৮ কেজির কাতল ধরে ইউনুছ পেলেন ২ লাখ টাকা

নিউজ ডেস্ক, অর্থসংবাদ.কম, ঢাকা প্রকাশ: ২০২১-১০-০৯ ১৪:৪৯:১৭

৮ কেজির কাতল ধরে ইউনুছ পেলেন ২ লাখ টাকা

ছবি: সংগৃহীত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে চলছিল মাছ ধরার প্রতিযোগিতা। ২২ হাজার টাকা দিয়ে টিকিট কেটে প্রতিযোগিতায় অংশ নেন শৌখিন মাছ শিকারি ইউনুছ। সারাদিনে কেবল একটি মাছই ধরা দেয় তার বড়শিতে। আর এই এক মাছেই বাজিমাত করেন তিনি। প্রতিযোগিতার প্রথম পুরস্কার হিসেবে দুই লাখ টাকা পান ইউনুছ।

ইউনুছ আলী (৫৫) হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার আমতলা গ্রামের বাসিন্দা। শুক্রবার (০৮ অক্টোবর) সরাইল উপজেলার কালিকচ্ছ ইউনিয়নের কলেজপাড়ার দিরেশ দিঘিতে অনুষ্ঠিত প্রতিযোগিতায় তার বড়শিতে আট কেজি ওজনের একটি কাতল ধরা পড়ে।

পুরস্কার জেতার পর ইউনুছ আলী জানান, সারা দিনে একটি মাছ পেয়েই তিনি অনেক খুশি। সেই এক মাছেই তার বাজিমাত হয়েছে।

শুক্রবার বড়শি দিয়ে ওই শৌখিন মৎস্য শিকার প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছিল ‘কালীকচ্ছ বন্ধু কল্যাণ মৎস্য প্রকল্প’ নামের একটি সংগঠন। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার কালীকচ্ছ ইউনিয়নের কলেজপাড়ার দিরেশ দিঘিতে চলে সেই মাছ শিকার।

ওই প্রতিযোগিতা চলে সকাল ৬টা থেকে বিকেল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত। এতে অংশ নেন ৩১ জন শৌখিন মাছশিকারি। এ জন্য প্রত্যেক প্রতিযোগীকে আয়োজকদের দিতে হয় ২২ হাজার টাকা করে। তাদের জন্য ছিল ৪ লাখ ৮৩ হাজার টাকার সাতটি পুরস্কার।

প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয় ও চতুর্থ হয়েছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের মেড্ডা এলাকার কমিশনার জামাল হোসেন। তিনি ৫ কেজি ৩৫০ গ্রাম ও ৩ কেজি ৮৩০ গ্রাম ওজনের কাতলা মাছ ধরেন। পেয়েছেন ১ লাখ ৪০ হাজার টাকা।

তৃতীয় হয়েছেন শহরের কলীশিমা এলাকার হামদু মিয়া। তিনি ৪ কেজি ৪৯৫ গ্রাম ওজনের কাতলা মাছ শিকার করে পেয়েছেন ৫০ হাজার টাকা।

উপজেলা শৌখিন মৎস্য শিকার সমিতির সভাপতি রতন বক্স বলেন, উপজেলার চারটি দিঘিতে প্রতিবছর এই আয়োজন করা হয়। তারই অংশ হিসেবে শুক্রবার মৎস্য শিকার প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছিল।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।