সব ধরনের সূচকের উত্থান সাপ্তাহিক লেনদেনে

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশ: ২০২০-১০-০২ ১৪:১৬:১৫

বিদায়ী সপ্তাহে সব ধরনের সূচকের উত্থানে লেনদেন শেষ হয়েছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) । তবে টাকার অংকে লেনদেনের পরিমাণ কমেছে। গত সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন কমেছে দশমিক ৪১ শতাংশ। অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক ও লেনদেন দুটোই বেড়েছে।

ডিএসই ও সিএসইর সাপ্তাহিক বাজার পরযালোচনা করলে এ তথ্য পাওয়া যায়।

তথ্য মতে, আলোচিত সপ্তাহে ডিএসইতে ৯১০ কোটি ৯৫ লাখ ৭৬ হাজার ২৮৫ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ৯১৪ কোটি ৭৪ লাখ ৫৪ হাজার ৭৯ টাকার শেয়ার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ১৮ কোটি ৯৩ লাখ ৮৮ হাজার ৯৬৮ টাকার বা দশমিক ৪১ শতাংশ।

সপ্তাহ শেষে ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স এর অবস্থান দাঁড়ায় ৪ হাজার ৯৯৫ দশমিক ৩২ পয়েন্ট। সপ্তাহের শুরুতে সূচকটির অবস্থান ছিল ৪ হাজার ৯৭৮ দশমিক ৭৮ পয়েন্টে। সপ্তাহের ব্যবধানে সূচক কমেছে ১৬ দশমিক ৫৪ পয়েন্ট বা দশমিক ৩৩ শতাংশ।

ডিএসইর সেরা ৩০ কোম্পানির সূচক ডিএসই-৩০ এক সপ্তাহের ব্যবধানে ১ হাজার ৭০১ দশমিক ২০ পয়েন্ট থেকে ১ হাজার ৭১০ দশমিক ৭২ পয়েন্টে উঠে আসে।

আর ডিএসই শরীয়াহ সূচক ডিএসইএস এক হাজার ১২৬.৩১ পয়েন্ট থেকে বেড়ে হয়েছে এক হাজার ১২৬ দশমিক ৬২ পয়েন্ট।

আলোচিত সপ্তাহে ডিএসইতে ৩৬৩টি কোম্পানির শেয়ার শেয়ার কেনাবেচা হয়েছে। এর মধ্যে দাম বেড়েছে ১৪৮টির বা ৪০ দশমিক ৭৭ শতাংশ কোম্পানির। আর ৫২ দশমিক ৮৯ শতাংশ বা ১৯২টি কোম্পানির শেয়ারের দাম কমেছে। এ সময়ে ১৯টি কোম্পানির শেয়ারের দাম ছিল অপরিবর্তিত।

 

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।