সেকেন্ডারি মার্কেটে সরকারি সিকিউরিটিজ লেনদেনে গুরুত্বারোপ বিএসইসি’র

ডেস্ক রিপোর্টার প্রকাশ: ২০১৯-১২-৩০ ১৮:৩০:৩১

সকল শ্রেণীর বিনিয়োগকারীদের বিস্তৃত অংশগ্রহণকে উৎসাহিত করার লক্ষ্যে খুব দ্রুত সেকেন্ডারী প্লাটফর্মে সরকারী সিকিউরিটি লেনদেনের উপর গুরুত্বারোপ করেছেন নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান ড. এম খায়রুল হোসেন।

সোমবার বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের বোর্ড রুমে ত্রি-পক্ষীয় কমিটি কর্তৃক স্টক এক্সচেঞ্জ প্লাটফর্মে সরকারী সিকিউরিটিজ লেনদেন সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন কমিশনের চেয়ারম্যানের নিকট হস্তান্তর অনুষ্ঠানে তিনি এ গুরুত্বারোপ করেন।

চেয়ারম্যান বলেন, পাশাপাশি এ প্রতিবেদনে এক্সচেঞ্জগুলোতে সরকারী সিকিউরিটিজ লেনদেনের বিভিন্ন সম্ভাব্যতা তুলে ধরা হয়, যা দ্বারা দেশব্যাপী স্ক্রীন ভিত্তিক স্বয়ংক্রিয় ট্রেডিং প্লাটফর্মের মাধ্যমে সকল শ্রেণীর বিনিয়োগকারী তথ্যভিত্তিক লেনদেনের সুবিধা পাবে। যা সরকারী সিকিউরিটিজ প্রাণবন্তর (Vibrant) সেকেণ্ডারী মার্কেটের মাধ্যমে সরকারী সিকিউরিটিজের যথাযথ মূল্য নির্ধারণ করবে এবং সরকারের ঋণ গ্রহণের সুদ (Cost of Borrowing) কমে যাবে। এছাড়াও, পুঁজিবাজারে (Capital Market) সরকারী ফিক্সড ইনকাম (Fixed Income) সিকিউরিটিজ সূচনার মাধ্যমে পণ্যের বৈচিত্রকরণের সুযোগ সৃষ্টি হবে।

আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন কমিশনের কমিশনারগণ, নির্বাহী পরিচালকবৃন্দ ও কমিটির সদস্যবৃন্দ।

উল্লেখ্য, কমিশনের উদ্যোগে গত ১৩ নভেম্বর, ২০১৯ তারিখে বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেট ম্যানেজমেন্ট, মহাব্যবস্থাপক মোহাম্মদ খুরশীদ আলম এর নেতৃত্বে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন, বাংলাদেশ ব্যাংক ও ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এর কমকর্তাদের সমন্বয়ে ৯ সদস্যের একটি ত্রিপক্ষীয়া কমিটি গঠন করা হয়েছিল।

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।