এক্সপোজার লিমিট ক্রয় মূল্যে হিসাবের নির্দেশ বাংলাদেশ ব্যাংকের

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, অর্থ সংবাদ.কম, ঢাকা প্রকাশ: ২০২২-০৮-০৪ ১৫:৩৮:৫৮, আপডেট: ২০২২-০৮-০৪ ১৬:০৬:৪৩

শেয়ারবাজারে ব্যাংকের বিনিয়োগসীমা (এক্সপোজার লিমিট) বাজার মূল্যের পরিবর্তে ক্রয় মূল্যে গণনা করার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ডিপার্টমেন্ট অব সাইট সুপারভিশন থেকে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। নির্দেশনাটি দেশের সব তফসিলি ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো হয়েছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনায় বলা হয়, “ব্যাংক কোম্পানী আইন, ১৯৯১ এর ধারা ২৬ক এর উপ-ধারা (১) এর উদ্দেশ্য পূরণকল্পে ব্যাংক-কোম্পানি কর্তৃক অন্য কোন কোম্পানির শেয়ার ধারণের হিসাবায়নে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের উর্ধ্বসীমা (এক্সপোজার লিমিট) নির্ধারণের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট ব্যাংক কর্তৃক ক্রয়কৃত মূল্যকেই বাজারমূল্য’ হিসেবে বিবেচনা করতে হবে।”

শেয়ার, কর্পোরেট বন্ড, ডিবেঞ্চার, মিউচুয়াল ফান্ড ও অন্যান্য পুঁজিবাজার নিদর্শনপত্রের বাজারমূল্য হিসাবায়নের ক্ষেত্রে এ নির্দেশ অনুসরন করার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এর আগে গত মঙ্গলবার (২ আগস্ট) অর্থ মন্ত্রণালয়ে আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ থেকে এক্সপোজার লিমিট নিয়ে মতামত জানানো হয়েছিল। সেখানে ব্যাংকের বিনিয়োগসীমা ক্রয় মূল্যে হিসাবায়নে সম্মতি প্রদান করে মন্ত্রণালয়।

উল্লেখ্য, শেয়ারবাজারে ব্যাংকের বিনিয়োগসীমা বাজার দরের পরিবর্তে ক্রয় মূলে গণনা করার দাবি ছিল নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি)। সাধারণ বিনিয়োগকারীরাও এই দাবিতে সরব ছিল। এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ফজলে কবির, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের তৎকালীন সচিব ও বর্তমান গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদারের সঙ্গে বৈঠকও করেছিলেন বিএসইসি চেয়ারম্যান। তবে তৎকালীন গভর্নরের অনীহার কারণে এতদিন বিষয়টি অমীমাংসিত ছিল।

আব্দুর রউফ তালুকদার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর হওয়ার পর ব্যাংকের বিনিয়োগসীমার বিষয়টি আবারও আলোচনায় আসে। সাধারণ বিনিয়োগকারীদের দাবি এবং বর্তমান গভর্নর ও বিএসইসি চেয়ারম্যান আন্তরিক প্রচেষ্টার কারণে গত ২৬ জুলাই বিষয়টি নিয়ে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক। পরে মঙ্গলবার (০২ আগস্ট) ব্যাংকের বিনিয়োগসীমা ক্রয় মূল্যে নির্ধারণ করে আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে মতামত দেওয়া হয়। এর প্রেক্ষিতে আজ বিষয়টি নিয়ে সার্কুলার জারি করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।