হাবিব হাসান ও তানভীর শাকিলের জয়

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশ: ২০২০-১১-১২ ২৩:১২:৫৬, আপডেট: ২০২০-১১-১২ ২৩:১৫:০৩

ঢাকা-১৮ ও সিরাজগঞ্জ-১ আসনের উপনির্বাচনে জয় পেয়েছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের দুই প্রার্থী মোহাম্মদ হাবিব হাসান ও তানভীর শাকিল জয়।

ঢাকা-১৮ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মোহাম্মদ হাবিব হাসান নৌকা প্রতীক নিয়ে ৭৫ হাজার ৮২০ ভোট পেয়ে জয়লাভ করেছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির এস এম জাহাঙ্গীর হোসেন ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছেন পাঁচ হাজার ৩৬৯ ভোট।

সিরাজগঞ্জ-১ আসনে জয় পেয়েছেন প্রয়াত মোহাম্মদ নাসিমের ছেলে প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয়। নৌকা প্রতীকে তিনি পেয়েছেন এক লাখ ৮৮ হাজার ৩২৫ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির সেলিম রেজা ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছেন ৪৮৮ ভোট।

রাজধানীর উত্তরা কমিউনিটি সেন্টার থেকে ঢাকা-১৮ আসনের রিটার্নিং কর্মকর্তা জি এম সাহাতাব উদ্দিন বেসরকারিভাবে লিখিত ফল ঘোষণায় উল্লেখ করেছেন, এ আসনে মোট ভোট পড়েছে ১৪ দশমিক ১৮ শতাংশ। এর মধ্যে বৈধ ভোট পড়েছে ৮১ হাজার ৮১৮টি। কোনো অবৈধ ভোট ছিল না।

আওয়ামী-বিএনপি প্রার্থী ছাড়া এ উপনির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন গণফ্রন্টের কাজী মো. শহীদুল্লাহ, বাংলাদেশ কংগ্রেসের মো. ওমর ফারুক, জাতীয় পার্টির মো. নাসির উদ্দিন সরকার ও প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দলের (পিডিপি) মো. মহিববুল্লা বাহার।

ইসির বেসরকারি ফল অনুযায়ী, গণফ্রন্টের কাজী মো. শহীদুল্লাহ ‘মাছ’ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১২৬ ভোট, বাংলাদেশ কংগ্রেসের মো. ওমর ফারুক ‘ডাব’ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৯১ ভোট, জাতীয় পার্টির মো. নাসির উদ্দিন সরকার ‘লাঙ্গল’ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩২৫ ভোট এবং প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দলের (পিডিপি) মো. মহিববুল্লা বাহার ‘বাঘ’ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৮৭ ভোট।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ১, ১৭, ৪৩, ৪৪, ৪৫,৪৬, ৪৭, ৪৮, ৪৯, ৫০, ৫১, ৫২, ৫৩, ৫৪ নম্বর ওয়ার্ড ও বিমানবন্দর এলাকা নিয়ে ঢাকা-১৮ আসন গঠিত। এখানে সিটি করপোরেশনের ১৪টি ওয়ার্ডের ২১৭টি কেন্দ্রে মোট ৫ লাখ ৭৭ হাজার ১৮৮ জন ভোটার রয়েছেন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ৯৬ হাজার ১৩৫ এবং নারী ভোটার ২ লাখ ৮১ হাজার ৫৩। গত ৯ জুলাই সংসদ সদস্য সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে ঢাকা-১৮ আসন শূন্য হয়েছিল।

এদিকে বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) রাত ১০টার দিকে সিরাজগঞ্জ সদর ও কাজিপুর কন্ট্রোল রুম থেকে পাওয়া ফলাফলে নৌকা প্রতীকে তানভীর শাকিল জয় পেয়েছেন এক লাখ ৮৮ হাজার ৩২৫ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির সেলিম রেজা ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছেন ৪৮৮ ভোট।

কাজিপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জাহিদ হাসান সিদ্দিকী এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, চূড়ান্ত ফলাফলে নৌকা প্রতীক পেয়েছে এক লাখ ৮৮ হাজার ৩২৫ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছে ৪৮৮ ভোট।

সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত সিরাজগঞ্জ-১ নির্বাচনী আসনের ১৭১টি কেন্দ্রে একযোগে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোটগ্রহণ করা হয়। ভোটগ্রহণ শেষে সন্ধ্যার দিকে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেন বিএনপি প্রার্থী সেলিম রেজা।

এ দুটি আসনের উপনির্বাচন বিষয়ে নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব মো. আলমগীর বলেছেন, ‘ভোট সব জায়গায় শান্তিপূর্ণভাবেই হয়েছে। কোথাও কোনো খারাপ খবর পাইনি। গণমাধ্যমেও দেখিনি যে, ভোটকেন্দ্রে গণ্ডগোল হয়েছে, মারামারি হয়েছে বা ভোটকেন্দ্র বন্ধ করে দিতে হয়েছে, এ ধরনের কোনো ঘটনা দেখিনি। বিএনপির অভিযোগ জেনারেল।’

বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) সন্ধ্যায় রাজধানীর আগারগাঁওয়ে অবস্থিত নির্বাচন ভবনের নিজ কার্যালয়ে এসব কথা বলেন ইসি সচিব।

তিনি বলেন, ‘সিরাজগঞ্জ থেকে বিকাল ৪টার দিকে আমাকে যেটা জানিয়েছে, তাতে ৪৫ থেকে ৫০ শতাংশ ভোট পড়েছে বলে তারা মনে করছেন। ঢাকায় আনুমানিক ৩৫ শতাংশ ভোট পড়েছে বলে তারা মনে করছে।’

 

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।