আইপিএল বন্ধের দাবিতে হাইকোর্টে আবেদন

স্পোর্টস ডেস্ক, অর্থসংবাদ.কম, ঢাকা প্রকাশ: ২০২১-০৫-০৪ ১০:৪৭:৩৮

আইপিএল বন্ধের দাবিতে হাইকোর্টে আবেদন

ছবি: সংগৃহীত

করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে বিপর্যস্ত গোটা ভারত। প্রায় প্রতিদিন আগের রেকর্ডকে ছাড়িয়ে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। করোনাভাইরাসের উত্তাপ বেশ ভালোভাবে টের পাচ্ছে আইপিএল। কঠোর জৈব সুরক্ষা বলয়ের মধ্যে থেকেও টুর্নামেন্টের মাঝপথে আকাধিক ক্রিকেটারের করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর ছড়িয়েছে। এমন অবস্থায় গত সোমবারের ম্যাচটি স্থগিত করতে বাধ্য হয় আয়োজক কর্তৃপক্ষ।

কলকাতা নাইট রাইডার্স বনাম রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর ম্যাচটি আপাতত স্থগিত হলেও বন্ধ হচ্ছে না আইপিএল। মৃত্যুপুরীতে আইপিএল চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্তকে ভালো চোখে দেখছে না দেশটির সমর্থকদের বড় একটি অংশ। করোনার ভয়াবহ রূপ দেখছে দিল্লি। সেখানেও আইপিএলের ম্যাচ চালিয়ে যাচ্ছে বিসিসিআই। এনিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন অনেকেই। এবার আইপিএল বন্ধের দাবিতে দিল্লির হাইকোর্টে আবেদন জানিয়েছেন দুজন আইনজীবী।

পিটিশনে বলা হয়েছে, ‘রাজধানী দিল্লিসহ গোটা দেশে যখন সাধারণ মানুষ হাসপাতালে বেড পাচ্ছে না, শেষকৃত্যের জন্য শ্মশানে স্থান সংকুলান হচ্ছে না, মুমূর্ষু রোগীর জন্য অক্সিজেনের এবং ওষুধের আকাল, সেখানে আইপিএলের ম্যাচ সাধারণ মানুষের মানসিক স্থিতি নষ্ট করছে। বিশেষ করে যারা তাদের প্রিয়জনদের জীবন বাঁচাতে উদ্যত।’

ভয়াবহ পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়েও সরকার মানুষের স্বাস্থ্য উপেক্ষা করে আইপিএলকে কেন অগ্রাধিকার দিচ্ছে, এসব প্রশ্নই আবেদনে ছুঁড়ে দিয়েছেন আইনজীবী করন এস ঠুকরাল এবং ইন্দর মোহন সিং। গোটা ঘটনায় ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার, বিসিসিআই, আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিল, দিল্লি ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন এবং দিল্লি মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে অভিযুক্ত করেছেন তারা।

সবে মিলিয়ে পিটিশনারদের কথায়, এই সময় আইপিএল আয়োজন মানে সাধারণ মানুষের চরম দুর্গতিকে বিদ্রুপ করা। আগামী ৫ মে দিল্লি হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে আবেদনের ভিত্তিতে শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে।

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।