দৌলতদিয়ায় ৪ শতাধিক যানবাহন আটকা পড়েছে

প্রকাশ: ২০১৮-০৭-২১ ১৮:০৬:৪০

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ফেরি এবং নদীতে তীব্র স্রোতের কারণে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়ায় পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে প্রায় ৪ শতাধিক যানবাহন আটকা পড়েছে।

নদীর উভয় পাশে শত শত যানবাহন আটকা পড়ায় যাত্রী ও চালকরা দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। শনিবার বিকেল ৪টা পর্যন্ত দৌলতদিয়া প্রান্তে ৪ শতাধিক বিভিন্ন যানবাহন নদী পারাপারের অপেক্ষায় দীর্ঘ সিরিয়ালে আটকে রয়েছে।

বিআইডব্লিউটিসি সূত্র জানায়, দৌলতদিয়া প্রান্তে আটকা পড়েছে প্রায় ৩ শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক, ৬০ থেকে ৭০টি যাত্রীবাহী বাস ও অন্তত ৫০টি ছোট যানবাহন। ঢাকা-খুলানা মহাসড়কের একপাশ দিয়ে সিরিয়ালে রয়েছে এসব যানবাহন।

ঘাট সূত্রে জানা যায়, পদ্মা নদীর পানি বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে দেখা দিয়েছে তীব্র স্রোত। ফলে নদী পারাপারে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। নদী পারাপারে স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে বেশি সময় লাগছে ফেরিগুলোর। এই রুট দিয়ে প্রতিদিন ছোট বড় প্রায় ৩ থেকে ৪ হাজার যানবাহন পারাপার হয়। আগে যানবাহন পারাপারে ফেরি চলাচল করতো ১৮ থেকে ২০টি। বর্তমানে এই রুটে চলাচল করছে ১৪টি ফেরি। ফেরি সংকট ও স্রোতের কারণে দৌলতদিয়া প্রান্তে যানবাহনগুলো আটকা পড়েছে। ফলে দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে যাত্রীদের।

বিআইডব্লিউটিসির দৌলতদিয়া ঘাট শাখার সহকারী ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মো. খোরশেদ আলম বলেন, বর্তমানে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ছয়টি বড় ফেরি, সাতটি ছোট ফেরি ও কে-টাইপ দুটি ফেরিসহ মোট ১৫টি ফেরি চলাচল করছে। সকাল থেকে নদীতে পানি বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে তীব্র স্রোত দেখা দেয়ায় ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। ফলে ছোট বড় চার শতাধিক যানবাহন আটকা পড়েছে। স্রোত কমলে ফেরি চলাচল স্বাভাবিক হয়ে যাবে।

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।