২০২০ সালে ‘মিশন ১ মিলিয়ন’

ওয়ালটন ১ বছরে বিক্রি করেছে ৬ লাখ টিভি

ডেস্ক রিপোর্টার প্রকাশ: ২০২০-০১-১৪ ২৩:৫৪:১৫

বাংলাদেশের জনপ্রিয় দেশীয় ব্র্যান্ড ওয়ালটন ও মার্চেল চলতি বছর ১০ লাখ বা ১ মিলিয়ন ইউনিট স্মার্ট ও এলইডি টিভি বিক্রির টার্গেট নিয়েছে। যা কিনা গত বছরে তাদের মোট টিভি বিক্রির তুলনায় প্রায় ৬৬.৬৭ শতাংশ বেশি। ২০১৯ সালে ওয়ালটন ও মার্সেল ব্র্যান্ড মিলে ৬ লাখ ইউনিট টিভি বিক্রি করেছিল। আগের বছরের চেয়ে তা প্রায় ৮৫ শতাংশ বেশি।

টিভি বিক্রির এই সাফল্য উদযাপন উপলক্ষে গত মঙ্গলবার রাজধানীতে ওয়ালটনের করপোরেট অফিসে দিনব্যাপী ‘মেগা অ্যাচিভমেন্ট সেলিব্রেশন ও বেস্ট টিভি ব্র্যার্ন্ডিং অ্যাওয়ার্ড’ শীর্ষক এক প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে ২০২০ সালে ১ মিলিয়ন টিভি বিক্রির লক্ষ্যমাত্রা ঘোষণা করেন ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের পরিচালক রাইসা সিগমা হিমা। তিনি নতুন এই টার্গেটের নাম দেন ‘মিশন ১ মিলিয়ন’।

এতে উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান এস এম নুরুল আলম রেজভী, ভাইস-চেয়ারম্যান এস এম শামছুল আলম, পরিচালক এস এম মাহবুবুল আলম, মঞ্জুরুল আলম অভি, রাইসা সিগমা হিমা, মাহবুব আলম মৃদুল এবং রিফা তাসনিয়া স্বর্ণা।

দিনব্যাপী ওই অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটন গ্রুপের বিপণন বিভাগের প্রধান সমন্বয়ক ইভা রেজওয়ানা, ওয়ালটন ডিস্ট্রিবিউটর মার্কেটিং নেটওয়ার্কের প্রধান মো. এমদাদুল হক সরকার, প্লাজা সেলস এন্ড ডেভলপমেন্ট বিভাগের প্রধান মোহাম্মদ রায়হান, মার্সেলের হেড অব সেলস ড. মো. সাখাওয়াৎ হোসেন, নির্বাহী পরিচালক এস এম জাহিদ হাসান, মো. হুমায়ুন কবীর, উদয় হাকিম, গোলাম মুর্শেদ, তানভীর রহমান, সিরাজুল ইসলাম, কর্নেল (অব:) শাহাদাত হোসেন ও আমিন খান, ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস ইউনিটের প্রেসিডেন্ট এডওয়ার্ড কিম, ডেপুটি এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর মো. ফিরোজ আলমসহ প্রতিষ্ঠানের ঊর্দ্ধতন কর্মকর্তারা।

অনুষ্ঠানে ওয়ালটনের পরিচালক রাইস সিগমা হিমা বলেন, ২০১৯ সালে ৫ লাখ ২ হাজার ইউনিট এলইডি ও স্মার্ট টিভি বিক্রির টার্গেট ছিল। সেই লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে বিক্রি হয়েছে ৬ লাখ টিভি। যা আগের বছরের চেয়ে প্রায় ৮৫ শতাংশ বেশি। প্রবৃদ্ধির এই ধারাবাহিকতায় ২০২০ সালে আমাদের লক্ষ্য ১০ লাখ টিভি বিক্রি করা। যার নাম দেয়া হয়েছে ‘মিশন ১ মিলিয়ন’।

প্রতিষ্ঠানটির আরেক পরিচালক রিফা তাসনিয়া স্বর্ণা জানান, এই টার্গেট পূরণে নতুন বছরের শুরুতেই ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় ৭টি নতুন মডেলের এলইডি ও স্মার্ট টিভি ছেড়েছে ওয়ালটন। ক্রেতাদের হাতে সাশ্রয়ী দামে বিশ্বমানসম্পন্ন সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ও ফিচারের টেলিভিশন তুলে দিতে কাজ করছে শক্তিশালী গবেষণা ও উন্নয়ণ (আরএন্ডডি) টিম। টেলিভিশনের জন্য ওয়ালটনের নিজস্ব উদ্ভাবিত ‘রেজভী অপারেটিং সিস্টেম’ তৈরি করা হচ্ছে।

ওয়ালটন হাই-টেকের চেয়ারম্যান এস এম নুরুল আলম রেজভী বলেন, নিজস্ব কারখানায় টিভির এলজিপি, এলডিপি, সফটওয়্যার, হার্ডওয়্যার তৈরি করছে ওয়ালটন। টিভি উৎপাদন কারখানাকে সম্পূর্ণ অটোমেশনের আওতায় আনার কাজ প্রক্রিয়াধীন। এরই ধারাবাহিকতায় আগামী জুন মাসের মধ্যেই ৬৫ ইঞ্চির টিভি বাজারে আনবে ওয়ালটন।

ওয়ালটন গ্রুপের টেলিভিশন বিভাগের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোস্তফা নাহিদ হোসেন জানান, ২০১৯ সালে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি টিভি বিক্রিতে অবদান রেখেছে সাশ্রয়ী দামে নতুন নতুন মডেল ও ফিচারের টেলিভিশন বাজারে ছাড়া, যেকোনো ব্র্যান্ডের পুরাতন টিভির বদলে নতুন মডেলের টিভি কেনার সুযোগ, ‘সাধ্যের মধ্যে শ্রেষ্ঠ টিভি’ ক্যাম্পেইনের আওতায় আকর্ষণীয় ছাড়। এছাড়া রয়েছে সহজ কিস্তি সুবিধা, ছয় মাসের রিপ্লেসমেন্টসহ ৩২ বা তদুর্ধ্ব সাইজের টিভির প্যানেলে ৪ বছর পর্যন্ত গ্যারান্টি, দেশজুড়ে ৭৩টি সার্ভিস সেন্টারের মাধ্যমে দ্রুত ও সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবা প্রদানের নিশ্চয়তা।

অনুষ্ঠানে টিভি বিক্রিতে বিশেষ অবদান রাখায় ওয়ালটন ও মার্সেলের ২৭ কর্মকর্তাকে পুরস্কৃত করা হয়েছে। এদের মধ্যে রয়েছেন ৩টি সেলস উইং-এর প্রধান এবং জোনাল ম্যানেজার, ৯ জন এরিয়া ম্যানেজার এবং ১২জন বিভাগীয় প্রধান।

এদিকে গত বছর দেশজুড়ে ‘সাধ্যের মধ্যে শ্রেষ্ঠ টিভি’ ক্যাম্পেইনের ব্যাপক প্রচারণা চালানোয় ২০ জন ডিস্ট্রিবিউটর ও প্লাজা ম্যানেজারকে দেয়া হয় বেস্ট টিভি ব্র্যান্ডিং অ্যাওয়ার্ড। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।