দিল্লীতে সিএএপন্থী-বিরোধী সংঘর্ষে নিহত ৪

ডেস্ক রিপোর্টার প্রকাশ: ২০২০-০২-২৫ ০০:৫৮:১৩, আপডেট: ২০২০-০২-২৫ ০১:১৪:২২

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভারত সফরের মধ্যেই সিএএ ইস্যুতে রক্তাক্ত হলো দিল্লি। সিএএপন্থী ও বিরোধীদের সংঘর্ষে মৃত্যু হল দিল্লি পুলিশের এক হেড কনস্টেবলের। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, সংঘর্ষে মৃত্যু হয়েছে তিনজন সাধারণ নাগরিকেরও। এক ডিসিপি-সহ কমপক্ষে ৩৭ জন পুলিশ কর্মী জখম হয়েছেন। আহতদের জিটিবি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

দিল্লির উপ-মুখ্যমন্ত্রী তথা শিক্ষামন্ত্রী মনীশ সিসোদিয়া কেন্দ্রীয় জনসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল নিশাঙ্কের কাছে অবেদন জানিয়েছেন যে উত্তর-পূর্ব দিল্লির হিংসা কবলিত এলাকায় যেন মঙ্গলবারের বোর্ড পরীক্ষা মুলতুবি করা হয়। তবে জনসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক জানিয়েছে, মঙ্গলবার কোনো নির্ধারিত পরীক্ষা নেই।

স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জি কিষণ রেড্ডি অভিযোগ করেছেন যে মার্কিন রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভারত সফরের সময়কাল মাথায় রেখেই সংঘটিত হয়েছে এই হিংসা। একই অভিযোগ করেছেন বিজেপি মুখপাত্র তথা সাংসদ মীনাক্ষী লেখি। অন্যদিকে কংগ্রেসের তরফে রাহুল এবং প্রিয়াঙ্কা গান্ধী শান্তির আবেদন করেছেন।

রবিবার রাত থেকেই সিএএ বিরোধী ও সিএএ সমর্থনকারীদের মধ্যে সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে উত্তর-পূর্ব দিল্লির মৌজপুর এলাকা। সোমবার সিএএ বিরোধী ও সিএএ সমর্থনকারী আন্দোলনকারীদের মধ্যে পাথর ছোড়াছুড়ি হয়। পরিস্থিতি সামলাতে কাঁদানে গ্যাসের শেল ফাটায় পুলিশ। এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।

মৌজপুর বাবরপুর মেট্রো স্টেশনের সামনে পাথর ছোড়াছুড়ির ঘটনা ঘটে। যমুনা বিহার এলাকায় বেশ কয়েকটি গাড়িতে আগুন লাগানোরও অভিযোগ উঠেছে। জাফরাবাদ ও মৌজপুরে কমপক্ষে ২টি বাড়ি ও দমকলের একটি গাড়িতে অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে বলে সংবাদসংস্থা পিটিআই সূত্রে খবর।

জাফরাবাদ ও মৌজপুর-বাবরপুর মেট্রো স্টেশনের এন্ট্রি গেট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ওই স্টেশনগুলোতে ট্রেন দাঁড়াচ্ছে না। দিল্লি মেট্রোর তরফে এমনটাই জানানো হয়েছে। সূত্র-এনডিটিভি ও ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের অনলাইন

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।