করোনা জয় করে বাসায় ফিরলেন অপূর্ব

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশ: ২০২০-১১-১১ ১৫:৪৭:৫৬

তিন দিনের জ্বরে শারীরিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়ায় চিকিৎসকের পরামর্শে তাঁর কোভিড-১৯ পরীক্ষা করানো হয়। ফল হাতে পেলে জানা যায়, তিনি কোভিড-১৯ পজিটিভ। এরপর শারীরিক অবস্থা বেশি খারাপ হলে ৩ নভেম্বর তাঁকে রাজধানী ঢাকার শ্যামলীর একটি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

বুলবুল ভূঁইয়া বলেন, অভিনেতা অপূর্বর শারীরিক অবস্থা দুদিন ধরেই ভালো। তারপরও চিকিৎসক আরেকটু পর্যবেক্ষণে রাখতে চেয়েছিলেন। আজ তিনি বাসায় যাওয়ার জন্য পুরোপুরি প্রস্তুত। এখন আপাতত কোনো ধরনের সমস্যা নেই। তবে তাঁকে দুই সপ্তাহের মতো বিশ্রামে থাকতে হতে পারে।

করোনায় আক্রান্ত অপূর্বকে হাসপাতালে ভর্তির পর রক্তের কয়েকটি পরীক্ষা করানো হয়। রক্ত পরীক্ষার প্রতিবেদন সন্তোষজনক না হওয়ায় শুরুতে এই অভিনয়শিল্পীকে নিয়ে চিন্তা বাড়ে সবার। এর মধ্যে কোনো খাবার খেতে পারছিলেন না। খেলেও বমি হয়ে যাচ্ছিল। শারীরিকভাবেও খুবই দুর্বল ছিলেন। শারীরিক অবস্থার কখনো উন্নতি, কখনো অবনতি, এভাবেই চলছিল। এরপর চিকিৎসকের পরামর্শে বুকের সিটি স্ক্যান শেষে তাঁকে এক ব্যাগ প্লাজমা দেওয়া হয়।

এদিকে হাসপাতাল থেকে বাসায় ফেরার পথে অপূর্ব তাঁর ফেসবুকে একটি স্থিরচিত্র পোস্ট করেছেন। সেখানে তিনি লিখেছেন, ‘সৃষ্টিকর্তার অশেষ রহমতে আমি এখন বাসার পথে। ভালোবাসা, সহযোগিতা ও দোয়ার জন্য সবার কাছে আমি আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।’

এর আগে একটি শুটিংস্পটে দুজন কুশলী করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় কোয়ারেন্টিনে ছিলেন অপূর্বসহ ওই ইউনিটের সবাই। পরে দুবার করোনা পরীক্ষার পর নেগেটিভ ফল নিয়ে শুটিংয়ে ফিরেছিলেন অপূর্ব। পরিচালক মিজানুর রহমান সে সময়

জানিয়েছিলেন, শুটিংয়ের আগে ২৭ জনের টিমের প্রত্যেকের করোনা পরীক্ষা করা হয়েছিল। এর মধ্যে একজনের করোনা পজিটিভ এসেছিল। তাঁকে বাদ দিয়ে শুটিং শুরু করেন পরিচালক। ইউনিটের সবার করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট ‘নেগেটিভ’ নিয়ে নাটকের শুটিং শুরু হয় গত ৭ জুলাই। ৮ জুলাই নাটকটির সেটে দুজনের কোভিড-১৯ পজিটিভ ধরা পড়ে। সঙ্গে সঙ্গে নাটকের টিমের সবাই শুটিং বন্ধ করে কোয়ারেন্টিনে চলে যান। সেই দলে ছিলেন অপূর্বও। সে সময় অপূর্ব বলেন, ‘বাস্তবতা মেনে নিয়েই চলতে হবে। কাজ করতে হবে।

অর্থসংবাদ/এসআর

 

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।