Connect with us

রাজধানী

আলেমদের তত্ত্বাবধানে শিক্ষা সিলেবাস প্রণয়নের দাবি ইসলামী ঐক্যজোটের

Published

on

সিনো বাংলা

আলেমদের তত্ত্বাবধানে নতুন শিক্ষা সিলেবাস প্রণয়নের দাবি জানিয়েছেন ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মাওলানা আবুল হাসানাত আমিনী। নতুন শিক্ষা সিলেবাস বাতিল, দূর্নীতির মূলোৎপাটন, নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ ও দেশে ইসলামী হুকুমত কায়েমের দাবিতে শনিবার (২১ জানুয়ারি) আয়োজিত এক সমাবেশে এ তিনি এ কথা বলেন। জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররম উত্তর গেইটে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান বলেন, বিতর্কিত শিক্ষা সিলেবাসের মাধ্যমে দেশের নতুন প্রজন্মকে নাস্তিক ও পৌত্তলিক বানানোর ষড়যন্ত্র চলছে। পাঠ্য বইয়ে নগ্ন ছবি, পর্দা, দাড়ির বিরোধিতা, মুর্তিসহ ডারউইনের বিবর্তনবাদ ও হিন্দুত্ববাদ সংযোজন করে মুসলিম শিক্ষার্থীদের ঈমান হারা করার পাঁয়তারা চলছে। স্পষ্ট বলছি, ৯২ ভাগ মুসলমান দেশের পাঠ্য পুস্তকে ডারউইনের মতবাদ দেখতে চায়না, তারা দেশীয় ও ধর্মীয় সংস্কৃতি, সভ্যতা ও ইতিহাসের সঠিক উপস্থাপন দেখতে চায়।

তিনি বলেন, অবিলম্বে ইসলামবিরোধী বিতর্কিত শিক্ষা সিলেবাস অবিলম্বে বাতিল করতে হবে। বিরানব্বই ভাগ মুসলমানের চিন্তা চেতনা অনুযায়ি আলেমদের তত্ত্বাবধানে নতুন শিক্ষা সিলেবাস প্রণয়ন করতে হবে। একই সঙ্গে ইসলাম বিরোধী এই সিলেবাস প্রণয়নে অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে, অন্যথায় ইসলামী ঐক্যজোট বৃহত্তর কর্মসূচীর মাধ্যমে নাস্তিক-মুরতাদদের দেশ থেকে বিতাড়িত করে ছাড়বে ইনশাল্লাহ।

অর্থসংবাদের মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

ইসলামী দলগুলোর নেতাদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ওমুক সরকার, তমুক সরকারের আমাদের প্রয়োজন নেই। সব সরকার আমরা দেখেছি। এখন প্রয়োজন ইসলামী সরকার। প্রয়োজনে নেতৃত্ব ছেড়ে দেবো, নেতৃত্ব নেন । ইসলামী শাসন ব্যবস্থা কায়েম করার জন্য যা যা প্রয়োজন আপনারা পদক্ষেপ নিন। কর্মী হিসেবে মাঠে থাকবো ইনশাল্লাহ।

সারা দেশে মডেল মসজিদ নির্মাণ করায় সরকারকে সাধুবাদ জানিয়ে হাসানাত আমিনী বলেন, মডেল মসজিদ নির্মাণ করছেন সাধুবাদ জানাচ্ছি। তবে মডেল মসজিদে কওমী মাদরাসা পড়ুয়া ও হক্কানী উলামায়ে কেরামকে নিয়োগ দিতে হবে। কোনভাবেই ভ্রান্ত আকিদা পোষণকারীতে নিয়োগ করবেন না। এতে মডেল মসজিদের সুনাম ক্ষুন্ন হবে।

সমাবেশে ইসলামী ঐক্যজোটের মহাসচিব মুফতী ফয়জুল্লাহ বলেন, ইসলামের মৌলিক বিধি-বিধানের উপর বিশ্বাস স্থাপন করা অপরিহার্য। বর্তমান শিক্ষা সিলেবাসে এই বিধি-বিধানের উপর চূড়ান্তভাবে আঘাত করা হয়েছে। বিবর্তনবাদের মত কুফুরি আকীদাকে শিক্ষা কারিকুলামের অন্তর্ভুক্ত করে আগামী প্রজন্মকে নাস্তিক্যবাদি রূপে গড়ে তুলতে ষড়যন্ত্র করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ভারতবর্ষের মুসলিম শাসকদের নিচু, হীন এবং নিপীড়নকারী হিসেবে উপস্থাপন করা হয়েছে। অন্যদিকে অন্যদিকে মুসলিম শাসকদের হাত থেকে যারা ক্ষমতা চরি করেছিল তাদের প্রশংসা করা হয়েছে। যারা এই ধরনের নোংরা চিন্তা-ধারণা লালন করে, তারা সরকার ও জনগণের বন্ধু হতে পারে না। আমরা এ সকল ঘৃণ্য কর্মের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

শেয়ার করুন:
বিজনেস নিউজ পোর্টাল অর্থসংবাদে প্রকাশিত ও প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Advertisement

রাজধানী

ইজতেমার আখেরি মোনাজাত, যেসব সড়ক বন্ধ থাকবে কাল

Published

on

সিনো বাংলা

বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাত আগামীকাল রোববার (২২ জানুয়ারি)। এ কারণে এ দিন ভোর থেকে রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে যান চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)।

ট্রাফিক নির্দেশনায় ডিএমপি জানায়, আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে ২২ জানুয়ারি ভোর ৪টা থেকে প্রগতি সরণি ক্রসিং-আব্দুল্লাহপুর-ধউর ব্রিজ-আশুলিয়া ক্রসিং-মিরপুর মাজার রোড থেকে বেড়িবাঁধ সড়ক, চিড়িয়াখানা থেকে বেড়িবাঁধ সড়ক এবং পল্লবী ইস্টার্ন হাউজিং এলাকা থেকে বেড়িবাঁধ পর্যন্ত সড়কগুলোতে যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে।

এছাড়াও শনিবার দিবাগত রাত ২টা থেকে আন্তঃজেলা বাস, ট্রাক, কাভার্ডভ্যান ও অন্য ভারী যানবাহনগুলো আব্দুল্লাহপুর, ধউর ব্রিজ মোড় পরিহার করে মহাখালী-বিজয় সরণি-গাবতলী হয়ে চলাচল করবে।

অর্থসংবাদের মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

ডিএমপি আরও জানায়, এ দিন সকালে আশুলিয়া থেকে আব্দুল্লাহপুরগামী যানবাহনগুলো আব্দুল্লাহপুর না এসে ধউর ব্রিজ ক্রসিং দিয়ে ডানে মোড় নিয়ে মিরপুর বেড়িবাঁধ দিয়ে চলাচল করবে। মহাখালী বাস টার্মিনাল থেকে আব্দুল্লাহপুরগামী আন্তঃজেলা বাস, ট্রাক, কাভার্ডভ্যানসহ সকল প্রকার যানবাহন মহাখালী ক্রসিংয়ে বামে মোড় নিয়ে বিজয় সরণি-গাবতলী দিয়ে চলাচল করবে। কাকলী ও মিরপুর থেকে উত্তরাগামী বড় বাস, ট্রাক, কাভার্ডভ্যানগুলোকে হোটেল র‍্যাডিসন গ্যাপে ডাইভারশন দেওয়া হবে। উল্লেখিত যানবাহনগুলোকে বিকল্প সড়ক ব্যবহার করতে বলেছে ডিএমপি।

এছাড়াও কাকলী ও মিরপুর থেকে উত্তরাগামী প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাস, সিএনজিগুলোকে নিকুঞ্জ-১ গেটের সামনে ডাইভারশন দেওয়া হবে। উল্লেখিত যানবাহনগুলোকে বিকল্প সড়ক ব্যবহার, প্রগতি সরণি থেকে আব্দুল্লাহপুরগামী যানবাহনগুলোকে কুড়িল ফ্লাইওভারের নিচে লুপ-২ এ ডাইভারশন দেওয়া হবে। এই সড়কের যানবাহনগুলোকেও বিকল্প সড়ক ব্যবহারের জন্য বলেছে ডিএমপি।

ডিএমপি আরও জানায়, ২২ তারিখ উত্তরার বাসিন্দা, বিমান যাত্রী ও বিমান ক্রু বহনকারী যানবাহন, ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর গাড়ি ও অ্যাম্বুলেন্স ছাড়া সকল প্রকার যানবাহনের চালকদের বিমানবন্দর সড়ক পরিহার করে বিকল্প হিসেবে মহাখালী, বিজয় সরণি হয়ে মিরপুর-গাবতলী সড়ক ব্যবহার করার জন্য অনুরোধ করা হলো।

বিদেশগামী যাত্রীদের বিমানবন্দরে আনা-নেওয়ার জন্য আখেরি মোনাজাতের দিন অর্থাৎ রোববার ট্রাফিক-উত্তরা বিভাগের ব্যবস্থাপনায় একটি বড় মাইক্রোবাস পদ্মা ইউলুপ, দুটি মিনিবাস নিকুঞ্জ-১ আবাসিক এলাকার গেইটে এবং একটি বড় মাইক্রোবাস কুড়াতলী লুপ-২ এ ফ্রি পরিবহন সার্ভিসের জন্য ভোর ৪টা থেকে মোতায়েন থাকবে।

অর্থসংবাদ/এসএম

শেয়ার করুন:
বিজনেস নিউজ পোর্টাল অর্থসংবাদে প্রকাশিত ও প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

রাজধানী

ডিএনসিসি ও রোড সেফটি পার্টনারশীপের অবহিতকরন সভা

Published

on

সিনো বাংলা

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সেলিম রেজাসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে রোড সেফটি পার্টনারশীপের এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের কনসালটেন্ট আল স্টুয়ার্ট এলএলবির অবহিতকরন সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৯ জানুয়ারি) বেলা সোয়া ১১টায় ডিএনসিসি র সম্মেলন কক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় বিগআরএস প্রোগ্রামের আওতায় জিআরএসপির কার্যক্রম নিয়ে আলোচনা হয়। একইসঙ্গে সড়ক নিরাপত্তা বিষয়ে ডিএনসিসির প্রত্যাশা ও পরামর্শ উপস্থাপন করা হয়।

অর্থসংবাদের মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র, ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, বিগআরএস প্রোগ্রামের ইনিশিয়েটিভ কো-অর্ডিনেটর ও কনসালটেন্টরা সভায় উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন:
বিজনেস নিউজ পোর্টাল অর্থসংবাদে প্রকাশিত ও প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

রাজধানী

রাজধানীর সব সরকারি কলেজ অধ্যক্ষের রুমে বসবে সিসি ক্যামেরা

Published

on

সিনো বাংলা

রাজধানী ঢাকার সরকারি সব কলেজের অধ্যক্ষের রুমে সিসি ক্যামেরা বসানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। অধ্যক্ষদের সঙ্গে কুশল বিনিময়ের লক্ষ্যে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। বিষয়টি বাস্তবায়নে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে ৪ সদস্যবিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।

সম্প্রতি মাউশির মহাপরিচালক অধ্যাপক নেহাল আহমেদের সভাপতিত্বে মাসিক সমন্বয় সভায় (জানুয়ারি) এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

মাসিক সমন্বয় সভায় মাউশি মহাপরিচালক সরকারি সকল কলেজের অধ্যক্ষের কক্ষ সিসি ক্যামেরার আওতায় আনার প্রস্তাব উত্থাপন করেন।

অর্থসংবাদের মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

প্রস্তাবনায় বলা হয়, প্রতিটি সরকারি কলেজের অধ্যক্ষের সঙ্গে কুশল বিনিময়ের লক্ষ্যে তাদের কক্ষ সিসি ক্যামেরায় আওতায় আনার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। এ পর্যায়ে তিনি পাইলটিং ভিত্তিতে ঢাকা শহরের সরকারি কলেজসমূহের অধ্যক্ষদের কক্ষ সিসি ক্যাামেরার আওতায় আনার লক্ষ্যে একটি কমিটি গঠনের আহ্বান জানান।

কমিটিকে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে এ বিষয়ে একটি ধারণাপত্র তৈরি করে মহাপরিচালকের বরাবর দাখিলের আহ্বান জানানো হয়।

মাউশির কলেজ শাখা-১ এর উপ-রিচালককে আহ্বায়ক করে চার সদস্যের এ কমিটি গঠন করা হয়েছে।

অর্থসংবাদ/এসএম

শেয়ার করুন:
বিজনেস নিউজ পোর্টাল অর্থসংবাদে প্রকাশিত ও প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

রাজধানী

কাল থেকে রাজধানীতে আরও ৭১১ বাসে ই-টিকিট চালু

Published

on

সিনো বাংলা

রাজধানীতে চলাচল করা বাসগুলোর মধ্যে নতুন করে আরও ১৫টি পরিবহন কোম্পানির ৭১১টি বাসে ই-টিকেটিং চালু করতে যাচ্ছে।

গণপরিবহনে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়সহ বিভিন্ন অনিয়ম দূর করার লক্ষে গত বছর দুই ধাপে ঢাকা শহর ও শহরতলী রুটের ৩০টি পরিবহন কোম্পানির ১ হাজার ৬৪৩টি বাসে পরীক্ষামূলকভাবে ই-টিকেটিং পদ্ধতি চালু করা হয়।

আগামীকাল মঙ্গলবার থেকে চালু হতে যাওয়া মোহাম্মদপুর, আজিমপুর ও গাবতলী অঞ্চলের ওই ১৫টি কোম্পানিতে বাস রয়েছে ৭১১টি বলে জানিয়েছে ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি।

অর্থসংবাদের মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সোমবার রাজধানীর ইস্কাটনে সমিতির কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্যাহ।

খন্দকার এনায়েত উল্যাহ বলেন, ‘ঢাকা শহর ও শহরতলী রুটের বাসে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়সহ বিভিন্ন অনিয়ম দূর করার জন্য আমরা পরীক্ষামূলকভাবে গত বছরের ২২ সেপ্টেম্বর মিরপুর ভিত্তিক ঢাকার ৮টি পরিবহন কোম্পানি এবং ১৩ নভেম্বর ২২টি পরিবহন কোম্পানিসহ মোট ৩০টি পরিবহন কোম্পানির মোট ১ হাজার ৬৪৩টি গাড়িতে ই-টিকেটিং পদ্ধতি চালু করেছি।’

তিনি বলেন, ‘৩০টি কোম্পানির ৭০ থেকে ৭৫ শতাংশ গাড়িতে ই-টিকেটিং পদ্ধতি কার্যকর হয়েছে। বাকি গাড়িতে কার্যকর করার জন্য ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির ৩টি ভিজিল্যান্স টিম প্রতিদিন কার্যক্রম পরিচালনা করছে। এ ছাড়া সমিতির নিয়োগ দেয়া ৯ জন স্পেশাল চেকার প্রতিদিন রোডে মনিটরিং করছে। যে সব গাড়ি এখনো নিয়মের মধ্যে আসে নাই তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘যাত্রীদের অভিযোগ ই-টিকেটিংয়ে দূরত্ব অনুযায়ী কিলোমিটার উল্লেখ নাই। কিলোমিটার উল্লেখ করে ভাড়ার চার্ট তৈরি করার জন্য আমরা বিআরটিএকে অনুরোধ জানিয়েছি। ভাড়ার চার্ট তৈরি করা হলে আমরা ডিভাইসে কিলোমিটার উল্লেখ করে দেব।’

১৫টি পরিবহন কোম্পানি হচ্ছে- মেসার্স ভূঁইয়া এন্টারপ্রাইজ, স্বাধীন লাইন পরিবহন, দেওয়ান এন্টারপ্রাইজ লিমিটেড, মালঞ্চ পরিবহন লিমিটেড, তরঙ্গ প্লাস ট্রান্সপোর্ট লিমিটেড, আলিফ এন্টারপ্রাইজ (১), আলিফ এন্টারপ্রাইজ (২), অভিনন্দন ট্রান্সপোর্ট লিমিটেড, বিকাশ পরিবহন লিমিটেড, গাবতলী এক্সপ্রেস লিমিটেড, মেঘলা ট্রান্সপোর্ট কোং লিমিটেড, ভিআইপি অটো মোবাইলস লিমিটেড, রমজান আলী এন্টারপ্রাইজ, মিডলাইন পরিবহন লিমিটেড এবং স্বপ্ন পরিবহন লিমিটেড।

অর্থসংবাদ/এসএম

শেয়ার করুন:
বিজনেস নিউজ পোর্টাল অর্থসংবাদে প্রকাশিত ও প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

রাজধানী

ঢাকায় হাড় কাঁপানো শীত নিয়ে যা জানাল আবহাওয়া দপ্তর

Published

on

সিনো বাংলা

রাজধানীতে কনকনে ঠান্ডা। বৃহস্পতিবার (৫ জানুয়ারি) ঢাকায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ১২ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, এ পরিস্থিতি থাকবে আরও দুয়েক দিন।

ঢাকায় এবার শীত এসেছে স্বাভাবিক সময়ের অনেকটা পরে। তবে গেলো দুদিনে শীতের অনুভূতি অনেকটাই হাড়কাঁপানো। আবহাওয়া অধিদফতর বলছে, শুক্রবার (৬ জানুয়ারি) থেকে কমে আসতে পারে কুয়াশা; সেই সঙ্গে বাড়তে পারে উত্তাপ।

আবহাওয়াবিদ শাহনাজ সুলতানা বলেন, ‘শীত আরও দুয়েক দিন থাকতে পারে। তারপরেই যে শীত কমে যাবে, সেটা বলা যাবে না। তবে শীতের তীব্রতা কিছুটা কমে আসবে।’

অর্থসংবাদের মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

গত কয়েকদিনের কুয়াশার পর বৃহস্পতিবার দুপুরে আলোর ঝলক দেখা গেলেও বিকেলের পর থেকে আবারও রাজধানী ঢেকে যায় তীব্র কুয়াশায়। জেঁকে বসে শীত। বাতাসে কনকনে ঠান্ডা। ঘরের বাইরে শীত উপেক্ষা করেই কাজ করতে হয় নগরবাসীর। শীতে সবচেয়ে বেশি দুর্ভোগে খেটে খাওয়া মানুষ।

ঢাকায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বাতাসের আপেক্ষিক আর্দ্রতা ছিল ৮১ শতাংশ। এদিন ঢাকায় উত্তর অথবা উত্তর-পশ্চিম দিকে থেকে ঘণ্টায় ৬-১২ কিলোমিটার বেগে বাতাস প্রবাহিত হয়।

আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুযায়ী, শুক্রবার ঢাকাসহ সারাদেশের দিনের তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে। এছাড়া আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারা দেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে।

শুক্রবার (৬ জানুয়ারি) ঢাকায় সূর্যাস্ত সন্ধ্যা ৫টা ২৬ মিনিটে।

অর্থসংবাদ/এসএম

শেয়ার করুন:
বিজনেস নিউজ পোর্টাল অর্থসংবাদে প্রকাশিত ও প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন
Advertisement
January 2023
SMTWTFS
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
293031 

ফেসবুকে অর্থসংবাদ