ভারতে চায়ের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে ৪৮%

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশ: ২০২১-০১-০২ ১১:১৫:৩৬, আপডেট: ২০২১-০১-০২ ১১:১৭:৩৮

মহামারী করোনাভাইরাসের জের ধরে ভারতে চায়ের বাজার চাঙ্গা হয়েছে। এ ধারাবাহিকতায় গত বছর ২০২০ সালের শুরু থেকে নভেম্বর পর্যন্ত দেশটিতে পানীয় পণ্যটির দাম আগের বছরের তুলনায় ৪৮ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে কেজিপ্রতি ২০০ রুপি ছাড়িয়ে গেছে। টি বোর্ড অব ইন্ডিয়ার সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। বিজনেস লাইন ও বিজনেস রেকর্ডার সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

বিশ্বের দ্বিতীয় শীর্ষ চা উৎপাদনকারী এবং রফতানিকারক দেশ হচ্ছে ভারত। দেশটি পানীয় পণ্যটির বৈশ্বিক রফতানি বাণিজ্যের ১২ দশমিক ৬ শতাংশ এককভাবে জােগান দেয়। টি বোর্ড অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ২০১৯ সালের জানুয়ারি-নভেম্বর সময়ে ভারতের বাজারে প্রতি কেজি চায়ের গড় দাম ছিল ১৪৫ দশমিক ৯৩ রুপি। গত বছরের একই সময়ে দেশটিতে পানীয় পণ্যটির গড় দাম কেজি প্রতি ২১৫ দশমিক ৯০ রুপিতে উঠেছে, যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৪৭ দশমিক ৯৫ শতাংশ বেশি। সেই হিসেবে ভারতে এক বছর ব্যবধানে ভারতে চায়ের গড় দাম কেজিতে ৬৯ দশমিক ৯৭ রুপি বৃদ্ধি পেয়েছ।

এর মধ্যে আসাম, পশ্চিমবঙ্গসহ ভারতের উত্তরাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোয় চায়ের গড় দাম বৃদ্ধি পেয়েছে ৫৩ দশমিক ২৩ শতাংশ। গত বছরের জানুয়ারি-নভেম্বর সময়ে এসব রাজ্যে পানীয় পণ্যটির গড় দাম দাঁড়িয়েছে ২৪৩ দশমিক ৮৭ রুপিতে, যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় কেজিপ্রতি ৮৪ দশমিক ৭২ শতাংশ বেশি। ২০১৯ সালের প্রথম ১১ মাসে ভারতের উত্তরাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোয় চায়ের গড় দাম ছিল কেজিপ্রতি ১৫৯ দশমিক ১৫ রুপি।

এর আগে, গত বছরের জানুয়ারি-নভেম্বর সময়ে তামিলনাড়ু, কেরালা, কর্ণাটকসহ ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোয় প্রতি কেজি চায়ের গড় দাম দাঁড়িয়েছে ১৪০ রুপিতে, যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৪৩ দশমিক ৮০ শতাংশ বেশি। ২০১৯ সালের জানুয়ারি-নভেম্বর সময়ের ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোয় পানীয় পণ্যটির গড় দাম ছিল কেজিপ্রতি ৯৭ দশমিক ৩৬ রুপি। সেই হিসাবে এক বছরের ব্যবধানে ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোয় চায়ের গড় দাম কেজিতে ৪২ দশমিক ৬৪ রুপি বৃদ্ধি পেয়েছে।

 

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।