টানা ৬ষ্ঠ দিনের পতনে আরও কমেছে সূচক-লেনদেন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, অর্থ সংবাদ.কম, ঢাকা প্রকাশ: ২০২১-১১-২৮ ১৫:০৬:২২, আপডেট: ২০২১-১১-২৮ ১৬:৪৬:৪৫

দেশের শেয়ারবাজারে ধারাবাহিক পতন চলছেই। সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবস রোববার ধারবাহিক পতনের ষষ্ঠ দিন। আজ দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের বড় পতন হয়েছে। একই সঙ্গে এদিন আগের দিনের তুলনায় কমেছে লেনদেনও।

রোববার (২৮ নভেম্বর) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের প্রধান সূচক ‘ডিএসই এক্স’ আগের দিনের তুলনায় ৭৮ পয়েন্ট কমেছে। বর্তমানে সূচকটি ৬ হাজার ৭৭৩ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

গত সপ্তাহের পাঁচ কার্যদিবস মিলিয়ে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের প্রধান সূচক ২৩৯ পয়েন্ট হারিয়েছিল। এর মধ্যে ওই সপ্তাহের সোম, বুধ ও বৃহস্পতিবার সূচকের বড় পতন হয়। এ তিন দিন যথাক্রমে ‘ডিএসই এক্স’ ৬৩, ৯৬ ও ৬৫ পয়েন্ট।

সর্বশেষ ৬ কর্মদিবসে ডিএসই প্রধান সূচক হারায় ৩১৬ পয়েন্ট

প্রধান সূচকের সঙ্গে ডিএসইর অপর দুই সূচকেরও আজ পতন হয়েছে। শরীয়াহ ভিত্তিক কোম্পানিগুলো নিয়ে গঠিত ‘ডিএসই এস’ আজ ১৩ পয়েন্ট কমেছে। আর বাছাই করা কোম্পানিগুলো নিয়ে গঠিত ‘ডিএসই ৩০’ কমেছে ২৬ পয়েন্ট।

আজ সূচকের বড় পতনে অবদান রেখেছে বেক্সিমকো। কোম্পানিটির কারণে সূচক হারিয়েছে সাড়ে ১০ পয়েন্টের বেশি।

ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশ (আইসিবি) এবং বেক্সিমকো ফার্মার কারণে হারিয়েছে আরও ১১ দশমিক ৪২ পয়েন্ট।

এই তিন কোম্পানির কারণেই সূচক কমেছে ২২ দশমিক ২২ পয়েন্ট।

রোববার ডিএসইতে লেনদেনের সর্বশেষ

সূচকের বড় পতনে বেক্সিমকো, বেক্সিমকো ফার্মা ও আইসিবির সঙ্গী ছিল ইউনাইটেড পাওয়ার গ্রিড, গ্রামীণফোণ, লাফার্জ হোলসিম, এনআরবিসি ব্যাংক, রবি, ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স এবং স্কয়ার ফার্মা। এই ১০ কোম্পানির কারণে সূচক কমেছে ৩৯ দশমিক ৪৫ পয়েন্ট।

সূচকের বড় পতনের দিন দেশের প্রধান শেয়ারবাজারে টাকার অংকে লেনদেনও কমেছে। আজ ডিএসইতে ৮৩৭ কোটি ১০ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এর আগের কর্মদিবসে (বৃহস্পতিবার) ৮৪৯ কোটি ৭৭ লাখ টাকা লেনদেন হয়েছিল।

সপ্তাহের শেষ কর্মদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজারে মোট ৩৭২টি কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে ২৯১টি কোম্পানির শেয়ারদর আজ কমেছে। বেড়েছে ৬৬টির। আর ১৫টি কোম্পানির শেয়ারদর আজ অপরিবর্তিত ছিল।

বেশিরভাগ শেয়ারের দরপতনের দিন দুই কোম্পানির শেয়ারদর যতটুকু বৃদ্ধি পাওয়া সম্ভব ততটুকুই বেড়েছে। সেনাকল্যাণ ইন্স্যুরেন্সের শেয়ারদর আগের দিনের তুলনায় ৯ দশমিক ৭৮ পয়েন্ট বেড়েছে। আর একমি পেস্টিসাইডসের বেড়েছে ৯ দশমিক ৭৬ পয়েন্ট। কোম্পানিগুলো আজ ডিএসইর টপটেন গেইনার তালিকার শীর্ষস্থানে জায়গা করে নিয়েছে।

রোববার ডিএসইর টপটেন গেইনার তালিকার শীর্ষ পাঁচ কোম্পানি

এছাড়াও আজিজ পাইপস, আনোয়ার গ্যালভানাইজিং, আমান ফিড, রহিম টেক্সটাইল, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড, বিকন ফার্মা, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল ও শেফার্ড এদিন ডিএসইর টপটেন গেইনার তালিকায় স্থান করে নিয়েছে।

প্রায় তিন শতাধিক কোম্পানির দরপতনের দিন সবচেয়ে বেশি শেয়ারদর কমেছে তসরিফা ইন্ডাস্ট্রিজ এন্ড লাভেলো আইস্ক্রিমের। এদিন কোম্পানিটির শেয়ারদর আগের দিনের তুলনায় ৯ দশমিক ৮০ শতাংশ কমেছে। কোম্পানিটি ডিএসই টপটেন লুজার তালিকার শীর্ষে উঠে এসেছে।

লুজার তালিকার দ্বিতীয় স্থানে থাকা কুইন সাউথ টেক্সটাইলের শেয়ারদর কমেছে আগের দিনের তুলনায় ৯ দশমিক ৭৩ পয়েন্ট। আর অ্যাসোসিয়েট অক্সিজেনের শেয়ারদর ৯ দশমিক ৪৭ শতাংশ কমেছে।

এছাড়াও এস আলম কোল্ড রোল্ড স্টিলসের ৮ দশমিক ৩৬ শতাংশ, বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্সের ৬ দশমিক ০৬ শতাংশ, হাওয়েল টেক্সটাইলের ৫ দশমিক ৮৯ শতাংশ, দেশবন্ধু পলিমারের ৫ দশমিক ৭৯ শতাংশ, এইচ আর টেক্সটাইলের ৫ দশমিক ৭৪ শতাংশ, গ্লোবাল হেভি কেমিক্যালের ৫ দশমিক ৫২ শতাংশ এবং পেনিনসুলা চিটাগংয়ের শেয়ারদর ৫ দশমিক ৩৪ শতাংশ কমেছে।

প্রধান শেয়ারবাজারের মতো অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) সূচকের পতনে লেনদেন শেষ হয়েছে। সিএসই সার্বিক সূচক ২১৬ পয়েন্ট কমে ১৯ হাজার ৮৪২ পয়েন্টে অবস্থান করছে। সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে সিএসইতে ৩৯ কোটি ১১ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।