মাস্ক কেলেঙ্কারি: জেএমআই গ্রুপের চেয়ারম্যান গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশ: ২০২০-০৯-৩০ ০০:৫৪:৩৭

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত জেএমআই সিরিঞ্জ অ্যান্ড মেডিক্যাল ডিভাইসেস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও জেএমআই গ্রুপের চেয়ারম্যান আবদুর রাজ্জাককে গ্রেফতার করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। নকল এন নাইন্টি ফাইভ (N95) মাস্ক সরবরাহের অভিযোগ তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে দুদকের পরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য আব্দুর রাজ্জাককে গ্রেফতারের বিষয়টি জানিয়েছেন।

গত ৮ জুলাই দুদকের প্রধান কার্যালয়ে আব্দুর রাজ্জাককে জিজ্ঞাসাবাদ করে সংস্থাটির পরিচালক মীর মো. জয়নুল আবেদীন শিবলীর নেতৃত্বে একটি টিম। টিমের অপর সদস্যরা হলেন উপ-পরিচালক নুরুল হুদা, সহকারী পরিচালক মো. সাইদুজ্জামান ও আতাউর রহমান।

গত মার্চ মাসে জেএমই গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান জেএমআই হসপিটাল রিক্যুইজিট ম্যানুফেকচারিং লিমিটেড কেন্দ্রীয় ওষুধাগারে (Central Medical Store Depot -CMSD) ২০ হাজার ৬০০ পিস ‘এন ৯৫’ ফেস মাস্ক সরবরাহ করে। মাস্কের কার্টনে এন ৯৫ ফেস মাস্ক লেখা থাকলেও বাস্তবে ভেতরে থাকা মাস্কগুলো এন ৯৫ ছিল না। এগুলো ছিল সাধারণ সার্জিক্যাল মাস্ক। বিষয়টি ধরা পড়লে কোম্পানি অপরাধ স্বীকার করে কেন্দ্রীয় ওষুধাগারের কাছে চিঠি দিয়ে দা্য়মুক্তি চায়।

এ ঘটনায় দুদক জেএমআই হসপিটাল রিক্যুইজিট ম্যানুফেকচারিং লিমিটেডের চেয়ারম্যান ও জেএমআই সিরিঞ্জের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আব্দুর রাজ্জাককে একাধিকবার জিজ্ঞাসাবাদ করে।

জেএমআই হসপিটাল রিক্যুইজিট ম্যানুফেকচারিং লিমিটেড বুকবিল্ডিং পদ্ধতির আইপিওর মাধ্যমে শেয়ার ছেড়ে পুঁজিবাজার থেকে অর্থসংগ্রহের উদ্যোগ নিয়েছিল। গত ৩০ জুলাই পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) বেশ কিছু কারণে কোম্পানিটির আইপিও আবেদন বাতিল করে।

 

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।