গ্লোবাল ফিন্যান্স মিনিস্টার অব দ্য ইয়ারে ভূষিত অর্থমন্ত্রী

ডেস্ক রিপোর্টার প্রকাশ: ২০২০-০১-০২ ২০:৫৯:০১, আপডেট: ২০২০-০১-০২ ২১:০০:১৫

‘ফিন্যান্স মিনিস্টার অব দ্য ইয়ার ফর এশিয়া-প্যাসিফিক অ্যান্ড গ্লোবাল অ্যাওয়ার্ড ২০২০’ পেয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। লন্ডনভিত্তিক স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান ফিন্যানসিয়াল টাইমস গ্রুপের মাসিক ম্যাগাজিন ‘দ্য ব্যাংকার’ তাকে এ সম্মাননা দেয়। বৃহস্পতিবার অর্থমন্ত্রণালয় থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

দ্য ব্যাংকার পত্রিকাটি ১৯২৬ সাল থেকে প্রকাশিত হচ্ছে। তারা এ সম্মাননাটির প্রচলন করেছে ২০০৪ সাল থেকে। সারা বিশ্বের অর্থমন্ত্রীদের আর্থিক খাতে গতিশীলতা আনয়ন, দীর্ঘমেয়াদি উন্নয়ন নিশ্চিতকরণে নেয়া পদক্ষেপসহ সার্বিক বিবেচনায় এ সম্মাননা দেয়া হয়। এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল, যুক্তরাষ্ট্র, আফ্রিকা, মধ্যপ্রাচ্য ও ইউরোপ এ পাঁচটি অঞ্চল থেকে পাঁচ জন অর্থমন্ত্রী এবং তাদের মধ্য থেকে একজনকে বিশ্বের শ্রেষ্ঠ অর্থমন্ত্রী হিসেবে ঘোষণা করা হয়। বাংলাদেশের কোনো অর্থমন্ত্রী এ-ই প্রথম এ সম্মাননা পেলেন। গত বছর এ সম্মাননা পান ইন্দোনেশিয়ার অর্থমন্ত্রী, এর আগের বছর পান ভারতের সাবেক অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি।

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এ সম্মাননা দেশের সর্বস্তরের জনগণের উদ্দেশ্যে উৎসর্গ করেছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে তিনি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশিত পথ অনুসরণ করেই এটি অর্জিত হয়েছে।

আওয়ামী লীগ ২০১৯ সালের জানুয়াতিতে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার গঠনের পর আ হ ম মুস্তফা কামালকে অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়া হয়। ২০১৪-২০১৮ সময়কালে তিনি পরিকল্পনামন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। অর্থমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পরপরই চলমান অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির গতিকে সচল রাখা ও আর্থিক খাতে শৃংখলা ফিরিয়ে আনতে বেশ কিছু পদক্ষেপ নেন তিনি। এর মধ্যে ব্যাংক, আর্থিক খাত ও রাজস্ব খাতের সংস্কার অন্যতম। ব্যাংক সুদের হার ৯ শতাংশে নামিয়ে আনার উদ্যোগ, রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলোর যৌক্তিক কারণে খেলাপি হওয়া ঋণ পুনঃতফসিলীকরণ ও ইচ্ছাকৃত ঋণ খেলাপিদের দেউলিয়া ঘোষণাসহ তাদের সম্পদ ‘অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি’র মাধ্যমে গ্রহণ করে খেলাপি ঋণ আদায়ের উদ্যোগের পাশাপাশি ব্যাংকিং চ্যানেলে রেমিট্যান্সের পরিমাণ বৃদ্ধির লক্ষ্যে ২ শতাংশ প্রণোদনা দেয়ার ব্যবস্থা অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের উল্লেখযোগ্য কয়েকটি পদক্ষেপ।

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।