ঢাকা-১৮ আসন নিয়ে গুলশানে সংঘর্ষ : বিএনপির তদন্ত কমিটি

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশ: ২০২০-১০-০৩ ১০:৫৭:০০

রাজধানীর গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক কার্যালয়ের সামনে ঢাকা-১৮ আসনের উপ-নির্বাচনে মনোনয়নপ্রত্যাশী প্রার্থীদের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনার ২১ দিন পর এক সদস্য বিশিষ্ট দলীয় তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

শুক্রবার বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে দলের যুগ্ম মহাসচিব ডাকসুর সাবেক জিএস খায়রুল কবির খোকনকে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে প্রকৃত দোষীদের চিহ্নিত করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

তদন্ত কমিটির একমাত্র সদস্য খায়রুল কবির খোকন বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে আমাকে জানানো হয়েছে। শুক্রবার একটি চিঠিও দেওয়া হয়েছে। গুলশানে যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে সে বিষয়ে আমি নিরপেক্ষভাবে তদন্ত করে একটি রিপোর্ট দেব।
কতদিনের মধ্যে রিপোর্ট দেবেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, সেটা এখনই বলতে পারছি না। তবে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব রিপোর্ট দেয়ার চেষ্টা করব।

গত ১১ সেপ্টেম্বর দেশের চারটি সংসদীয় আসনের উপ-নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করতে মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকারের দিন ঢাকা-১৮ আসনের দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে ১৭ জন নেতাকর্মী আহত হন।

ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক কফিল উদ্দিন ও যুবদল মহানগর উত্তরের সভাপতি এস এম জাহাঙ্গীরের সমর্থকদের মধ্যে এ সংঘর্ষ হয়। কূটনৈতিক পাড়া হিসেবে পরিচিত গুলশান-২ এলাকায় এমন সংঘর্ষের ঘটনা দলটির ওপর নেতিবাচক প্রভাব পড়ে। এতে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ সিনিয়র নেতারা ক্ষুব্ধ হন।

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে আসনটি শূন্য হয়। নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী ওই আসনে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন ১৩ অক্টোবর। ভোটগ্রহণ করা হবে আগামী ১২ নভেম্বর।

 

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।