Connect with us

ব্যাংক

বাংলাদেশ ব্যাংকের নতুন মুখপাত্র মেজবাউল হক

Avatar of মনির হোসেন, অর্থসংবাদ ডেস্ক

Published

on

ব্লকে

বাংলাদেশ ব্যাংকের নতুন মুখপাত্র হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে নির্বাহী পরিচালক মো. মেজবাউল হককে। তি‌নি বর্তমান মুখপাত্র জি এম আবুল কালাম আজাদের স্থলাভিষিক্ত হলেন।

রোববার (৪ ডি‌সেম্বর) বাংলা‌দেশ ব্যাংক তা‌কে মুখপাত্র হিসেবে নি‌য়োগ দি‌য়ে‌ছে।

মো. মেজবাউল হক আজ থে‌কেই মুখপাত্র হি‌সে‌বে দায়িত্ব পালন কর‌বেন।

মেজবাউল হক ১৯৯৩ সালে সহকারী পরিচালক হিসেবে বাংলাদেশ ব্যাংকে যোগদান করেন। এ সময় তিনি বাংলাদেশ ব্যাংকের ডিপার্টমেন্ট অব অফসাইট সুপারভিশন, ভিজিলেন্স, ফাইন্যান্সিয়াল সেক্টর সাপোর্ট অ্যান্ড স্ট্যাট্রেজিক প্ল্যানিং ডিপার্টমেন্ট ও সব‌শে‌ষ পেমেন্ট সিস্টেম ডিপার্টমেন্টের পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। আন্তর্জাতিক সেমিনার ও প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করতে তিনি যুক্তরাষ্ট্র, সুইজারল্যান্ড, ইতালি, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া ও ভারতসহ বিভিন্ন দেশ সফর করেন।

অর্থসংবাদের মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

এর আগে মুখপাত্রের দায়িত্বে ছিলেন নির্বাহী পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলাম। তি‌নি গত ৪ অ‌ক্টোবর অবস‌রে গে‌লে ৬ অ‌ক্টোবর নতুন মুখপাত্র হন নির্বাহী পরিচালক জি এম আবুল কালাম আজাদ। এক মাস দুই দি‌নের মাথায় তা‌কে প‌রিবর্তন ক‌রে মেজবাউল হককে দা‌য়িত্ব দেওয়া হ‌লো।

অর্থসংবাদ/এসএম

শেয়ার করুন:
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

ব্যাংক

ব্রোকারেজ হাউস-স্টক ডিলারদের ব্যাংক ঋণের নিয়ম শিথিল

Published

on

ব্লকে

ব্রোকারেজ হাউস, মার্চেন্ট ব্যাংক ও স্টক ডিলারদের ব্যাংক ঋণের নিরাপত্তা সঞ্চিতি (প্রভিশন) রাখার নিয়ম শিথীল করল বাংলাদেশ ব্যাংক।

বৃহস্পতিবার (০২ ফেব্রুয়ারি) বাংলাদেশ ব্যাংক এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে৷

এতে বলা হয়, ২০১২ সালে বাংলাদেশ ব্যাংক ব্রোকারেজ হাউস, মার্চেন্ট ব্যাংক এবং স্টক ডিলারদের ঋণের জন্য ২ শতাংশ প্রভিশন রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়।

তবে নতুন নিদর্শনা অনুযায়ী, ব্রোকারেজ হাউস, মার্চেন্ট ব্যাংক এবং স্টক ডিলারদের ঋণের বিপরীতে ব্যাংকগুলোকে ১ শতাংশ প্রভিশন সাধারণ সংরক্ষণ করতে হবে।

অর্থসংবাদের মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

নতুন এই সুদ হার আগামী ৩০ মার্চ থেকে কার্যকর হবে।

অর্থসংবাদ/এসএম

শেয়ার করুন:
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

ব্যাংক

চেয়ারম্যান ও এএমডির পদত্যাগের কারণ জানাল সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক

Published

on

ব্লকে

সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের (এসআইবিএল) চেয়ারম্যান মো. মাহবুব উল আলম এবং অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবু রেজা মো. ইয়াহিয়ার পদত্যাগ ব্যক্তিগত কারণে পদত্যাগ করেছেন বলে জানিয়েছে ব্যাংকটি। মঙ্গলবার (৩১ জানুয়ারি) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও এএমডির পদত্যাগ প্রসঙ্গে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ আমাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। তাঁদের পদত্যাগের বিষয়টি একান্তই তাঁদের ব্যক্তিগত ও নিজস্ব।

চেয়ারম্যানের পদত্যাগের বিষয়ে এসআইবিএল জানায়, মাহবুব উল আলম পদত্যাগ পত্রে তাঁর পারিবারিক সমস্যা ও পরিবারের সদস্যদের বিদেশে অবস্থানের বিষয়টি উল্লেখ করে শারীরিক ও মানসিক বিপর্যস্ততার কথা বলে পরিচালনা পর্ষদের কাছে অব্যাহতি চেয়েছেন। পদত্যাগপত্রে পরিবারে ঘটে যাওয়া দুর্ঘটনার কথা উল্লেখ করে চেয়ারম্যান বলেন, প্রবাসে বসবাসরত এক মেয়ের সংসার ভেঙ্গে যায় । তাঁদের দুই বছরের একটি বাচ্চাও আছে। পুরো বিষয়টি পরিবারকে বিপর্যস্ত করে তুলেছে । ফলে শারীরিক ও মানসিকভাবে তিনি দায়িত্ব পালনে অক্ষম হয়ে পড়েছেন। তিনি দু’বার কোভিড আক্রান্ত হওয়ায় শারীরিকভাবে নানা সমস্যা দেখা দেয়ার কথাও বলেন ।

এএমডির পদত্যাগের বিষয়ে বলা হয়, আবু রেজা মোঃ ইয়াহিয়ার নিয়োগটি ছিল চুক্তিভিত্তিক। তিনি কোভিডে আক্রান্ত ও পরবর্তীতে শারিরীক ও মানসিক জটিলতা সৃষ্টি হওয়ায় তিনি চুক্তিভিত্তিক চাকরি থেকে অব্যাহতি চেয়ে ২৮ জানুয়ারি আবেদন করেছেন।

অর্থসংবাদের মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের ৪৯২তম সভায় মো. মাহবুব উল আলম ও আবু রেজা মো. ইয়াহিয়ার পদত্যাগপত্র গৃহীত হয়েছে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে এসআইবিএল জানায়, ২০২১ থেকে ২০২২ সালে ব্যাংকের খেলাপি বিনিয়োগ প্রায় ১ শতাংশ কমেছে। অধিকন্তু অবলোপনকৃত বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ২০২১ সালের তুলনায় ২০২২ সালে আদায় হয়েছে প্রায় ৮ গুণ। ২০২২ সালে ২০২১ সালের তুলনায় আড়াইগুণের বেশি রেমিটেন্স আহরণ হয়েছে।

শেয়ার করুন:
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

ব্যাংক

পদত্যাগ করলেন সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও এএমডি

Published

on

ব্লকে

সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের (এসআইবিএল) চেয়ারম্যান মাহবুব-উল-আলম এবং অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এএমডি) আবু রেজা মোহাম্মদ ইয়াহিয়া পদত্যাগ করেছেন বলে জানা গেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ব্যাংকটির একাধিক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে ২০১৭ সালে এসআইবিএলের মালিকানা পরিবর্তনের পর ব্যাংকটির সাত পরিচালক পদত্যাগ করেন এবং নয়জন নতুন পরিচালক পরিচালনা পর্ষদে অন্তর্ভুক্ত হন।

ওই সময় প্রথমে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আনোয়ারুল আজিমকে এসআইবিএলের চেয়ারম্যান করা হয়। পরে ব্যাংকটির চেয়ারম্যান হন মাহবুব-উল-আলম।

মালিকানা ও ব্যবস্থাপনায় পরিবর্তনের পাঁচ বছর পর এসআইবিএলের ঋণ বিতরণে বাংলাদেশ ব্যাংক বড় ধরনের অনিয়ম খুঁজে পায়।

অর্থসংবাদের মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মতে, এসআইবিএল নতুন যেসব ঋণ দিয়েছে, তার অনেকগুলোর ক্ষেত্রে যথাযথ নিয়ম মানা হয়নি। এ কারণে ব্যাংকটির ৫ হাজার ৫০০ কোটি টাকার ঋণ এখন নতুন করে খেলাপি হওয়ার যোগ্য।

এসআইবিএলের হিসাবমতে, ব্যাংকটির খেলাপি ঋণের হার ৫ শতাংশ। তবে বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিদর্শন প্রতিবেদনের ভিত্তিতে হিসাব করলে ব্যাংকটির খেলাপি ঋণের হার ২৩ শতাংশের বেশি হবে।

শেয়ার করুন:
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

ব্যাংক

শীঘ্রই চালু হবে ডিজিটাল ব্যাংক: গভর্নর

Published

on

ব্লকে

শীঘ্রই ডিজিটাল ব্যাংক চালুর পরিকল্পনা চলছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার।

রোববার (২৯ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় রাজধানীর হোটেল শেরাটনে এক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। বাংলাদেশ একাউন্টিং এসোসিয়েশন (বিএএ) এবং ইন্ডিয়ান একাউন্টিং এসোসিয়েশন রিসার্চ ফাউন্ডেশন (আইএএআরএফ) যৌথভাবে এ সম্মেলনের আয়োজন করে।

গভর্নর বলেন, মোবাইল ব্যাংকিং ও অনলাইন ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে আমরা ডিজিটাল পেমেন্ট সিস্টেম চালু করেছি।

তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় ব্যাংক খুব শীঘ্রই ডিজিটাল ব্যাংক চালুর পরিকল্পনা করছে। ডিজিটাল ব্যাংকিং হবে স্মার্টফোন এবং ডিভাইসের মাধ্যমে৷ স্বশরীরে ব্যাংকে যাওয়ার প্রয়োজন হবে না।

অর্থসংবাদের মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

আর্থিক খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থার প্রধান বলেন, আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে আমরা ক্যাশলেস বাংলাদেশ গড়তে চাই। ইতোমধ্যেই আমরা রাজধানীর কিছু স্থানে নগদ টাকা ছাড়া লেনদেনের ব্যবস্থা করেছি। এছাড়াও অগ্রাধিকার ভিত্তিতে কিছু উপজেলায়ও নগদ টাকা ছাড়া লেনদেনের ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

দুই দিনব্যাপী এ সম্মেলনের সমাপনী অধিবেশনে বিশেষ অতিথি ছিলেন, যুক্তরাষ্ট্রের মেমপিশ ইউভার্সিটির অধ্যাপক ড. জবিহুল্লাহ রাজি, ফাইন্যান্সিয়াল রিপোর্টিং কাউন্সিলের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. হামিদ উল্যাহ ভূঁইয়া, ইন্সটিটিউট অব চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টস অব বাংলাদেশের (আইসিএবি) প্রেসিডেন্ট মো. মনিরুজ্জামান, ইন্সটিটিউট অব কস্ট অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট অ্যাকাউন্ট্যান্টসনঅব বাংলাদেশের (আইসিএমএবি) প্রেসিডেন্ট আব্দুর রহমান খান।

সরকারের মহাহিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক মোহাম্মদ মুসলিম চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর কাজী সাইদুর রহমান, বাংলাদেশ একাউন্টিং অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. হারুনুর রশিদ, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. সাইয়েদুজ্জামান, কোষাধ্যক্ষ হায়দার আহমেদ খান এফসিএ, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো বাংলাদেশের (বিএটি) ব্যবস্থাপনা পরিচালক শেহজাদ মুনিম, ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ প্রমূখ।

এর আগে শনিবার (২৮ জানুয়ারি) দুই দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক হিসাববিজ্ঞান সম্মেলনের উদ্বোধন করেন অর্থ বিভাগের সিনিয়র সচিব ফাতিমা ইয়ামমিন। আমেরিকান একাউন্টিং এসোসিয়েশনের সাবেক প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক ড. শ্যাম সুন্দর এবং ইন্ডিয়ান একাউন্টিং এসোসিয়েশন রিসার্চ ফাউন্ডেশনের সভাপতি অধ্যাপক ড. ভবতোষ ব্যানার্জি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

অর্থসংবাদ/ডব্লিও.এস

শেয়ার করুন:
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন

ব্যাংক

লোকসানি ন্যাশনাল ব্যাংকে নিয়োগের হিড়িক!

Published

on

ব্লকে

দেশের সবচেয়ে বড় মূলধনী আর্থিক প্রতিষ্ঠান হওয়া সত্ত্বেও ২০২২ সালে মুনাফা করতে পারেনি ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড। লোকসান করায় প্রতিষ্ঠানটি গত বছরের আর্থিক বিবরণীও প্রকাশ্যে আনেনি। অথচ এই সংকটের মধ্যেও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ব্যাংকটিতে ব্যাপক নিয়োগ চলছে। এসব নিয়োগকে ঘিরে ব্যাংকখাতে নানা প্রশ্ন উঠেছে।

দেশের সবচেয়ে বড় মূলধনী আর্থিক প্রতিষ্ঠান হলেও ২০২২ সালে লোকসান করেছে ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড। কমেছে প্রতিষ্ঠানটির সম্পদমূল্যও। তবে সংকটের মধ্যেও কর্মী নিয়োগ দিয়ে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। এসব নিয়োগ প্রশ্নবিদ্ধ বলে মনে করেন খাত সংশ্লিষ্টরা।

জানা গেছে, সম্প্রতি ট্রেইনি এসিস্ট্যান্ট থেকে শুরু করে এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট (ইভিপি) পর্যন্ত পদে নিয়োগ দিয়েছে ন্যাশনাল ব্যাংক। বৈশ্বিক সংকটের কারণে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পরামর্শ অনুযায়ী আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো যেখানে পরিচালন ব্যয় কমাচ্ছে, সেখানে গত চার মাসে ৩টি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে ব্যাংক খাতের এই প্রতিষ্ঠানটি। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে পদ সংখ্যাও ছিল অনির্ধারিত।

মূলত নিজেদের ব্যক্তিগত স্বার্থে ব্যাংকটির সদ্যবিদায়ী ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. মেহমুদ হোসেন ও মানবসম্পদ বিভাগের প্রধান শেখ আকতার উদ্দিন আহমেদ সিন্ডিকেট তৈরি করে বেশকিছু প্রশ্নবিদ্ধ নিয়োগ দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। নিজেদের লোক নিয়োগ দেওয়ার সুবিধার্থে ব্যাংকটিতে নতুন-নতুন বিভাগও খুলেছেন তারা। এমনকি পরীক্ষার মাধ্যমে যেসব নিয়োগ হয়েছে- সেগুলো নিয়েও বড় প্রশ্ন তৈরি হয়েছে ব্যাংক খাতে।

ন্যাশনাল ব্যাংকের আর্থিক প্রতিবেদনগুলো ঘেটে দেখা গেছে, ব্যাংকটি বর্তমানে মারাত্মক দুরাবস্থার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। মূলত ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের অদক্ষতা ও ব্যক্তি স্বার্থকে প্রাধান্য দেওয়ায় ২০২২ সালে অধিকাংশ ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা বাড়লেও উল্টো লোকসানে গেছে ন্যাশনাল ব্যাংক। ব্যবসা ও রিকভারিতে মনোযোগ না দিয়ে উল্টো উচ্চবেতনে বিপুল নিয়োগের মাধ্যমে পরিচালন ব্যয় বৃদ্ধি করার কারণে বড় লোকসানে গেছে ব্যাংকটি।

অর্থসংবাদের মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সূত্র জানায়, গত বছরের ২৭ জুলাই বাংলাদেশ ব্যাংক সার্কুলার জারি করে ব্যাংকগুলোকে পরিচালন ব্যয় কমানোর নির্দেশ দিয়েছিল। সংকোচনের মাধ্যমে সাশ্রয় হওয়া অর্থ অন্য কোন খাতেও ব্যয় করা যাবে না। মূলত বৈশ্বিক পরিস্থিতিতে দেশের ব্যয় সংকোচনের প্রক্রিয়া হিসেবেই ব্যাংক খাতে ব্যয় সংকোচনের নির্দেশ দিয়েছিল কেন্দ্রীয় ব্যাংক। অথচ রাষ্ট্রীয় নির্দেশনা অমান্য করে দেশের স্বার্থের দিকে না তাকিয়ে নিজস্ব স্বার্থকে প্রাধান্য দিয়েছে ন্যাশনাল ব্যাংকের প্রভাবশালী এই সিন্ডিকেট। পরিচালনা পর্ষদের অগোচরেই মানবসম্পদ বিভাগের প্রধান সদ্য বিদায়ী এমডিকে সঙ্গে নিয়ে বিভিন্ন পদে জনবল নিয়োগ দিয়েছে।

জানা গেছে, ১৯৮৪ সালে দেশের শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হয় ন্যাশনাল ব্যাংক। তালিকাভুক্ত হওয়ার পর থেকে শুধুমাত্র ২০১৯ সালে বিনিয়োগকারীদের জন্য নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল ২ হাজার ৩১৯ কোটি টাকা পরিশোধিত মূলধনের প্রতিষ্ঠানটি। কোম্পানিটির সর্বশেষ প্রকাশিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, গত বছরের তিন প্রান্তিকে (জানুয়ারি-সেপ্টেম্বর) ন্যাশনাল ব্যাংকের লোকসান হয়েছে ৩৫৭ কোটি টাকা। অথচ ২০২১ সালের একই সময়ে ১৩৪ কোটি টাকা নিট মুনাফা করেছিল ব্যাংকটি। আর ২০২০ সালে ৯ মাসে নিট মুনাফার পরিমাণ ছিল ৩৪৮ কোটি টাকা। এখন পর্যন্ত সর্বশেষ হিসাববছরের (২০২২) আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেনি ন্যাশনাল ব্যাংক। ২০২১ সালের আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী ব্যাংকটি মুনাফা করেছিল ২৪৮ কোটি টাকা এবং এর আগের বছরের (২০১৯) মুনাফা ছিল ৯২০ কোটি টাকা।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, গত সেপ্টেম্বর শেষে ন্যাশনাল ব্যাংকের খেলাপি ঋণ বেড়ে হয়েছে ১১ হাজার ৩৩৫ কোটি টাকা। এক বছর আগে যা ছিল ৪ হাজার ৫৮৮ কোটি টাকা। এক বছরে ব্যাংকটির খেলাপি ঋণ বেড়েছে ৬ হাজার ৭৪৭ কোটি টাকা। এখন ব্যাংকটির ২৭ দশমিক ৪৬ শতাংশ ঋণই খেলাপি।

এদিকে ব্যাংকটি তারল্য-সংকটেও পড়েছে। অনেক শাখায় আমানত কমেছে। ফলে বাংলাদেশ ব্যাংকে আমানতের বিপরীতে প্রয়োজনীয় পরিমাণ এসএলআর (বিধিবদ্ধ জমা) জমা রাখতে পারছে না। এ জন্য প্রতিনিয়ত জরিমানা গুনতে হচ্ছে ন্যাশনাল ব্যাংককে। এরপরও ব্যাংকটির আর্থিক পরিস্থিতির উন্নতিতে মনোযোগ না দিয়ে মানবসম্পদ বিভাগের প্রধানকে সঙ্গে নিয়ে নতুন-নতুন নিয়োগে মনোযোগ দিতে দেখা গেছে সদ্যবিদায়ী ব্যবস্থাপনা পরিচালককে। যে কারণে ডিসেম্বর শেষে ব্যাংকটির আর্থিক সূচক আরও শোচনীয় অবস্থায় গেছে।

এই পরিস্থিতির মধ্যেও গত বছরের অক্টোবর থেকে চলতি বছরের জানুয়ারি পর্যন্ত চার মাসে ৩টি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে ব্যাংকটি। গত ২৭ অক্টোবর এভিপি, এসএভিপি ও ভিপি পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয় ন্যাশনাল ব্যাংক। ২৯ নভেম্বরে জুনিয়র অফিসার থেকে এসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট পর্যন্ত নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়। চলতি বছরের ১৯ জানুয়ারি ব্রাঞ্চ ম্যানেজার পদের জন্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয় ব্যাংকটি। তিনটি বিজ্ঞপ্তিতেই পদ সংখ্যা উল্লেখ করা হয়নি। সংশ্লিষ্টদের মতে , মূলত নিজেদের মতো করে লোক নেওয়ার সুবিধার্থেই পদ সংখ্যা উন্মুক্ত রেখেছেন সিন্ডিকেটের হোতারা।

এ বিষয়ে জানার জন্য ন্যাশনাল ব্যাংকের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর হোসাইন আখতার চৌধুরীর সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তাঁর মুঠোফোনে সংযোগ পাওয়া যায়নি।

শেয়ার করুন:
অর্থসংবাদে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
পুরো সংবাদটি পড়ুন
Advertisement

ফেসবুকে অর্থসংবাদ

তারিখ অনুযায়ী খবর

রবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্রশনি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮