বাণিজ্যের নতুন দুয়ার, নদীপথে সিমেন্ট গেল ত্রিপুরায়

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশ: ২০২০-০৯-০৫ ২২:১৩:৩১, আপডেট: ২০২০-০৯-০৫ ২২:২১:২৩

কুমিল্লার গোমতী নদী দিয়ে পরীক্ষামূলকভাবে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে বাণিজ্যিক নৌ চলাচল শুরু হয়েছে। শনিবার দুপুরে কুমিল্লার দাউদকান্দি থেকে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের সোনামুড়া বন্দরে সিমেন্টবাহী একটি ট্রলার পৌঁছানোর মধ্য দিয়ে পরীক্ষামূলক এই নৌ চলাচলের উদ্বোধন করা হয়।

গোমতী নদীপথে কুমিল্লার দাউদকান্দি থেকে ভারতের ত্রিপুরার সিপাহিজলা জেলার সোনামুড়া বন্দরে দু’দেশের মধ্যে পণ্য আমদানি-রপ্তানি হবে। বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের পাশাপাশি ভারতেরও আগ্রহ থাকায় এই নৌপথ চালুর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। দাউদকান্দি থেকে গোমতী নদী দিয়ে জেলার তিতাস, মুরাদনগর, দেবিদ্বার, ব্রাহ্মণপাড়া, বুড়িচং ও কুমিল্লা সদরের বিবিরবাজার হয়ে সোনামুড়ায় হবে বাণিজ্যিক নৌ চলাচল। এই নৌপথটি প্রায় ৯০ কিলোমিটার দীর্ঘ। এতে সড়কপথের চেয়ে পরিবহন খরচও অনেক কম হবে। তবে নৌপথে কম উচ্চতার সেতু থাকায় ছোট জাহাজে করেই পণ্য আমদানি-রপ্তানি করা হবে বলে জানা গেছে।

শনিবার দুপুরে বিবিরবাজারে বিআইডব্লিউটি এর চেয়ারম্যান গোলাম সাদেক বেলুন উড়িয়ে পরীক্ষামূলক এই নৌ চলাচলের উদ্বোধন করেন। এ সময় কুমিল্লা জেলা প্রশাসক আবুল ফজল মীরসহ প্রশাসনের সংশ্নিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

নৌ চলাচল উদ্বোধন উপলক্ষে ভারতের সোনামুড়ায়ও এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে ত্রিপুরা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দে দু’দেশের মধ্যে বাণিজ্যিক নৌ চলাচল শুরু হওয়ায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

 

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।