জামালপুর অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগে যাচ্ছে তিন প্রতিষ্ঠান

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশ: ২০২০-১১-১৪ ১০:১৯:০৭, আপডেট: ২০২০-১১-১৪ ১০:২১:০৩

ময়মনসিংহ বিভাগে সর্বপ্রথম বাস্তবায়নাধীন জামালপুর অর্থনৈতিক অঞ্চলে প্রথমবারের মতো বিনিয়োগে যাচ্ছে তিনটি প্রতিষ্ঠান। ম্যাক্স ইনফোটেক লিমিটেড, নোবেল নেভিগেশন অ্যান্ড শিপিং লাইনস এবং রিলায়েন্স সলিউশন্স নামে এ প্রতিষ্ঠান তিনটি বিনিয়োগের জন্য সম্প্রতি বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) সঙ্গে জমি লিজসংক্রান্ত চুক্তিও সম্পন্ন করেছে।

জানা গেছে, জামালপুর অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগের জন্য ম্যাক্স ইনফোটেক লিমিটেড দুই একর, নোবেল নেভিগেশন অ্যান্ড শিপিং লাইনস দুই একর এবং রিলায়েন্স সলিউশন্স এক একর করে দুই একরের দুটি জমির জন্য বেজার সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, চুক্তিবদ্ধ হওয়া তিন প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ম্যাক্স ইনফোটেক ২৬ লাখ ৮০ হাজার ডলার বিনিয়োগের মাধ্যমে কৃষিপণ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ কারখানা এবং ফুড ও বেভারেজ শিল্পপ্রতিষ্ঠান গড়ে তুলবে।

অন্যদিকে প্রায় ৪৭ লাখ ৬০ হাজার ডলার বিনিয়োগ করবে নোবেল নেভিগেশন অ্যান্ড শিপিং লাইনস। এ বিনিয়োগের মাধ্যমে জামালপুর অর্থনৈতিক অঞ্চলে ওভেন ব্যাগ প্রস্তুত কারখানা স্থাপন করবে প্রতিষ্ঠানটি।

আর বায়োলিপ এগ্রো ইন্ডাস্ট্রি লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান রিলায়েন্স সলিউশন্স লিমিটেড জামালপুর অর্থনৈতিক অঞ্চলের প্রতিটি এক একর আয়তনের মোট দুই একরের দুটি জমির লিজ নিয়েছে। প্রস্তাবনা অনুযায়ী প্রতিষ্ঠানটি এক একর জমিতে ১১ লাখ ৫০ হাজার ডলার বিনিয়োগের মাধ্যমে এগ্রো ফ্যাক্টরি স্থাপন করে। অন্য এক একর জমিতে প্রতিষ্ঠানটি ১৭ লাখ ৩০ হাজার ডলার বিনিয়োগে মেডিকেল ও সার্জিক্যাল সামগ্রী তৈরি করবে।

এ বিনিয়োগকে স্বাগত জানিয়ে বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী বলেন, জামালপুরে শিল্পাঞ্চল প্রতিষ্ঠার ফলে মধ্যাঞ্চলের জনগোষ্ঠী দেশের অর্থনীতির চাকার সঙ্গে সম্পৃক্ত হবে এবং সামষ্টিক অর্থনৈতিক উন্নয়নে নতুন উদাহরণ তৈরি হবে। জামালপুরে কৃষিভিত্তিক পরিকল্পিত শিল্প স্থাপনের পথ সুগম হবে। এ অঞ্চলের মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নত হবে এবং আয় বৃদ্ধি পাবে, যা টেকসই উন্নয়নের সহায়ক।

উল্লেখ্য, জামালপুর অর্থনৈতিক অঞ্চল ময়মনসিংহ বিভাগের সর্বপ্রথম বাস্তবায়নাধীন সরকারি অর্থনৈতিক অঞ্চল। ৪৩৬ একর জমির ওপর প্রতিষ্ঠিত জোনটির সফল বাস্তবায়ন করা গেলে এখানে প্রত্যক্ষভাবে প্রায় ৩২ হাজার লোকের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

অর্থসংবাদ/ এমএস

 

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।