প্রবাসী আয়

ব্যাংকগুলো ডলার কিনতে খরচ করছে ১১৩ টাকা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, অর্থসংবাদ.কম, ঢাকা প্রকাশ: ২০২২-০৮-০৪ ২৩:৪৫:৪৩

ডলার সংকটের কারণে অনেক পণ্যের আমদানি নিরুৎসাহিত করেছে সরকার। ফলে ডলারের ওপর চাপ কমেছে। এতে গত জুলাইয়ে আমদানি ঋণপত্র খোলাও কমেছে। বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) দেশের বিভিন্ন ব্যাংক প্রতি ডলার কিনতে খরচ করেছে ১১৩ টাকা।

জানা যায়, ওমান, দুবাই ও মালয়েশিয়া থেকে প্রবাসী আয় আনতে প্রতি ডলারের জন্য সর্বোচ্চ ১১৩ টাকা দাম দিয়েছে দেশের বিভিন্ন ব্যাংক। যদিও বাংলাদেশ ব্যাংক আন্তব্যাংক লেনদেনের ক্ষেত্রে ডলারের দাম ৯৪ টাকা ৭০ পয়সায় ধরে রেখেছে। বাড়তি দামে আনা এসব ডলার ব্যাংকগুলোকে আগের চেয়ে আরও বেশি দরে বিক্রি করতে হবে আমদানিকারকদের কাছে।

ব্যাংকের পাশাপাশি খোলাবাজারেও ডলারের দামে একধরনের অস্থিরতা চলছে। যদিও খোলাবাজারে ডলারের দাম নিয়ন্ত্রণে গোয়েন্দা সংস্থার কর্মকর্তাদের সঙ্গে নিয়ে রাজধানীতে বিভিন্ন মানি চেঞ্জারে পরিদর্শনে নেমেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। সর্বশেষ গত মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় ব্যাংক দুটি মানি চেঞ্জারের লাইসেন্স স্থগিত করেছে। তার আগে রোববার তিনটি প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স স্থগিত করেছিল তারা।

এদিকে বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) বাংলাদেশ ব্যাংকে গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার সংবাদ সম্মেলনে বলেন, আগামী দুই থেকে তিন মাসের মধ্যে ডলারের দাম স্থিতিশীল পর্যায়ে চলে আসবে।

এছাড়াও তিনি বলেন, মুদ্রাবাজার স্থিতিশীল হয়ে আসলে তখন বাজার মূল্যের ভিত্তিতে আন্তঃব্যাংক পর্যায়ে ডলারের বিনিময় হার নির্ধারিত হবে। বর্তমানে আন্তঃব্যাংক লেনদেন নির্ধারণে বাংলাদেশ ব্যাংক হস্তক্ষেপ করছে।

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।