বন্ধ হলো ট্রাম্পের ইউটিউব চ্যানেল

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশ: ২০২১-০১-১৩ ১৩:৩৫:৫২, আপডেট: ২০২১-০১-১৩ ১৩:৪০:০৩

নীতিমালা লঙ্ঘনের অভিযোগে বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের চ্যানেল সাময়িক বন্ধ করে দিয়েছে গুগল মালিকানাধীন ইউটিউব। সহিংসতার উসকানির দায়ে ইউটিউবের নীতির বিরুদ্ধে যাওয়ায় একটি ভিডিও অপসারণ করা হয়েছে।

প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালনকালে অহরহ টুইট করতে দেখা গেছে এই মার্কিন প্রেসিডেন্টকে। কিন্তু ওয়াশিংটন ডিসিতে তার সমর্থকদের তাণ্ডবের পর সামাজিকমাধ্যম থেকে তাকে বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়েছে।

এর আগে, গত সপ্তাহে ক্যাপিটল ভবনে প্রাণঘাতী দাঙ্গার পর ট্রাম্পের টুইটার অ্যাকাউন্ট স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

অপারেটররা বলছেন, এই ক্ষুব্ধ নেতার অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের শপথের আগে অস্থিতিশীলতা উসকে দিতে পারেন।

বিবৃতিতে ইউটিউব জানায়, সম্ভাব্য সহিংসতা নিয়ে উদ্বেগের কথা বিবেচনা করে আমাদের নীতির লঙ্ঘনের দায়ে ডোনাল্ড জে. ট্রাম্পের নতুন ভিডিও সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। সর্বনিম্ন সাত দিন পর্যন্ত নতুন ভিডিও আপলোড করা থেকে এই চ্যানেলকে বিরত রাখা হবে।

ভিডিও শেয়ারিং এই প্ল্যাটফরমটি অবশ্য বলছে, নিরাপত্তা উদ্বেগের কথা বিবেচনা করে ট্রাম্পের চ্যানেলের মন্তব্য সেকশন অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রাখা হবে।

উল্লেখ্য, এর আগে ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রামও ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছে। ফেসবুকপ্রধান মার্ক জুকারবার্গ বলেন, সহিংসতা উসকে দিতে ট্রাম্প এই প্ল্যাটফরর্মটি ব্যবহার করেছেন। তিনি এই প্রবণতা অব্যাহত রাখতে পারেন বলে উদ্বেগ রয়েছে।

 

 

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।