি। আমি মনে করি, শিল্পী বা সাধারণ মানুষের পাশে থাকতে হলে চেয়ার বা পদবী বড় বিষয় নয়। শিল্পীদের জন্য যে কোনো সময় যে কোনো প্রয়োজনে পাশে থাকবো।

এবারের নির্বাচনে কাদের প্রতি সমর্থন থাকবে সেটা জানিয়েছেন জায়েদ খান। এই অভিনেতা বলেন, নির্বাচনে ডিপজল ভাই ও মিশা ভাই প্যানেল দিচ্ছেন। তারা যদি পাশ করেন তাহলে তাদের পাশে থেকে কাজ করবো।

সবশেষ জায়েদ খান বলেন, ‘দেখতে দেখতে দুই বছর কেটে যাবে। আমার বোন বলেনি সারাজীবন নির্বাচন করবে না। সে বলেছে, এবারের মতো শিল্পী সমিতির নির্বাচন করো না। তার কথা আমি রাখবো।’

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০২৪-২৫ মেয়াদের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ১৯ এপ্রিল (শুক্রবার)। যেখানে কয়েকটি প্যানেল থেকে লড়বেন অভিনয়শিল্পীরা।

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

বিনোদন

মা হচ্ছেন দীপিকা

Published

on

ডিএসই

মা হতে চলেছেন বলিউড অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোন। ভারতীয় ম্যাগাজিন দ্য উইকের এক প্রতিবেদনে তেমনটাই দাবি করা হয়েছে।

দীপিকার ঘনিষ্ঠ এক সূত্রের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দীপিকা পাড়ুকোন এখন সেকেন্ড ট্রাইমেস্টার’র (১৪-২৭ সপ্তাহের অন্তঃসত্ত্বা) পার করছেন। সবকিছু ঠিক থাকলে খুব শিগগিরই প্রথম সন্তানের বাবা-মা হতে চলেছেন রণবীর-দীপিকা দম্পতি।

কয়েক দিন আগে লন্ডনের রয়্যাল ফেস্টিভ্যালে বসেছিল ৭৭তম ব্রিটিশ অ্যাকাডেমি অব ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন আর্টস (বাফটা) অ্যাওয়ার্ডেসের আসর। এতে সব্যসাচি মুখার্জির ডিজাইন করা শাড়ি পরে হাজির হয়েছিলেন দীপিকা পাড়ুকোন। এ মঞ্চে শাড়ি দিয়ে বারবার পেট আড়াল করার চেষ্টা করেছেন তিনি। এরপর দীপিকার হওয়ার গুঞ্জন জোরালো হয়।

এদিকে দ্য উইকের প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে দীপিকার মা হওয়ার খবর প্রচার করেছে হিন্দুস্তান টাইমসসহ ভারতীয় একাধিক গণমাধ্যম। যদিও পুরো বিষয়টি নিয়েই এখনও নীরব ভূমিকায় রয়েছেন রণবীর সিং ও দীপিকা পাডুকোন।

সম্প্রতি ‘ভোগ সিঙ্গাপুর’ ম্যাগাজিনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ফ্যামিলি প্ল্যানিং নিয়ে কথা বলেন দীপিকা। যেখানে তিনি বলেন, ‘রণবীর ও আমি দুজনেই এখন সন্তান চাই। আমরা পরিবার তৈরি করতে চাচ্ছি।’

দীপিকার কথায়, ‘আমি যখন পরিবারের কোনো সদস্যদের সঙ্গে দেখা করি, সকলেই বলেন যে আমি একদম আগের মতোই আছি। একটুও বদলাইনি। এটাই তো আমাদের লালনপালন, পারিবারিক শিক্ষার উদাহরণ। এই ইন্ডাস্ট্রিতে টাকা-পয়সা, যশ পাওয়া সহজ। তবে বাসায় কেউ আমাকে তারকা বলে মনে করে না। সেখানে আমি কারো মেয়ে, কারো বোন। আমি নিজেকে বদলাতে চাই না। আমার পরিবার আমাকে মাটিতে পা দিয়ে চলতে শিখিয়েছে। আমি আর রণবীরও আমাদের সন্তানকে এমন শিক্ষায় বড় করে তুলতে চাই।’

‘ভোগ সিঙ্গাপুর’ ম্যাগাজিনকে দীপিকা আরো বলেছিলেন, ‘রণবীর আর আমি দুজনেই বাচ্চা ভালোবাসি। আমরা মুখিয়ে রয়েছি নিজেদের পরিবার শুরু করার অপেক্ষায়।’

শেয়ার করুন:-
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন
ডিএসই
জাতীয়3 mins ago

চালের বাজার ঠিক রাখতে জেলায় জেলায় বৈঠক করতে হয়েছে: খাদ্যমন্ত্রী

ডিএসই
সারাদেশ37 mins ago

নাটোরে বিয়ে করতে এসে ধরা দুই কিশোরী

ডিএসই
অর্থনীতি1 hour ago

বিনিয়োগে প্রযুক্তির সুবিধা নিতে হবে: বিডা চেয়ারম্যান

ডিএসই
আন্তর্জাতিক1 hour ago

অনুমতি ছাড়া হজ করলে কঠোর শাস্তির হুঁশিয়ারি সৌদির

ডিএসই
ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ার2 hours ago

ঢাবির ‌‘সি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা আগামীকাল

বিশ্ববাজারে তেলের দাম ফের বেড়েছে
আন্তর্জাতিক2 hours ago

বিশ্ব বাজারে আরও কমলো জ্বালানি তেলের দাম

ডিএসই
জাতীয়2 hours ago

ওআইসি সম্মেলনে যোগ দিতে তুরস্কে তথ্য প্রতিমন্ত্রী

ডিএসই
পুঁজিবাজার3 hours ago

সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইর লেনদেন কমেছে ৫৫ শতাংশ

ডিএসই
আন্তর্জাতিক4 hours ago

শিশুর সামনে ধূমপান করলে দেড় লাখ টাকা জরিমানা

ডিএসই
শিল্প-বাণিজ্য5 hours ago

বাংলাদেশে ৫০ হাজার টন পেঁয়াজ রফতানি করবে ভারত

Advertisement
Advertisement

ফেসবুকে অর্থসংবাদ

২০১৮ সাল থেকে ২০২৩

অর্থসংবাদ আর্কাইভ

তারিখ অনুযায়ী সংবাদ

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯