Connect with us

পুঁজিবাজার

সিকিউরিটিজ আইন নিয়ে বিএসইসি ও সিএসই’র প্রশিক্ষণ সম্পন্ন

Published

on

বিএসইসি

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ও চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জ পিএলসির (সিএসই) উদ্যোগে দুই দিনব্যাপী সিকিউরিটিজ আইন প্রশিক্ষণ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে। ০৭ ও ০৮ আগস্ট সিএসই এর চট্টগ্রামস্থ প্রধান কার্যালয়ে এ প্রশিক্ষণ কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়।

প্রশিক্ষণ পরিচালনা করেন বিএসইসির এসআরআই বিভাগের পরিচালক মো. মনসুর রহমান, অতিরিক্ত পরিচালক মোহাম্মদ গোলাম কিবরিয়া ও সহকারী পরিচালক আলি আহসান।

এতে উপস্থিত ছিলেন সিএসই’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) মো. গোলাম ফারুক, চিফ রেগুলেটরি অফিসার (সিআরও) মোহাম্মদ মাহাদি হাসান, ক্লিয়ারিং, সেটলমেন্ট ও লিস্টিং বিভাগের প্রধান এ কে এম শাহরোজ আলম, সারভেইলেন্স ও মার্কেট অপারেশন্স বিভাগের প্রধান মো. নাহিদুল ইসলাম খান প্রমুখ। মূল অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সিএসই-র ট্রেনিং ও এওয়ারনেস বিভাগের প্রধান এম সাদেক আহমেদ।

অনুষ্ঠানে বক্তারা সিকিউরিটিজ আইন মেনে চলার বিষয়ে গুরুত্ব আরোপ করেন। আইনের সমূহ বিষয় অনুধাবনের জন্য তারা সাম্প্রতিক সময়ে ঘটে যাওয়া কিছু প্রতারনামূলক দুর্ঘটনার উল্লেখ করে বলেন, ব্রোকারেজ হাউসের মালিক ও ব্যবস্থাপনা পক্ষ গ্রাহকদের অর্থ আত্মসাত করায় শেয়ারবাজারের ব্যাপারে অনেক গ্রাহকের আস্থা নষ্ট হয়েছে । এ ধরনের দুর্ঘটনার পুনরাবৃত্তি না ঘটানোর জন্য এবং গ্রাহকের অর্থ ও সিকিউরিটিজ এর নিরাপত্তা প্রদানের জন্যে বক্তারা সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ জানান । এ ব্যাপারে বর্তমান কমিশন ও স্টক এক্সচেঞ্জ এর তদারকি ও নজরদারি যে আরো বেগবান হয়েছে তাও অংশগ্রহণকারীদের অবহিত করা হয় । একটি স্বচ্ছ ও বেগবান পুঁজিবাজারের জন্য যথাযথ সিকিউরিটিজ আইনের যথাযথ জ্ঞান অর্জন ও প্রয়োগের গুরুত্তারোপ উক্ত অনুষ্ঠানটি যথেষ্ট উপকারি ও সহায়ক বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করেন ।

দু’দিনের উক্ত অনুষ্ঠানে সিএসই’র চট্টগ্রাম ভিত্তিক প্রায় ৬০টি ব্রোকারেজ হাউসের শতাধিক অথরাইজড রেপ্রেজেনটেটিভ ও কমপ্লায়েন্স অফিসারেরা যোগদান করেন। অনুষ্ঠানটি খুবই ফলপ্রসূ ও সময়োপযোগী হয়েছে বলে অংশগ্রহণকারীরা অভিমত পোষণ করেন । তারা এ ধরনের অনুষ্ঠান নিয়মিত বিরতিতে আয়োজন করার জন্য সিএসই’র সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করেন।

শেয়ার করুন:

পুঁজিবাজার

৬৬০ কোটি টাকার লেনদেন করে শীর্ষে ওরিয়ন ফার্মা

Published

on

বিএসইসি

বিদায়ী সপ্তাহে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনের শীর্ষস্থান দখল করেছে ওরিয়ন ফার্মা। সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির ৬৬১ কোটি ২৭ লাখ ২১ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

ডিএসইর সাপ্তাহিক বাজার বিশ্লেষন করে এই তথ্য জানা গেছে।

সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির ৪ কোটি ৭৪ লাখ ৯৭ হাজার ২৩১টি শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা ছিল ডিএসইর মোট লেনদেনের ৯.০৫ শতাংশ।

লেনদেন তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে বেক্সিমকো লিমিটেড। সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির ৪ কোটি ৪৩ লাখ ৩০ হাজার ৩৩৪টি শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যার বাজার মূল্য ৫৯০ কোটি ৯৮ লাখ ৩৫ হাজার টাকা।

তালিকার তৃতীয় স্থানে রয়েছে ইস্টার্ন হাউজিং। সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির ২ কোটি ৭৫ লাখ ৪৮ হাজার ১০৬টি শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যার বাজার মূল্য ২৮৩ কোটি ৭৬ লাখ ৩৮ হাজার টাকা।

লেনদেনের শীর্ষ তালিকায় থাকা অন্য কোম্পানিগুলো হলো- বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশন, জেএমআই হসপিটাল, ইউনিক হোটেল, বিডিকম, শাইনপুকুর সিরামিকস, বাংলাদেশ বিল্ডিং সিস্টেমস এবং সাইফ পাওয়ারটেক।

শেয়ার করুন:
পুরো সংবাদটি পড়ুন

পুঁজিবাজার

সপ্তাহজুড়ে দর পতনের শীর্ষে মেঘনা লাইফ

Published

on

বিএসইসি

বিদায়ী সপ্তাহে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনে অংশ নেওয়া ৩৯৫টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৭৩টির শেয়াদর কমেছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি দর কমেছে মেঘনা লাইফ ইন্সুরেন্সের। ডিএসই সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

সূত্র মতে, আলোচ্য সপ্তাহে মেঘনা লাইফ ইন্সুরেন্সের শেয়ারদর ৮ টাকা ৭০ পয়সা বা ১২ দশমিক ১২ শতাংশ কমেছে। এর মাধ্যমে কোম্পানিটি ডিএসইর সাপ্তাহিক দর পতনের তালিকার শীর্ষে উঠে আসে।

সাপ্তাহিক দর পতনের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ইন্টারন্যাশনাল লিজিং। সমাপ্ত সপ্তাহে কোম্পানিটির শেয়ারদর কমেছে ১০ দশমিক ৪৫ শতাংশ। আর তালিকার তৃতীয় স্থানে থাকা বিআইএফসির শেয়ারদর কমেছে ৯ দশমিক ২৪ শতাংশ।

ডিএসইতে দর পতনের শীর্ষ তালিকায় উঠে আসা অন্যান্য কোম্পানিগুলো হচ্ছে- আরডি ফুড, বারাকা পতেঙ্গা পাওয়ার, জিবিবি পাওয়ার, এনার্জিপ্যাক, ওরিয়ন ফার্মা, ইন্দোবাংলা ফার্মা এবং শাহজিবাজার পাওয়ার।

শেয়ার করুন:
পুরো সংবাদটি পড়ুন

পুঁজিবাজার

সাপ্তাহিক দর বৃদ্ধির শীর্ষে ইস্টার্ন হাউজিং

Published

on

বিএসইসি

বিদায়ী সপ্তাহে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনে অংশ নেওয়া ৩৯৬টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৬১টির শেয়ারদর বেড়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি দর বেড়েছে ইস্টার্ন হাউজিংয়ের। ডিএসই সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

সূত্র মতে, আলোচ্য সপ্তাহে ইস্টার্ন হাউজিংয়ের শেয়ারদর ২৩ টাকা ৫০ পয়সা বা ২৫ দশমিক ২৪ শতাংশ বেড়েছে। এর মাধ্যমে ইস্টার্ন হাউজিং ডিএসইর সাপ্তাহিক দর বৃদ্ধির তালিকার শীর্ষে উঠে আসে।

সাপ্তাহিক দরবৃদ্ধি তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে মনোস্পুল পেপার। গত সপ্তাহে এই কোম্পানিটির শেয়ারদর বেড়েছে ২৪.০৬ শতাংশ। আর তালিকার তৃতীয় স্থানে থাকা বাংলাদেশ বিল্ডিং সিস্টেমসের শেয়ারদর বেড়েছে ১৭ দশমিক ৫৬ শতাংশ।

ডিএসইতে সাপ্তাহিক দর বৃদ্ধি শীর্ষ তালিকায় উঠে আসা অন্য কোম্পানিগুলো হলো- এডিএন টেলিকম, ইন্ট্রাকো সিএনজি, বিডিকম অনলাইন, শাইনপুকুর সিরামিকস, ইয়াকিন পলিমার, কেএন্ডকিউ এবং এপেক্স ফুটওয়্যার।

শেয়ার করুন:
পুরো সংবাদটি পড়ুন

পুঁজিবাজার

এপেক্স ফুটওয়্যারের ৪৫ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা

Published

on

বিএসইসি

পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত চামড়া খাতের কোম্পানি এপেক্স ফুটওয়্যার লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদ শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ৪৫ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এরমধ্যে ৩৫ শতাংশ নগদ এবং ১০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ।

বৃহস্পতিবার (২৯সেপ্টেম্বর) ৩০ জুন ২০২২ সমাপ্ত অর্থবছরের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

কোম্পানি সূত্রে জানা গেছে, সমাপ্ত অর্থবছরের আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১১ টাকা ৭০ পয়সা। গত অর্থবছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ৮ টাকা ৯২ পয়সা।

এছাড়া, ২০২১ সালের ৩১ ডিসেম্বর কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ২৫২ টাকা ৯৫ পয়সা।

এই লভ্যাংশ অনুমোদনের জন্য আগামী ২৩ নভেম্বর বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) করবে কোম্পানিটি। এর জন্য রেকর্ড তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ২৪ অক্টোবর।

শেয়ার করুন:
পুরো সংবাদটি পড়ুন

পুঁজিবাজার

শেয়ারবাজার উন্নয়‌নে অবদান রাখ‌ছে বিআই‌সিএম

Published

on

বিএসইসি

বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ক্যাপিটাল মার্কেট (‌বিআইসিএম) শেয়ারবাজার সংক্রান্ত শিক্ষা , প্রশিক্ষণ, গবেষণা কাজের মাধ্যমে শেয়ারবাজারের উন্নয়নে অবদান রেখে চলছে।

আজ (২৯ সেপ্টেম্বর) বিআইসিএম আয়োজিত “বিআইসিএম রিসার্চ সেমিনার-১৬” অনুষ্ঠা‌নে সভাপ‌তির বক্ত‌ব্যে একথা ব‌লেন সংস্থা‌টির নির্বাহী প্রেসিডেন্ট ড. মাহমুদা আক্তার।

সেমিনারটি‌তে “Effect of Margin Loan on Investment Behavior and Performance: Insights from the Capital Market of Bangladesh” শীর্ষক মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ক্যাপিটাল মার্কেট সহকারী অধ্যাপক ড. তামান্না ইসলাম।

ড. মাহমুদা আরও ব‌লেন, শেয়ারবাজার এর প্রেক্ষিতে মার্জিন ঋণের উপর এ ধরণের গবেষণা বাংলাদেশে প্রথম। এ ধরণের গবেষণালব্ধ ফলাফল দেশের শেয়ারবাজারকে এগিয়ে নিতে সাহায্য করবে।

সেমিনারেও আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ক্যাপিটাল মার্কেট (‌বিআই‌সিএম) সহকারী অধ্যাপক ড. তামান্না ইসলাম।

তিনি বলেন, ‍ “ এই গবেষণায় শেয়ারবাজারে বিনিয়োগকারীদের আচরণ এবং কর্মক্ষমতার উপর মার্জিন ঋণের প্রভাব পরীক্ষা করার চেষ্টা করা হয়েছে। গবেষণার ফলাফলে দেখা যায়, বিনিয়োগের আকার মার্জিন ঋণ দ্বারা প্রভাবিত হয়। মার্জিন লোন নেয়ার পর ট্রেডিং এর ফ্রিকোয়েন্সি কমে যাবে। মার্জিন ঋণের পরিমাণ রিটার্নে ও ইতিবাচক প্রভাব ফেলে। পোর্টফোলিও আকার মার্জিন ঋণের পরিমাণ দ্বারা প্রভাবিত।”

সেমিনারটিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ‌যো‌গী অধ্যাপক আল-আমিন এবং রয়েল ক্যাপিটাল লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর মোহাম্মদ মুনির আহমেদসহ আরো উপস্থিত ছিলেন বিআইসিএম এর অনুষদ সদস্যবৃন্দ, কর্মকর্তা এবং আমন্ত্রিত অতিথিগণ।

 

শেয়ার করুন:
পুরো সংবাদটি পড়ুন

পুঁজিবাজার

আর্থিক ক্ষতি এবং দুর্নীতি কমাবে ‘করপোরেট সুশাসন’

Published

on

বিএসইসি

‘এই সুশাসন দীর্ঘমেয়াদী আর্থিক কার্যকারিতা নিশ্চিত করার মাধ্যমে উপযুক্ত রিটার্ন পেতে সহায়তা করে। ভালো করপোরেট গভর্ন্যান্স শেয়ারের দাম বৃদ্ধিতেও সহায়তা করতে পারে। এটি আর্থিক ক্ষতি, অপচয়, ঝুঁকি এবং দুর্নীতি কমাতে পারে। এটি স্থায়িত্ব এবং দীর্ঘমেয়াদী সাফল্যের জন্য একটি গেম প্ল্যান।’

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানির করপোরেট সুশাসন ওপর জোর দিয়ে একটি আলোচনায় বলা হয়েছে, এই স্বচ্ছতা নিশ্চিত করলে শেয়ারদর বাড়বে।

বক্তরা বলেন, এই সুশাসন কোম্পানির গুরুত্ব বাড়ায়, স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা নিশ্চিত করে, বিনিয়োগকারীর স্বার্থ সংরক্ষিত হয়। ফলে তার আস্থা বজায় রাখতে সাহায্য করে।

বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামে ক্লাবে দিনব্যাপি সম্মেলনের কি-নোট প্রেজেন্টেশনে এসব কথা বলা হয়।

পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন, বিএসইসি এবং চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জ-সিএসই যৌথভাবে এই সম্মেলনের আয়োজন করে।

সিএসইতে তালিকাভুক্ত কোম্পানির সচিবদের উদ্দেশ্যে এই সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সিএসইর চেয়ারম্যান আসিফ ইব্রাহিমের সভাপতিত্বে সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএসইসির কমিশনার মিজানুর রহমান।

কি নোট প্রেজেন্টার ও বিশেষ অতিথি থেকে প্রতিপাদ্য বিষয়ে বক্তব্য দেন বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক এটিএম তারিকুজ্জামান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মিজানুর রহমান করপোরেট সুশাসন ক্রাইসিস, করপোরেট ম্যানেজমেন্ট ও শেয়ারহোল্ডারদের মধ্যে দ্বন্দ্বের বিষয়ে আলোচনা করেন।

তিনি বলেন, ‘করপোরেট ক্রাইসিস হ্রাসকরণে বিএসইসি ১৫ বছর ধরে কাজ করছে। কোম্পানির বোর্ড, বোর্ড কমিটি এবং ইনভেস্টরদের মধ্যকার জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার দায়িত্ব পালন এবং নিরীক্ষক নিয়োগের বিষয়ও তদারক করে বিএসইসি।’

এটিএম তারিকুজ্জামান বলেন, ‘আজকের সম্মেলনের উদ্দেশ্য করপোরেট সুশাসন সম্পর্কে মাইন্ড সেট, করপোরেট কালচার ও এনভায়রনমেন্ট নির্ধারণ এবং সেই অনুসারে জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা।’

বিষয়গুলো সচিত্র উপস্থাপন করে তিনি আরও বলেন, ‘করপোরেট সুশাসন কোম্পানির গুরুত্ব বাড়ায়। এর সঙ্গে নতুন মূল্য যুক্ত করে। সিদ্ধান্ত গ্রহণ ও বাস্তবায়নের প্রক্রিয়াই করপোরেট সুশাসন, যাতে আইনি বিধিমালা সন্নিবেশিত থাকে। এটি বিনিয়োগকারীদের স্বার্থকে গুরুত্ব দেয়।’

সিএসই চেয়ারম্যান আসিফ ইব্রাহিম বলেন, ‘করপোরেট সুশাসন হলো একটি কোম্পানিকে পরিচালনা করতে ব্যবহৃত নিয়ম, অনুশীলন এবং প্রক্রিয়াগুলির কাঠামো। একটি কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদ হলো এই সুশাসন নিশ্চিত করার প্রাথমিক শক্তি। এটি স্বচ্ছ নিয়ম ও নিয়ন্ত্রণ তৈরি করে, নেতৃত্বকে নির্দেশনা প্রদান করে এবং শেয়ারহোল্ডার, পরিচালক, ব্যবস্থাপনা এবং কর্মচারীদের স্বার্থকে শৃঙ্খলাবদ্ধ করে।’

তিনি বলেন, ‘করপোরেট সুশাসন বিনিয়োগকারীদের আস্থা তৈরি করতে সহায়তা করে। এটি বিনিয়োগকারী এবং স্টেকহোল্ডারদেরকে একটি কোম্পানির দিকনির্দেশনা এবং ব্যবসায়িক সততা সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা প্রদান করতে পারে।’

আসিফ ইব্রাহিম বলেন, ‘এই সুশাসন দীর্ঘমেয়াদী আর্থিক কার্যকারিতা নিশ্চিত করার মাধ্যমে উপযুক্ত রিটার্ন পেতে সহায়তা করে। ভালো করপোরেট গভর্ন্যান্স শেয়ারের দাম বৃদ্ধিতেও সহায়তা করতে পারে। এটি আর্থিক ক্ষতি, অপচয়, ঝুঁকি এবং দুর্নীতি কমাতে পারে। এটি স্থায়িত্ব এবং দীর্ঘমেয়াদী সাফল্যের জন্য একটি গেম প্ল্যান।’

স্বাগত বক্তব্যে সিএসইর পরিচালক এমদাদুল ইসলাম বলেন, ‘স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলিতে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার জন্য করপোরেট গভর্ন্যান্স কোড প্রণয়ন করা হয়েছে, যার মূল উদ্দেশ্য হলো সুশাসন প্রতিষ্ঠা। করপোরেট গভর্ন্যান্স কোডের যথাযথ পরিপালন পুঁজিবাজারের স্থিতিশীলতা বজায় রাখবে এবং বিনিয়োগকারীদের আস্থা বজায় রাখতে সাহায্য করবে।’

শেয়ার করুন:
পুরো সংবাদটি পড়ুন

ফেসবুকে অর্থসংবাদ

বিএসইসি
জাতীয়59 mins ago

শেখ হাসিনার জন্যই দেশজুড়ে শান্তির সুবাতাস বইছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বিএসইসি
জাতীয়3 hours ago

আইজিপির দায়িত্ব নিলেন চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন

বিএসইসি
সারাদেশ3 hours ago

এক টাকায় পছন্দের পোশাক,সহযোগীতায় চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ

বিএসইসি
কর্পোরেট সংবাদ4 hours ago

স্বপ্ন এখন মৌলভীবাজারের শেরপুরে

বিএসইসি
জাতীয়4 hours ago

বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা সরকারের দায়িত্ব: তথ্যমন্ত্রী

বিএসইসি
পরিবেশ5 hours ago

৩ দিনের মধ্যে সাগরে লঘুচাপ সৃষ্টি হতে পারে, বাড়বে বৃষ্টি

বিএসইসি
জাতীয়5 hours ago

র‍্যাবের ডিজি হিসেবে দায়িত্ব নিলেন এম খুরশীদ হোসেন

বিএসইসি
ক্রিকেট6 hours ago

আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রাইজমানি ঘোষণা

বিএসইসি
জাতীয়7 hours ago

আমাদের হাঁটু ভাঙবে না, কোমরও ভাঙবে না: কাদের

বিএসইসি
রাজধানী10 hours ago

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ৫৯

তারিখ অনুযায়ী খবর

October 2022
S M T W T F S
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031  
Advertisement
Advertisement

এ সপ্তাহের আলোচিত

সম্পাদক : হায়দার আহমেদ খান এফসিএ

কার্যালয় : ৫৬ পুরানা পল্টন, শখ সেন্টার, লেভেল-৪, ঢাকা।

news.orthosongbad@gmail.com

+8801791004858

স্বত্ব © ২০২২ অর্থসংবাদ