৫ মাস পর যাত্রী নিয়ে সিঙ্গাপুর গেল বিমান

নিউজ ডেস্ক, অর্থ সংবাদ.কম, ঢাকা প্রকাশ: ২০২১-১০-২৮ ১৩:৫৬:১৮

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের কারণে দীর্ঘ ৫ মাস বন্ধ থাকার পর ঢাকা-সিঙ্গাপুর রুটে যাত্রী নিয়ে ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করল রাষ্ট্রীয় পতাকাবাহী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স।

বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) সকালে বিমানের ফ্লাইটটি যাত্রী নিয়ে সিঙ্গাপুর যায়। স্থানীয় সময় দুপুর ২টা ৫১ মিনিটে ফ্লাইটটি অবতরণের সময় নির্ধারিত রয়েছে।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স জানায়, করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের কারণে গত মে মাস থেকে ঢাকা-সিঙ্গাপুর রুটে যাত্রী বহন বন্ধ হয়ে যায়। তবে বিমান সিঙ্গাপুর থেকে যাত্রী নিয়ে ঢাকায় আসত। অবশেষে সিঙ্গাপুর সরকারের ভ্রমণ বিধিনিষেধ তুলে নেওয়ায় ২৮ অক্টোবর থেকে ফ্লাইট চালু করে বিমান।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের উপ-মহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম-পিআর) তাহেরা খন্দকার জানান, বর্তমানে সপ্তাহে একদিন বৃহস্পতিবার এই রুটে বিমান ফ্লাইট পরিচালনা করবে। আগামী ১৩ নভেম্বর থেকে ফ্লাইট সংখ্যা সপ্তাহে তিন দিন (শনিবার, মঙ্গলবার ও বৃহস্পতিবার) করা হবে।

এই দিনগুলোতে ঢাকা থেকে স্থানীয় সময় সকাল ৮টা ৩০ মিনিটে সিঙ্গাপুরের উদ্দেশে বিমানের ফ্লাইট ছেড়ে যাবে এবং সিঙ্গাপুর থেকে সেখানকার স্থানীয় সময় বিকেল ৩টা ৫০ মিনিটে ঢাকার উদ্দেশে ছাড়বে। সিঙ্গাপুর যেতে হলে যাত্রীদের অবশ্যই সিঙ্গাপুর কর্তৃপক্ষের দেশটিতে প্রবেশের অনুমতিপত্র নিতে হবে এবং অনুমোদিত কোভিড-১৯ ‍টিকার পূর্ণ ডোজ নিতে হবে।

ফাইজার, মডার্না, অ্যাস্ট্রাজেনেকা, সেরামের কোভিশিল্ড, সিনোফার্ম, সিনোভ্যাক টিকার যেকোনো একটির দুই ডোজ এবং জনসনের টিকার ক্ষেত্রে এক ডোজ নেওয়ার কমপক্ষে ১৪ দিন পর থেকে সিঙ্গাপুরে যাওয়া যাবে।

২ বছরের বেশি বয়সী যাত্রীদের ফ্লাইট ছাড়ার পূর্ববর্তী সর্বোচ্চ ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে করোনা পরীক্ষা করাতে হবে এবং নেগেটিভ সনদ থাকতে হবে। সিঙ্গাপুর পৌঁছে ১০ দিন হোটেলে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। কোয়ারেন্টাইনের তৃতীয় ও সপ্তম দিনে নিজ খরচে অ্যান্টিজেন পরীক্ষা করাতে হবে এবং দশম দিনে নিজ খরচে কোভিড ১৯ পিসিআর পরীক্ষা করাতে হবে।

সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য ভ্রমণে গেলে যাত্রীদের চাঙ্গি বিমানবন্দরে করোনা পরীক্ষা করাতে হবে, যার জন্য আগেই অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করতে এবং ফি দিতে হবে। সিঙ্গাপুর যাওয়ার আগে মোবাইলে ‘ট্রেস টুগেদার’ অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে। সিঙ্গাপুর বিমানবন্দরে যাত্রীদের অভ্যর্থনা জানানোর জন্য বাইরের কেউ প্রবেশ করতে পারবেন না।

বেবিচকের তথ্য অনুযায়ী, সিঙ্গাপুর থেকে বাংলাদেশে আসতে হলে ১২ বছরের বেশি বয়সী যাত্রীদের ফ্লাইট ছাড়ার পূর্ববর্তী সর্বোচ্চ ৭২ ঘণ্টার মধ্যে করোনা পরীক্ষা করাতে হবে এবং নেগেটিভ সনদ থাকতে হবে। করোনা টিকা নেওয়া না থাকলে বাসায় গিয়ে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। বিমানবন্দরে পৌঁছানোর পর করোনার লক্ষণ দেখা গেলে যাত্রীকে সরকার নির্ধারিত হোটেলে নিজ খরচে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

সবশেষ গত ৪ মে বাংলাদেশ থেকে সিঙ্গাপুরে যাত্রী পরিবহন করেছিল বিমান। তবে এরপর দেশটিতে বাংলাদেশিদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়। তবে এতদিন সিঙ্গাপুর থেকে যাত্রীরা বাংলাদেশে আসতে পারতেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।