প্রি-মার্কেট’ ও ‘আফটার আওয়ার ট্রেডের অনুমতি পেয়েছে ডিএসই

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশ: ২০২০-১০-২৮ ১০:২৮:২৩

স্বাভাবিক লেনদেন চালুর আগে ও পরে ১৫ মিনি করে মোট আধা ঘণ্টা ‘প্রি-মার্কেট’ এবং ‘আফটার আওয়ার ট্রেড’ নামে লেনদেনের অনুমতি পেয়েয়েছে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)। এ বিষয়ে প্রাথমিক অনুমতি দিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনকে (বিএসইসি)।তবে আগে পরীক্ষামূলক কাজ শেষ করার জন্য বলেছে সংস্থাটি। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র মতে, গত ৪ অক্টোবর স্বাভাবিক লেনদেন চালুর আগে ও পরে আরও বাড়তি সময় চেয়ে আবেদন করে ডিএসই। এর প্রক্ষিতে গত ২০ অক্টোবর এর পরীক্ষামূলক কার্যক্রম চালুর অনুমতি দেয় বিএসইসি। এই কাজ শেষ করতে আরও ১৫ দিন সময় লাগবে বলে জানিয়েছে ডিএসই। পরীক্ষামূলক কাজ শেষ হলে এর ফলাফল বিএসইসিকে জানাতে হবে। সব কিছু দেখে নিয়ন্ত্রক সংস্থা এর চুড়ান্ত অনুমোদন দিবেন। তবে ডিএসই আশা করছে সব মিলিয়ে আগামী নভেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে তারা আনুষ্ঠানিকভাবে এই কার্যক্রম শুরু করতে পারবেন।

ডিএসই কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, নিয়ন্ত্রক সংস্থা সম্মতি দিলে লেনদেন শুরুর আগেই (প্রি-মার্কেট সেশন) বিনিয়োগকারীরা তাদের শেয়ার ক্রয় বা বিক্রয় আদেশ দিতে পারবেন। তবে এ সময়ে লেনদেন সম্পন্ন হবে না। লেনদেন সম্পন্ন হবে স্বাভাবিক লেনদেন সময় চালুর সঙ্গে সঙ্গে। অন্যদিকে স্বাভাবিক লেনদেন সময় শেষে (আফটার আওয়ার ট্রেড) বিনিয়োগকারীরা আগের ক্রয় বা বিক্রয় আদেশগুলো সংশোধন করে লেনদেন সম্পন্ন করার সুযোগ পাবেন।

১৯৯৯ সাল থেকে উন্নত বিশ্বের কয়েকটি পুঁজিবাজার অতিরিক্ত সময়ের লেনদেন ব্যবস্থা চালু করে। বিশ্বের বড় পুঁজিবাজার যুক্তরাষ্ট্রের নাসডাকের স্বাভাবিক লেনদেন সময় সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বিকেল ৪টা। প্রি-মার্কেট সেশন চালু হয় ভোর সোয়া ৪টা থেকে সকাল সাড়ে ৯টা পর্যন্ত। অন্যদিকে পোস্ট আওয়ার ট্রেড চালু হয় বিকেল সোয়া ৪টায়। চলে রাত ৮টা পর্যন্ত।

 

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।