বিদেশ ফেরতদের সহায়তায় আইসিটি তথ্য সেবা চালু: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশ: ২০২১-০১-০৬ ১১:৪৬:৫৩, আপডেট: ২০২১-০১-০৬ ১৪:২৪:১৩

প্রশিক্ষণ ও সক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে অভিবাসী শ্রমিকদের দক্ষ করে গড়ে তোলা এবং বিদেশ ফেরত শ্রমিকদের সহায়তার লক্ষ্যে বিভিন্ন আইসিটি-ভিত্তিক তথ্য সেবা চালু করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। সোমবার (৫ জানুয়ারি) ঢাকায় ২০২০ ন্যাশনাল কনসালটেশন’ শীর্ষক আলোচনা সভায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, করোনাভাইরাস মহামারির এই সংকটপূর্ণ সময়ে বহু অভিবাসী শ্রমিক চাকরি হারিয়েছেন। এই অবস্থায় সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনির বাইরে থাকায় তারা অনেক দুর্ভোগ ও কষ্টের মধ্যে রয়েছেন। বিপুল সংখ্যক অভিবাসী শ্রমিক জনাকীর্ণ অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে থাকতে বাধ্য করা হচ্ছে। যা ভাইরাস সংক্রমণের ক্ষেত্রে অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ। গ্লোবাল ফোরাম অন মাইগ্রেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (জিএফএমডি)-কে আরও অধিকার-ভিত্তিক পদক্ষেপ নেওয়া এবং কার্যকারী আন্তর্জাতিক অভিবাসন পরিচালনা নিশ্চিতের লক্ষ্যে অভিবাসন নীতিমালায় সুরক্ষার বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করা উচিত।

তিনি আরও বলেন, গ্লোবাল কমপ্যাক্ট অন মাইগ্রেশন (জিসিএম)-কে কার্যকারীভাবে বাস্তবায়নে জিএফএমডি একটি গুরুত্বপূর্ণ ও সক্রিয় ভূমিকা পালন করতে পারে। জিসিএম অভিবাসীদের সুরক্ষায় একটি মাইলফলক পদক্ষেপ। বাংলাদেশ ১১ লাখ রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দিয়েছে। এদেরকে জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত করা হয়েছে।

মোমেন আরও বলেন, ‘জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বাংলাদেশ একটি অন্যতম ঝুঁকিপূর্ণ দেশ। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে প্রতি বছর আমাদের দেশের বহু মানুষ বাস্তুচ্যুত হচ্ছে। আমরা তাদের জলবায়ু অভিবাসী হিসেবে উল্লেখ করি। আসন্ন সম্মেলনে আমরা প্রবাসী শ্রমিকদের এই দিকগুলো তুলে ধরবো। আমি এ সমস্যার একটি অর্থবহ ফলাফলের জন্য অন্যান্য আলোচনা ও বৈঠকেও এই ইস্যুটি উত্থাপনের জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রশিক্ষণ ও স্ক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে অভিবাসী শ্রমিকদের দক্ষ করে গড়ে তোলা এবং বিদেশ ফেরত শ্রমিকদের দক্ষতা বৃদ্ধি করা বাংলাদেশ সরকারের দায়িত্ব। পাশাপাশি অভিবাসী শ্রমিকদের কল্যাণে বিশেষত বিদেশে থাকাকালে আমরা কারিগরি সুবিধার ওপর জোর দিয়েছি। সরকার সমন্বিত ড্যাটাবেইজ তৈরির মাধ্যমে তথ্য ব্যবস্থাপনার উন্নয়নে কাজ করছে। এছাড়াও প্রবাসী শ্রমিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত এবং বিদেশ ফেরত শ্রমিকদের সহায়তার লক্ষ্যে বিভিন্ন আইসিটি-ভিত্তিক তথ্য সেবা চালু করা হয়েছে।

 

 

 

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।