বাংলাদেশ ব্যাংকের আরও দুই কর্মকর্তার পদোন্নতি

ডেস্ক রিপোর্টার প্রকাশ: ২০২০-০১-০৪ ০০:১৭:০১

বাংলাদেশ ব্যাংকের আরও দুই কর্মকর্তা পদোন্নতি পেয়েছেন। এদের মধ্যে নির্বাহী পরিচালক (ইডি) পদে নূর-উন-নাহার এবং ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগের উপ-মহাব্যবস্থাপক একেএম এহসান মহাব্যবস্থাপক পদে পদোন্নতি পেয়েছেন। বৃহস্প‌তিবার (২ জানুয়ারি) এক বিজ্ঞ‌প্তি‌তে এ তথ্য জা‌নি‌য়ে‌ছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

বিজ্ঞ‌প্তি‌তে বলা হয়, বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মচারী নির্দেশ নং-এইচআরডি-১: ০৯/২০২০ মোতাবেক হিউম্যান রিসোর্সেস ডিপার্টমেন্টে-১ এর মহাব্যবস্থাপক নূর-উন-নাহারকে নির্বাহী পরিচালক হিসেবে পদোন্নতি দি‌য়ে রংপুর অফিসে বহাল করা হয়েছে।

নূর-উন-নাহার রংপুর সদর উপজেলার এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজবিজ্ঞান বিষয়ে অনার্সসহ মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি ১৯৮৯ সালে সহকারী পরিচালক হিসেবে বাংলাদেশ ব্যাংকে যোগদান করেন।

কর্মজীবনে তিনি বাংলাদেশ ব্যাংকের সচিব বিভাগ, কৃষিঋণ বিভাগ, ডিপার্টমেন্ট অব অফসাইট সুপারভিশন, ডিপার্টমেন্ট অব কারেন্সি ম্যানেজমেন্ট, ফরেন একচেঞ্জ পলিসি ডিপার্টমেন্ট, বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট, রংপুর অফিসসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিভাগে দায়িত্ব পালন করেন।

এদিকে রাজবাড়ী জেলার এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন এহসান। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গণিত বিভাগে অনার্সসহ স্নাতকোত্তর এবং পরবর্তীতে একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমবিএ (ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড ও কমার্স) ডিগ্রি অর্জন করেন। এছাড়াও মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরের ইউনিভার্সিটি টেকনোলজি মারা থেকে ফরেনসিক অ্যাকাউন্টিং কোর্স সম্পন্ন করেন।

এহসান ১৯৯৬ সালে সহকারী পরিচালক হিসেবে বাংলাদেশ ব্যাংকে যোগদান করেন। তিনি বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংক পরিদর্শন বিভাগ, বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিটেও দায়িত্ব পালন করেন।

পেশাগত দায়িত্ব পালনের অংশ হিসেবে তিনি ভারত, অস্ট্রেলিয়া, ইতালি, ফিলিপাইন, দক্ষিণ কোরিয়া, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুরসহ বিভিন্ন দেশ ভ্রমণ করেন। এহসান ২০১৩ সালে বাংলাদেশ ব্যাংক এমপ্লয়িজ রিকগনিশন অ্যাওয়ার্ড লাভ করেন।

এর আগে গত ৩০ ডিসেম্বর বাংলাদেশ ব্যাংকের অফিস নির্দেশনায় তিনজনকে মহাব্যবস্থাপক পদে পদোন্নতি করা হয়। তারা হলেন- ডেট ম্যানেজমেন্ট ডিপার্টমেন্টের রূপ রতন পাইন, ডিপার্টমেন্ট অব অফ-সাইট সুপারভিশনের মো. সিরাজুল ইসলাম এবং গবেষণা বিভাগ (লাইব্রেরি উপবিভাগের) তাসনিম ফাতেমা।

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।