বিএসইসি’র দুই কর্মকর্তা শুদ্ধাচার পুরস্কার পেলেন

ডেস্ক রিপোর্টার প্রকাশ: ২০২২-০৬-২৬ ২১:৪৯:৪৩

শুদ্ধাচার পুরস্কার ২০২০-২০২১ পেয়েছেন বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের দুই কর্মকর্তা। জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল কর্ম-পরিকল্পনা বাস্তবায়নে তাদের অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে বিএসইসি এই পুরস্কারের জন্য তাদের নির্বাচিত করে।

পুরস্কারপ্রাপ্তরা হলেন- বিএসইসি’র উপপরিচালক মুহাম্মদ ওয়ারিসুল হাসান রিফাত ও ব্যক্তিগত কর্মকর্তা নাঈম আহমেদ।

শুদ্ধাচার পুরস্কার প্রদান (সংশোধন) নীতিমালা, ২০২১ অনুযায়ী গ্রেড ২ হতে গ্রেড ৯ এর কর্মকর্তা/কর্মচারীদের মধ্য হতে নির্বাচিত হন উপপরিচালক মুহাম্মদ ওয়ারিসুল হাসান রিফাত এবং গ্রেড ১০ হতে গ্রেড ১৬ এর কর্মকর্তা/কর্মচারীদের মধ্য হতে নির্বাচিত হন ব্যক্তিগত কর্মকর্তা নাঈম আহমেদ।

পেশাগত জ্ঞান, দক্ষতা ও সততার নিদর্শনসহ ২৩টি সূচকে সর্বোচ্চ ফলাফলের জন্য নিজ নিজ ক্যাটাগরিতে তারা এই পুরস্কারপ্রাপ্ত হন। পুরস্কার হিসেবে তাদের হাতে সম্মাননা সনদ ও চেক প্রদান করা হয়।

রবিবার (২৬ জুন) একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শুদ্ধাচার পুরস্কার ২০২০-২০২১ প্রদান করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএসইসি’র চেয়ারম্যান শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম।

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন বিএসইসি’র কমিশনার জনাব মোঃ আব্দুল হালিম। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন বিএসইসি’র কমিশনার ড. শেখ শামসুদ্দীন আহমেদ ও ড. রুমানা ইসলাম।

বিএসইসি’র নির্বাহী পরিচালক মোঃ মাহবুবের রহমান চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য প্রদান করেন এ টি এম তারেকুজ্জামান। তিনি তাঁর বক্তব্যে শুদ্ধাচার পুরস্কার নির্বাচন প্রক্রিয়াকে কিভাবে আরও দক্ষ করা যায় তা নিয়ে আলোচনা করেন।

বিএসইসি’র কমিশনার ড. শেখ শামসুদ্দীন আহমেদ তাঁর বক্তব্যে কমিশনের কর্মকর্তাদের মানোয়ন্ন ও দক্ষতা বৃদ্ধিতে এ ধরণের পুরস্কার উৎসাহব্যঞ্জক রাখবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

বিএসইসি’র চেয়ারম্যান কমিশনের কর্মকর্তাদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে নিয়মিত প্রশিক্ষণ কর্মসূচি আয়োজনের বিষয়ে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে বলে তাঁর বক্তব্যে উল্লেখ করেন।

বিএসইসি’র কমিশনার জনাব মোঃ আব্দুল হালিম একজন কর্মকর্তাকে দক্ষতা, নৈতিকতা ও বুদ্ধিবৃত্তিক মানদন্ডে উত্তীর্ণ হওয়ার বিষয়ে গুরুত্বারোপ করেন।

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।