রাষ্ট্রপ্রধানদের মধ্যে টুইটার ফলোয়ারে শীর্ষে মোদি

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশ: ২০২১-০১-১১ ১০:৩৭:৫৮

ক্যাপিটল হিলে ট্রাম্পের সমর্থকরা তাণ্ডব চালানোর পর টুইটার স্থায়ীভাবে ডোনাল্ড ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছে। মাইক্রোব্লগিং এই সাইটে সম্ভবত তার চেয়ে সক্রিয় আর কেউ ছিলেন না। টুইটারে নিষিদ্ধ হওয়ার আগে পর্যন্ত তিনি মার্কিন প্রেসিডেন্টের অ্যাকাউন্ট থেকে ৫৬ হাজারের বেশি টুইট করেছেন।

ট্রাম্পের মতোই টুইটারে প্রায় সমান সক্রিয় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। অনেক সময় তার অ্যাকাউন্ট থেকে এক মিনিটের মধ্যে কয়েকটি টুইটও করা হয়। দুজনে একে অপরকে ভালো বন্ধু বলেও প্রচার করেন তারা। ট্রাম্প অনুসারীর (ফলোয়ার) দিক থেকে মোদির চেয়ে এগিয়ে ছিলেন।

সর্বশেষ ট্রাম্পের ফলোয়ারের সংখ্যা ছিল ৮ কোটি ৮০ লাখ ৭০ হাজারের বেশি। আর নরেন্দ্র মোদির টুইটার অ্যাকাউন্টের বর্তমান ফলোয়ার সংখ্যা ৬ কোটি ৪০ লাখ ৭০ হাজার পেরিয়ে গেছে। সক্রিয় রাজনীতিকদের মধ্যে এতোদিন ট্রাম্পের ফলোয়ারই ছিল সর্বাধিক। এখন সেই স্থান দখল করলেন নরেন্দ্র মোদি।

অবশ্য টুইটারে সর্বোচ্চ ফলোয়ার সংখ্যা এখনো সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার। তার ফলোয়ারের সংখ্যা ১২ কোটি ৭৯ লাখের বেশি। এরপরেই আছে পপ গায়ক জাস্টিন বিবার, ১১ কোটি ৩৭ লাখ।

উল্লেখ্য, গত বুধবার ক্যাপিটল হিলে ট্রাম্পের সমর্থকরা তাণ্ডব চালানোর পর টুইটার স্থায়ীভাবে ডোনাল্ড ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছে। টুইটার জানিয়েছিল, সাম্প্রতিককালে ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমস্ত টুইট বিচার করে সংস্থা সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে স্থায়ীভাবে ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেয়া হবে। না হলে পরবর্তীতে তার টুইট থেকে সহিংসতায় উসকানি ছড়ানোর একটা সম্ভাবনা থেকে যায়।

শুধু ট্রাম্প নন, তার দুই সঙ্গী, সাবেক নিরাপত্তা উপদেষ্টা মাইকেল ফ্লিন ও অ্যাটর্নি সিডনি পাওয়েলের অ্যাকাউন্টও স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দিয়েছেন টুইটার কর্তৃপক্ষ।

 

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।