অবৈধ ইউল্যাব পুনর্ব্যবহার কার্যক্রম

নিউজ ডেস্ক, অর্থসংবাদ.কম, ঢাকা প্রকাশ: ২০২১-০২-২৪ ১৬:৪২:৫৯, আপডেট: ২০২১-০২-২৪ ১৬:৪৫:১২

স্বাস্থ্যগত ঝুঁকি ও পরিবেশ দূষণ রোধে সরকারের উচিত ব্যবহৃত লেড এসিড ব্যাটারির পরিবেশভিত্তিক সঠিক ব্যবস্থাপনা করা এবং এর অননুমোদিত পুনর্ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ করা।

বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) এনভায়রনমেন্ট এন্ড সোশ্যাল ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন (এসডো), ইউএন এনভায়রনমেন্ট প্রোগ্রাম এবং ইন্টারন্যাশসাল লেড অ্যাসোসিয়েশন-আইএলএ এর যৌথ আয়োজনে অনুষ্ঠিত একটি ক্যাপাসিটি বিল্ডিং কর্মশালায় বিশেষজ্ঞরা এসব কথা বলেন।

পিওর আর্থ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতত্ব বিভাগের তথ্য আনুসারে দেশে এখন পর্যন্ত ২৭০ টি এলাকায় ইউল্যাব রিসাইক্লিং করা হয়। যার ফলে উক্ত এলাকার বাসিন্দারা সীসা দ্বারা সৃষ্ট স্বাস্থ্য ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। সীসা এক্সপোজার থেকে অর্থনৈতিক প্রভাবগুলির একটি গবেষণা অনুমান করে যে প্রতি বছর বাংলাদেশ জিডিপিতে ১৫দশমিক ৯ বিলিয়ন মার্কিন ডলার হ্রাস পায় যা জনগণের আজীবন আয়ের সম্ভাবনা কমিয়ে দেয়।

কর্মশালাটি উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ সরকারের প্রাক্তন সচিব ও এসডোর চেয়ারপার্সন সৈয়দ মার্গুব মোর্শেদ। এতে আরও উপস্থিত ছিলেন আস্তর্জাতিক লেড সমিতির পরামর্শক ব্রায়ান উইলসন; বাসেল, রটরডেম এবং স্টকহোম কনভেনশনের প্রোগ্রাম অফিসার ফ্রানস্সিকা সেন্নি; ইউএন এনভায়রনমেন্ট প্রোগ্রাম এর প্রকল্প উনয়ন বিশেষক নিকোলাইন লাভানচি; ইউনিসেফ প্রোগ্রামের স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ মিনজুন কিম; স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রনালয়ের এর অতিরিক্ত সচিব মো. মুহিবুর রহমান; আইসিডিডিআর,বি এর পরিবেশগত হস্তক্ষেপ ইউনিটের, প্রকল্প সমন্বয়কারী, মো. মাহবুবুর রহমান; এসডো এর মহাসচিব ড. শাহরিয়ার হোসেন; এসডো এর নির্বাহী পরিচালক সিদ্দীকা সুলতানা; সরকারী ও বেসরকারী সংস্খা এবং আইএনজিও এর কর্মকর্তাগণ, সাংবাদিক এবং এসডোর অন্যান্য সদস্যরা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।