শিল্পকারখানায় শ্রমিকদের মালিকানা থাকতে হবে : রেহমান সোবহান

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশ: ২০২০-০২-০৫ ০১:৩১:৩৬

শিল্পকারখানায় শ্রমিকদের মালিকানা থাকতে হবে বলে মনে করেন বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ রেহমান সোবহান। বিগত ২০ বছর ধরে এ কথা বললেও কেউ আমলে নিচ্ছেন না। ট্রেড ইউনিয়নগুলোও এমন দাবিতে সোচ্চার ভূমিকা রাখতে পারছে না। শিল্পে শ্রমিক শ্রেণির মালিকানা থাকলে তারা মন দিয়ে কাজ করবে। এতে সামাজিক অস্থিরতাও দূর হবে।

মঙ্গলবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের (টিইউসি) ৫০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

ঢাকা মুসলিম হল ইনস্টিটিউটে আয়োজিত টিইউসির প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানেও প্রধান অতিথি ছিলেন রেহমান সোবহান। তখন সংগঠনটির নাম ছিল ট্রেড ইউনিয়ন যোগাযোগ কেন্দ্র।

স্বাধিকার আন্দোলনের স্মৃতিচারণা করে রেহমান সোবহান বলেন, বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে নরসিংদীর ঘোড়াশালে এক নির্বাচনী প্রচারাভিযানে গিয়েছিলেন। পথে তারা আদমজী পাটকল এলাকায় থামেন। সেখানে দুই লাখ লোকের সমাগম ঘটেছিল। তারা সবাই ছিল শ্রমিক-মজুর। আসলে মেহনতি মানুষের সঙ্গে আওয়ামী লীগের সম্পর্কটা আগে ছিল, এখন নেই।

রেহমান সোবহান বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সঙ্গে আঞ্চলিক অর্থনীতি নিয়ে কাজ করেছি। বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে কথা হতো ছয় দফা নিয়ে। বঙ্গবন্ধু বলতেন, নির্বাচিত সরকার ক্ষমতায় এলে শুধু রাজনৈতিক নয়, অর্থনৈতিক ক্ষমতাও চলে আসবে। স্বাধীনতার আগে বাংলাদেশ অঞ্চলের প্রায় সব শিল্পকারখানা অবাঙালিদের হাতে ছিল। যুদ্ধের পর এক দিনের মধ্যে অবাঙালিরা নাই হয়ে গেল। স্থবির হয়ে গেল পুরো অর্থনীতি। তখন বড় বড় শিল্পকারখানা সরকারের হাতে নিয়ে আসার কথা বলেছিলাম, এসেছেও ঠিক। বঙ্গবন্ধু বলতেন, কলকারখানা শুধু সরকারের হাতে এলেই হবে না, এতে শ্রমিক শ্রেণির মালিকানা থাকতে হবে। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর এই দর্শন বর্তমানে হাওয়ায় উড়ে গেছে।

টিইউসির সভাপতি শ্রমিক নেতা সহিদুল্লাহ চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন সংগঠনের সহসভাপতি মাহাবুব আলম, তপন দত্ত ও আবদুর রাজ্জাক, সাধারণ সম্পাদক ওয়াজেদুল ইসলাম খান, সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল মালেক প্রমুখ।

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।