জেড ক্যাটাগরির ২২ কোম্পানিকে বিএসইসিতে তলব

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশ: ২০২০-০৯-০৪ ০০:৩০:৩২

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত জেড ক্যাটাগরির ২২টি কোম্পানিকে তলব করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। বৃহস্পতিবার এই সংক্রান্ত একটি চিঠি ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই), চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই) এবং তলব করা ২২টি কোম্পানিকে দিয়েছে বিএসইসি।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র মতে, গত কয়েক বছর যাবত যে সব কোম্পানি ভালো অবস্থা থেকে অবনতি হচ্ছে তাদেরকে তলব করেছে কমিশন। কমিশন প্রতিদিন দুটি করে কোম্পানিকে হেয়ারিংয়ের জন্য ডেকেছে। হেয়ারিংয়ে জানতে চাওয়া হবে কোম্পানির কেন এ অবস্থা হলো। এই অবস্থা থেকে উত্তরণে তাদের আগামী দিনের পরিকল্পনা কী।

এ বিষয়ে কমিশনের মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম অর্থসংবাদকে বলেন, পুঁজিবাজারের উন্নয়নে বর্তমান কমিশন নিরলসভাবে কাজ কারে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় জেড ক্যাটাগরির কোম্পানিগুলোর উন্নয়নে বিশেষ কিছু পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। সে আলোকে কোম্পানিগুলোর কাছে জানতে চাওয়া হবে; এসব কোম্পানিগুলোর বর্তমান অবস্থার কারণ কী? এর থেকে উত্তরণে তাদের আগামী দিনের পরিকল্পনা কী? কোম্পানিগুলোর সাথে কথা বলে কমিশন পরবর্তী পদক্ষেপে যাবে।

কোম্পানিগুলো হলো- শ্যামপুর সুগার, ঝিলবাংলা, আলহাজ্ব টেক্সটাইল, অ্যারামিট সিমেন্ট, বাংলাদেশ সার্ভিস, বীচ হ্যাচারি, বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স, ডেল্টা স্পিনার্স, দুলামিয়া কটন, ফারইস্ট ফাইন্যান্স, জেনারেশন নেক্সট, আইসিবি ইসলামী ব্যাংক, ইমাম বাটন, কেয়া কসমেটিকস, পদ্মা ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স, প্রাইম ফাইন্যান্স, সাভার রিফ্যাক্টরিজ, শাইনপুকুর সিরামিকস, সানলাইফ ইন্স্যুরেন্স, তাল্লু স্পিনিং, ইউনিয়ন ক্যাপিটাল এবং উসমানিয়া গ্লাস শিট ফ্যাক্টরি লিমিটেড।

 

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।