সফটব্যাংকের নিট মুনাফা বেড়েছে চার গুণ

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশ: ২০২০-১১-১১ ১২:৩৩:১৫

চলতি অর্থবছরের প্রথমার্ধে জাপানের সফটব্যাংক গ্রুপের নিট মুনাফা প্রায় চার গুণ বেড়েছে। এপ্রিল-সেপ্টেম্বর মেয়াদে প্রতিষ্ঠানটির নিট মুনাফা হয়েছে ১ লাখ ৮৮ হাজার কোটি ইয়েন বা ১ হাজার ৮০০ কোটি ডলার। গত বছরের বড় আকারের লোকসান কাটিয়ে জাপানভিত্তিক আর্থিক প্রতিষ্ঠানটির নিট মুনাফা যে চাঙ্গা হয়েছে, সোমবার প্রকাশিত উপাত্তে তা স্পষ্ট হয়ে উঠেছে।

জাপানের কনগ্লোমারেটটির নিট মুনাফা গত বছরের একই সময়ের চেয়ে ৪২ হাজার ১৬০ কোটি ইয়েন বেড়েছে। গত কয়েক বছরে যে বড় আকারের বিনিয়োগ করেছে, তার ফল পেতে শুরু করেছে তারা—প্রথমার্ধে এ মুনাফার মাধ্যমে তা স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। তবে বিভিন্ন অনিশ্চিত ফ্যাক্টরের কারণে চলতি বছরের সম্পূর্ণ পূর্বাভাস প্রকাশে বিরত থাকছে সফটব্যাংক। পূর্ববর্তী অর্থবছরে ৯০০ কোটি ডলার নিট লোকসান গুনেছিল এ বিনিয়োগ জায়ান্ট। তবে চলতি অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকেই ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করে তারা।

তোকাই টোকিও রিসার্চ ইনস্টিটিউটের বিশ্লেষক মাসাহিকো আইশিনো জানান, বৈশ্বিক ইকুইটি বাজারে শক্তিশালী পারফরম্যান্সের ওপর ভর করে প্রতিষ্ঠানটিতে চাঙ্গা ভাব ফিরে এসেছে।

১০ হাজার কোটি ডলারের ভিশন ফান্ডের মাধ্যমে সিলিকন ভ্যালির বিভিন্ন প্রযুক্তি কোম্পানিতে বিনিয়োগ করে সফটব্যাংককে বিনিয়োগ জায়ান্টে পরিণত করেছেন প্রতিষ্ঠাতা মাসায়োশি সন।

উইওয়ার্ক থেকে শুরু করে উবার, গ্র্যাবসহ বিভিন্ন স্টার্টআপে বিনিয়োগ নিয়ে অনেক বিরোধিতার মুখোমুখি হয়েছেন সন। ওই স্টার্টআপগুলো অতি মূল্যায়িত এবং সেগুলোর মুনাফার স্পষ্ট মডেল ছিল না বলে মনে করতেন কিছু বিশ্লেষক। নিজের কৌশলকে শক্তিশালী দাবি করে সন বলতেন, সফটব্যাংকের বিনিয়োগ পোর্টফোলিওতে বৈচিত্র্য থাকার কারণে এটি যেকোনো পরিস্থিতিতে টিকে থাকতে পারবে।

সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে সন বলেন, উইওয়ার্কের কারণে অনেকে বলতে শুরু করেছিল ভিশন ফান্ডের দিন শেষ। আমি বলব, এটা হওয়ার কোনো সুযোগ নেই, বরং এ ফান্ডের দিন শুরু হলো মাত্র।

এখন ভিশন ফান্ডের মনোযোগ থাকবে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বা এআই বিপ্লবে এবং এ খাতে ‘প্রকৃত প্রতিযোগীদের’ মধ্যেই বিনিয়োগ করবেন বলে জানান সন।

কভিড-১৯ মহামারীতে ডিজিটাল সেবা গ্রহণ বৃদ্ধির কারণে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর রেকর্ড মুনাফার ভিত্তিতে প্রথমার্ধে সফটব্যাংকের এ রেকর্ড মুনাফা হয়েছে। এছাড়া শেয়ার বাইব্যাক ও ঋণ হ্রাস পরিকল্পনার অংশ হিসেবে ৪ হাজার ১০০ কোটি ডলারের সম্পদ বিক্রির মতো আগ্রাসী পরিকল্পনা পেশের পর এ মুনাফার উপাত্ত প্রকাশ করল সফটব্যাংক। তবে বিনিয়োগ জায়ান্টটি ৫ হাজার ৬০০ কোটি ডলার সংগ্রহ করতে পেরেছে, যা তার পরিকল্পনার চেয়ে বেশি।

বিবৃতিতে সফটব্যাংক বলছে, ভবিষ্যতে নতুন করে কভিড-১৯ সংক্রমণ বৃদ্ধির শঙ্কায় নগদ অর্থ মজুদ জরুরি বলে মনে করছে তারা।

আয়-ব্যয়ের হিসাব প্রকাশের আগেই সফটব্যাংকের শেয়ারদর ৫ দশমিক ৩৭ শতাংশ বেড়ে ৭ হাজার ৮৩ ইয়েনে দাঁড়িয়েছে। গত মার্চে শেয়ারদর রেকর্ড ২ হাজার ৬৮৭ ইয়েনে দাঁড়িয়েছিল।

উইওয়াকসহ বেশ কয়েকটি বিনিয়োগে ব্যর্থতার জন্য ভিশন ফান্ডের বিনিয়োগকারীদের থেকে বেশ চাপের মুখে ছিলেন সন। একসময় ৪ হাজার ৭০০ কোটি ডলারের ইউনিকর্ন স্টার্টআপ থেকে খুবই নাজুক পরিস্থিতিতে নেমে আসে অফিস শেয়ারিং এ প্লাটফর্ম।

গত সেপ্টেম্বরে মার্কিন প্রতিষ্ঠান এনভিদিয়ার কাছে ব্রিটিশ চিপ নকশাকারী শাখা বিক্রির ঘোষণা দিয়েছিল সফটব্যাংক। এর মাধ্যমে ৪ হাজার কোটি ডলার সংগ্রহের পরিকল্পনা ছিল তার। যদি অনুমোদিত হয় তাহলে চুক্তিটি বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ অধিগ্রহণ হতে পারে এবং এর মাধ্যমে সেমিকন্ডাক্টর খাতে এনভিদিয়াকে সামনের সারিতে নিয়ে আসবে। ব্রিটেন, ইউরোপ, যুক্তরাষ্ট্র ও চীন থেকে নীতিনির্ধারকদের অনুমোদন পেতে বেশ ঝক্কিঝামেলা পোহাতে হচ্ছে। সূত্র এএফপি।

অর্থসংবাদ/ এমএস

 

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।